প্রকাশ : 2021-05-05

মানবতার ফেরিওয়ালা যুবলীগ নেতা বায়েজীদ

০৫,মে,বুধবার,লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনাভাইরাস শুরু থেকে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সকাল থেকে মাঝরাত পর্যন্ত কাজ করে যাচ্ছেন লক্ষ্মীপুর জেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ন-আহবায়ক বায়েজীদ ভূঁইয়া। প্রতিদিন নতুন নতুন উদ্যোগ আর সাহায্য সহযোগিতায় তাকে পাশে পাচ্ছেন জেলাবাসী। এসব উদ্যোগের কারণে বায়েজীদ ভূঁইয়া স্থানীয়দের কাছে- মানবতার ফেরিওয়ালা হিসেবে পরিচিত হয়ে উঠেছেন। কেউ কেউ আবার তাকে 'মানবিক নেতা' বলেও ডাকেন। গেল বছরে করোনার শুরু থেকে এ পর্যন্ত লক্ষ্মীপুর জেলায় শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ৮৪৫ জন। মৃত্যু হয়েছে ৫১ জনের। ফলে শুরু থেকে বেড়েছে ঝুঁকি। করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় গত মাসের (৫ এপ্রিল) লকডাউন করা হয়েছে লক্ষ্মীপুর জেলা। এর আগে ২০২০ সালে করোনার শুরু থেকে কয়েক বার লকডাউন হয় এ জেলা। এমন পরিস্থিতিতে নিম্ন আয়ের লোকজনের চরম দুর্দিন যাচ্ছে। কষ্টে আছেন মধ্যবিত্তরাও। তাদের কথা চিন্তা করে বায়েজীদ ভূঁইয়া ব্যতিক্রমী উদ্যোগ গ্রহণ করেন। সে তার উপজেলায় সকাল থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত গরীব, অসহায় ও দুস্থ মানুষের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন। খাদ্য সামগ্রীর মাঝে ছিল চাল, ডাল, তেল, আলু ও পেঁয়াজ। এদিকে রমজানের শুরু থেকে মানুষের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রেখেছে। এছাড়া তার ইউনিয়নে মাইকিং ও মাস্ক, হ্যান্ড গ্লাভস এবং হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করছেন। সুরক্ষা পোশাকসহ ভিন্ন উপকরণ দিয়ে চিকিৎসকদের সহায়তা করেছেন তিনি। করোনা শুরু থেকে তিনি বিভিন্ন স্থানে নিজ হাতে জীবাণুনাশক স্প্রেও করেন। একই সময় তিনি সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে বিতরণ করেন প্রায় ৭ হাজার ব্যাগ খাদ্য সামগ্রী। সম্প্রতি তিনি রোজা রেখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতাকর্মীদের নির্দেশে অসহায় কৃষদের ধান কেটে মাড়াই করে বাড়িতে পৌঁছে দেওয়াসহ কৃষকদেরকে খাদ্যসামগ্রী দিয়েছেন। সদর উপজেলার রায়পুর কেরোয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মো. আকবর ও সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির নিউজ একাত্তরকে বলেন, করোনার শুরু থেকে খাদ্য সহায়তা ও ১ম রমজান থেকে ৩০ রমজান পর্যন্ত ইফতার সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম চলমান রেখেছেন বায়েজীদ। তিনি নিজেই উপস্থিত থেকে নিজ হাতে মানুষের মধ্যে এ সব সামগ্রী বিতরণ করেন। জানতে চাইলে যুবলীগ নেতা বায়েজীদ ভূঁইয়া নিউজ একাত্তরকে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিলের আহ্বানে অসহায় মানুষগুলোর পাশে দাঁড়ানো আমার কর্তব্য। করোনাযুদ্ধের এই ক্রান্তিলগ্নে খাদ্যসামগ্রী না পেলে অসহায় মানুষগুলো খাদ্য সংকটে থাকতো। এই কারণে আমার নিজস্ব তহবিল থেকে আমি এসব সাহায্য সহযোগীতা করে যাচ্ছি। এসব কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

সারা দেশ পাতার আরো খবর