প্রকাশ : 2019-06-08

বাংলাদেশকে ৩৮৭ রানের টার্গেট

৮জুন২০১৯,শনিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম:জেসন রয়ের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশের বিপক্ষে রানের পাহাড় গড়ছে ইংল্যান্ড। নির্ধারিত ওভার শেষে ৬ উইকেটে ৩৮৬ রান করেছে স্বাগতিকরা। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে এটিই এখনও পর্যন্ত সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ। আর বিশ্বকাপের ইতিহাসে এটি ইংল্যান্ডের সর্বোচ্চ রানের ইনিংস। এর আগে ব্যাঙ্গালুরুতে ভারতের বিপক্ষে ২০১১ সালে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ ৩৩৮ রান করেছিল। তাই ম্যাচ জিততে হলে কার্ডিফে বাংলাদেশকে ৩৮৭ রান করতে হবে। সেটি করতে পারলে বিশ্বকাপে রান চেজের নতুন ইতিহাস তৈরি হবে। কার্ডিফে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে শনিবার বিকেলে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। জেসন রয়ের ১৫৩ রানের দুর্দান্ত ইনিংসের সুবাদে বড় স্কোরের ভিত্তি তৈরি হয় ইংলিশদের। শুরুতে ব্যাটিংয়ে নেমে জেসন রয় ও জনি বেয়ারস্ট জুটি ১২৮ রানের দারুণ একটা ওপেনিং জুটি গড়েন। এরপর মাশরাফির বলে মেহেদি হাসান মিরাজের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান বেয়ারস্ট। আউট হওয়ার আগে ৬৫ বল থেকে ১০টি চার ও একটি ছক্কার মারে ৭৪ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। এরপর রুটকে ফিরিয়ে দ্বিতীয় উইকেটের পতন ঘটান সাইফুদ্দিন। তার বলে দলীয় ২০৫ রানে ব্যক্তিগত ২১ রানে ফিরেন জো রুট। তবে জেসন রয়কে ব্যক্তিগত নবম সেঞ্চুরি করা থেকে বিরত থাকতে পারেনি বাংলাদেশ। শেষ পর্যন্ত ৩৫তম ওভারের চতুর্থ বলে দলীয় ২৩৫ রানে আউট হন রয়। এর আগেই ১২১ বল থেকে ১৪টি চার ও পাঁচটি ছক্কার মারে ১৫৩ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন তিনি। সেই সুবাদে ইংল্যান্ডকে বড় স্কোরের ভিত্তি নির্মাণ করে দিয়েছেন এই ইংলিশ ওপেনার। পরবর্তী ব্যাটসম্যানদের মধ্যে জস বাটলার ৬৪ ও ইয়ন মরগান ৩৫ রান করেন। ৯ বল থেকে ২৭ রান নিয়ে প্লাঙ্কেট ও ৮ বল থেকে ১৮ রান নিয়ে ক্রিস ওয়েকস অপরাজিত রয়েছেন। প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জয় এবং দ্বিতীয় ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে অল্প ব্যবধানে হেরে যায় বাংলাদেশ। অপরদিকে ইংল্যান্ড নিজেদের প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়েছিল। দ্বিতীয় ম্যাচে তারা পাকিস্তানের কাছে ১৪ রানে হেরেছে। তৃতীয় ম্যাচটি তাই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দুদলের কাছেই।