রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২০
শ্রীলঙ্কা সফর হলেও অক্টোবরে শুরু হচ্ছে ঘরোয়া ক্রিকেট
২৩সেপ্টেম্বর,বুধবার,স্পোর্টস ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনা ভাইরাসের কারণে গত মার্চের পর থেকে আর কোনো ঘরোয়া লিগের ম্যাচ মাঠে গড়ায়নি। ফলে প্রায় ছয় মাসের বেশি সময় ধরে ক্রিকেটি খেলা হচ্ছে না। তবে এবার সেই অপেক্ষার পালা শেষ। আগামী অক্টোবর মাসেই ফিরছে ঘরোয়া ক্রিকেট। বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) মিরপুরে সাংবাদিকদের এ কথা জানিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন। তিনি জানিয়েছেন, বাংলাদেশ দল শ্রীলঙ্কা সফরে গেলেও ঘরোয়া ক্রিকেট হবে, সফরে না হলেও ঘরোয়া ক্রিকেট মাঠে গড়াবে। প্রধান নির্বাহী বলেন, দেখুন আমাদের কিছু অভ্যন্তরীণ প্ল্যান তো অবশ্যই আছে। এই সিরিজ যদি কন্টিনিউ না করি সেক্ষেত্রে আমাদের অন্য প্ল্যান আছে। আমাদের কিন্তু এখন পর্যন্ত প্ল্যান আছে যে আমরা দুটোই চালিয়ে যাবো। যদি এই সিরিজটা করি তারপরও ঘরোয়া ক্রিকেট শুরু করার পরিকল্পনা আমাদের রয়েছে।
হায়দরাবাদকে হারিয়ে আইপিএল শুরু ব্যাঙ্গালোর
২২সেপ্টেম্বর,মঙ্গলবার,স্পোর্টস ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জয় দিয়েই আইপিএল অভিযান শুরু করল বিরাট কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর। দেবদূতের দুরন্ত ব্য়াটিং। এবিডি-র হাফ সেঞ্চুরি। আর বল হাতে চাহালের ভেলকি। সঙ্গে শিবম দুবে আর নভদীপ সাইনির দুরন্ত বোলিং। কাজে এল না বেয়ারস্টোর ৬১ রানের ইনিংস। সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে ১০ রানে হারাল আরসিবি। সোমবার ১৬৪ রানের টার্গেট নিয়ে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে ডেভিড ওয়ার্নারকে হারালেও জনি বেয়ারস্টো এবং মনীশ পান্ডে জুটি টানতে থাকে হায়দরাবাদকে। ৩৪ রানে মনীশ পান্ডে আউট হন। কিন্তু ৬১ রানে বেয়ারস্টো আউট হতেই তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে হায়দরাবাদের ব্যাটিং। প্রিয়ম গর্গ বাদে বাকি আর কেউ দুই অঙ্কের রানে পৌঁছতে পারেনি। ১৫৩ রানে অলআউট সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। যুজবেন্দ্র চাহাল নেন ৩টি উইকেট। ২টি করে উইকেট নেন নভদীপ সাইনি এবং শিবম দুবে। টস জিতে এদিন প্রথমে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরকে ব্যাটিং করতে পাঠান সানরাইজার্স হায়দরাবাদের অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার। শুরুতেই দেবদূত পাডিক্কল এবং অ্যারোন ফিঞ্চের ৯০ রানের ওপেনিং পার্টনারশিপ আরসিবির বড় রান তোলার ভিত গড়ে দেয়। দেবদূত ৪২ বলে ৫৬ রান করেন। ২৯ রান করেন ফিঞ্চ। অধিনায়ক বিরাট কোহলি ১৪ রান করে আউট হন। তবে এবি ডিভিলিয়ার্স ৩০ বলে ৫১ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলেন। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৬৩ রান তোলে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর। নটরাজন, বিজয় শঙ্কর এবং অভিষেক শর্মা একটি করে উইকেট নেন।
১০ জনের চেলসিকে হারালো লিভারপুল
২১সেপ্টেম্বর,সোমবার,স্পোর্টস ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের নতুন মৌসুম শুরু করে দ্বিতীয় ম্যাচেও দাপুটে জয় পেয়েছে লিভারপুল। গত আসরের চ্যাম্পিয়নরা সাদিও মানের জোড়া গোলে প্রথমার্ধেই ১০ জনের দল হয়ে পড়া চেলসিকে তাদেরই ঘরের মাঠে হারিয়েছে ২-০ ব্যবধানে। স্টামফোর্ড ব্রিজে এক দুঃস্বপ্নের রাত কাটিয়েছেন চেলসির স্প্যানিশ গোলরক্ষক কেপা আরিজাবালাগা। তবে ব্লুজরা শক্তি হারায় আন্দ্রেস ক্রিস্টেনসেন মাঠ ছাড়ার পর। জর্ডান হ্যান্ডারসনের দেওয়া পাস থেকে পাওয়া বল নিয়ে যাওয়ার সময় মানেকে ফাউল করেন তিনি। তার জন্য রেফারি পল টিয়ারনি শুরুতে ড্যানিশ ডিফেন্ডারকে হলুদ কার্ড দেখান। কিন্তু পরে রিভিউ দেখে প্রথমার্ধের যোগ করা প্রথম মিনিটে লাল কার্ড দেখানো হয় ক্রিস্টেনসেনকে। এই ফাউলের শিকার হওয়ার শাস্তি মানে চেলসিকে দিয়েছেন জোড়া গোলে। ম্যাচের ৫০তম মিনিটে রবার্তো ফিরমিনোর ক্রস থেকে গোলরক্ষক কেপাকে বোকা বানান সেনেগালিজ ফরোয়ার্ড। এর চার মিনিট পরেই নিজের দ্বিতীয় গোল করেন মানে। এই ম্যাচ দিয়ে লিভারপুলের জার্সিতে অভিষেক হয়েছে থিয়াগো আলকান্তারার। ২০ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে বায়ার্ন মিউনিখ ছেড়ে অ্যানফিল্ডে এসেছেন স্প্যানিশ মিডফিল্ডার। টানা দুই জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার চতুর্থ স্থানে আছে লিভারপুল। সমান ম্যাচে ৩ পয়েন্ট ‍নিয়ে দশে চেলসি। শীর্ষে লেস্টার সিটি।
গাম্পের ট্রফি জিতল বার্সেলোনা
২০সেপ্টেম্বর,রবিবার,স্পোর্টস ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জুয়ান গাম্পের ট্রফির ৫৫তম সংস্করণে এলচেকে হারিয়ে ট্রফি জিতেছে বার্সেলোনা। পাঁচ বছর পর লা লিগায় ফেরা দলটিকে ১-০ গোলে হারায় রোনাল্ড কোম্যানের শিষ্যরা। দলের একমাত্র গোলটি করেন আঁতোয়া গ্রিজম্যান। ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য, সাবেক খেলোয়াড় ও সভাপতি জুয়ান গাম্পেরের নামানুসারে মৌসুমের শুরুতে এই ম্যাচের আয়োজন করে বার্সেলোনা। গতবার দলটি আর্সেনালকে হারিয়েছিল। শনিবার ক্যাম্প ন্যুতে প্রাক মৌসুমের এই ম্যাচে দ্বিতীয় মিনিটে প্রথম আক্রমণেই বাঁ দিক থেকে জর্দি আলবার বাড়ানো বল ছোট ডি-বক্সের বাইরে পেয়ে বাঁ পায়ের নিচু শটে দলকে এগিয়ে নেন ফরাসি ফরোয়ার্ড গ্রিজম্যান। ম্যাচের বাকি সময় অবশ্য বার্সা আধিপত্য বিস্তার খেললেও আর গোল হয়নি। ফলে ১-০ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে তারা। ২০২০-২১ মৌসুম শুরুর আগে এই নিয়ে তিন প্রস্তুতিমূলক ম্যাচের সবকটিই জিতল বার্সেলোনা।
৮ গোল দিয়ে মৌসুম শুরু বায়ার্নের
১৯সেপ্টেম্বর,শনিবার,স্পোর্টস ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জার্মান ফুটবলে একচ্ছত্র আধিপত্য বায়ার্ন মিউনিখের। টানা আট মৌসুম জিতেছে বুন্দেসলিগার শিরোপা। গত মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লীগ সহ ট্রেবল জিতেছে বাভারিয়ানরা। শুক্রবার জার্মানিতে মাঠে গড়িয়েছে ২০২০-২১ মৌসুম। শুরুর দিনই নিজেদের শক্তি দেখাল হান্সি ফ্লিকের দল। শালকেকে ৮-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ। বুন্দেসলিগার ইতিহাসে মৌসুম শুরুর প্রথম সপ্তাহে এটাই সবচেয়ে বড় ব্যবধানে জয়ের রেকর্ড। লীগের প্রথম ম্যাচে প্রতিপক্ষকে গোলবন্যায় ভাসিয়ে বায়ার্ন আভাস দিয়ে রাখল- এই মৌসুমেও তাদের আধিপত্য রুখতে হলে অন্যদের দারুণ কিছুই করতে হবে। ঘরের মাঠ আলিয়াঞ্জ অ্যারিনায় হ্যাটট্রিক করেছেন সার্জ নাব্রি। একবার করে গোলের দেখা পান রবার্ট লেভানদোস্কি, লিয়ন গোরেৎজকা, লিরয় সানে ও জামাল মুসিয়ালা। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা ২২ ম্যাচ জিতলো বায়ার্ন। গত বছরের ৭ই ডিসেম্বর সর্বশেষ বরুশিয়া মনশেনগ্লাডবাখের কাছে হেরেছিল তারা।
ভাইরাল হওয়া মা-ছেলেকে চমক ক্রিকেটার মুশফিকের
১৬সেপ্টেম্বর,বুধবার,স্পোর্টস ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বোরকা পরিহিত এক মা ও সন্তান মিলে খেলছেন ক্রিকেট। বল ছুঁড়ছে ছোট্ট শিশু শেখ ইয়ামিন সিনান। আর ব্যাট হাতে বোরকা পরিহিত মা ঝর্ণা আক্তার। মা-ছেলের ক্রিকেট খেলার এমন অভাবনীয় দৃশ্য নজর কেড়েছে সবার। মুহূর্তেই ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ জাতীয় গণমাধ্যমগুলোতে। জানা গেছে, আরামবাগের একটি মাদ্রাসার ছাত্র ইয়ামিন সিনান। পড়াশোনার পাশাপাশি কবি নজরুল ক্রিকেট একাডেমিতে অনুশীলন করে সে। তবে সেদিন তার সতীর্থ কিংবা কোচ নির্ধারিত সময়ে না পৌঁছানোয় মায়ের সঙ্গেই অনুশীলনে নেমে পড়েছিল ছোট্ট ইয়ামিন। তবে মা-ছেলের ক্রিকেট খেলার সেই ছবি নিয়ে হয়েছে নানা আলোচনা-সমালোচনা। সন্তানের আবদার রক্ষা করে তাকে আনন্দ দেওয়ার জন্য বোরকা পরা অবস্থায়ও ক্রিকেট খেলেছেন বলে সব সমালোচনাকে উড়িয়ে দিয়েছেন মা ঝর্ণা আক্তার। সম্প্রতি একটি টিভি চ্যানেলের অনুষ্ঠানে ছোট্ট সিনান জানান, তার প্রিয় ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম। ইচ্ছা, পছন্দের খেলোয়াড়ের সঙ্গে দেখা করার। মাদরাসার শিক্ষার্থী সিনানের এই ইচ্ছা পূরণ হলো। বুধবার সেই মা-ছেলেকে চমকে দিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম। মাঠে গিয়ে তাদের সঙ্গে দেখা করেছেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল খ্যাত ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে মা-ছেলের দেখা করার ছবিটি এখন ভেসে বেড়াচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।
মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সে শচীন পুত্র অর্জুন
১৫সেপ্টেম্বর,মঙ্গলবার,স্পোর্টস ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: এক ছবিকে ঘিরেই যত জল্পনা। কিংবদন্তি শচীন টেন্ডুলকারের পুত্র অর্জুন টেন্ডুলকারের আইপিএল ২০২০ এ খেলার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে বলে মনে করছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। ঘটনা পুরোপুরি সত্যি না হলেও এমন ভাবার কারণ রয়েছে অবশ্য। শচীন-পুত্র অর্জুন যে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের সঙ্গে আরব আমিরাতেই রয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া পোস্টে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের ক্রিকেটারদের সঙ্গে পুল শেয়ার করতে দেখা গেছে শচীন পুত্র অর্জুন টেন্ডুলকারকে। নেটিজেনদের মনে প্রশ্ন, তবে কি এবারের আইপিএলে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের জার্সিতে মাঠে নামবেন অল-রাউন্ডার অর্জুন? ১৯ সেপ্টেম্বর শুরু হবে আইপিএল। আপাতত যা খবর, শচীন পুত্র অর্জুনকে নেট বোলার হিসেবে আবু ধাবিতে উড়িয়ে নিয়ে গেছে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। রোহিত শর্মাদের নেটে নিয়মিত বলও করছেন ২০ বছর বয়সী ক্রিকেটার। তবে এখনই তাকে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের প্রথম সারির দলে জায়গা দেওয়া হচ্ছে না বলেই জানানো হয়েছে। প্রথম দলের কোনো ক্রিকেটার চোটগ্রস্ত হলে, তার পরিবর্তে অর্জুনকে নেওয়া হতে পারে বলে জানানো হয়েছে। বিসিসিআইয়ের নির্দেশিকা মেনে এই পরিবর্তন করা সম্ভব বলেও জানিয়েছে রোহিত শর্মার দল।- বাংলাদেশ জার্নাল
শ্রীলংকা সফর নিয়ে কঠিন শর্ত
১৩সেপ্টেম্বর,রবিবার,স্পোর্টস ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সময় যত ঘনিয়ে আসছে শ্রীলংকা সফর নিয়ে জটিলতা ততই বাড়ছে। করোনাভাইরাসের মধ্যে সফর করতে হলে টাইগারদের দ্বীপরাষ্ট্রটির দেওয়া কঠিন নিয়মকানুন মেনেই চলতে হবে। এরইমধ্যে শ্রীলংকা ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি) বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডে (বিসিবি) সফর নিয়ে তাদের নীতিমালা পাঠিয়ে দিয়েছে। শ্রীলংকান বোর্ডের চিফ অপারেটিং অফিসার অ্যাশলি ডি সিলভা দেশটির গণমাধ্যম সানডে অবজারভারকে নীতিমালা পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, স্থানীয় সরকারের সঙ্গে কথা বলে এরইমধ্যে বিসিবিতে সফরে স্বাস্থ্যবিষয়ক নীতিমালা পাঠানো হয়েছে। ডি সিলভা বলেন, আমরা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে স্বাস্থ্যবিষয়ক নীতিমালা পেয়েছি। সেটা আমরা গতকালই পাঠিয়ে দিয়েছি। এখন এই নীতিমালা ভালো করে বুঝেশুনে বিসিবিকে আমাদের জানাতে হবে। তাদের প্রস্তুতির বিষয়টিও অবশ্যই আমাদের অবহিত করতে হবে।
করোনা ঠেকাতে সতর্ক অবস্থানে বিসিবি
১২সেপ্টেম্বর,শনিবার,স্পোর্টস ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাংলাদেশের শ্রীলংকা সফর নিশ্চিত হয়েছে। ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের তিনটা ম্যাচ খেলতে এ মাসের শেষ সপ্তাহে কলম্বোর উদ্দেশে উড়াল দেবেন টাইগাররা। ২৪ অক্টোবর সিরিজের প্রথম টেস্ট মাঠে গড়াতে পারে। বাংলাদেশ জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের চোখ এখন শ্রীলংকায়। করোনা ভাইরাসপরবর্তী এটাই তাদের প্রথম আন্তর্জাতিক সিরিজ। মুমিনুল, মুশফিকরা ক্রিকেটে ফিরতে মরিয়া। এ সিরিজকে তারা পাখির চোখ করেছেন। সে লক্ষ্যেই এখন একক অনুশীলনে নিজেদের প্রস্তুত করছেন। শ্রীলংকা সফর সামনে রেখে বিসিবি এখন ব্যস্ত সময় পার করছে। দল নির্বাচনের পাশাপাশি করোনা ভাইরাসকে নিয়ে বেশি ভাবতে হচ্ছে। বৈশ্বিক এ মহামারী ভাবনায় ফেলেছে। ইতোমধ্যে প্রথম দফায় জাতীয় দলের বেশ কয়েকজন ক্রিকেটারের বাসায় গিয়ে তাদের কোভিড-১৯ পরীক্ষা করানো হয়েছে। একমাত্র সাইফ হাসানের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। তবে নির্বাচকরা মনে করছেন, শেষ দিকের টেস্টগুলো বেশি গুরুত্বপূর্ণ। বাকিরা নেগেটিভ মানেই যে তারা সবাই শ্রীলংকা যাচ্ছে এটা কিন্তু এখনই নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। শ্রীলংকাগামী বিমানে চড়ার আগেও খেলোয়াড়দের করোনা টেস্ট করানো হবে। শেষের দিকের টেস্টগুলো তাই বেশি গুরুত্বপূর্ণ। বিসিবিও বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করেছে। ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির প্রধান আকরাম খান জানিয়েছেন, কোভিডকে যতটা সহজ মনে করা হচ্ছে ততটা সহজ নয়। অনেক বড় ট্যুর হওয়ার আগ থেকেই সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়ে শ্রীলংকা যাওয়ার লক্ষ্য তাদের। বিসিবির তত্ত্বাবধানে দেশের পাঁচ ভেন্যুতে নিয়মিত একক অনুশীলন করছেন জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। শ্রীলংকা সফরের আগে কন্ডিশনিং ক্যাম্পের ব্যবস্থা করেছে বিসিবি। ঢাকায় ইতোমধ্যে চলে এসেছেন প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো, ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুক এবং পেস বোলিং কোচ ওটিস গিবসন। হোম কোয়ারেন্টিনে থাকলেও তারা শিষ্যদের নিয়মিত খোঁজখবর নিচ্ছেন। দল নিয়েও নির্বাচকদের সঙ্গে কোচদের কথা হয়েছে। ২০-২২ সদস্যের প্রাথমিক দল শ্রীলংকায় যাবে। তাদের সঙ্গে একই বহরে যাবে হাই পারফরম্যান্স (এইচপি) দলও। জাতীয় দলকে অনুশীলনে সাহায্য করবে এইচপি দল। বিসিবির পক্ষ থেকে আগেই জানানো হয়েছে, সবশেষ সিরিজের দলে থাকা খেলোয়াড়রা শ্রীলংকা সফরের দলে প্রাধান্য পাবে। মার্চে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশ দল ছিল ১৬ জনের। ওই দলে থাকা একমাত্র সাইফ হাসানের করোনা পজিটিভ এসেছে। তবে দলে যারাই সুযোগ পান না কেন, খেলোয়াড়দের প্রত্যেকেই শ্রীলংকা সফরকে টার্গেট করেছেন। তারা মাঠে নামতে মুখিয়ে আছেন। সুযোগ পেলে নিজের সেরাটা উজাড় করে দিতে চেয়েছেন। দিন যত ঘনিয়ে আসছে সবার মধ্যে বাড়তি একটা রোমাঞ্চ কাজ করছে। পাশাপাশি একটা শঙ্কাও উঁকি দিচ্ছে। শেষ মুহূর্তে বাধা হয়ে দাঁড়াবে না তো করোনা ভাইরাস? এখনো যে অনেকটা পথ বাকি। আরও বেশ কয়েকবার কোভিড-১৯ পরীক্ষা দিতে হবে। শ্রীলংকা গিয়েও করোনা টেস্ট, কোয়ারেন্টিন সব কিছু মেনে চলতে হবে। তাই মাঠে নামতে না পারার আগ পর্যন্ত খেলোয়াড়দের মনে একটা ভয় থেকেই যাচ্ছে। দেখা যাক, শেষ পর্যন্ত কী হয়।