মঙ্গলবার, আগস্ট ৩, ২০২১
কারিগরির শিক্ষকদের নিয়ে আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান এর কমিটি গঠন
০৩নভেম্বর,মঙ্গলবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: মো. সুমন হায়দারকে সভাপতি এবং সৈয়দ ওমর ফারুককে সাধারণ সম্পাদক করে মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠন আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান-এর ২৯ সদস্যবিশিষ্ট কারিগরি শাখার নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে। শিক্ষা অধিদফতরের অধীন সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে কর্মরত শিক্ষকদের নিয়ে এই কমিটি গঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (৩ নভেম্বর) সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি মো. সাজ্জাদ হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ রাশেদুজ্জামান শাহীন আগামী দুই বছরের জন্য এই কমিটি অনুমোদন করেন। সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে কমিটি অনুমোদনের সময় প্রেসিডিয়াম সদস্য জোবায়দা হক অজন্তা, সংগঠনের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আল-আমিন মৃদুল, ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক মনির, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক গোলজার হোসেন, প্রচার সম্পাদক সাদিকুল ইসলাম নিয়োগী পন্নী উপস্থিত ছিলেন। কমিটিতে মো. আজিজুর রহমান, জাহিদ রানা, অরণ্য রায়কে সহ-সভাপতি। মো. আমিনুল হককে যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক, মো. মেহেদী হাসানকে সাংগঠনিক সম্পাদক, মো. ইমন আলীকে তথ্য ও প্রচার সম্পাদক, রওশন শাদ ফেরদৌসীকে সহ-তথ্য ও প্রচার সম্পাদক, তানজিনা তাবাসসুম তন্বীকে তথ্যপ্রযুক্তি ও গবেষণা সম্পাদক, মো. আহাদ আলীকে অর্থ বিষয়ক সম্পাদক, মোহাম্মদ হায়দার আলী চৌধুরীকে আইন বিষয়ক সম্পাদক, মোহাম্মদ হামিদুর হককে ছাত্র-ছাত্রী বিষয়ক সম্পাদক (ঢাকা ও ময়মনসিংহ), মো. আমিনুল ইসলামকে সহ ছাত্র-ছাত্রী বিষয়ক সম্পাদক (ঢাকা ও ময়মনসিংহ), মো. আল আমিন হোসাইনকে ছাত্র-ছাত্রী বিষয়ক সম্পাদক (রাজশাহী ও রংপুর), এম. এ. মলিকে সহ ছাত্র-ছাত্রী বিষয়ক সম্পাদক (রাজশাহী ও রংপুর), সৌমিত্র দাসকে ছাত্র-ছাত্রী বিষয়ক সম্পাদক (চট্টগ্রাম ও সিলেট), কাজী সারোয়ারকে সহ ছাত্র-ছাত্রী বিষয়ক সম্পাদক (চট্টগ্রাম ও সিলেট), মো. হানিফ শিকদারকে ছাত্র-ছাত্রী বিষয়ক সম্পাদক (খুলনা ও বরিশাল), মাজেদা খাতুনকে সহ ছাত্র-ছাত্রী বিষয়ক সম্পাদক (খুলনা ও বরিশাল), মো. মাহমুদ হাসানকে ধর্ম বিষয়ক সস্পাদক, মো. তৌহিদুর রহমান ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সম্পাদক, ফাতেমা খাতুনকে স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা সেবা বিষয়ক সম্পাদক, মেহের নিগার সুলতানাকে মুক্তিযোদ্ধা ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক। মো. গিয়াস উদ্দিন, মো. আব্দুল গফুর, বিভা নিকেতি নীর, মো. শফিকুল ইসলাম ও মো. সানিয়াত বুরহানকে সম্মানিত সদস্য করা হয়েছে। সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে কর্মরত শিক্ষকসহ সেখানে অধ্যয়নরত মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকল শিক্ষার্থীর মাঝে দেশের গৌরবোজ্জ্বল মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও সঠিক ইতিহাস প্রচার এবং সরকারের গৃহীত নানামুখী উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড তুলে ধরার মাধ্যমে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জল করতে এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে এই কমিটি কাজ করবে বলে কেন্দ্রীয় কমিটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে।
গুজবে কান না দিয়ে সত্যতা যাচাইয়ে অনুরোধ পুলিশের
০৩নভেম্বর,মঙ্গলবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সম্প্রতি বেশ কয়েকটি ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে গুজবে কান না দিয়ে যেকোনো তথ্য যাচাইয়ের আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ পুলিশ। একইসঙ্গে আইন নিজের হাতে তুলে নেওয়ার বর্বর প্রবণতা থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে। অন্যথায় সকল বেআইনী কর্মকাণ্ড কঠোর হস্তে দমন করা হবে। সোমবার (০২ অক্টোবর) পুলিশ সদর দপ্তরের সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি) সোহেল রানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সম্প্রতি দেশে গুজবের কারণে অত্যন্ত নৃশংস ঘটনা ঘটেছে। এতে সম্পদ নষ্টের পাশাপাশি নিরীহ মানুষের প্রাণহানি হয়েছে। দেশকে অস্থিতিশীল করতে একটি স্বার্থান্বেষী মহল স্পর্শকাতর ধর্মীয় বিষয়সহ নানা বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ছড়িয়ে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি ও জনশৃঙ্খলা বিনষ্টের চেষ্টা করছে। এ অবস্থায় কোনো প্রকার গুজবে কান না দিতে এবং যেকোনো তথ্য ও সংবাদ যাচাই ছাড়া বিশ্বাস না করতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ পুলিশ। একইসঙ্গে আইন নিজের হাতে তুলে নেওয়ার বর্বর প্রবণতা থেকে বিরত থাকার জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে অনুরোধ জানানো হয়েছে। অন্যথায় এ ধরনের সকল বেআইনী কর্মকাণ্ড কঠোর হস্তে দমন করা হবে। যেকোনো তথ্য ও সংবাদের সত্যতা যাচাই করতে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-এ যোগাযোগের পাশাপাশি নিকটস্থ থানায় যোগাযোগ করতে অনুরোধ জানানো হয়েছে।
পৌরসভাসহ স্থানীয় সরকার নির্বাচন ডিসেম্বরে শুরু : সিইসি
০২নভেম্বর,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জানুয়ারির মধ্যে এবং ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে যেসব পৌরসভা, জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হবে, সেগুলোর ভোট আগামী ডিসেম্বরের শেষ দিকে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আপাতত পাঁচ ধাপে এসব নির্বাচন শেষ করার পরিকল্পনা রয়েছে ইসির। ইসির আশা, পৌরসভার সাধারণ নির্বাচন মে মাসের মধ্যে সম্পন্ন করা যাবে। পৌরসভার নির্বাচন ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসি। সোমবার (২ নভেম্বর) নির্বাচন ভবনে কমিশন সভা শেষে এ তথ্য জানান প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। সিইসি বলেন, আজ আমরা লম্বা মিটিং করেছি। এর মধ্যে স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের নির্বাচন যেগুলো ডিউ হয়েছে, সেগুলো পরিচালনা করা, শিডিউল তৈরি এবং রিটার্নিং অফিসার নিয়োগ থেকে শুরু করে যেগুলো করণীয়, সেগুলো ঠিক করেছি। জানুয়ারি এবং ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহের মধ্যে যেসব নির্বাচন ডিউ হবে, সেগুলো হয়তো আমরা করে ফেলবো, হয়তো ডিসেম্বরের শেষ দিকে। সেরকম প্রস্তুতি আমাদের আছে। তিনি বলেন, পৌরসভার নির্বাচন ইভিএমে হবে। উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের উপনির্বাচন বা সাধারণ নির্বাচন সবগুলো ইভিএমে করা যাবে না। হয়তো কিছুসংখ্যক করা যেতে পারে, এনআইডির ডিজি পৌরসভার নির্বাচনগুলো ঠিক করার পরে যদি মনে করেন, তার ক্যাপাসিটি আছে তবে হয়তো কিছু নির্বাচন ইভিএমে করবে। সিইসি জানান, ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত পৌরসভা, জেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের যেসব নির্বাচন ডিউ হবে, সেগুলো করা হবে। এ সময়ের পৌরসভা খালি হবে ২০টির ওপর। এছাড়া অনেকগুলো হবে উপনির্বাচন। নূরুল হুদা বলেন, আমরা আশা করি, পৌরসভার সাধারণ নির্বাচন মে মাসের মধ্যে সম্পন্ন করা যাবে। এগুলো ধাপে ধাপে করা হবে। আমাদের অনুমান, পাঁচটি ধাপে নির্বাচন শেষ করতে পারবো। এখনও আমরা ঠিক করিনি কয় ধাপে নির্বাচন করা হবে।
নকশা বহির্ভূত ভবন নির্মাণ: মালিককে কারাগারে পাঠানোর আদেশ
০২নভেম্বর,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: নকশা বহির্ভূত ভবন নির্মাণের দায়ে দুই ভবন মালিককে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (সিডিএ) স্পেশাল মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত। সোমবার (২ নভেম্বর) দুই ভবন মালিক আদালতে আত্মসমর্পণ করলে স্পেশাল মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাইফুল আলম তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। তারা হলেন- নগরের আগ্রাবাদ শেখ মুজিব রোডের হোটেল ইস্টার্ন ভিউ’র মালিক মো. জসিম উদ্দিন ভূঁইয়া এবং তার স্ত্রী কহিনুর বেগম। স্পেশাল মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বেঞ্চ সহকারী ফয়েজ আহমদ জানান, জসিম উদ্দিন ভূঁইয়া এবং কহিনুর বেগম সিডিএ থেকে ২টি ৬ তলা বিশিষ্ট ভবন নির্মাণের অনুমোদন নেন। কিন্তু তারা নকশা বহির্ভূতভাবে একটি ভবন ৬ তলার পরিবর্তে ৮ তলা এবং অন্যটি ৬ তলার পরিবর্তে ১১ তলা নির্মাণ করেন। অথারাইজেশন বিভাগ এ ঘটনায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেন। ফয়েজ আহমদ বলেন, আদালত মামলা দুটি আমলে নিয়ে দুই আসামির বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট জারি করেন। সোমবার তারা আদালতে আত্মসমর্পণ করলে আদালত তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।
গান্ধী আশ্রম-উন্নয়ন বোর্ড আইন অনুমোদন
০২নভেম্বর,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: গান্ধী আশ্রম (ট্রাস্টি বোর্ড) আইন, ২০২০ এবং উন্নয়ন বোর্ড আইনসমূহ (বিলুপ্তকরণ) আইন, ২০২০ এর খসড়ার নীতিগত ও চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সোমবার (০২ নভেম্বর) ভার্চ্যুয়াল মন্ত্রিসভা বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়। গণভবন প্রান্ত থেকে প্রধানমন্ত্রী এবং সচিবালয় প্রান্ত থেকে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীরা এতে অংশ নেন। বৈঠক শেষে সচিবালয়ে ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম জানান, সামরিক শাসনামলের দ্য গান্ধী আশ্রম বোর্ড অব ট্রাস্টি অর্ডিন্যান্স-১৯৭৫ করে বাংলায় নতুন আইন করে নিয়ে আসা হয়েছে। নতুন করে কোনো বিধান এরমধ্যে অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। আইনের উল্লেখযোগ্য দিক নিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, গান্ধী ট্রাস্টি একটি বোর্ড দ্বারা পরিচালিত হবে একটি সংবিধিবদ্ধ সংস্থা হবে। আইনের বিধানাবলি অনুযায়ী স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি অর্জন ও হস্তান্তর বোর্ডের কাছে থাকবে। সরকার একজন চেয়ারম্যান নিয়োগ দেবেন এবং ছয়জন ট্রাস্টি মিলে সাতজনের বোর্ড হবে। আনোয়ারুল ইসলাম জানান, এ বোর্ড জনগণকে শান্তি ও সম্প্রতিতে জীবন-যাপন, সাবলম্বী করতে সক্ষম করে এমন প্রশিক্ষণ দেবে, সুতাকাটা, বুনন, মৎস্য চাষ, কুঠির শিল্প প্রতিষ্ঠান, বিধবা-এতিম-দুস্থদের জন্য বাসস্থান নির্মাণ এসব কাজের মধ্যে কার্যাবলি সীমাবদ্ধ থাকবে। বোর্ডের একটি তহবিল থাকবে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, সরকারসহ অন্যান্য উৎস থেকে তারা তহবিল সংগ্রহ করবে। উন্নয়ন বোর্ড আইনসমূহ (বিলুপ্তকরণ) আইন, ২০২০ মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, দ্য ডেভেলপমেন্ট বোর্ড লস অর্ডিন্যান্স-১৯৭৬ অনুযায়ী ডিভিশনাল ডেভেলপমেন্ট বোর্ড, জেলা ডেভেপমেন্ট বোর্ড, হাওর ডেভেলপমেন্ট বোর্ড ইত্যাদি থাকবে না। এটা বাংলায় নিয়ে আসা হয়েছে।
কাশিমপুর কারাগারে হত্যা মামলার আসামির ফাঁসি কার্যকর
০২নভেম্বর,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী ও দুই বছর বয়সী সন্তানকে হত্যার দায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত কয়েদি আব্দুল গফুরের (৪৭) মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। রোববার রাত ১১টা ৫৫ মিনিটে গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এ তার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করে কারা কর্তৃপক্ষ। কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এর সিনিয়র জেল সুপার আব্দুল জলিল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। আব্দুল গফুর লক্ষ্মীপুরের রামগতি থানার দক্ষিণ চরলরেঞ্জ এলাকার মৃত শামসুল হকের ছেলে। এ সময় গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আবুল কালাম, সিভিল সার্জন ডা. মো. খায়রুজ্জামান, আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। কারাগার সূত্রে জানা গেছে, ২০০৬ সালের ৮ অক্টোবর আব্দুল গফুরের বিরুদ্ধে লক্ষ্মীপুরের রামগতি থানায় পারিবারিক কলহের জেরে ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী ও দুই বছর বয়সী কন্যা শিশুকে হত্যার অভিযোগে মামলা হয়। এ মামলায় ২০০৮ সালের ২৮ এপ্রিল লক্ষ্মীপুরের অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালতের বিচারক তাকে মৃত্যুদণ্ড প্রদান করেন। দীর্ঘ আইনি প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার পর রোববার রাতে কাশিমপুর কারাগারে এ রায় কার্যকর করা হয়।
চট্টগ্রাম মৎস্য বন্দরের কার্যক্রম ঢেলে সাজানো হবে: মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী
০১নভেম্বর,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দেশের উন্নয়নের স্বার্থে বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন করপোরেশনের আওতাধীন চট্টগ্রাম মৎস্য বন্দরের কার্যক্রম ঢেলে সাজানো হবে বলে জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম। রোববার (১ নভেম্বর) চট্টগ্রাম মৎস্য বন্দরের কার্যক্রম অবহিতকরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা জানান। চট্টগ্রাম মৎস্য বন্দরের প্রশাসনিক ভবনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন করপোরেশনের (বিএফডিসি) চেয়ারম্যান কাজী হাসান আহমেদের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ সচিব রওনক মাহমুদ। মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. তৌফিকুল আরিফ, বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ, বিএফডিসির পরিচালক রশিদ আহমদ, চট্টগ্রাম মৎস্য বন্দরের মহাব্যবস্থাপক কমান্ডার এম আর কে জাকারিয়াসহ চট্টগ্রাম মৎস্য বন্দরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন। এ সময় মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ, চিন্তা-চেতনা ও পরিকল্পনাকে ঘিরে চট্টগ্রাম মৎস্য বন্দর প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মৎস্য সেক্টরের উন্নয়নের জন্য সকল প্রকার সহযোগিতা করছেন। মৎস্য বন্দরের উন্নয়নে যা কিছু করা দরকার, সরকার সবকিছুই করবে। আমরা সবাইকে নিয়ে এগিয়ে যেতে চাই। চট্টগ্রাম মৎস্য বন্দরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, কর্ম সম্পাদনে সততা, নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার পরিচয় দিতে হবে। দায়িত্বে অবহেলা করা চলবে না। এ প্রতিষ্ঠানকে কীভাবে অর্থবহ করা যায়, সে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ দিন সকালে চট্টগ্রামের পাহাড়তলীতে প্রাণিসম্পদ অধিদফতরের আওতাধীন আঞ্চলিক হাঁস-মুরগী খামার পরিদর্শন করে খামারের উৎপাদন বাড়ানোর নির্দেশনা দেন মন্ত্রী। এরপর বাংলাদেশ ভেটেরিনারি ও অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ের পোল্ট্রি রিসার্চ অ্যান্ড ট্রেনিং সেন্টারে (পিআরটিসি) অ্যানিমেল ডিজিজ ডায়াগনস্টিক ল্যাব এবং ফিড অ্যানালাইসিস ও ফুড সেফটি ল্যাব পরিদর্শন করেন তিনি। পরে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যানাটমি মিউজিয়াম পরিদর্শন করেন তিনি। একই দিন দুপুরে মেরিন ফিশারিজ অ্যাকাডেমিতে নবনির্মিত অগ্রণী ব্যাংক ভবন উদ্বোধন করেন মন্ত্রী।

জাতীয় পাতার আরো খবর