রবিবার, আগস্ট ১৮, ২০১৯
প্রকাশ : 2019-08-07

প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটিতে ডেঙ্গু প্রতিরোধ কর্মসূচি

০৭আগস্ট,বুধবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: নগরীর জিইসি মোড়স্থ প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি প্রাঙ্গণে ইউনিভার্সিটির উদ্যোগে ডেঙ্গু প্রতিরোধ কর্মসূচি গত ৫ আগস্ট পালিত হয়েছে । কর্মসূচিতে ডেঙ্গু প্রতিরোধের জন্য কিছু প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করা হয়, যেমন, বাসার আশে পাশে আবদ্ধ নালা পরিষ্কার করা দিনের বেলা মশারি ব্যবহার করা ,জমে থাকা পানি অপসারণ করা লম্বা হাতার পোশাক পরা এবং জানালায় নেট ব্যবহার করুন ইত্যাদি। এছাড়া বলা হয়, ডেঙ্গু একটি ভাইরাসজনিত জ্বর যা এডিস মশার মাধ্যমে ছড়ায়। এই মশা সাধারণত ভোরবেলা ও সন্ধ্যার পূর্বে কামড়ায়। সাধারণ চিকিৎসাতেই ডেঙ্গু জ্বর সেরে যায়, তবে ডেঙ্গু শক সিনড্রোম এবং হেমোরেজিক ডেঙ্গু জ্বর মারাত্মক হতে পারে। বর্ষার সময় এ রোগের প্রকোপ বাড়তে পারে। বিশেষ করে এডিস মশার জন্মানোর স্থান ধ্বংস ও এই মশার বংশ বৃদ্ধি রোধের মাধ্যমে ডেঙ্গু জ্বর প্রতিরোধ করা যায়। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেন। তিনি ডেঙ্গু প্রতিরোধে প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, বাংলাদেশে ডেঙ্গু ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়লেও আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। ফিলিপাইনে প্রায় ১৫ লক্ষ লোক ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছে এবং এদের মধ্য থেকে কয়েক হাজার লোক মারা গেছে। বাংলাদেশের অবস্থা সেরকম নয়। বাংলাদেশে যেভাবে ডেঙ্গু ছড়িয়ে পড়েছে, তা নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব। তবে এর জন্য দরকার চিকিৎসার পাশাপাশি গণসচেতনতা, সতর্কতা ও সম্মিলিত উদ্যোগ। কর্মসূচিতে আরও উপস্থিত ছিলেন প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার প্রফেসর এ কে এম তফজল হক, ইংরেজি বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান এবং কলা ও সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোহীত উল আলম, রেজিস্ট্রার খুরশিদুর রহমান, ইংরেজি বিভাগের চেয়ারম্যান সাদাত জামান খান, সহকারী অধ্যাপক আবদুর রহিম, সহকারী অধ্যাপক সৈয়দ জসিম উদ্দিন, সহকারী অধ্যাপক শহীদুল আলম, সহকারী অধ্যাপক মো. আলমগীর প্রমুখ। কর্মসূচির সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন ইঞ্জিনিয়ার আবু রাসেল চৌধুরী। উল্লেখ্য, কর্মসূচির আওতায় প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির বিভিন্ন স্থানে স্প্রেয়ারের মাধ্যমে মশক নিধনের ঔষধ ছিটানো হয়। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর