প্রকাশ : 2020-09-08

করোনায় আটকে আছে নুসরাত ফারিয়ার ৫ ছবি

০৮সেপ্টেম্বর,মঙ্গলবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বড় পর্দায় একটু একটু করে নিজের ভালো লাগার গল্প এবং চরিত্রে কাজ করে অভিনয়ে নিজেকে আরো পরিপূর্ণ করে তোলার চেষ্টা করছেন। চলচ্চিত্রে তার যাত্রা অল্প সময়ের হলেও দুই বাংলায় কাজ করছেন সমানতালে। যার কথা হচ্ছে তিনি অভিনেত্রী নুসরাত ফারিয়া। আজ এ অভিনেত্রীর জন্মদিন। তবে দিনটিকে ঘিরে নেই কোনো বিশেষ আয়োজন। নিজ বাসাতেই কাটাবেন সময়। মহামারী নভেল করোনাভাইরাসের কারণে দুই বাংলা মিলিয়ে নুসরাত ফারিয়ার প্রায় পাঁচটি চলচ্চিত্র আটকে আছে। যার মধ্যে চারটি চলচ্চিত্রের কাজ প্রায় শেষ। চলচ্চিত্রগুলো হলো বাংলাদেশী নির্মাতা দীপংকর দীপনের ঢাকা ২০৪০, অপারেশন সুন্দরবন, কলকাতার নির্মাতা রাজা চন্দের ভয় এবং বিরসা দাস গুপ্তের বিবাহ অভিযান-টু। চারটি ছবিতে ফারিয়ার বিপরীতে আছেন বাপ্পী চৌধুরী, সিয়াম আহমেদ এবং কলকাতার অভিনেতা অঙ্কুশ হাজরা। নির্মাতা শিহাব শাহীনের নির্দেশনায় যদি কিন্তু তবুও ছবিটির কাজ এতদিনে শুরু হয়ে যেত। কিন্তু করোনা মহামারীর কারণে শেষ পর্যন্ত তা হয়নি। তবে শিগগিরই ছবিটির কাজ শুরু হবে বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে ফারিয়া নিউজ একাত্তরকে জানান অক্টোবরের মাঝামাঝিতে এ চলচ্চিত্রের কাজ পুরোদমে শুরু হওয়ার কথা। চলচ্চিত্রের কাজ করতে না পারলেও একেবারে বসে নেই হালের জনপ্রিয় অভিনেত্রী নুসরাত ফারিয়া। এরই মধ্যে একটি নতুন প্রতিষ্ঠানের হ্যান্ড ওয়াশের বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করেছেন। ত্রিশ সেকেন্ডেরও কম সময়ের বিজ্ঞাপনটি ফারিয়া তার নিজ বাসায় নিজেই নির্মাণ করেছেন বলে জানান। এরই মধ্যে বিজ্ঞাপনটি দেশের বিভিন্ন চ্যানেলে প্রচারও হচ্ছে। এছাড়া গত টানা ১০ দিন এ অভিনেত্রী ওপপোর নতুন ছয়টি বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করেছেন। এর মধ্যে একটি টিভিসি এবং পাঁচটি ওভিসি বলে তিনি জানান। টিভিসিটি নির্মাণ করেছেন সামি এবং পাঁচটি ওভিসি নির্মাণ করেছেন আবিদ মল্লিক। জানা যায়, এক সময় দেশীয় চলচ্চিত্রের নায়ক রাজ রাজ্জাকের চলচ্চিত্রে কাজের প্রস্তাব পেয়েছিলেন নুসরাত। কিন্তু যে সময়ে ছবিতে কাজের সুযোগ পেয়েছিলেন, সে সময় তিনি চলচ্চিত্রে কাজের জন্য প্রস্তুত ছিলেন না। অথচ এখন সময় বদলেছে, এ অভিনেত্রী চলচ্চিত্রেই কাজ করছেন বর্তমানে। আগে যেখানে নিয়মিত উপস্থাপনায় পাওয়া যেত সেখানেও নিয়মিত নন তিনি। চলচ্চিত্রের কাজ নিয়েই বেশি ব্যস্ত। নুসরাত ফারিয়া বলেন, নায়ক রাজ রাজ্জাক স্যার আজ আমাদের মাঝে নেই, তার প্রতি ভীষণ শ্রদ্ধা রেখেই বলছি, তিনি যে সময়টায় আমাকে চলচ্চিত্রে কাজের প্রস্তাব দিয়েছিলেন, সে সময় আসলে আমি উপস্থাপনাতেই অনেক ব্যস্ত ছিলাম এবং অভিনয়ের জন্য কোনো রকম প্রস্তুতি ছিল না আমার। সে অবস্থায় যদি আমি হ্যাঁ বলতাম, তাহলে হয়তো দেখা যেত ঠিকঠাকমতো অভিনয়ই করতে পারতাম না, তাতে তিনি খুশী হওয়ার চেয়ে অখুশীই হতেন বেশি। পরবর্তী সময় প্রস্তুতি নিয়েই চলচ্চিত্রে এসেছি। এখন একটু একটু করে নিজেকে তৈরির চেষ্টা করছেন ফারিয়া। তার মতে, চলচ্চিত্রে কাজ করতে এসে একটি কথা বলতেই হচ্ছে, সেটি হলো চলচ্চিত্রে কাজের নেশা সবচেয়ে বড় নেশা। আমি নিজেকে ধীরে ধীরে চলচ্চিত্রে প্রতিষ্ঠিত করার চেষ্টা করছি। এটা সত্যি আমি শুধু ছবির শুটিং করেই সেখান থেকে নিজেকে সরিয়ে নিই না। এর পরবর্তী প্রতিটি ধাপের সঙ্গেও যুক্ত থাকার চেষ্টা করি, যাকে মূল সৃষ্টিশীল কাজ বলা হয়ে থাকে। আমার কাছে এটা অনেক জরুরি বিষয় মনে হয়। গত ২১ মার্চ রনি রিয়াদ রশিদের সঙ্গে আংটি বদল সম্পন্ন হয়েছে নুসরাত ফারিয়ার।