শুক্রবার, এপ্রিল ১৬, ২০২১
প্রকাশ : 2021-03-28

চলতি বছর গম উৎপাদন বাড়ছে মিসরের

২৮,মার্চ,রবিবার,অর্থনীতি ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ২৮,মার্চ,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চলতি বছর নিজেদের ফসল উৎপাদন অঞ্চলের সম্প্রসারণ করেছে মিসর। এর মধ্য দিয়ে চলতি বছরে গম উৎপাদন বাড়ার সম্ভাবনা দেখছে দেশটি। ২০২০-২১ বিপণন বর্ষে মিসরের গম উৎপাদন বেড়ে ৯০ লাখ টনে দাঁড়াবে বলে মনে করা হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের কৃষি অধিদপ্তরের অধীন ফরেন কৃষি সার্ভিসের (এফএএস) এক প্রতিবেদনে এমনটাই উঠে এসেছে। চলতি বিপণন বর্ষে গম উৎপাদনে দেশটির ফসলি জমির পরিমাণ ১৪ লাখ হেক্টর। এর আগের বছর দেশটির গম চাষের জন্য নির্ধারিত জমির মোট পরিমাণ ছিল ১৩ লাখ ৯০ হাজার হেক্টর। গমের দেশীয় চাহিদা পূরণে আমদানির ওপর নির্ভর করতে হয় মিসরকে। তবে উৎপাদনের পরিমাণ সামান্য বাড়লেও আমদানির পরিমাণ কমছে না দেশটির। বরং বিভিন্ন খাতের চাহিদার কারণে চলতি বর্ষেও ১ দশমিক ৫৩ শতাংশ আমদানি বাড়াতে হচ্ছে তাদের। সে হিসেবে ২০২০-২১ বিপণন বর্ষে মিসরের গম আমদানির সম্ভাব্য পরিমাণ দাঁড়াবে ১ কোটি ৩২ লাখ টনে। খাদ্য, বীজ এবং শিল্পপ্রতিষ্ঠানে ব্যবহারের জন্য এগুলো আমদানি করা হয়। কায়রোতে কার্যক্রম পরিচালনকারী এফএএসের সংস্থাটির পূর্বাভাস বলছে, ২০২১-২২ বিপণন বর্ষে মিসরের গম ব্যবহারের পরিমাণ দাঁড়াবে ২ কোটি ১৩ লাখ টনে। ২০২০-২১ বিপণন বছরের তুলনায় যা প্রায় ২ দশমিক ৪ শতাংশ বাড়বে। এফএএস বলছে, মিসরের সরকারি, বেসরকারি ও আধাসরকারি খাতের ৪১০টিরও বেশি কারখানা রয়েছে।

অর্থনীতি পাতার আরো খবর