সোমবার, আগস্ট ২, ২০২১
সড়ক দুর্ঘটনা রোধে বেশকিছু নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী
২২,অক্টোবর,বৃহস্পতিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ড্রাইভার, হেলপারদের প্রশিক্ষণ দেয়া, একটানা গাড়ী না চালানোসহ সড়ক দুর্ঘটনা রোধে বেশকিছু নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি আজ ২২ অক্টোবর, বৃহস্পতিবার জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ নির্দেশনা দেন। প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে সরাসরি ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস- ২০২০ উদযাপন অনুষ্ঠানে যুক্ত হন। অনুষ্ঠানটি সভাপতিত্ব করেন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, নিরাপদ সড়ক নিশ্চিতে সবকিছু করে যাচ্ছে সরকার। এসময় তিনি সরকারের গৃহীত নানা পদক্ষেপের কথা তুলে ধরেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, চালকদের জন্য সড়ক পথে বিশ্রামাগার তৈরি করতে হবে। বাসে বিকল্প চালকের ব্যবস্থা রাখতে হবে। ফিটনেসবিহীন যান চলাচল এবং ওভারটেকিংয়ের মত অসুস্থ প্রতিযোগিতা বন্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। গাড়ি চালকের জন্য প্রয়োজনীয় বিশ্রামের ওপর গুরুত্বারোপ করে শেখ হাসিনা বলেন, আমরা গাড়ি চালাই না। তাই গাড়ি চালকদের কষ্ট বুঝতে পারি না। কারণ আমাদের অনেকের গাড়িচালক আছে। একজন চালক কয় ঘণ্টা গাড়ি চালাতে পারে? তাদেরও বিশ্রামের প্রয়োজন আছে। সেটি মাথায় রেখে আমরা গাড়িচালকদের বিশ্রামের জন্য কিছু কিছু স্থানে বিশ্রামাগার নির্মাণ করে দিচ্ছি। পর্যায়ক্রমে সারাদেশে বিশ্রামাগার নির্মাণ করা হবে। তিনি আরও বলেন, মেয়েদের জন্য আমরা আলাদা গাড়ির ব্যবস্থা করেছি। ছাত্র ছাত্রীদের চলাচলের জন্য ১৮৮টি গাড়ির ব্যবস্থা করেছি। বেসরকারি স্কুল কর্তৃপক্ষকে জিজ্ঞেস করেছি তাদের গাড়ি লাগবে কী না। তারা অনেকেই না বলেছে। স্কুলে অনেকে নিজের গাড়িতে করে আসে। স্কুলে এসে বলে, আমি ওই গাড়িতে করে এসেছি। বাসে গেলে তো সেটা বলতে পারবে না। সরকার প্রধান বলেন, সন্তানদের সুশিক্ষা দিতে হবে। সম্পদের অহমিকাবোধটা যেন না থাকে। সম্পদ থাকলেই সবকিছু করা যায় না, সবকিছু ভোগ করা যায় না। মহামারী করোনাভাইরাস আমাদের সেটা শিখিয়ে দিয়েছে। জানি না, কয়জন এ থেকে শিক্ষা গ্রহণ করেছে। তিনি বলেন, দূরপাল্লার গাড়ির চালকদের ক্ষেত্রে দেখা যায় যে, বিকল্প চালক না থাকায় অনেককেই অদক্ষ হেলপারের হাতে গাড়ি ছেড়ে দেয় এবং দুর্ঘটনা ঘটে। প্রধানমন্ত্রী আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, আমরা ৬টি মেট্রোরেল করে দিচ্ছি। মেট্রোরেলগুলো চালু হলে ঢাকা ও এর আশেপাশের এলাকায় যানজট কমে আসবে। এদিকে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। দিবসটি উপলক্ষে সরকারিভাবে বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে। এ তথ্য জানিয়েছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় কর্তৃপক্ষ। এর মধ্যে রয়েছে ক্রোড়পত্র প্রকাশ, আলোচনাসভা, শোভাযাত্রা ও সড়ক সচেতনতামূলক কার্যক্রম। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে রাজধানীর বিভিন্ন সড়কদ্বীপ সজ্জিত করে সচেতনতামূলক প্ল্যাকার্ড টাঙানো হচ্ছে। করোনা পরিস্থিতিতে এবার গণশোভাযাত্রার পরিবর্তে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শোভাযাত্রা করা হবে। এ ছাড়া জুম বৈঠকে নিরাপদ সড়ক বিষয়ে হবে আলোচনাসভা। এই আলোচনা সভা বড় পর্দায় গাবতলী, সায়েদাবাদ, মহাখালী ও ফুলবাড়িয়া বাস টার্মিনালে লাইভ প্রদর্শন করা হচ্ছে। বিভিন্ন বেসরকারি টিভি চ্যানেল ও প্রিন্ট মিডিয়ায় সচেতনতামূলক বিজ্ঞাপন প্রচার করা হচ্ছে। যাত্রী ও পথচারীদের সচেতনতা বাড়াতে বাস টার্মিনালসহ নগরীর বিভিন্ন স্থানে প্রচারপত্র বিলি করা হচ্ছে। একইভাবে প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় শোভাযাত্রাসহ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। এবার চতুর্থবারের মতো পালিত হচ্ছে নিরাপদ সড়ক দিবস। ১৯৯৩ সালের ২২ অক্টোবর বান্দরবানে স্বামী নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনের কাছে যাওয়ার পথে মর্মান্তিক এক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন স্ত্রী জাহানারা কাঞ্চন। এর পর থেকে ইলিয়াস কাঞ্চন নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) নামে একটি সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলেন। নিসচার আন্দোলনের ফল স্বরুপ ২০১৭ সালের ৫ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রীসভার বৈঠকে ২২ অক্টোবরকে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস হিসেবে ঘোষণা করা হয়। ওই বছর থেকেই বাংলাদেশে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস পালিত হয়ে আসছে।
৮ নভেম্বর শুরু হওয়া অধিবেশন হবে- বিশেষ
২১,অক্টোবর,বুধবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বুধবার (২১ অক্টোবর) রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ আহ্বান করা সংসদের দশম অধিবেশন হবে বিশেষ অধিবেশন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আগামী ৮ নভেম্বর রোববার শুরু হওয়া এটি বিশেষ অধিবেশন হিসেবে বসছে। এদিন সন্ধ্যা ৬টায় সংসদের অধিবেশন বসবে। করোনাকালের অধিবেশনগুলোর মতো এবারও কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে এ অধিবেশন চলবে। এর আগে চলতি বছর মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকি নিয়েই সপ্তম, অষ্টম ও নবম অধিবেশন শেষ হয়। এবারের অধিবেশনেও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বিষয়টি মাথায় রেখেই আয়োজন চলছে। আগের তিনটি অধিবেশনের মতো এবারও অপেক্ষাকৃত তরুণ ও সুস্থ এমপিদের সংসদে যাওয়ার জন্য উৎসাহ দেয়া হবে। জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আবারও সংসদের বিশেষ অধিবেশন আহ্বানের প্রস্তুতি নিয়েছে সংসদ। এর আগে প্রস্তুতি শেষ করেও করোনার কারণে তা হয়নি। জানা যায়, ভেস্তে যাওয়া আগের অধিবেশনের প্রস্তুতির মতো এবারও বিদেশি অতিথিদের এ বিশেষ অধিবেশনে আমন্ত্রণ জানানো হবে। সবকিছু নির্ভর করছে করোনা পরিস্থিতির ওপর। এছাড়া মুজিববর্ষ উপলক্ষে ১০টি কর্মসূচি নিয়েছে জাতীয় সংসদ। এর মধ্যে এখন বৃক্ষরোপণ চলমান। নভেম্বরে মুজিববর্ষের ওয়েবসাইট উদ্বোধন, স্মারক ডাকটিকিট উন্মোচন, ৪ নভেম্বর সংবিধান দিবস উদযাপন, মাসব্যাপী আলোকচিত্র ও প্রামাণ্য দলিল প্রদশর্নী, সংসদে বঙ্গবন্ধু বই প্রকাশনা, শিশুমেলাসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করবে। এর আগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বিশেষ অধিবেশন স্থগিত করা হয়। ২২ ও ২৩ মার্চ এ অধিবেশন হওয়ার কথা ছিল। বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনার কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে জনস্বাস্থ্যের ঝুঁকির বিষয়টি বিবেচনা করে অধিবেশন স্থগিত করা হয়। এর আগে ১০ সেপ্টেম্বর সংসদের নবম অধিবেশন শেষ হয়। ৬ সেপ্টেম্বর শুরু হওয়া সংক্ষিপ্ত এ অধিবেশনের কার্যদিবস ছিল পাঁচটি। এতে আইন পাস হয়েছে ছয়টি। সংবিধান অনুযায়ী এক অধিবেশনের শেষ ও আরেক অধিবেশনের শুরুর মধ্যে সর্বোচ্চ ৬০ দিনের বেশি বিরতি দেয়ার সুযোগ নেই। গত ৩ মার্চ রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ সংবিধানের ৭২ (১) ধারা অনুযায়ী দুদিনের এই বিশেষ অধিবেশনের ডাক দিয়েছিলেন। দুদিনের বিশেষ অধিবেশনে ভারতের (প্রয়াত) সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি ও নেপালের রাষ্ট্রপতি বিদ্যা দেবী ভাণ্ডারির ভাষণ দেয়ার কথা ছিল।
পিকে হালদারকে দেশে ফেরামাত্র গ্রেফতারের নির্দেশ হাইকোর্টের
২১,অক্টোবর,বুধবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স সার্ভিসেস লিমিটেডের (আইএলএফএসএল) অর্থ পাচারের ঘটনায় এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক ও রিলায়েন্স ফাইন্যান্স লিমিটেডের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রশান্ত কুমার (পিকে হালদার) হালদারকে দেশে ফেরার অনুমতি দিয়েছেন হাইকোর্ট। সেই সঙ্গে দেশে ফেরামাত্র তাকে গ্রেফতার করতে পুলিশের মহাপরিদর্শককে (আইজি) এবং ইমিগ্রেশন পুলিশকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি কারাগারে থাকাবস্থায় তিনি যেনো অর্থ পরিশোধের সুযোগ পান, সে বিষয়েও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। পিকে হালদারের দেশে ফিরতে চান। এরই মধ্যে তিনি ফ্লাইটের টিকিটিও কেটে ফেলেছেন। তার ফেরার বিষয়ে আইএলএফএসএল আবেদন করেছিল। সেই আবেদনের শুনানি শেষে আজ বুধবার (২১ অক্টোবর) বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে এসব আদেশ দেন। আদালতে আইএলএফএসএলের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার মাহফুজুর রহমান মিলন। অন্যদিকে দুদকের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট মো. খুরশীদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল এএম আমিন উদ্দিন। এর আগে গত ৭ সেপ্টেম্বর হাইকোর্টের একই বেঞ্চে এ সংক্রান্ত আরেকটি আবেদন করে আইএলএফএসএল। সে আবেদনের শুনানি নিয়ে পিকে হালদার কবে, কখন, কীভাবে দেশে ফিরতে চান, তা আইএলএফএসএলকে লিখিতভাবে জানাতে বলেন আদালত। এরপর পিকে হালদারের দেশে ফেরার বিষয়টি গত ২০ অক্টোবর হাইকোর্টকে জানানো হয়। পিকে হালদারের প্রতিষ্ঠান আইএলএফএসএলের পক্ষ থেকে হাইকোর্টকে জানানো হয়, আগামী ২৫ অক্টোবর দুবাই থেকে এমিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে ঢাকা আসার জন্য টিকিট কেটেছেন তিনি। বাংলাদেশ সময় সকাল ৮টায় ফ্লাইটটি হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করার কথা রয়েছে। ইন্টারন্যাশনাল লিজিং থেকে দেড় হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে পিকে হালদারের বিরুদ্ধে। এ ছাড়াও সব মিলিয়ে প্রায় ৩ হাজার ৫০০ কোটি টাকা তিনি আত্মসাৎ করেছেন বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। এর মধ্যে গোপনে কানাডায় পাড়ি জমান তিনি। দীর্ঘদিন পর দেশে ফিরতে চেয়েছেন এবং এজন্য নিরাপত্তা চেয়ে নিজের প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে হাইকোর্টে আবেদন করেন। বিনিয়োগকারীদের অর্থ পরিশোধ করতেই এই উদ্যোগ নিয়েছেন বলেও আবেদনে উল্লেখ করা হয়।
মেয়েদের নামে আইডি খুলে লাখ লাখ টাকার প্রতারণা, যুবক গ্রেফতার
২১,অক্টোবর,বুধবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: মেয়েদের নাম ও ছবি ব্যবহার করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভুয়া আইডি থেকে বন্ধুত্ব গড়ে তুলে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে Rapid Action Battalion (Rab)। মাসুক মিয়া ওরফে মাসুদ নামের ওই যুবককে গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নরসিংদী জেলার মনোহরদী পৌরসভা বাজার থেকে তাকে গ্রেফতার করে Rab-4 এর সাইবার মনিটরিং সেলের একটি দল। এসময় তার কাছ থেকে ব্যবহৃত তিনটি মোবাইল ও নগদ কিছু অর্থ উদ্ধার করা হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেন সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. সাজেদুল ইসলাম সজল। গ্রেফতারকৃত যুবকের বাড়ি সিলেটে। Rab জানিয়েছে, গ্রেফতার এই যুবক মেয়েদের নাম ও ছবি ব্যবহার করে খোলা আইডি থেকে বিভিন্ন জনকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠিয়ে বন্ধুত্ব করেন। পরে নানাভাবে প্রলুব্ধ করে বিকাশের মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন। যুবক কৌশল হিসেবে মোবাইল ফোনে বিভিন্ন অ্যাপ ব্যবহার করে নারী কণ্ঠে ভুক্তভোগীদের সঙ্গে দীর্ঘদিন ফোনে কথাও বলেন। এসময় তিনি নিজেকে লন্ডন প্রবাসী বলে পরিচয় দেন। তবে তিনি ভিডিও কলে কখনো কথা বলেন না। কোন এক পর্যায়ে তিনি দেশে এসেছেন বলে জানান। সম্পর্ক গাঢ় হলে ভুক্তভোগীর সঙ্গে দেখা করতে চান। দেখা করার দিন পথিমধ্যে কোন দুর্ঘটনার কথা বলে ভুক্তভোগীদের কাছে টাকা চান। সরল ভুক্তভোগীরা টাকা পাঠালে আর ফোন ধরেন না। এভাবে নিজেকে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন চরিত্রে বসিয়ে ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে এখন পর্যন্ত প্রায় ১৫ থেকে ২০ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন বলে জানিয়েছে Rab। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামি এসব অভিযোগের বিষয় স্বীকার করেছেন বলে জানানো হয়েছে। এ ঘটনায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে তার বিরুদ্ধে মামলা রুজু প্রক্রিয়াধীন।
সাগরে লঘুচাপ, বন্দরে সতর্ক সঙ্কেত
২১,অক্টোবর,বুধবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সাগরে লঘুচাপের প্রভাবে ঝড়ো হাওয়ার শঙ্কায় সমুদ্র বন্দরগুলোকে তিন নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অধিদফতর। বুধবার আবহাওয়ার সতর্কবার্তায় এ তথ্য জানানো হয়েছে। আবহাওয়ার সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে, মধ্য-বঙ্গোপসাগর এলাকায় একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হয়েছে; যা বর্তমানে পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থান করছে। এটি আরও ঘণীভূত হতে পারে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর, সমুদ্রবন্দরগুলো ও বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগের অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে উপকূলের কাছাকাছি এসে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। সেই সাথে তাদের গভীর সাগরে বিচরণ না করতে বলা হয়েছে।
মানসিক স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে হবে: সায়মা ওয়াজেদ হোসেইন
২০,অক্টোবর,মঙ্গলবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাংলাদেশ ন্যাশন্যাল এডভাইজরি কমিটি অব অটিজম এন্ড নিউরো-ডেভেলপমেন্ট ডিজঅর্ডারস -এর প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি সায়মা ওয়াজেদ হোসেইন টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে মানসিক স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, প্রতিবন্ধী ব্যক্তি বা মানসিক সমস্যা গ্রস্ত ব্যক্তিদের হলিস্টিক স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করেত স্বল্প রির্সোসের মাধ্যমে সর্বোচ্চ সেবা নিশ্চিত করতে হবে। যা সারা পৃথিবীর কাছে মডেল হিসেবে বিবেচিত হবে। ২৮তম বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস উপলক্ষে ১৮ অক্টোবর অ্যা ডে সেন্টার ফর পিপল উইথ মেন্টাল হেলথ নিডস: এ মডেল কেয়ার অব বাংলাদেশ শীর্ষক এক ওবেনিয়ারের আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এ বছর দিবসটির থিম ছিলো মানসিক স্বাস্থ্যে বিনিয়োগ। সিআরপি ২০১৪ সাল থেকে বিভিন্ন ভাবে মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে কাজ করছে। ২০১৮ সালে কাদুরি চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশনের সহায়তায় সিআরপি-গণকবাড়িতে মানসিক স্বাস্থ্য সেবায় ডে কেয়ার সেন্টার স্থাপন করে সিআরপি। ওয়েবনিয়ারে সিআরপির প্রতিষ্ঠাতা ভ্যালেরি এ টেইলরের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে সায়মা ওয়াজেদ হোসেইন সিআরপির উদ্যোগের প্রশংসা করেন এবং মানসিক স্বাস্থ্যের গুরুত্ব আলোচনা করেন। সেই সাথে মানসম্মত সেবা নিশ্চিত করনে সবার সহযোগিতা কামনা করেন। তিনি বাংলাদেশের হেলথ প্রফেশনাল বা থেরাপিস্টদের উদ্দেশ্যে বলেন, প্রতিবন্ধী ব্যক্তি বা মানসিক সমস্যাগ্রস্ত ব্যক্তিদের হলিস্টিক স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে হবে। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নিউরো ডেভেলপমেন্টাল ডিজঅ্যাবিলিটি ট্রাস্টের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মোহাম্মদ গোলাম রব্বানি, হংকং কাদুরি চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশনের সাউথইস্ট এশিয়ার প্রোগ্রাম ম্যানেজার রিতা বনমালি, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বাংলাদেশ প্রতিনিধি ড. বর্ধন জং রানা, নন কমুনিকেবল ডিজিস সেন্টারের লাইন ডিরেক্টের ড. মোহাম্মাদ হাবিবুর রহমান । মূল উপস্থাপক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউট আয়ারল্যান্ডের ক্যারেন হিসলিপ, অকুপেশনাল থেরাপিস্ট সহকারি অধ্যাপক হেলাল উদ্দিন আহমেদ ও সিআরপির প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর অব অকুপেশনাল থেরাপি ডে কেয়ার সেন্টার ফর পিপল উইথ মেন্টাল হেলথ নিডস রাজিয়া সুলতানা। প্রফেসর ড. হেলাল উদ্দিন আহমেদ তার উপস্থাপনায় বাংলাদেশের বর্তমান মানসিক স্বাস্থ্যের চিত্রায়ন করেছেন। আইরিশ অকুপেশনাল থেরাপিস্ট ক্যারেন হিসলিপ ইউকে এবং আয়ারল্যান্ডের বর্তমান মানসিক স্বাস্থের চিকিৎসা ক্ষেত্র তুলে ধরেন ও বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে এর বাধা বিপত্তি গুলো তুলে ধরেন। রাজিয়া সুলতানা, মনের সাথে বসবাস শীর্ষক ডকুমেন্টারিতে সিআরপির মেন্টাল হেলথ কেয়ার সেন্টারের কার্যক্রম ও রোগিদের মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতি উপস্থাপন করেন এবং বলেন, সিআরপি তার অবস্থান থেকে চেষ্টা করে যাচ্ছে। যদি সরকারের সহযোগিতায় কমিউনিটি পর্যায়েও এই সেবা পৌছে দেয়া যায় তবে আরও ভালো ফলাফল আসবে। কাদুরি চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে রিতা বনমালী সিআরপির কার্যকলাপের প্রশংসা করা পূর্বক তাদের সহযোগিতা বজায় রাখার আশ্বাস দেন। ড. মো: হাবিবুর রহমান সিআরপির এমন উদ্যোগে প্রশংসা করেন এবং মানসিক স্বাস্থ্যের সুরক্ষা নিশ্চিত করনে জনগনের সচেতনতাকে গুরুত্ব দেন। সেই সাথে এনসিডিসি কর্তৃক গৃহীত পরিকল্পনার একটি সংক্ষিপ্ত বর্ণনা দেন। ড. বর্ধন জং রানা বলেন, চলমান কোভিড-১৯ পরিস্থির কারণে অন্য ক্ষেত্রগুলোতে সেবার ঘাটতি দেখা দিয়েছে। তিনি আরো বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বর্তামানে প্রাথমিক পর্যায়ের মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে কাজ করছে। প্রফেসর ড. গোলাম রব্বানী রিহেবিলিটিশন স্পেশালিস্টদের একত্রিত হয়ে রিহ্যাব এক্ট ২০১৮ এর অধিনে ধারা তৈরি করতে সরকারকে উদ্যোগ গ্রহনে বাধ্য করে তোলার প্রয়োজনীয়তা উল্লেখ করেন।- সূত্র: বাসস
রাতে ফ্লাইট ওঠানামার উপযোগী বিমানবন্দর করার নির্দেশ
২০,অক্টোবর,মঙ্গলবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: অভ্যন্তরীণ বিমানবন্দরগুলোকে রাতে ফ্লাইট ওঠানামার উপযোগী করতে পর্যাপ্ত লাইটিংয়ের ব্যবস্থা করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় ৪টি প্রকল্পের অনুমোদন দেওয়া হয়। গণভবন থেকে একনেক সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা। শেরেবাংলা নগর এনইসি সম্মেলনকক্ষে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী ও সচিবরা সভায় উপস্থিত ছিলেন। একনেক সভা শেষে প্রকল্পের সার্বিক বিষয়ে সাংবাদিকদের সামনে প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসন তুলে ধরেন পরিকল্পনা বিভাগের সিনিয়র সচিব আসাদুল ইসলাম। অভ্যন্তরীণ রুটে প্লেনের ফ্লাইট সংখ্যা বৃদ্ধির প্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী এই নির্দেশনা দেন বলে জানান আসাদুল ইসলাম। একনেক সভায় বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মহিবুল হক বলেন, অভ্যন্তরীণ রুটে রানওয়ে ও লাইটিং সিস্টেম উন্নয়ন করা হবে। সিনিয়র সচিব আসাদুল ইসলাম বলেন, একনেক সভায় যশোর, সৈয়দপুর, শাহমখদুম বিমানবন্দরের রানওয়ের সারফেস অ্যাসফল্ট কংক্রিট ওভারলে-করণ করতে ৫৬৬ কোটি ৭৬ লাখ ৯ হাজার টাকা ব্যয়ে প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়। মানুষের অর্থনৈতিক অবস্থা দিন দিন ভালো হচ্ছে। দেশে ইকনোমিক জোনও হচ্ছে। এসব কারণে অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট বাড়ছে। তাই বিমানবন্দরে লাইটিং বৃদ্ধি করতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। যেন রাতেও ফ্লাইট ওঠানামা করতে পারে। এছাড়া ৩০১ কোটি টাকা ব্যয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন কদমরসুল অঞ্চলে কঠিন বর্জ্য ব্যবস্থাপনার জন্য ভূমি অধিগ্রহণ ও উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়। এই প্রকল্প প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসন তুলে ধরে আসাদুল ইসলাম বলেন, প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছেন এমনভাবে বর্জ্য ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন করতে হবে যেন পানি দূষিত না হয়।
অভিযান, আলু বিক্রি বন্ধ রেখেছেন ব্যবসায়ীরা
২০,অক্টোবর,মঙ্গলবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: পাইকারি বাজারে প্রশাসনের অভিযান ও জরিমানার ভয়ে আলু বিক্রি বন্ধ রেখেছেন ব্যবসায়ীরা। মঙ্গলবার রাজধানীর কারওয়ান বাজারের পাইকারি আলু ব্যবসায়ীরা দোকান বন্ধ রেখেছেন। সংশ্লিষ্টরা জানান, নানা অজুহাতে হঠাৎ করেই দ্বিগুণ বেড়েছে আলুর দাম। এ নিয়ে সরকারের পক্ষ থেকে খুচরা পর্যায়ে সর্বোচ্চ ৩০ টাকা দাম নির্ধারণ করে দেয়া হলেও তা আমলে নিচ্ছেন না ব্যবসায়ীরা। পাইকারি ও খুচরা বাজারে বাড়তি ৫৫ থেকে ৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যটি। দাম নিয়ন্ত্রণে মাঠে নামে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর ও প্রশাসনের একাধিক টিম। তাই অভিযান ও জরিমানার প্রতিবাদে ব্যবসায়ীদের আলু বেচাকেনা বন্ধ রেখেছেন। তবে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, আলুর দাম পুনর্নির্ধারণের জন্য কোল্ড স্টোরেজের মালিকরা সরকারের সংশ্লিষ্ট দফতরের সঙ্গে বৈঠক করবে। এ জন্য তারা আলু বিক্রি বন্ধ রেখেছেন। আজ বিকেল ৩টায় বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। কারওরান বাজারের পাইকারি আলু ব্যবসায়ী মো. হাফিজ বলেন, প্রতিদিন প্রশাসনের লোকজন অভিযানে এসে আমাদের বিরুদ্ধে জরিমানা করছে। অযথা জরিমানা দিয়ে ব্যবসা করা আমাদের পক্ষে সম্ভব না। তাই এখন থেকে কত পর্যন্ত এইভাবে অভিযান চলবে আমরা ব্যবসা করব না। আজ পাইকারি বাজারে আলুর দাম ছিল ৪২ থেকে ৪৩ টাকা বলে জানান পাইকারি এ ব্যবসায়ী। এ বিষয়ে জানতে চাইলে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের উপপরিচালক মঞ্জুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার জানান, সরকারের নির্দেশনা বিভিন্ন জেলার আলুর গুদামের মালিক, পাইকারি ব্যবসায়ী ও খুচরা বিক্রেতাদের কার সঙ্গে মতবিনিময় করা হচ্ছে। তিনি বলেন, ব্যবসা বন্ধ রাখার মতো কোনো পরিস্থিতি তৈরি হয়নি বরং দাম স্থিতিশীল রাখতে তাদের বিভিন্ন নির্দেশনাসহ পরামর্শ দেয়া হয়েছে। আর যাদের জরিমানা করা হয়েছে তারা মূলত ক্রয় রশিদসহ আইন অনুযায়ী কাগজপত্র দেখাতে পারেনি।
কিশোর গ্যাংয়ের ৭ সদস্য আটক
১৯,অক্টোবর,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানা এলাকা থেকে কিশোর গ্যাং পারভেজ গ্রুপের ৭ সদস্যকে আটক করেছে Rab-2। গতকাল রোববার রাতভর অভিযান চালিয়ে রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানাধীন জি টি সি এল বিল্ডিংয়ের সামনে থেকে তাদের আটক করা হয়। আসামিরা হলেন- মো. সাগর ওরফে রোমান (১৯), মো. হাতেম আলী (১৯), মুক্তারুজ্জামান (১৯), মো. রাকিব সিকদার (২০), মো. আলামিন হোসেন (১৯)। বাকি দুজন আসামি অপ্রাপ্ত বয়স্ক। আটকের সময় তাদের কাছ থেকে ৬০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট ও দুটি ছুরি উদ্ধার করা হয়। সোমবার Rabর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, আসামিদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা সবাই স্থানীয় কিশোর গ্যাং পারভেজ গ্রুপের সক্রিয় সদস্য। তারা ইয়াবা, গাঁজা ইত্যাদি নেশা জাতীয় অবৈধ মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয়ের সঙ্গে জড়িত এবং তারা নিজেরাও নেশা জাতীয় দ্রব্য সেবন করে থাকে। গ্রুপ লিডার পারভেজের নেতৃত্বে এই কিশোর অপরাধী গ্রুপ ডিএমপির শেরেবাংলা নগর থানার বিএনপি বস্তি, শিশুমেলা, বঙ্গবন্ধু সম্মেলন কেন্দ্র এলাকায় বিভিন্ন ধরনের মাদকদ্রব্য সেবন, ক্রয়-বিক্রয়, চুরি ছিনতাই, মারামারিসহ নারীদের ইভটিজিং করে অত্র থানা এলাকায় আইন শৃঙ্খলা বিঘ্ন ঘটিয়ে আসতেছে। কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা মাদক ব্যবসা, চাঁদাবাজি, ছিনতাই এবং নানা অপকর্মের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। Rab জানায়, আসামিদের কাছ থেকে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে, যা যাচাই-বাছাই করে ভবিষ্যতে Rab অভিযান চালাবে।

জাতীয় পাতার আরো খবর