বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২১, ২০১৯
প্রকাশ : 2019-09-27

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ওয়াশ কার্যক্রমের স্থায়ীত্বকরণ বিষয়ক আলোচনা সভা

২৭সেপ্টেম্বর,শুক্রবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, নতুন প্রজন্মের ছেলে মেয়েরা আমাদের দেশের সম্পদ। তাদের সঠিকভাবে পরিচালনার মধ্য দিয়ে আলোকিত ও সুন্দর মনের মানুষ হিসেবে গড়ে তোলা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। তিনি বলেন, সরকারি-বেসরকারি সংস্থা সমূহের যৌথ উন্নয়ন কার্যক্রমের মধ্য দিয়ে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। ডিএসকে ও ওয়াটার এইড ওয়াশ ফর আরবান পুওর প্রকল্পের মাধ্যমে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন এলাকায় বর্তমান সরকারের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহে পানি, পয়:নিস্কাশন ও স্বাস্থ্যাভ্যাস উন্নয়নের লক্ষ্যে যে কার্যক্রম পরিচালনা করছেন তা স্থায়িত্বকরণের জন্য চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক সহযোগিতা প্রদান করা হবে। তিনি বলেন, চট্টগ্রামের যে সকল স্কুলে পানিসুবিধা নাই কিংবা পানি সরবরাহ করা কঠিন সেখানে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন এবং চট্টগ্রাম ওয়াসার সাথে সমন্বয়ের মাধ্যমে নিরবিচ্ছিন্ন পানি সুবিধা সরবরাহ করতে হবে। মোটিভেশন একটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এই বিষয়ে স্কুলে প্রধান শিক্ষকদের আন্তরিকতা এবং শ্রেণি কক্ষের শিক্ষকরা পাঠদানের পূর্বে পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা, পরিবেশ ইত্যাদি বিষয়ে শিক্ষার্থীদের কিছু সময় জ্ঞানদান করলে শিক্ষার্থীরা উপকৃত ও সচেতন হবে। গত বুধবার টাইগারপাস চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সম্মেলন কক্ষে ডিএসকে ও ওয়াটার এইড এর উদ্যোগে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ওয়াশ কার্যক্রমের স্থায়ীত্বকরণ বিষয়ক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র একথা বলেন। ডিএসকের যুগ্ম পরিচালক এমএ হাকিমের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন চসিক প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়ুয়া, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা চট্টগ্রাম অঞ্চলের আঞ্চলিক পরিচালক হোসনে আরা বেগম, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. জালাল উদ্দিন চৌধুরী, জেলা শিক্ষা অফিসার মো. জসিম উদ্দিন ও ওয়াটার এইড বাংলাদেশের হেড অব প্রোগ্রাম আফতাব ওপেল। কদম মোবারক স্কুলের প্রধান শিক্ষক এম এ জহুর, টাইগারপাস বহুমুখি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মোজ্জামেল হক এবং মুহাম্মদ নগর এইচ কে সি উচ্চ বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপা কমিটির সভপতি ডা.আবদুল মতিন। এছাড়াও সভায় মেয়রের একান্ত সচিব মো. আবুল হাশেম, থানা শিক্ষা অফিসারবৃন্দ, বিভিন্ন স্কুলের প্রধান শিক্ষকবৃন্দ ও ডিএসকের প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন। সভায় বক্তরা বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ওয়াশ কার্যক্রম পরিচালনার জন্য সকলের উপযোগি স্থাপনা নির্মাণ, স্বাস্থ্যাভ্যাসের ইতিবাচক পরিবর্তন, স্থাপনা রক্ষনা-বেক্ষণ সকলের সর্বোচ্চ দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে। তারা স্বাস্থ্যাভ্যাসে সচেতনতা বৃদ্ধি, স্থায়ীত্বশীল ওয়াশ উন্নয়ন এবং ওয়াশ স্থাপনার রক্ষনা-বেক্ষণের পরিবেশ সৃষ্ঠিকরার জন্য সরকারী-বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহন করার আহবান জানান। সভার শুরুতেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ওয়াশকার্যক্রম পরিচালনায় ওয়াটার এইড বাংলাদেশ কার্যক্রম এবং স্থাপনা কাজের স্থায়ীত্বকরণ বিষয়ক এক পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করা হয়।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর