প্রধানমন্ত্রীর ফেলোশিপ পাবেন ৫৫ জন
৩১জুলাই ২০২১, নিজেস্ব সংবাদদাতা, নিউজ একাত্তর : এসডিজি অর্জনের জন্য জনপ্রশাসনের সক্ষমতা জোরদারকরণ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ২০২১-২২ অর্থবছরের প্রথম পর্যায়ে বিভিন্ন খাতের মোট ৫৫ জন বিদ্বান ব্যক্তি প্রধানমন্ত্রীর ফেলোশিপ পাবেন। বৃহস্পতিবার জারি করা এক গেজেটে বলা হয়েছে, বিশ্বব্যাপী শীর্ষস্থানীয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অধ্যয়নরত মাস্টার্স কোর্সের ৪০ জন এবং পিএইচডি কোর্সের ১৫ জন প্রার্থী এই বৃত্তি পাবেন। এই বৃত্তি পেতে প্রতিটি আবেদনকারীকে প্রথমে তাদের নিজস্ব সক্ষমতা অনুসারে বিশ্বের ১০০টি শীর্ষস্থানীয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে একটিতে ভর্তি হতে হবে। ভর্তি নিশ্চিত হয়ে গেলে, তবেই কেউ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের গভর্নেন্স ইনোভেশন ইউনিটের (জিআইইউ) অধীনে বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারেন। এদিকে, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্লাবাতনিক স্কুল অফ গভর্নমেন্টে মাস্টার অফ পাবলিক পলিসি (এমপিপি) অধ্যয়নের জন্য প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার শাহ আলী ফরহাদকে ‘প্রধানমন্ত্রীর ফেলোশিপ’ প্রদান করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার তিনি বলেন, আমাকে ফেলোশিপ প্রদানের জন্য আমি জিআইইউ-র কাছে কৃতজ্ঞ। তিনি আরও বলেন, অক্সফোর্ডে পড়াশোনা করার সুযোগ তার আজীবনের স্বপ্ন পূরণ। ব্যারিস্টার ফরহাদ তার নেতা ও অনুপ্রেরণা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, গত আড়াই বছর ধরে তাঁর সেবা করা সুযোগ লাভ আমার পরম সৌভাগ্যের বিষয়। ফরহাদ আরও বলেন, তিনি তার পথপ্রদর্শক এবং পরামর্শদাতা সজীব ওয়াজেদ জয় এবং রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিকের কাছে চিরকৃতজ্ঞ যারা আমাকে সর্বদা ক্রমাগত উন্নতি করতে এবং আমার সেরা সংস্করণ হতে উৎসাহিত করেছেন। ২০১৯ সালের ২৩ জানুয়ারি তিনি প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী হিসেবে নিযুক্ত হন। এই নিয়োগের আগে তিনি সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই) এর সঙ্গে বিভিন্ন গবেষণা ও বিশ্লেষণের কাজ করেছেন। ২০১৫ সালে তাকে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সহকারী সম্পাদক করা হয় এবং এরপর তিনি আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপ-কমিটি ও প্রচার বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি হংকং বিশ্ববিদ্যালয় (সম্পূর্ণ বৃত্তি প্রাপ্ত) থেকে এলএলএম (মানবাধিকার) এবং লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এলএলবি সম্পন্ন করেন।
১ আগস্ট থেকে খুলছে গার্মেন্টসসহ শিল্প-কারখানা
৩০ জুলাই ২০২১, নিজেস্ব সংবাদদাতা, নিউজ একাত্তর : আগামী ১ আগস্ট (রোববার) থেকে গার্মেন্টসসহ রপ্তানিমুখী শিল্প-কারখানা স্বাস্থ্যবিধি মেনে খোলা থাকবে বলে জানিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। শুক্রবার (৩০ জুলাই) বিকেলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের উপ-সচিব মো. রেজাউল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে চলমান বিধি-নিষেধের মধ্যে আগামী ১ আগস্ট থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে রপ্তানিমুখী সকল শিল্প ও কল-কারখানা খোলা থাকবে। এর আগে বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলামের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে দ্রুত দেশের রপ্তানিখাতসহ সব উৎপাদনমুখী শিল্প-কারখানা খুলে দেওয়ার দাবি জানায় ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ড্রাস্ট্রিজ (এফবিসিসিআই)। উল্লেখ্য, করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে গত ২৩ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট পর্যন্ত ১৪ দিনের জন্য কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে সরকার। এই বিধি নিষেধের মধ্যে মানুষের চলাচল নিয়ন্ত্রণসহ যানবাহন, দোকানপাট, শপিংমল এবং গার্মেন্টস ও শিল্প কারখানা বন্ধ রাখার ঘোষণা দেওয়া হয়। তবে ঈদের পর থেকেই শিল্প-কারখানা খোলার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানিয়ে আসছিলেন শিল্প-কারখানার মালিকরা। ওই দাবির পরিপ্রেক্ষিতে আজ গার্মেন্টসসহ রপ্তানিমুখী শিল্প-কারখানা স্বাস্থ্যবিধি মেনে খোলার সিদ্ধান্ত নেয় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।
বিধি-নিষেধের সময়সীমা আবারো বাড়ানোর পরামর্শ
৩০ জুলাই ২০২১, নিজেস্ব সংবাদদাতা, ঢাকা, নিউজ একাত্তর ঃআবারও দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে চলমান বিধি-নিষেধের সময়সীমা আবারো বাড়ানোর পরামর্শ দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। বিধি-নিষেধের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে জানতে চাইলে শুক্রবার সকালে অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক আবুল বাশার খুরশীদ আলম এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, সম্প্রতি ক্যাবিনেটে করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে করণীয় কী, এ বিষয়ে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এই বৈঠকেই তো আমরা চলমান লকডাউন বাড়ানোর সুপারিশ করেছিলাম। তবে এ বিষয়ে এখনো সরকার সিদ্ধান্ত নেয়নি। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে কোরবানি ঈদের পর ২৩ জুলাই সকাল ৬টা থেকে শুরু হয় বিধি-নিষেধের। কঠোর এ বিধিনিষেধ চলবে ৫ আগস্ট পর্যন্ত। ঈদের সময়টা বাদে চলতি মাসে চলা বিধি নিষেধে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কারও বাড়ির বাইরে আসা বারণ। রিকশা ছাড়া বন্ধ সব ধরনের গণপরিবহন। মানুষের অযাচিত চলাচল ঠেকাতে বসানো হয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। সড়কে পড়তে হচ্ছে পুলিশি তল্লাশির মুখে। লকডাউন ও স্বাস্থ্যবিধি মানাতে মাঠে আছে বিজিবি ও সেনাবাহিনী। নিউজ একাত্তর / ভুঁইয়া
বিচার বিভাগে করোনা-আ'ক্রান্ত ৯৬৫ জন বিচারক
২৯ জুলাই ২০২১, অনলাইন ডেস্ক, নিউজ একাত্তর ঃপ্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর থেকে দেশে এখন পর্যন্ত অধস্তন আদালতের মোট ৩২৫ জন বিচারক এবং ৬৪০ জন সহায়ক কর্মচারী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এই মুহূর্তে সারাদেশের অধস্তন আদালতের ৫৯ জন বিচারক করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) সুপ্রিম কোর্টের মুখপাত্র মুহাম্মদ সাইফুর রহমান এ তথ্য জানিয়েছেন।সূত্র -আরটিভি। তিনি জানান, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত সারাদেশের অধস্তন আদালতের মোট ৩২৫ জন বিচারক এবং ৬৪০ জন সহায়ক কর্মচারী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। করোনা আক্রান্ত বিচারকদের মধ্যে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ২৬৪ জন। দুই জন বিচারক কর্মরত অবস্থায় ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। করোনা আক্রান্ত সহায়ক কর্মচারীদের মধ্যে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৪৮৯ জন এবং ৮ জন মারা গেছেন। সাইফুর রহমান বলেন, এই মুহূর্তে অধস্তন আদালতের ৫৯ জন বিচারক এবং ১৪৩ জন সহায়ক কর্মচারী করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। নিউজ একাত্তর / আলী হোসেন
পিকেএসএফের নতুন এমডি নমিতা হালদার
২৯জুলাই ২০২১, নিজস্ব সংবাদদাতা, নিউজ একাত্তর : সরকার কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত শীর্ষ আর্থিক প্রতিষ্ঠান পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ) এর ১১তম ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) হিসেবে মনোনয়ন পেয়েছেন ড. নমিতা হালদার। বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস বিসিএস ১৯৮৫ (৭ম) ব্যাচের প্রশাসন কাডারের কর্মকর্তা ড. নমিতা হালদার এনডিসি প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিব ছিলেন। বাগেরহাট জেলার মোংলা উপজেলার বাসিন্দা ড. নমিতা হালদার বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কৃষি বিষয়ে অনার্স ও মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন। ১৯৮৮ সালে বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারে যোগদান করে তিনি মাঠ পর্যায়ে জামালপুর জেলা প্রশাসনে সহকারী কমিশনার ও ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এরপর সিনিয়র সহকারী কমিশনার, রাজস্ব (আরডিসি) হিসেবে তিনি গাজীপুর জেলা প্রশাসনে কাজ করেন। মাঠপ্রশাসনে অতিবাহিত দীর্ঘ কর্মজীবনে তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এবং অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবেও কাজ করেন। তিনি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের উপসচিব ও যুগ্ম সচিব হিসেবে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় এবং শিল্প মন্ত্রণালয়ে তার ওপর অর্পিত দায়িত্ব সুচারুভাবে ও সফলতার সাথে পালন করেন। তিনি পরবর্তীতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পরিচালক পদে এবং প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ে যোগদানের পূর্বে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একান্ত সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ড. নমিতা হালদার এশিয়ান ডিভেল্যাপম্যান্ট ব্যাংক (এডিবি)-এর বৃত্তি নিয়ে অস্ট্রেলিয়ান ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি (এএনইউ), ক্যানবেরা থেকে ডেভেলপম্যান্ট অ্যাডমিনিস্ট্রেশন-এ ডিস্টিংকশনসহ মাস্টার্স ডিগ্রি সম্পন্ন করেন। ২০০৩ সালে তিনি নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের ইউনিভার্সিটি অব ক্যান্টারবেরি প্যালিটিক্যাল সায়েন্স-এ পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। ২০১৭ সালের ২৩ জুলাই তাকে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়। ২০১৮ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি পদোন্নতি পেয়ে একই মন্ত্রণালয়ে সচিব হিসেবে যোগদান করেন। এদিকে, সাবেক সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহ ১ জুলাই ২০১৯ তারিখ থেকে তিন বছরের জন্য পিকেএসএফর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ছিলেন। তিনি চলতি মাসেই দুদকের নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব নিলে পিকেএসেফ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালকের পদটি খালি হয়। প্রসঙ্গত, পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) পরিচালক চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ। নিউজ একাত্তর / আলী হোসেন
ফিরোজা আর্কাইভ নজরুল সঙ্গীত চর্চায় আগামী প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করবে : স্পিকার
২৯জুলাই ২০২১, নিজস্ব সংবাদদাতা, নিউজ একাত্তর : স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, ফিরোজা বেগম আর্কাইভ নজরুল সঙ্গীত চর্চায় আগামী প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করবে। তিনি বলেন, এই আর্কাইভের মধ্য দিয়ে শিল্পী ফিরোজা বেগম সবাই’র মাঝে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন। তাঁর গানের মধ্য দিয়ে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামকেও সকলে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ রাখবে। তাই, এসিআই ফাউন্ডেশনের শিল্পী ফিরোজা বেগম আর্কাইভ ওয়েবসাইট প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ প্রকৃতপক্ষেই সৃষ্টিশীল ও সুদূরপ্রসারী। ড.শিরীন শারমিন চৌধুরী বুধবার রাতে এসিআই ফাউন্ডেশন আয়োজিত ফিরোজা বেগম আর্কাইভ ওয়েবসাইটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুযালি যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন। পরে তিনি ওয়েবসাইটের উদ্বোধন ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, সাত দশকেরও বেশি সময় শিল্পী ফিরোজা বেগম সঙ্গীত অনুরাগী শ্রোতাদের কাছে নজরুল সঙ্গীতের সুরের মূর্ছনা ও মাধুর্য পৌঁছে দিয়েছেন। তাঁর আটাশি বছরের জীবনের বেশিরভাগ সময় ছিল নজরুল সঙ্গীত চর্চা ও সাধনার অধ্যায়। নজরুল সঙ্গীতের শুদ্ধ স্বরলিপি ও সুর সংরক্ষণের জন্য তিনি বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, সারা বিশ্বে নজরুল সঙ্গীত প্রচারের মাধ্যমে শিল্পী ফিরোজা বেগম সমাদৃত হয়েছেন এবং দেশের জন্য এনেছেন বিরল সম্মান ও গৌরব। অত্যন্ত অল্প বয়সেই ফিরোজা বেগম কবি নজরুলের সান্নিধ্যে এসেছিলেন এবং কবি নজরুল তাঁর কন্ঠে মুগ্ধ হয়েছিলেন। এরই ধাপে ধাপে শিল্পী ফিরোজা বেগম এগিয়ে যান। তিনি বলেন, ফিরোজা বেগম আর্কাইভ-ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে বর্তমান ও আগামী প্রজন্মের শিল্পীরা কবি কাজী নজরুল ইসলামের অনবদ্য সৃষ্টি সম্পর্কে গভীরভাবে জানতে পারবে। নজরুল সঙ্গীত নিয়ে গবেষণার ক্ষেত্রে এই আর্কাইভ অনন্য উৎস হয়ে কাজ করবে। এসিআই ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান এম আনিস উদ-দৌলার সভাপতিত্বে ও সাদিয়া আফরিন মল্লিকের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে আসাদুজ্জামান নূর এমপি এবং দৈনিক প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে মুস্তাফা জামান আব্বাসী, অনুপ ঘোষাল, মোস্তফা মনোয়ার, শাফিন আহমেদ, ফেরদৌসী রহমান, কল্যাণ কাজী, মো. আসাফ উদ-দৌলা বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে এসিআই ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সুস্মিতা আনিস ভোট অফ থ্যাংকস প্রদান করেন। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ভার্চুয়ালি যুক্ত ছিলেন। নিউজ একাত্তর / আলী হোসেন
প্রধানমন্ত্রীর সাবেক মূখ্য সচিব ড. এস এ সামাদের মৃত্যুতে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রীর শোক
২৯জুলাই ২০২১, নিজস্ব সংবাদদাতা, নিউজ একাত্তর : আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বঙ্গবন্ধুর একান্ত সচিব ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাবেক মুখ্য সচিব এবং বিনিয়োগ বোর্ডের নির্বাহী চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. সৈয়দ আব্দুস সামাদের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছন। আজ এক শোক বার্তায় ড. হাছান মাহমুদ মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। তথ্যমন্ত্রী বলেন, কর্তব্যে অটল ড. সৈয়দ আব্দুস সামাদ রাষ্ট্রের কর্মকর্তা হিসেবে সততা, প্রজ্ঞা, দক্ষতা ও সাহসিকতার এক অনন্য উদাহরণ হিসেবে স্মরণীয় হয়ে থাকবেন। উল্লেখ্য, বাংলাদেশ সরকারের সাবেক জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রনালয়ের সচিব ড. এস এ সামাদের মুক্তিযুদ্ধে অবদানের কথা এ দেশের মানুষ আজীবন স্মরণ রাখবে। নিউজ একাত্তর / আলী হোসেন
বিদেশ ফেরত কর্মীদের কর্মসৃজনে ৪২৭ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন
২৮ জুলাই ২০২১, নিজস্ব সংবাদদাতা, নিউজ একাত্তর : কোভিড-১৯ মহামারির প্রভাবে দেশে ফেরত অভিবাসী কর্মীদের কর্মসংস্থানের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এ লক্ষ্যে অনানুষ্ঠানিকখাতে কর্মসংস্থান তৈরিতে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) ৪২৭ কোটি ৩০ লাখ টাকা ব্যয়ে একটি প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে। বুধবার রাজধানীর শেরেবাংলানগর এনইসি সভাকক্ষে একনেক চেয়ারপার্সন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের প্রথম একনেক সভায় এই প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে সভায় ভার্চুয়ালি যুক্ত হন। সভা শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, একনেকে ২ হাজার ৫৭৫ কোটি ৪২ লাখ টাকা ব্যয়ে মোট ১০টি প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে ব্যয় হবে ২ হাজার ১৫০ কোটি ৪২ লাখ টাকা এবং ৪২৫ কোটি টাকা প্রকল্প সাহায্য হিসেবে বৈদেশিক সহায়তা পাওয়া যাবে। অনুমোদিত ১০ প্রকল্পের মধ্যে সাতটি নতুন প্রকল্প এবং তিনটি সংশোধিত প্রকল্প। এম এ মান্নান বলেন, ৪২৭ কোটি ৩০ লাখ টাকা ব্যয়ে প্রত্যাগত অভিবাসী কর্মীদের পুন:একত্রীকরণের লক্ষ্যে অনানুষ্ঠানিক খাতে কর্মসংস্থান সৃজনে সহায়ক শীর্ষক যে প্রকল্প নেয়া হয়েছে, এর আওতায় কোভিডের কারণে বিদেশ ফেরত ২ লাখ কর্মীর প্রত্যেককে ১৩ হাজার ৫০০ টাকা নগদ সহায়তা প্রদান করা হবে। প্রকল্প ব্যয়ের ৪২৫ কোটি টাকা বিশ্বব্যাংক ঋণ সহায়তা দেবে বলে তিনি জানান। তিনি আরও বলেন, নানা কারণে অভিবাসী কর্মীরা দেশে ফিরে এসেছেন। অভিবাসন দেশের উন্নয়নে দীর্ঘ সময় তারা কাজ করেছেন। তিনি বলেন, এখন সময় এসেছে এসব দক্ষ কর্মীদের দেশের জন্য কাজে লাগানোর। পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম জানান, কোভিডের প্রভাবে প্রায় ৫ লাখ প্রবাসী কর্মী দেশে ফেরত এসেছেন। এর মধ্যে ২ লাখ শ্রমিককে এই প্রকল্পের আওতায় সহায়তা দেয়া হবে। তিনি আরও জানান, কোভিডের কারণে যেসব অভিবাসীরা দেশে ফেরত এসেছেন, প্রকল্পের আওতায় সেই প্রত্যাগত কর্মীদের তথ্যসমৃদ্ধ ডাটাবেইজ তৈরি করা হবে। ব্রিফিংয়ে পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য শরীফা খান বলেন, প্রথম পর্যায়ে ২ লাখ শ্রমিককে সহায়ত প্রদান করা হবে। তবে পরবর্তীতে এর সংখ্যা আরও বাড়ানো হবে বলে তিনি জানান। তিনি বলেন, প্রত্যেক কর্মীকে ১৩ হাজার ৫০০ টাকা করে যেটা দেয়া হবে, এতে শ্রমিকদের প্রাথমিক খরচ মেটানোর পাশাপাশি উৎপাদনশীল কার্যক্রম শুরু করার প্রয়োজনীয় সনদ পেতে সহায়ক হবে। এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান, হষরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের হেল্প ডেস্ক থেকে ৪ লাখ ৮০ হাজার প্রবাসী শ্রমিক দেশে ফেরত আসার তথ্য পাওয়া গেছে। প্রকল্পের আওতায় কোভিডের প্রভাবে বিদেশ ফেরত কর্মীদের মধ্যে থেকে বিভিন্ন কাজে দক্ষ ২৩ হাজার ৫০০ কর্মীকে বাছাই করা হবে। এরপর স্বীকৃত প্রতিষ্ঠানের সনদের ব্যবস্থা করে দেশে-বিদেশে চাকুরির পেতে সহযোগিতা প্রদানের পাশাপাশি অর্থনৈতিকভাবে পুনর্বাসনের লক্ষ্যে কর্মীদের আর্থিক, কারিগরি ও অন্যান্য সুবিধা প্রদানকারি প্রতিষ্ঠানের সাথে সংযোগ স্থাপন ও ঋণ পেতে সহযোগিতা দেয়া হবে। একইসাথে কর্মসংস্থান তৈরির লক্ষ্যে বিভিন্ন উৎপাদনশীল কার্যক্রম ও ছোট ব্যবসায় উদ্যোগের সাথে সম্পৃক্ত করারও পরিকল্পনা রয়েছে। ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড জানুয়ারি ২০২১ হতে ডিসেম্বর ২০২৩ মেয়াদে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে। মোট ৫৬৮ কোটি ৯৩ লাখ টাকা ব্যয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম জাতীয় মহাসড়কে ৩টি আন্ডারপাস এবং পদুয়ার বাজার ইন্টারসেকশনে ইউলুপ নির্মাণ প্রকল্প অনুমোদনের ব্যাপারে পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, সভায় প্রধানমন্ত্রী সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন যে, জনসাধারণ ও যানবাহনের নিরাপদ এবং নির্বিঘে চলাচল নিশ্চিত করতে নতুন সড়কে আন্ডারপাস, ওভারপাস ও ইউলুপ যথাযথভাবে নির্মাণ করতে হবে। মোট ১৪৬ কোটি ৮৭ লাখ টাকা ব্যয়ে অস্ট্রেলিয়ার ক্যানবেরায় বাংলাদেশ চ্যান্সারি ভবন নির্মাণ প্রকল্পের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী সেদেশের সব ধরনের নিয়ম মেনে এটি বাস্তবায়নের নির্দেশ দিয়েছেন। সভায় তিনি স্মরণ করেন যে, স্বাধীনতার পর ওইসিডিভূক্ত দেশের মধ্যে অস্ট্রেলিয়া প্রথম বাংলাদেশকে স্বীকৃতি প্রদান করে। ৩১ কোটি ৮২ লাখ টাকার ব্যয় বৃদ্ধি করে জেলাভিত্তিক মহিলা কম্পিউটার প্রশিক্ষণ প্রকল্পের ৩য় সংশোধনী অনুমোদন দেয়া হয়েছে। শেখ হাসিনা প্রকল্পের আওতায় কম্পিটার প্রশিক্ষণ পরিচালনা কার্যক্রম রাজস্ব বাজেটের আওতায় আনার নির্দেশ দেন। তিনি বলেন, এর ফলে অনেক বেশি সংখ্যক মহিলাকে প্রশিক্ষণ দেয়া যাবে। একনেক ৯৮ কোটি ৬১ লাখ টাকা ব্যয়ে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশনের বিসিক খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্পনগরী, ঠাকুরগাঁও প্রকল্প অনুমোদন করেছে। প্রধানমন্ত্রী এই শিল্পনগরীতে দুগ্ধ প্রক্রিয়াকরণ ইউনিট স্থাপনের পরামর্শ দেন। একনেকে অনুমোদিত অন্য প্রকল্পসমূহ হলো-৪৪৬ কোটি ১১ লাখ টাকা ব্যয়ে পদ্মা বহুমুখী সেতুর ভাটিতে মুন্সীগঞ্জ জেলার লৌহজং ও টঙ্গিবাড়ী উপজেলাধীন বিভিন্ন স্থানে পদ্মা নদীর বাম তীর সংরক্ষণ প্রকল্প, ৪৯৮ কোটি ৩০ লাখ টাকা বৃদ্ধি করে দেশের দক্ষিণাঞ্চলে আয়রণ ব্রীজ পুন:নির্মাণ/পুনর্বাসন (১ম সংশোধিত) প্রকল্প, ৭২ কোটি ৯ লাখ টাকা ব্যয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে পূর্ণাঙ্গ শিশু কার্ডিওলজি ও শিশু কার্ডিয়াক সার্জারি ইউনিট স্থাপন প্রকল্প, ১৭৩ কোটি ৮০ লাখ টাকা ব্যয়ে ইনস্টিটিউট অব টিস্যু ব্যাংকিং এন্ড বায়োমেটেরিয়াল রিসার্চ -এর সেবা ও গবেষণা সুবিধাদির আধুনিকায়ন ও সম্প্রসারণ প্রকল্প এবং ১১২ কোটি টাকা ব্যয় বৃদ্ধি করে জেলা মহাসড়ক যথাযথ মান ও প্রশস্ততায় উন্নীতকরণ (ময়মনসিংহ জোন) প্রকল্পের ১ম সংশোধিত অনুমোদন দেয়া হয়। নিউজ একাত্তর / ভুঁইয়া
কর্ণফুলী পেপার মিল পরিদর্শন করেছেন বিসিআইসি পরিচালক
২৮ জুলাই ২০২১, নিজস্ব সংবাদদাতা, নিউজ একাত্তর : জেলার কাপ্তাইয়ে রাষ্ট্রায়াত্ব কর্ণফুলী পেপার মিলস (কেপিএম) পরিদর্শন করেছেন বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ কর্পোরেশন'র (বিসিআইসি) পরিচালক (উৎপাদন ও গবেষণা) মো. শাহীন কামাল। বুধবার সকাল সাড়ে ১১ টায় তিনি কর্ণফুলী পেপার মিলস পরিদর্শনে আসলে তাকে শুভেচ্ছা জানান, মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী বিদ্যুৎ কুমার বিশ্বাস। এসময় বিসিআইসি পরিচালক মো. শাহীন কামাল কর্ণফুলী পেপার মিলস পরিদর্শনের পাশাপাশি মিলের সার্বিক উন্নয়নে মিলের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করেন। নিউজ একাত্তর / ভুঁইয়া

জাতীয় পাতার আরো খবর