রাজারবাগ মাঠ মাতাবেন নগরবাউল
০৮ফেব্রুয়ারী,শনিবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বেটার এন্ড সেফার ঢাকা গড়তে গৌরবময় সেবায় ৪৪ বছর পার করে ৪৫ বছরে পদার্পণ করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। আজ ডিএমপির ৪৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। এ জন্য আজ রাজারবাগ পুলিশ লাইনস্‌ মাঠে আয়োজন করা হয়েছে বিশেষ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের। যে আয়োজনে মঞ্চ মাতাবেন নগরবাউল জেমস। অনুষ্ঠানে আরও আছেন চিরকুট ব্যান্ড, ক্লোজআপ ওয়ান তারকা সালমা ও প্রিয়াঙ্কা বিশ্বাস। এ ছাড়াও থাকছে ফেরদৌস-মাহিয়া মাহি ও ইভান শাহরিয়ার সোহাগ-মিষ্টি জান্নাত জুটির অংশগ্রহণে নৃত্য পরিবেশনা। তারকাশিল্পীদের অংশগ্রহণের বাইরে থাকছে বাংলাদেশ পুলিশ সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদের শিল্পীদের মনোরম নৃত্য ও সংগীত পরিবেশনা। মনোজ্ঞ এ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটি রাজারবাগ পুলিশ লাইনস মাঠ থেকে সন্ধ্যার পর সরাসরি সম্প্রচার করবে এটিএন বাংলা।- একুশে টেলিভিশন
শুভ জন্মদিন মনিরা মিঠু
০৫ফেব্রুয়ারী,বুধবার,মোঃ ইরফান চৌধুরী,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: মনিরা মিঠু। অভিনয়ের পথচলায় দীর্ঘ দেড় যুগেরও বেশি সময় অতিক্রম করেছেন তিনি। ভিন্ন ধরণের চরিত্রে নিজেকে প্রকাশিত করে ধীরে ধীরে শোবিজ অঙ্গনে আলাদা একটি অবস্থান তৈরি করে নিয়েছেন এই তারকা। একজন জাত অভিনেত্রী যাকে বলে, তা তিনি পরিণত করেছেন দক্ষতার মাপকাঠিতে। সেই হিসেবে ভিন্ন ধরনের গল্পে চ্যালেঞ্জিং চরিত্রে মনিরা মিঠুর নাম শ্রদ্ধার সঙ্গেই বলা যায়। টেলিভিশনের জনপ্রিয় এই তারকার জন্মদিন আজ। শুভ জন্মদিন মনিরা মিঠু। হালের জনপ্রিয় এই তারকা নিজের একান্ত চেষ্টায় অভিনয়ের একটি শক্ত অবস্থানে নিয়ে গেছেন নিজেকে। বর্তমানে নাটকে এবং সিনেমায় প্রায় সমানতালেই কাজ করে যাচ্ছেন। গতবছর রায়হান রাফি পরিচালিত দহন সিনেমায় নায়িকার মায়ের চরিত্রে অসাধারণ অভিনয়ের জন্য প্রশংসিত হচ্ছেন তিনি। সিনেমাটিতে মনিরা মিঠুর প্রাণবন্ত অভিনয় এতটাই স্বাভাবিক ছিল যে দশের্কর কাছে একটি বাস্তবের একটি চরিত্রই মনে হচ্ছিল। যে কারণে যারাই সিনেমাটি দেখেছেন তারাই তার অভিনয়ের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন। দহন মুক্তির পরপরই মনিরা মিঠু অনন্য মামুনের আবার বসন্ত সিনেমার কাজ করেন। সেই সঙ্গে আবার বসন্ত, মানবী, বিশ্বসুন্দরী সিনেমায়ও অভিনয় করেছেন তিনি। এছাড়া চন্দ্রকথা (২০০৩), আমার আছে জল (২০০৮), গহীনে শব্দ (২০১০), মেহেরজান (২০১১), জোনাকির আলো ইত্যাদি সিনেমায় অভিনয় করেছেন মিঠু। তিনি ২০০৮ সালে এমন দেশটি কোথাও খুঁজে পাবে নাকো তুমি নাটকে অভিনয় করে মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারের সমালোচক শাখায় সেরা টেলিভিশন অভিনেত্রী বিভাগে পুরস্কার অর্জন করেন। মিঠু হুমায়ূন আহমেদ পরিচালিত টেলিভিশন নাটক অস্পতি বায়োস্কোপ দিয়ে তার অভিনয় জীবন শুরু করেন।
মারিয়ার ভ্যালেন্টাইনস ডে-২০২০
০২ফেব্রুয়ারী,রবিবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দেশের অন্যতম সফল উপস্থাপিকা মারিয়া নূর। মাঝে নাটকে অভিনয়েও দেখা গেছে তাকে। তবে বর্তমানে উপস্থাপনা নিয়েই ব্যস্ততা তার। আসছে ভালোবাসা দিবসে ভ্যালেন্টাইনস ডে-২০২০ নামে একটি নাটকে দেখা যাবে মারিয়াকে। এতে গায়ক-নায়ক তাহসানের বিপরীতে সঙ্গে জুটি হয়েছেন তিনি। পরিচালনা করেছেন মাবরুর রশিদ বান্নাহ। এ ব্যাপারে মারিয়া নূর বলেন, সব ভালোবাসার গল্প প্রায় একই রকম হয়। কিন্তু এর মাঝেও গল্প বলার ধরনে পরিবর্তন থাকে। এ নাটকে সেটি থাকবে। সবশেষ ২০১৮ সালে- দানপত্র শিরোনামের একটি নাটকে দেখা গেছে মারিয়াকে। মিডিয়ায় তার ক্যারিয়ার শুরু হয় রেডিও জকি (আর জে) হিসেবে, সেটি ২০০৯ সালে। টিভি পর্দায় তার আবির্ভাব ঘটে ২০১২ সালে। এটিও ছিল উপস্থাপনা। তবে এই তরুণী প্রথম পরিচিতি পান এখানেই ডটকম-এর বিজ্ঞাপনে ইয়াশনা নামটি দিয়ে। এছাড়া মেরিল লিপজেল, লিপটন তাজা চা, রুচি ঝাল চানাচুরসহ একাধিক জনপ্রিয় বিজ্ঞাপনের মডেল তিনি। এরপর জিটিভির ক্রিকেট এক্সট্রায় সাবলীল উপস্থাপনায় মারিয়া নিজেকে নিয়ে গেছেন অন্য এক উচ্চতায়।- বিনোদন২৪
রঞ্জুর মনে আগুন লাগাইলো রাইসা রিয়া
০১ফেব্রুয়ারী,শনিবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বিশ্ব ভালোবাসা দিবসকে কেন্দ্র করে নির্মিত হলো মিউজিক ভিডিও- আগুন কে লাগাইলো রে। গানটিতে মডেল হয়েছেন রাইসা রিয়া ও রঞ্জু সরকার। গানটির গীতিকার ও সুরকার শোয়েব চৌধুরী। এতে কন্ঠ দিয়েছেন কন্ঠশিল্পী কনিকা রয়। মিউজিক ভিডিওটি রোমান্টিক গল্পের উপর নির্মিত হয়েছে। ভিডিও পরিচালনা করেছেন তাজুল ইসলাম। মিউজিক ভিডিও সম্পর্কে নির্মাতা তাজুল ইসলাম বলেন, সুন্দরভাবে মিউজিক ভিডিওটি পুবাইলের বিভিন্ন লোকেশনে চিত্রায়ন করা হয়েছে। এতে ডিওপি হিসেবে কাজ করেছেন এস এম জয়, রূপসজ্জায় জাহাঙ্গীর হাসান। এই গানটির কথা অনেক সুন্দর। আশা করি, মিউজিক ভিডিওটি দর্শকদের ভালো লাগবে। এই গানটিতে মডেল হিসেবে রাইসা রিয়া ও রঞ্জু সরকার খুব ভালো অভিনয় করেছেন। মডেল রঞ্জু সরকার বলেন, প্রথমবার মিউজিক ভিডিওতে কাজ করলাম। নতুন অভিজ্ঞতা হলো। আর গানটির কথাও অনেক সুন্দর। দর্শকের মাঝে তুলে ধরার সুযোগ পেয়ে আমি খুবই আনন্দিত। মন দিয়ে কাজটি করার চেষ্টা করেছি। কতটুকু করতে পেরেছি তা দর্শকই ভালো বলতে পারবেন রাইসা রিয়া বলেন, পরিচালক তাজুল ইসলাম ও রঞ্জু সরকারের সাথে প্রথম কাজ। গানের গল্পের রসায়নটা ভালো ছিল। গানটি কোরিওগ্রাফি করেছেন রফিকুল ইসলাম রনি। সে কাজটা ধরে ধরে করার চেষ্টা করেছেন। 'আগুন কে লাগাইলো রে' গানটি দর্শকরা ভালো ভাবে নিবে গানটিতে নিজেকে ভিন্ন ভাবে উপস্থাপন করেছি। মিউজিক ভিডিওটি বিশ্ব ভালবাসা দিবসে ক্রাউন মিউজিকের ব্যানারে মুক্তি পাবে।
ভালোবাসা দিবসে বেশ কয়েকটি নাটক প্রচার হবে ফারিনের
৩১জানুয়ারী,শুক্রবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: আমি ফেসবুকে নেই। কিন্তু আমার নামে অসংখ্য ফেসবুক অ্যাকাউন্ট রয়েছে। পেজের সংখ্যাও অনেক। এগুলো থেকে অনেক আজেবাজে কনটেন্ট শেয়ার করা হয়। যা নিয়ে আমি খুবই বিরক্ত। আমি ইনস্টাগ্রামে আছি শুধু। ভক্তদের উদ্দেশে বলছিলেন সময়ের আলোচিত অভিনেত্রী তাসনিয়া ফারিন। ২০১৭ সালে- আমরা ফিরবো কবে নাটকে, অভিনয়ের মধ্যদিয়ে অভিনয়ের দুনিয়ায় অভিষেক ফারিনের। ২০১৮ সালে বিকাশ-এর একটি বিজ্ঞাপনে- কোটি বাঙালির প্রিয় নাম ক্রিকেটার মাশরাফির সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করেন তিনি। একই বছর ফারিন অভিনীত ভালোবাসা দিবসে এক্স বয়ফ্রেন্ড নাটকটি বেশ পরিচিতি এনে দেয় তাকে। গেল বছর প্রায় ৮০ টির মতো নাটকে অভিনয় করেছেন ফারিন। এবারের ভালোবাসা দিবসে বেশ কয়েকটি নাটক প্রচার হবে তার। নতুনত্ব নিয়ে ভক্তদের মাঝে আসবেন বলে জানান ফারিন।
সম্মাননা পাচ্ছেন রফিকুল আলম ও ফকীর আলমগীর
২৯জানুয়ারী,বুধবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাংলা আধুনিক গানে অসামান্য অবদানের জন্য ১৪তম চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ড ২০১৯-এ সম্মাননা পাচ্ছেন রফিকুল আলম ও গণসঙ্গীতে ফকীর আলমগীর। এ উপলক্ষে সংগীতের সকল শাখার সকল শিল্পী আবারও একই মঞ্চে এক হতে যাচ্ছেন ৩০শে জানুয়ারি। এবারের অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠিত হবে সিলেট হবিগঞ্জের দ্যা প্যালেসে সন্ধ্যা ৭টায়। এরই মধ্যে অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানের মঞ্চসহ সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। এই আয়োজনে মোট ১৪টি ক্যাটাগরিতে সমালোচক পুরস্কার প্রদান করা হবে। অন্যদিকে আয়োজনের দিক দিয়ে চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ড-এ প্রতিবারের মতো এবারও থাকবে বিশেষ চমক। বাংলাদেশের গানের জগৎ যখন এক ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছিল ঠিক সেই সময় দেশের সুস্থ ধারার সংগীতকে এগিয়ে নেওয়ার লক্ষ্যে ২০০৪ সালে শুরু হয়েছিল দক্ষিণ এশিয়ার সবচাইতে বড় আয়োজন চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ড। এর বিভাগগুলো হলো- শ্রেষ্ঠ রবীন্দ্র সংগীত, নজরুল সংগীত, লোক সংগীত, গীতিকার, সংগীত পরিচালক, মিউজিক ভিডিও, কাভার ডিজাইন, সাউন্ড ইঞ্জিনিয়ার, আধুনিক গান, ব্যান্ড, নবাগত শিল্পী, ছায়াছবির গান, উচ্চাঙ্গসংগীত কন্ঠ এবং উচ্চাঙ্গসংগীত যন্ত্র।
ভালোবাসা দিবসে অহনা
২৮জানুয়ারী,মঙ্গলবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জনপ্রিয় মডেল-অভিনেত্রী অহনা রহমান। গেল বছর ঘোষণা দিয়েছেন ধারাবাহিক নাটকে আর অভিনয় করবেন না। এখন একক নাটক নিয়েই ব্যস্ত সময় পার করছেন তিনি। তারই ধারাবাহিকতায় এ অভিনেত্রীকে ভালোবাসা দিবসে তিনটি একক নাটকে দেখা যাবে। এরইমধ্যে দুটি নাটকের শুটিং শেষ। নাটক দুটি হলো তপু খানের কবির খানের বুমেরাং ও মাসুম আল জাবেরের- জেরিন আনটোল্ড স্টোরি। দুটি নাটকে তিনি থাকছেন তৌসিফ মাহবুব ও মনির খান শিমুলের বিপরীতে। আর ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে ভালোবাসা দিবসের আরো একটি নাটকের শুটিং করবেন এ অভিনেত্রী। অহনা বলেন, আমি এখন একক নাটকই শুধু করছি। পাশাপাশি ওয়েব সিরিজেও কাজ করা হচ্ছে। তবে এ সময়ে কাজ বেশি করছি না। কারণ আগামী মাসে আমি ওমরা হজ করতে যাচ্ছি। সেখান থেকে ফিরে পুরোদমে কাজে নামতে চাই।- বিনোদন২৪
বঙ্গমাতা চরিত্রে পূর্ণিমা
২৭জানুয়ারী,সোমবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে তৈরি হচ্ছে চলচ্চিত্র- চিরঞ্জীব মুজিব, যা নির্মাণ করছেন জুয়েল মাহমুদ। এতে বঙ্গবন্ধুর স্ত্রী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা চরিত্রে অভিনয় করছেন পূর্ণিমা। আর বঙ্গবন্ধু চরিত্রে থাকছেন আহমেদ রুবেল। গত সপ্তাহে মানিকগঞ্জ থেকে এর শুটিং করে এসেছেন পূর্ণিমা। পূণির্মা বলেন, এটা একটি ঐতিহাসিক চরিত্র। তবে এখানে আমার উপস্থিতি কম পরিসরে। কিছুটা ক্যামিওর মতো। বঙ্গবন্ধুর যৌবনকালের সময়টুকুতে দেখা যাবে আমাকে। তিনি তখন বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছেন। হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী আর মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর সঙ্গে সারাদেশে আন্দোলন করে বেড়ান। আর আমি ঘর সামলাই। অল্প সময়ের হলেও খুব চ্যালেঞ্জিং একটা চরিত্র। এখানে আমাকে ইয়াং বয়সে দেখা যাবে। আশা করছি এ চলচ্চিত্রটি দেখে দর্শক অনেক কিছু জানতে পারবেন। তিনি জানান, ছবিতে তার অংশের কাজ শেষ হয়েছে। এখন চলছে অন্যদের শুটিং। ছবিতে বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক জীবন ও অবদান তুলে ধরা হয়েছে। চলচ্চিত্রটির নির্মাতা জুয়েল মাহমুদ বলেন, অনেকদিনে আশা ছিল ঐতিহাসিক গল্প নিয়ে একটি ছবি নির্মাণ করার। প্রথমেই বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা চরিত্রটি নিয়ে বেশি ভেবেছি। অভিনেত্রী পূর্ণিমাকে আমার এ চরিত্রের জন্য মানানসই মনে হয়েছে। আশা করছি পূর্ণিমা অভিনীত চরিত্রটি দর্শকের ভালো লাগবে।
কক্সবাজারে সৈকত সাংস্কৃতিক উৎসব ২০২০ উদ্বোধন
২৫জানুয়ারী,শনিবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: শিল্প সংস্কৃতি ঋদ্ধ সৃজনশীল মানবিক বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি সারাদেশে বিস্তৃত পরিসরে কাযর্ক্রম পরিচালনা করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় পর্যটন শহর কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতে প্রথম বারেরমতো সৈকত সাংস্কৃতিক উৎসব ২০২০-এর আয়োজন করা হয়েছে। কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় ২৪ জানুয়ারি ২০২০ বিকাল সাড়ে ৪টায় কক্সবাজার সমূদ্রসৈকতের লাবনী পয়েন্টে বেলুন উড়িয়ে উৎসবের উদ্বোধন করা হয়। এর আগে সৈকতের সুগন্ধা এলাকা থেকে লাবনী পয়েন্টে অনুষ্ঠানস্থল পর্যন্ত বর্নিল শেভাযাত্রা অনুষ্টিত হয়। কক্সবাজার সমূদ্রসৈকতের অবস্থিত জেলা প্রশাসকের উন্মুক্ত মঞ্চে উৎসব উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আশরাফুল আফসার-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আদিবুল ইসলাম। কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র জনাব মুজিবুর রহমান। কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কায়সারুল হক জুয়েল, কক্সবাজার জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিত পাল বিশু, জেলা শিল্পকলা একাডেমির কালচারাল অফিসার সুদিপ্তা চক্রবর্তী। প্রতিবছর এধরনের উৎসব আয়োজনের প্রত্যয় ব্যক্ত করে উদ্বোধক লিয়াকত আলী লাকী বলেন, প্রতি জেলা উপজেলায় বিস্তৃতি পরিষরে কর্ক্রমের অংশ হিসেবে এই আয়োজন। এছাড়া পযটন এলাকায় নিয়মিত এই ধরনের সংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পর্টকদেরকে সময়ের যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করবে। ২৪ ও ২৫ জানুয়ারি ২০২০ দুই দিনব্যাপী দুইদিনের এই উৎসবে সংগীত, নৃত্য, অ্যাক্রোবেটিক, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর পরিবেশনা এবং পারফর্মেন্স আর্টসহ বৈচিত্রপূর্ন সাংস্কৃতিক পরিবেশনা অনুষ্ঠিত হবে। কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, বান্দারবান ও বাংলাদেশে শিল্পকলা একাডেমির পাঁচ শতাধিক শিল্পীর অংশগ্রহণ করবেন। এছাড়াও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৪৩ ফুট দীর্ঘ প্রতিকৃতি কক্সবাজার সমূদ্রসৈকতে ৭দিনের জন্য স্থাপন করা হয়েছে। সাংস্কৃতিক পরিবেশনার মধ্যে ছিলো বান্দরবানের ত্রিপুরা সম্প্রদায়ের সমবেত নৃত্য পানি তোল ও বোতল নৃত্য, বম সম্প্রদায়ের স্বাগত নৃত্য ও বাঁশ নৃত্য, মারমা সম্প্রদায়ের ময়ূর নৃত্য ও ছাতা নৃত্য; ম্রো সম্প্রদায়ের নববর্ষের নৃত্য ও যুগল নৃত্য, চাকমা সম্প্রদায়ের বিজু নৃত্য ও জুম নৃত্য, ত্রিপুরা সম্প্রদায়ের। একক সংগীত পরিবেশন করেন কক্সবাজারের শিল্পী মানষী বড়ুয়া; শিল্পী মিনা মল্লিক; শিল্পী মেহরীন রাহাব্বাত ইফশিতা ও মো. জহিদ। সমবেত সংগীত পরিবেশন করেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির সংগীত শিল্পীবৃন্দ। সমবেদ নৃত্য পরিবেশন করেন জেলা শিল্পকলা একাডেমি ও বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির নৃত্য শিল্পীবৃন্দ। এছাড়াও বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি বাউল দল এবং অ্যাক্রোবেটিক দলের পরিবেশনা অনুষ্ঠিত হয়। সকালে সুজন মাহবুবের কৃৎকলা- সমুদ্রের গর্জন পরিবেশিত হয়।

বিনোদন পাতার আরো খবর