প্রকাশ : 2021-02-27

গুণে-মানে বাংলা ভ্রমণসাহিত্য অত্যন্ত সমৃদ্ধ: ড. অনুপম সেন

২৭,ফেব্রুয়ারী,শনিবার,নিউজ ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম একাডেমির উদ্যোগে ভ্রমণ সাহিত্যিক ও প্রাবন্ধিক সেলিম সোলায়মান-এর সামপ্রতিক ৩টি বইয়ের পাঠ প্রতিক্রিয়া ও প্রদর্শনী অনুষ্ঠানে প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. অনুপম সেন বলেছেন, গুণে-মানে বাংলা ভ্রমণসাহিত্য অত্যন্ত সমৃদ্ধ। উপন্যাস, গল্প বা নাটকের সার্থক আত্মপ্রকাশের আগেই বাংলা ভ্রমণ কাহিনী পাঠককুলকে স্পর্শ করেছে। মানবসভ্যতার বহমান পথ পরিক্রমায় ভ্রমণসাহিত্য প্রাচীনত্বের দাবি করতেই পারে। গতকাল শুক্রবার বিকেলে জেলা শিল্পকলা একাডেমির গ্যালারি হলে তিনি সভাপতির বক্তব্য রাখছিলেন। অনুষ্ঠানে আলোচক ছিলেন চট্টগ্রাম সরকারি চারুকলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর রীতা দত্ত, আগ্রাবাদ মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ড. আনোয়ারা আলম, এনায়েতবাজার মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ তহুরীন সবুর ডালিয়া, প্রাবন্ধিক, গবেষক, প্রকাশক মোস্তফা সেলিম, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের সদস্য (যুগ্ম সচিব) জাফর আলম, শিশুসাহিত্যিক আ ফ ম মোদাচ্ছের আলী প্রমুখ। আবৃত্তিশিল্পী আয়েশা হক শিমুর সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য দেন, মহাপরিচালক অরুণ শীল, ধন্যবাদ বক্তব্য দেন প্রতিষ্ঠাতা সংগঠক রাশেদ রউফ। এছাড়া শুভেচ্ছা জানান একাডেমির সাবেক মহাপরিচালক জিন্নাহ চৌধুরী, পরিচালক দীপক বড়ুয়া, জাহাঙ্গীর মিঞা, এস এম আবদুল আজিজ, শারুদ নিজাম, মৃণালিনী চক্রবর্তী, এস এম মোখলেসুর রহমান, অধ্যাপক সুপ্রতিম বড়ুয়া, এম কামাল উদ্দিন প্রমুখ। বক্তারা বলেন, সেলিম সোলায়মান মেধায় গুণে কর্মে এক গুণী লেখক। তাঁর বলার ভঙ্গি চমৎকার। তাঁর অন্যান্য বইয়ের মতো ফরাসি সৌরভের দেশে দিয়াঞ্চির তীরে, ডটার অব স্টোন ফরেস্ট, ওল্ড স্পাইস নর্থ স্টার ও অন্যান্য গ্রন্থও পাঠকদের কৌতূহল মেটাতে সক্ষম। তাঁরা বলেন, তাঁর গল্প বলার কৌশল সম্পূর্ণ আলাদা, খোশ মোজাজে গল্প বলে যান, তরতর করে করে এগিয়ে যায় তাঁর রচনা। গল্প করতে করতে কখনো হালকা চালে, কখনো তুমুল কৌতুকে আবার কখনোবা তীব্র শ্লেষে তুলে ধরেন সমাজ সংসারের বিদ্যমান অসংগতিগুলো। তাঁর ভ্রমণ কাহিনি পড়ে মনে হয় উপন্যাস পড়ছি। শেষে সংগীত পরিবেশন করেন শিল্পী মৃণালিনী চক্রবর্তী, শিউলি নাথ, লিপি চৌধুরী, তারিফা হায়দার, সংগীতা চৌধুরী প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর