রবিবার, ফেব্রুয়ারী ২৮, ২০২১
পরিচালকের করোনা উপসর্গ, দীঘির শুটিং বন্ধ
০৪সেপ্টেম্বর,শুক্রবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চলচ্চিত্রের শুটিংয়ের অনুমতি পাওয়ার পরই স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিক্ষোভ সিনেমার শুটিং করেন নির্মাতা শামীম আহমেদ রনী। এর পরে টুঙ্গীপাড়ার মিয়া ভাই সিনেমার কাস্টিং ডিরেক্টর হিসেবে বেশ সরব ছিলেন। সিনেমাটির শুটিংও টানা চলছিল। হঠাৎ রনীর ঠান্ডা জ্বর হওয়ায় সিনেমাটির শুটিং ইউনিটের সবাই করোনা আতঙ্কে ভুগতে থাকেন। পরে প্রযোজক শুটিং বন্ধ করে দেন। টুঙ্গীপাড়ার মিয়া ভাই সিনেমার শুটিং গত মাসের শেষ সপ্তাহে এফডিসিতে শুরু হয়। টানা শুটিং করে দৃশ্যধারণের কাজ শেষ করার কথা ছিল। কিন্তু করোনা আতঙ্কে সিনেমাটির শুটিং গতকাল থেকে বন্ধ রয়েছে। শাপলা মিডিয়ার কর্ণধার সেলিম খান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। সেলিম খান বলেন, টুঙ্গীপাড়ার মিয়া ভাই সিনেমার টানা শুটিং করার কথা ছিল। হঠাৎ করে কাস্টিং ডিরেক্টর শামীম আহমেদ রনী ঠাণ্ডা-জ্বরে আক্রান্ত হন। এতে শুটিং ইউনিটের সকলের মাঝে প্রভাব পড়ে। আতঙ্ক নিয়ে সিনেমার কাজ করা যায় না। তাই কাজ বন্ধ করে দিয়েছি। শামীম আহমেদ রনী করোনা পরীক্ষা করানোর জন্য নমুনা দিয়েছেন। এখনো পরীক্ষার রেজাল্ট পাওয়া যায়নি বলেও জানিয়েছেন এই প্রযোজক। স্টোরি স্পেলস প্রোডাকশনের ব্যানারে নির্মাণাধীন- টুঙ্গীপাড়ার মিয়া ভাই সিনেমাটি প্রযোজনা করছেন সেলিম খানের মেয়ে পিংকি খান। এর কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করছেন শান্ত খান ও দীঘি।
৪৫০ কোটি রুপির চুক্তি করেছেন সালমান খান
০৩সেপ্টেম্বর,বৃহস্পতিবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বলিউড সুপারস্টার সালমান খান। সিনেমার পাশাপাশি বিগ বস রিয়েলেটি শোয়ের সঞ্চালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। শোনা যাচ্ছে, জনপ্রিয় এই শোয়ের এবারের সিজনের জন্য ৪৫০ কোটি রুপির চুক্তি করেছেন সালমান খান। বেশ কিছুদিন ধরেই বিগ বস ১৪-তে সালমানের পারিশ্রমিক কত হবে তা নিয়ে নানা গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল। এ প্রসঙ্গে একটি সূত্র মিড-ডে পত্রিকায় বলেন, সালমান গত সিজনে প্রতি পর্বের জন্য সাড়ে ১৫ কোটি রুপি নিয়েছেন। এইবার তা বাড়িয়ে প্রতি পর্বের জন্য ২০ কোটি রুপি নিচ্ছেন। তিন মাসের এই অনুষ্ঠানের জন্য ৪৮০ কোটি রুপি পারিশ্রমিক চেয়েছেন সালমান। তবে নির্মাতারা ৪৫০ কোটি রুপিতে চুক্তি চূড়ান্ত করেছেন। এখানেই শেষ নয়, নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে শুটিং শেষ না হলে বাড়তি পারিশ্রমিক নিবেন সালমান। সূত্রটি বলেন, গত সিজনে ১০ পর্ব বেশি হয়েছিল। প্রতিদিনের জন্য এই অভিনেতা সাড়ে সাত কোটি রুপি নিয়েছিলেন। এবারো যদি ১২ সপ্তাহের মধ্যে শুটিং শেষ না হয়, তাহলে সালমানের টিম ও প্রযোজকরা বাড়তি পারিশ্রমিক নিয়ে আলোচনা করবেন। জানা গেছে, প্রতি শনিবার ফিল্ম সিটিতে- বিগ বিস রিয়েলিটি শোয়ের শুটিং করবেন সালমান। সেখানে তার থাকার জন্য বিশেষ ঘর বানানো হয়েছে। উইকেন্ডে সেখানেই থাকবেন এই অভিনেতা। এদিকে বিগ বস রিয়েলিটি শোয়ের এবারের সিজনে প্রতিযোগী হিসেবে কারা থাকবেন তা এখনো চূড়ান্ত হয়নি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আলোচিত ব্যক্তি, জনপ্রিয় টিকটকার ও ইউটিউবারদের প্রতিযোগী হিসেবে দেখা যেতে পারে বলে শোনা যাচ্ছে। আগামী মাস থেকে এই অনুষ্ঠানের সম্প্রচার শুরুর কথা রয়েছে।
ওয়ারফেজর পলাশ নূরের দ্বিতীয় ইংরেজি গান
০২সেপ্টেম্বর,বুধবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সংগীত একক ক্যারিয়ারে দ্বিতীয়বারের মতো ইংরেজি গান নিয়ে হাজির হচ্ছেন ব্যান্ডদল ওয়ারফেজর ভোকালিস্ট পলাশ নূর। নতুন এ গানের শিরোনাম- কালার্স অব লাইফ। গাওয়ার পাশাপাশি কথা, সুর ও সংগীত করেছেন পলাশ নূর নিজেই। নতুন এই গান প্রসঙ্গে তিনি বলেন, গান তৈরির যাবতীয় কাজ আমারই করা। শৈশবের স্মৃতি নিয়ে গানটি করেছি। শৈশবের স্মৃতি সবার মতো আমাকেও আবেগ আপ্লুত করে। জীবনের নানাবিধ জটিলতায় কেন জানি বারবার ফিরে যেতে ইচ্ছে করে, শৈশবের সেই নির্মল আনন্দে। সেই অনুভুতি নিয়েই গানটি তৈরি করা। গানটি কবে প্রকাশ করছেন সেটি চূড়ান্ত না হলেও খুব বেশি বিলম্ব হবে না বলে জানিয়েছেন পলাশ নূর। আর এটি প্রকাশ করবেন তার অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে। এর আগে ডিসটেন্ট লাভ শিরোনামে তার প্রথম ইংরেজি গান প্রকাশ করেছিলেন।
বন্ধ হয়ে গেল বসুন্ধরার স্টার সিনেপ্লেক্স
০১সেপ্টেম্বর,মঙ্গলবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চলমান বৈশ্বিক মহামারি করোনায় বন্ধ মাল্টিপ্লেক্সসহ দেশের সকল প্রেক্ষাগৃহ। সবকিছু যখন ধীরে ধীরে স্বাভাবিকের পথে তখন অনেকে দাবি তুলেছিলেন সিনেমা হলগুলোও খুলে দিতে। কিন্তু এরই মধ্যে দুঃসংবাদ দিয়েছে বসুন্ধরা সিটির স্টার সিনেপ্লেক্স। যা আর কখনো খুলবে না বলে জানা গেছে। আজ মঙ্গলবার স্টার সিনেপ্লেক্সের বিপণন ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মেসবাহ উদ্দীন আহমেদ গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, দুঃখজনক হলেও সত্য যে, বসুন্ধরা সিটিতে আর স্টার সিনেপ্লেক্স থাকছে না। শপিংমল কর্তৃপক্ষ সিনেপ্লেক্স বন্ধের জন্য আমাদের নোটিশ দিয়েছে। তবে আমাদের অন্য সবগুলো শাখাই চালু থাকবে। ২০০২ সালে বসুন্ধরা সিটি শপিংমলে যাত্রা শুরু করে দেশের প্রথম ডিজিটাল এবং অত্যাধুনিক সুবিধা সংবলিত স্টার সিনেপ্লেক্স। ঢাকাবাসীর পাশাপাশি সারাদেশের সিনেমাপ্রেমীদের ভালোবাসা অর্জন করে নিয়েছিল এই প্রেক্ষগৃহটি। এর আগে দেশের সিনেপ্লেক্সগুলোকে বাঁচাতে সংবাদ সম্মেলন করে সরকারি অনুদানের দাবি জানানো হয়েছিল। যেখানে অনুদান না পেলে এ সিনেমাহলগুলো বন্ধ হয়ে যাবে বলে আভাস দেওয়া হয়েছিল ওই সংবাদ সম্মেলনে। কিন্তু করোনার প্রকোপ না থামায় শেষ পর্যন্ত সংকট কাটিয়ে উঠতে না পারায় দীর্ঘ ১৮ বছরের জার্নির ইতি ঘটলো সিনেপ্লেক্সটির।
তেল দিতে জন্মদিনে পার্টি করতে পারব না: শ্রীলেখা
৩১আগস্ট,সোমবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: রিয়্যালিটি শো মীরাক্কেল-এর বিচারকের আসন খুইয়েছেন সম্প্রতি। সেই আঘাত বিধ্বস্ত করে দিয়েছিল। তা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় একের পর এক পোস্ট করেছেন তিনি। ২৯ আগস্ট রাতে সে সব ঝেড়ে ফেলে শ্রীলেখা মিত্র স্বমহিমায়, সেলিব্রেশন মোডে। উপলক্ষ, ৩০ আগস্ট অভিনেত্রীর জন্মদিন। আগের রাতেই মেয়ে মাইয়্যা ইয়া বড় কেক এনেছে। উপহারের কেকও এসেছে। সব মিলিয়ে রাত যৌবনবতী...! সোশ্যালে ঘরোয়া পার্টির সেই ভিডিও রমরমিয়ে ঘুরছে। শিফনের দুধ সাদা স্লিভলেস ড্রেসে, খোলা চুলে শ্রীলেখা বহ্নিশিখা। পারছেন কী করে? প্রশ্ন করতেই জবাব এল, আগর নামওয়ালা হুয়ি, তো বদনাম ভি। আরও এক বছর এগোনোয় পরিণতমনস্কতার ছাপ? একটা করে জন্মদিন আসে এক বছর করে আরও ইয়ং হন শ্রীলেখা। মনের দিক থেকে আস্তে আস্তে মেয়ের থেকেও তরুণী হয়ে যাচ্ছেন ক্রমশ! সাফ জবাব অভিনেত্রীর। এদিকে ভিডিও দেখে পুরুষেরা যে জ্বলছে! সঙ্গে সঙ্গে সংশোধন, শুধু পুরুষ বলবেন না, নারীদেরও আমাকে নিয়ে কৌতূহল, রাগ, হিংসে, জ্বালা। ফ্যান্টাসিও। ওই জন্যেই তো আমাকে নিয়ে কী করবে, বুঝে উঠতে পারে না। নানা রকমের পথ অবলম্বন করে। তবু দমাতে পারে কই? আজ সারা দিন কী করবেন, কী পরবেন, কী খাবেন, কোথায় যাবেন? জন্মদিন উপলক্ষে ইলিশ আনিয়েছি। ওটা কাল শান্তি করে খাব। আজ আগের দিনের রান্নাতেই হয়ে যাবে। তার পরেই আনমনা অভিনেত্রী, মা থাকলে আজকের দিনে পায়েস রেঁধে দিত। পা ছুঁলে মাথায় হাত রেখে মন্ত্র পড়ে আশীর্বাদ করত। জড়িয়ে ধরে চুমু খেত। এটা আর কেউ করে না। জন্মদিন এলেই নতুন করে মায়ের অভাব বোধ করি। নিমেষে সামলে নিয়ে জ্বলে উঠলেন, শাড়ি বেছেছি হ্যান্ডলুমের সাদা ঘেঁষা। গরমে পরে আরাম। ঈশ্বর সংকল্প স্বেচ্ছাসেবী সংস্থায় যাব। ওখানে কিছু ভালো-মন্দ খাওয়া দাওয়ার ব্যবস্থা করেছি। কোনো দিনই অন্যদের মতো ইন্ডাস্ট্রিকে তেল দিতে পার্টি করিনি। আজও না। বরং সেই পয়সা বাঁচিয়ে কিছু অসহায় মানুষের মুখে অন্ন তুলে দিতে পারলে তৃপ্তি বেশি। মেয়ে, নিজের জীবন ধারণেও তো উপার্জন লাগে! ইন্ডাস্ট্রিতে না থাকতে পারলে চালাবেন কী করে? হ্যাঁ জীবন চালাতে টাকা-পয়সা লাগে স্বীকার করলেন শ্রীলেখা। দাবি, শুধু মীরাক্কেল নয়, বেশ কয়েকটি বিজ্ঞাপনের কাজ, সিরিজের কাজও হারিয়েছি একই সঙ্গে। তবু তেল দেওয়া আমার দ্বারা হবে না। একই সঙ্গে নিজেকে বিশ্লেষণ, আসলে শ্রীলেখার হাঁ-মুখ ছোট তো! তাই খাওয়ার পরেও উদ্বৃত্ত থেকেই যায়। তাই দিয়ে দিব্য চলে যাচ্ছে মা-মেয়ের সংসার।- দেশ রূপান্তর
ব্ল্যাক প্যান্থার অভিনেতা বোজম্যান আর নেই
২৯আগস্ট,শনিবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ব্ল্যাক প্যান্থার খ্যাত জনপ্রিয় মার্কিন অভিনেতা চ্যাডউইক বোজম্যান মারা গেছেন। মাত্র ৪৩ বছর বয়সে ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে এই অভিনেতার মৃত্যু হয়েছে। চ্যাডউইক বোজম্যান ব্ল্যাক প্যান্থার মুভির জন্যই বেশি পরিচিত। ২০১৮ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ওই সুপারহিরো ভিত্তিক চলচ্চিত্রে ব্ল্যাক প্যান্থার এর ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন চ্যাডউইক বোজম্যান। তার পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, ক্যান্সারেই তার মৃত্যু হয়েছে। লস অ্যাঞ্জেলসে নিজের বাড়িতেই এই মার্কিন অভিনেতার মৃত্যু হয়েছে। সে সময় তার স্ত্রী এবং পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা তার পাশে ছিলেন। নিজের রোগ বা এর চিকিৎসার বিষয়ে জনসম্মুখে কখনও কিছু বলেননি বোজম্যান। অনেকটা নীরবেই তিনি এই দুরারোগ্য রোগের যন্ত্রণা ভোগ করেছেন। ব্ল্যাক প্যান্থার ছাড়াও আরও অনেক জনপ্রিয় সিনেমায় অভিনয় করেছেন বোজম্যান। এসবের মধ্যে রয়েছে ডা ফাইভ ব্লাডস, ক্যাপ্টেন আমেরিকা: সিভিল ওয়ার, অ্যাভেঞ্জার্স: ইনফিনিটি ওয়ার অ্যাভেঞ্জার্স: ইন্ডগেম, ম্যাসেজ ফ্রম কিং, গডস অব ইজিপ্ট, কিং হোল প্রভৃতি।
ভুল থেকে শিক্ষা নিয়েই এগিয়ে যাচ্ছি: নুসরাত ফারিয়া
২৮আগস্ট,শুক্রবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দুই বাংলার জনপ্রিয় নায়িকা নুসরাত ফারিয়া। অভিনয়, মডেলিং বা উপস্থাপনা সব ক্ষেত্রেই সাফল্যের সঙ্গে এগিয়ে যাচ্ছেন তিনি। তবে তার অগ্রযাত্রায় ভুলও করেছেন অনেক। তার ভাষায়, ভুল থেকে শিক্ষা নিয়েই এগিয়ে যাচ্ছেন তিনি। সামাজিকমাধ্যমে দেশিয় তারকাদের মধ্যে অন্যতম সক্রিয় একজন অভিনেত্রী নুসরাত ফারিয়া। প্রায়ই তার কাজকর্মের আপডেট কিংবা খুটিনাটি অনুভূতিগুলো শেয়ার করেন ভক্তদের সঙ্গে। ইনস্টাগ্রামে তার ফলোয়ার সংখ্যা ২৮ লাখের বেশি। আর ফেসবুকে তার ভক্তের সংখ্যা প্রায় ৭০ লাখ। প্রতিটি মানুষই ভুলের মধ্য দিয়েই শিখতে শিখতে এগিয়ে যায়। ব্যতিক্রম নন নুসরাতও। এ নিয়ে তিনি ইনস্টাগ্রামে লেখেন, আমি আমার ভুল থেকে অনেক কিছু শিখেছি। আরও কিছু ভুল করার চিন্তা করছি। তবে ভেবেচিন্তে ভুলটা যে কী করছেন, তা বেশ ধোঁয়াশাতেই রেখে দিলেন তিনি। সম্প্রতি একটি মোবাইল ফোন কোম্পানির বিজ্ঞাপনচিত্রে কাজ করেন নুসরাত। সেখানে তাকে দেখা যাবে সত্তরের দশকে এফডিসিতে কাজ করা এক অভিনেত্রী হিসেবে। তাই সেসময়ের মতো করেই সাদাকালো রূপে মুগ্ধকর কিছু ছবি শেয়ার করেছেন নুসরাত। নুসরাত ফারিয়ার সবশেষ সিনেমা শাহেনশাহ চলতি বছরের ৬ মার্চ মুক্তি পায়। তার সঙ্গে মূল চরিত্রে অভিনয় করেন সুপারস্টার শাকিব খান। শাকিব খানের বিপরীতে এটাই নুসরাতের প্রথম সিনেমা।
শুধু বাইক চালানো দেখে সবাই আমার চরিত্রের সনদ দিয়ে দিল?
২৫আগস্ট,মঙ্গলবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: নতুন কিছু দেখলে সবাই হুমড়ে পড়বে। ভাল খারাপ সবই বলবে৷ আমি ফারহানা আফরোজ বর্তমান ফেসবুকে খুব ভাইরাল হচ্ছে আমাকে নিয়ে। কিন্তু আমি কি বলেছি আমাকে ভাইরাল কর? আমি নিজে বাইক চালাই। ঢাকাতে থাকি, অহরহ ছেলেরা হলুদে বাইক নিয়ে এন্ট্রি দিচ্ছে ও মেয়েরা নেচে। আমি মেয়ে হয়ে বাইক চালাতে পারি। তাই ভাবলাম বাইক চালিয়েই এন্ট্রি দি। এখন করোনাকালীন সময়ে বিয়ের প্রোগ্রাম করতে থানা থেকে অনুমতির প্রয়োজন হয়। আমার ক্ষেত্রেও তার ভিন্নতা ছিল না। সকল অনুমতি নিয়েই আমার হলুদ ও বিয়ের প্রোগাম। সবই ঠিক থাকত। এত কথাও হত না, যদি বাইক নিয়ে পার্লার থেকে প্রোগ্রামে না যেতাম। কথা হল। ভাল, খারাপ সব হল। আমার ছবি আমার থেকে অনুমতি না নিয়ে গ্রুপে গ্রুপে বাজে পোস্ট করা হচ্ছে। আজ মেয়ে হয়ে বাইক চালিয়ে এন্ট্রি, তাই? আজ বাংলাদেশে কত মেয়ে বাইকার! তাহলে আমি যদি হলুদে বাইক চালিয়ে ঢুকি, কিছু মানুষের এত সমস্যা হচ্ছে যে গ্রুপে বাজে পোস্ট করা হচ্ছে। ইউটিউবেও ট্রোল হচ্ছে, এগুলো কি মেনে নেওয়া যায়? আমার সাথে এটা হয়েছে। আমি চাই না এরকম হেরাসমেন্ট আর কোন মেয়ে বা লেডি বাইকারের সাথে হোক। এমনিতেই সমাজে আমরা যারা বাইক চালাই তাদের অনেকের কথার সাথে লড়াই করতে হয়। ধীরে ধীরে এগুলো কমার কথা। তা না, বেড়ে ই চলেছে। আমাদের সাথে এই অত্যাচার আর কতদিন দেখব জানি না। যেখানে আমাদের প্রধানমন্ত্রী মেয়ে, স্পিকার মেয়ে, দেশ মেয়েরা চালায় সেখানে একটা মেয়ে যে বাইক চালানো জানে, তার বাইক চালানো কেন সমাজ ভাল ভাবে নিচ্ছে না? নিচ্ছে না, মানলাম। কিন্তু তার চরিত্র নিয়ে কথা আজে বাজে কথা কীভাবে সহ্য হয়? আমারও পরিবার আছে। বর আছে, শ্বশুরবাড়ি আছে। এভাবে একটা মেয়ের চরিত্র নিয়ে কথা বলতে হবে? শুধু বাইক চালানো ছবি দেখে সবাই আমার চরিত্রের সনদ দিয়ে দিল? এগুলির বিচার কি হবে?।- বিডি প্রতিদিন
পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেই পর্দায় ফিরবেন অভিনেত্রী কুসুম
২৪আগস্ট,সোমবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দীর্ঘদিন ধরেই পর্দায় নেই জনপ্রিয় অভিনেত্রী কুসুম শিকদার। নিজ থেকেই কাজ করছেন না তিনি। অবশ্য একেবারেই বিদায় নেননি এ অভিনেত্রী। নতুন করে আবার ফিরবেন বলেই জানালেন কুসুম। তবে নাটকে নয়, চলচ্চিত্রের মাধ্যমেই ফিরতে চান তিনি। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেই কাজে নিয়মিত হবেন এ তারকা। কুসুম বলেন, অভিনয় থেকে একেবারে বিদায় নেইনি। ব্যক্তিগত কিছু বিষয়ের জন্যই দূরে আছি। অভিনয় না করলেও এ অঙ্গনের সহকর্মী ও নির্মাতাদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ আছে। কাজের বিরতি শুরুর পর আরো বেশি অভিনয়ের প্রস্তাব পেয়ে যাচ্ছি। করোনার কারণে সব বন্ধ হয়ে যাওয়ার মাঝেই মূলধারার একাধিক ছবির প্রস্তাব পেয়েছেন তিনি। এগুলোতে কাজ করার আগ্রহ থাকলেও করোনার কারণে ঘর থেকে বের হচ্ছেন না। যদি করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে তখন শুটিং করার পরিকল্পনা আছে তার। কুসুম আরো বলেন, নাটকে তেমন আগ্রহ না থাকলেও ছবির কাজ নিয়ে ভাবছি। অভিনয় অঙ্গনে না থাকলেও ভক্ত-দর্শকরা ফেসবুকের মাধ্যমে আমাকে নিয়মিত উৎসাহ দিয়ে যাচ্ছেন। পরিবার থেকেও অভিনয়ে ফেরার বিষয়ে কোনো বিধিনিষেধ নেই। করোনাকাল অতিক্রম করার পরই অভিনয়ে ফিরবো। অভিনয়ে নেই তো কি হয়েছে। কাজের সঙ্গে সম্পৃক্ত রয়েছেন কুসুম শিকদার। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত এ অভিনেত্রী আগেই লেখালেখিতে দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন। ২০১৫ সালে তার লেখা নীল ক্যাফের কবি নামের একটি কবিতার বই প্রকাশ হয় একুশে গ্রন্থমেলায়। এই বই থেকে বেশ সাড়া পান কুসুম। এমনকি নতুন কবি হিসেবে পুরস্কারও অর্জন করেন এ অভিনেত্রী। এদিকে আগামী বইমেলাকে কেন্দ্র করে আরো একটি বই প্রকাশের পরিকল্পনা করেছেন কুসুম। করোনার এ ঘরবন্দি জীবনে দুটি ছোট গল্প লিখেছেন। শরতের জবা ও ছায়াকাল নামের দুটি গল্পের সঙ্গে আরেকটি গল্প জুড়ে দিয়ে একটি গল্পের বই প্রকাশের প্রস্তুতি নিচ্ছেন কুসুম। উল্লেখ্য, ২০০২ সালে তিনি লাক্স-আনন্দধারা ফটোজেনিক চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেন। ২০১০ সালে ইমপ্রেস টেলিফিল্ম এর গহীনে শব্দ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে বড় পর্দায় তার আগমন ঘটে। তার দ্বিতীয় চলচ্চিত্র লাল টিপ-এর জন্য তিনি মেরিল-প্রথম আলো শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনেত্রীর পুরস্কার লাভ করেন। আর শঙ্খচিল-এর জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন।