বুধবার, আগস্ট ৪, ২০২১
রেডিও-আইপি টিভিকেও নিবন্ধন করতে হবে
৩১আগস্ট,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দৈনিক পত্রিকা, টেলিভিশন এবং রেডিওর অনলাইন ভার্সনের পাশাপাশি আইপি টিভির জন্য নিবন্ধন বাধ্যতামূলক করে জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা, ২০১৭ (সংশোধিত, ২০২০) এর খসড়ার অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে আজ সোমবার (৩১ আগস্ট) সকালে মন্ত্রিপরিষদের নিয়মিত বৈঠকে এই নীতিমালায় অনুমোদন দেয়া হয়। করোনা পরিস্থিতিতে অনলাইনে এই বৈঠকে গণভবন থেকে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী। বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব সাংবাদিকদের বলেন, আগের নীতিমালায় অনলাইন গণমাধ্যমের নিবন্ধন, মানোন্নয়নসহ ১৪টি ইস্যুতে সংশোধনী আনা হয়েছে। এছাড়াও বৈঠকে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ সংশোধিক আইনের খসড়ার চুড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়। অপরদিকে, মন্ত্রীসভায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকৌশল এবং প্রতিবছর ৫ আগস্ট শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের জন্মবার্ষিকী পালনের বিষয়েও অবহিত করা হয়।
স্বাস্থ্যবিধি অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট
৩১আগস্ট,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনাকালীন স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত বিধান অমান্যকারী ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনাসহ যথাযথ আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। সোমবার (৩১ আগস্ট) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে কোভিড-১৯-এর বর্তমান পরিস্থিতিতে জনসাধারণের সার্বিক কার্যাবলী/চলাচলের ক্ষেত্রে নিজ নিজ মন্ত্রণালয়/বিভাগ/কর্তৃপক্ষ কর্তৃক ব্যবস্থা গ্রহণ সংক্রান্ত চার দফা নির্দেশনা জারি করেছে। মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলোর সিনিয়র সচিব/সচিবদের এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।
গ্রিনম্যান অ্যাওয়ার্ড পেলেন ছয়জন
৩০আগস্ট,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: পরিবেশবাদী সামাজিক সংগঠন সবুজ আন্দোলনের- গ্রিনম্যান অ্যাওয়ার্ড-২০২০ পেয়েছেন ছয়জন। রোববার (৩০ আগস্ট) সংগঠন থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। এতে বলা হয়, জলবায়ু পরিবর্তন ও বায়ুদূষণ রোধে গবেষণায় স্ট্যামফোর্ড ইউনিভার্সিটির পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আহমেদ কামরুজ্জামান মজুমদার, বন সংরক্ষণ ও জনসচেতনতা তৈরিতে একাত্তর টেলিভিশনের সিনিয়র রিপোর্টার হোসেন সোহেল, বাংলাদেশ প্রতিদিনের স্টাফ রিপোর্টার জয়শ্রী ভাদুড়ী, নাগরিক টেলিভিশনের সিনিয়র রিপোর্টার ফারাহ হোসাইন, সময় টেলিভিশনের রিপোর্টার কেফায়েত উল্লাহ চৌধুরী (শাকিল) এবং হোমিওপ্যাথি গবেষণা ও সবুজায়নে ডা. মো. মাহতাব হোসাইন মাজেদ এ পুরস্কার পাচ্ছেন। মঙ্গলবার (১ সেপ্টেম্বর) সবুজ আন্দোলনের তৃতীয় বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে জাতীয় প্রেসক্লাবে বাসযোগ্য ঢাকা গড়তে আমাদের করণীয় শীর্ষক আলোচনা সভা, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানে তাদের হাতে এ পুরস্কার তুলে দেওয়া হবে।
সিনহা হত্যার দোষ স্বীকার করলেন লিয়াকত
৩০আগস্ট,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সাবেক মেজর সিনহা হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন মামলার প্রধান আসামি টেকনাফের বাহারছড়া পুলিশ ফাঁড়ির সাবেক ইনচার্জ লিয়াকত আলী। রোববার (৩০ আগস্ট) বেলা ১২টার দিকে কক্সবাজারের ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে বিচারকের খাস কামরায় তার এই স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়। এদিন তৃতীয় দফায় তিন দিনের রিমান্ডে থাকা অবস্থায় লিয়াকতকে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে আদালতে নেয়া হয়। এর আগে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন এপিবিএনের তিন সদস্য এসআই মো. শাহজাহান, কনস্টেবল মো. রাজীব ও মো. আব্দুল্লাহ। একই মামলায় টেকনাফ থানার বরখাস্ত হওয়া ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও এসআই নন্দদুলাল রক্ষিত রিমান্ডে আছেন। গত শুক্রবার (২৮ আগস্ট) তৃতীয় দফায় তাদের তিন দিনের রিমান্ডে নেয় মামলার তদন্তকারী সংস্থা Rab। গত ৩১ জুলাই ঈদের আগের রাতে টেকনাফের একটি পুলিশ চেকপোস্টে পরিচয় দেয়ার পরও মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদকে গুলি করে হত্যা করা হয়। ঘটনার পর বাদী হয়ে টেকনাফ থানায় দুটি ও রামু থানায় একটি মামলা করে পুলিশ। এদিকে গত ৫ আগস্ট কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হত্যা মামলা করেন সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খানের বড় বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস। এ মামলায় টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করলে আদালত টেকনাফ থানাকে মামলা গ্রহণের আদেশ দেন। মামলা হওয়ার আগেই থানা থেকে ওসি প্রদীপকে প্রত্যাহার করা হয়। এর পরদিন ওসিসহ ৭ আসামি আদালতে আত্মসমর্পণ করলে তাদের জামিন না মঞ্জুর হয়। এ হত্যা মামলায় গ্রেফতার সাত পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। বরখাস্ত হওয়া পুলিশ সদস্যরা হলেন ওসি প্রদীপ, সিনহাকে গুলি করা হত্যাকারী পুলিশের পরিদর্শক লিয়াকত আলী, উপ-পরিদর্শক নন্দ দুলাল রক্ষিত, সহকারী উপ-পরিদর্শক লিটন মিয়া এবং কনস্টেবল সাফানুর করিম, কামাল হোসেন ও আবদুল্লাহ আল মামুন।- somoynews.tv
১৫ আগস্ট আরেকটি কারবালার ঘটনা ঘটেছিল : শেখ হাসিনা
৩০আগস্ট,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ১৫ আগস্ট আরেকটি কারবালার ঘটনা ঘটেছিল। আজ রোববার সকালে জাতীয় শোক দিবসের এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ এ আলোচনার আয়োজন করে। প্রধানমন্ত্রীর সরকারী বাসভবন গণভবন থেকে তিনি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে যোগ দেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, কারবালায় যেভাবে নির্মম হত্যাকাণ্ড চালানো হয়েছিল তেমনি ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে যেন সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটেছিল। তিনি বলেন, কারবালার হত্যাকাণ্ডেও নারী শিশুদের হত্যা করা হয়নি কিন্তু ১৫ আগস্ট নারী শিশুরাও রক্ষা পায়নি। জাতির পিতার লক্ষ্য ছিল স্বাধীনতা অর্জন উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশকে এগিয়ে নিতে তিনি সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা করেছিলেন। কিন্তু তিনি বাস্তবায়ন করার সময় পাননি। তিনি ধাপে ধাপে দেশকে এগিয়ে নিয়েছিলেন। দেশ যখন অর্থনৈতিক উন্নয়নের পথে যাত্রা শুরু করেছিল, তখনই ১৫ আগস্টের ঘটনা ঘটানো হয়। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্য দিয়ে একটি সদ্য স্বাধীন রাষ্ট্র তার সম্ভাবনা হারিয়েছিল বলে মন্তব্য করেন সরকার প্রধান।
রাহাত খান একজন প্রগতিশীল সাংবাদিক ছিলেন: তথ্যমন্ত্রী
২৯আগস্ট,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: তথ্যমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপি বলেছেন, একুশে পদকপ্রাপ্ত সাংবাদিক রাহাত খান একজন প্রগতিশীল সাংবাদিক ছিলেন এবং সারাজীবন বঙ্গবন্ধুর পক্ষে লেখা-লেখি করেছেন। তিনি বলেন, তিনি (রাহাত খান) শুধু একজন কথা সাহিত্যিকই ছিলেন না, দেশবরেণ্য একজন সাংবাদিকও ছিলেন। দেশের সাংবাদিকতায় তার ব্যাপক অবদান ছিল। ড. হাছান মাহমুদ আজ সকালে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে প্রয়াত রাহাত খানের কফিনে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে এ কথা বলেন। এ সময় আওয়ামী লীগের সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল এমপিসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন। ড. হাছান মাহমুদ বলেন, করোনাভাইরাসের সংকটকালেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাংবাদিক সমাজের পাশে রয়েছেন। বরেণ্য সাংবাদিক যারা রয়েছেন তাদের যে কোন প্রয়োজনে সরকার পাশে থাকবে।
১ সেপ্টেম্বর থেকে আগের ভাড়ায় গণপরিবহন: ওবায়দুল কাদের
২৯আগস্ট,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে আগের বাড়ায় গণপরিবহন চলবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তবে এক্ষেত্রে আসনের অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন ও দাঁড়িয়ে যাত্রী নেওয়া যাবে না বলেও জানান তিনি। শনিবার (২৯ আগস্ট) ঢাকা জোনের বিআরটিএ ও বিআরটিসির কর্মকর্তাদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় সেতুমন্ত্রী এ কথা জানান। ওবায়দুল কাদের সংসদ ভবন এলাকায় তার সরকারি বাসভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ সভায় যুক্ত হন। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, সার্বিক পরিস্থিতি ও জনস্বার্থ বিবেচনা করে সরকার আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে গণপরিবহন আগের নির্ধারিত বাড়ায় ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। তবে এক্ষেত্রে কয়েকটি শর্ত সংশ্লিষ্টদের প্রতিপালন করতে হবে। গণপরিবহনের যাত্রী, চালক, সুপারভাইজার, চালকের সহকারী, টিকিট বিক্রয়কারীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে অবশ্যই মাস্ক পরিধান করতে হবে। হাত ধোয়ার জন্য পর্যাপ্ত সাবান পানি অথবা হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা রাখতে হবে। আসন সংখ্যার অতিরিক্ত কোনো যাত্রী পরিবহন করা যাবে না। অর্থাৎ যত সিট তত যাত্রী পরিবহন নীতি কার্যকর হবে। দাঁড়িয়ে যাত্রী পরিবহন করা যাবে না। প্রতিটি ট্রিপের শুরু ও শেষে যানবাহন জীবাণুমুক্ত করতে হবে। সেতুমন্ত্রী এসময় নিয়ম ও শর্ত মেনে পরিবহন চালানোর জন্য পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের আহ্বান জানান। পাশাপাশি যাত্রীসাধারণকেও মাস্ক পরিধানসহ নিজের সুরক্ষায় সচেতন থাকার আহ্বান জানান। ওবায়দুল কাদের নতুন সিদ্ধান্তের বিষয়টি বিজ্ঞপ্তি আকারে জানানোর পাশাপাশি আইন অমান্যকারী যানবাহনের বিরুদ্ধে নিয়মিত কার্যক্রম জোরদার করতে বিআরটিএকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেন। একইসঙ্গে তিনি হাইওয়ে পুলিশ, জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশসহ সংশ্লিষ্টদের এ বিষয়টি কঠোরভাবে প্রতিপালনের জন্য অনুরোধ করেন।
বঙ্গবন্ধুকে সব বিতর্কের ঊর্ধ্বে রাখতে হবে: নৌ-প্রতিমন্ত্রী
২৯আগস্ট,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ও দর্শনকে বাদ দিয়ে বাংলাদেশের কোনো অগ্রগতি হতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। তিনি বলেছেন, বঙ্গবন্ধুকে সক বিতর্কের ঊর্ধ্বে রাখতে হবে। ইতিহাসকে বাদ দিয়ে পথ চলা যায় না। গতকাল বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি আয়োজিত বঙ্গবন্ধু ও গণমাধ্যম শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। নৌ-প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কোনো বিতর্ক করার প্রয়োজন নেই। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে তখনই বিতর্ক হয়, যখন বঙ্গবন্ধু হত্যাকারীদের লালন-পালন করা হয়। বিতর্ক তখনই হয়, যখন এ খুনিদের পুনর্বাসন করা হয়, যখন আমাদের মুক্তিযুদ্ধকে প্রশ্নবিদ্ধ করা হয়। এ বিতর্ক থেকে যতদিন আমরা বেরিয়ে আসতে পারব না; ততদিনই আমাদের সংগ্রাম অব্যাহত থাকবে। আমরা চাই, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর যেই স্বপ্ন, ৩০ লাখ শহীদদের যেই স্বপ্ন, সেই স্বপ্ন এখানে বাস্তবায়ন হবে। রাজাকার, আলবদর, আলশামসদের স্বপ্ন, এ বাংলাদেশে বাস্তবায়ন হতে পারে না। বঙ্গবন্ধুর প্রতি এটাই আমাদের ওয়াদা থাকবে। তিনি বলেন, পৃথিবীর ইতিহাসে বঙ্গবন্ধু একমাত্র নেতা, যিনি একটি রাজনৈতিক দল সৃষ্টি করেছেন। সেই রাজনৈতিক দলকে জনগণের দ্বারে দ্বারে নিয়ে গেছেন। তাদের একই প্লাটফর্মে এনে ঐক্যবদ্ধ করেছেন। স্বাধীনতার ডাক দিয়েছেন। এবং সেই দলের নেতৃত্বেই মুক্তিযুদ্ধ সংঘটিত হয়েছে, দেশ স্বাধীন হয়েছে। তার নাম বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। এটা পৃথিবীর ইতিহাসে দ্বিতীয়টি নেই। খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, পাকিস্তানের কায়েদে আজম কিন্তু মুসলিম লীগ সৃষ্টি করেননি। তিনি মুসলিম লীগে যোগদান করেছেন। মহাত্মা গান্ধী কিন্তু কংগ্রেস প্রতিষ্ঠা করেননি। তিনি কংগ্রেসে যোগদান করেছেন। বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সৃষ্টির সঙ্গে ছিলেন। এবং সেই আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে তিনি বাংলাদেশ সৃষ্টি করেছেন। বাকশালকে ঘিরে যারা বঙ্গবন্ধু হত্যাকে জায়েজ করার চেষ্টা করে, তাদের সমালোচনা করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাকশালকে একটি নেগেটিভ জায়গায় ফেলে দিয়ে বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে যে কথাগুলো বলা হয়, যেগুলো কখনই গ্রহণযোগ্য নয়। খালিদ মাহমুদ বলেন, উপজেলা পরিষদ সিস্টেম, জেলা পরিষদের বিকেন্দ্রীকরণ বাকশালের কর্মসূচির অংশ। আজকের যে সবুজ বিপ্লব ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের কথা বলা হয়, আজকে সেই বাকশালকেই কিন্তু ধারণ করতে হচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে গণমাধ্যম কর্মীদের সুসম্পর্কের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, সাংবাদিকরা বঙ্গবন্ধুর চিন্তাচেতনা আগলে রাখতেন। আজকে আমাদের দায়িত্ব বাংলাদেশকে আগলে রাখার। গণমাধ্যম এ দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হলে বাংলাদেশের অনেক বড় ধরনের ক্ষতি হতে পারে। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ একমাত্র দেশ যেখানে মুক্তিযুদ্ধের সময়ও এখানকার মানুষ বিরোধিতা করেছে। নিজ দেশের স্বাধীনতাযুদ্ধে দেশের মানুষের বিরোধিতা করার ঘটনা দ্বিতীয়টি আমার জানা নেই। সেই অংশটি এখনো বাংলাদেশের বিরোধিতা করছে। তারা বিভিন্নভাবে বঙ্গবন্ধুকে খাটো করার চেষ্টা করে। ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি রফিকুল ইসলাম আজাদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ চৌধুরীর সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, বাংলাদেশ জার্নালের সম্পাদক শাহজাহান সরদার, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ, ডিআরইউর সাবেক সভাপতি সাইফুল ইসলাম প্রমুখ।
তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে সচিবালয়ে সাক্ষাৎ করেছেন চসিক প্রশাসক সুজন
২৮আগস্ট,শুক্রবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: তথ্যমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদের সঙ্গে সচিবালয়ে সাক্ষাৎ করে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন পরিচালনায় সহযোগিতা চেয়েছেন (চসিক) প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন। সুজন চসিকের বর্তমান পরিস্থিতি, উন্নয়ন এবং স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়গুলো মন্ত্রীকে অবহিত করেন। চট্টগ্রামের অবকাঠামোগত উন্নয়ন, রাস্তাঘাট সংস্কার, জলাবদ্ধতা নিরসনসহ বিভিন্ন প্রকল্পে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সহযোগিতার হাত প্রসারিত করার জন্য মন্ত্রীকে অনুরোধ জানান। চট্টগ্রামের জনগণের বিনোদন, সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড ছাড়াও নতুন নতুন প্রকল্প গ্রহণেও মন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা করেন চসিক প্রশাসক। সর্বোপরি চসিকের আর্থিক সক্ষমতা বৃদ্ধির বিষয়টিও তিনি উত্থাপন করেন। তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, চট্টগ্রাম বাংলাদেশের অর্থনৈতিক হৃদপিণ্ড। চট্টগ্রামের উন্নয়ন মানেই বাংলাদেশের উন্নয়ন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রামের গুরুত্ব বিবেচনা করে চট্টগ্রামের মেগা প্রকল্পগুলোতে প্রয়োজনীয় অর্থের জোগান দিয়ে যাচ্ছে। চট্টগ্রামের উন্নয়নসহ বিভিন্ন স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়ে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতার আশ্বাস দেন তথ্যমন্ত্রী। চসিক প্রশাসক সুজন সুবিধাজনক সময়ে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে আসার আমন্ত্রণ জানান তথ্যমন্ত্রীকে।- আজাদী অনলাইন

জাতীয় পাতার আরো খবর