মৌলভীবাজারে ওয়াইজেএফবির বৃক্ষরোপণ কর্মসূচীর উদ্বোধন
২৭,জুলাই,সোমবার,আজগর উদ্দিন,মৌলভীবাজার প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে সরকার ঘোষিত কর্মসূচির প্রতি একাত্মতা প্রকাশ করে ও প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের হাত থেকে দেশের পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার লক্ষে যুবক-তরুণ সাংবাদিকদের সংগঠন ইয়ুথ জার্নালিস্টস ফোরাম (ওয়াইজেএফবি) মৌলভীবাজার জেলা কমিটিরি উদ্যেগে দেশব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে মৌলভীবাজার শহরকে আরো সবুজ ও প্রাকৃতিক বান্ধব হিসাবে গড়ে তুলতে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন করা হয়েছে। রবিবার (২৬ জুলাই) সকাল ১১টার দিকে শহরের আলী আমজাদ সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে প্রাণঘাতী করোনার দুর্যোগে সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব মেনে ফলজ, বনজ ও ঔষধী গাছের চারা রোপণ করে আনুষ্ঠানিকভাবে সপ্তাহব্যাপী কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন মৌলভীবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মামুনুর রশীদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মৌলভীবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) জিয়াউর রহমান (জিয়া), জেলা তথ্য কর্মকর্তা মো. আব্দুছ ছাত্তার, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) সিলেট বিভাগী সমন্বয়কারী ও নাট্য ব্যক্তিত্ব আ.স.ম সালেহ সোহেল। সংগঠনের সভাপতি মো. আব্দুল কাইয়ুম এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানার সঞ্চালনায় বৃক্ষরোপণ কর্মসূচীতে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, আলী আমজাদ সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক হাফিজা খাতুন, প্রভাতী শাখার ইনচার্য রোকসানা লস্কর, ইয়ুথ জার্নালিস্টস ফোরাম এর দফতর সম্পাদক আহাদ মিয়া. জহিরুল ইসলাম ও শহীদ উল-ইসলাম প্রিন্স প্রমুখ।
আট ঘণ্টা পর ঢাকার সঙ্গে উত্তরের ট্রেন চলাচল শুরু
২৬,জুলাই,রবিবার,মো.এনাম উদ্দিন,টাঙ্গাইল প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: দীর্ঘ সময়ের চেষ্টায় টাঙ্গাইলে কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেনের উদ্ধার কাজ শেষ হয়েছে। ফলে লাইনচুত্যের ৮ ঘণ্টা পর আজ সকাল ৮টা ৪০ মিনিটে আবারও ঢাকার সঙ্গে উত্তরের ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে। বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব পাড় ট্রেন সহকারী স্টেশন মাস্টার মনির আহমেদ জানান, শনিবার (২৫ জুলাই) রাত সাড়ে ১১টার দিকে টাঙ্গাইলের বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব পাড়ে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা কুড়িগ্রামগামী কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিনসহ চারটি বগি লাইনচ্যুত হয়। ঘটনার পর থেকে এই লাইনে ঢাকার সঙ্গে উত্তর ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে। তবে দীর্ঘ চেষ্টায় আজ সকাল ৮টা ৪০ মিনিটে ট্রেনটি উদ্ধার করা সম্ভব হয়। ফলে আবারও এই লাইনে ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে। তিনি জানান, ঘটনার পর সেতুর উভয় পাড়ে ৪টি ট্রেন আটকা পড়েছিল। সেগুলো ছেড়ে গেছে। এ ঘটনায় প্রায় ৮ ঘণ্টা এই লাইনে ট্রেন চলাচল বন্ধ ছিল। তবে, দুর্ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি।
স্বপ্ন নিয়ে বাঁচার অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করে যাচ্ছেন
২৫,জুলাই,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনাভাইরাসের মহামারীর কারণে সমগ্র বিশ্ব অস্থিতিশীল। আমাদের দেশেও করোনাভাইরাসের প্রভাব, মহামারী আকার ধারণ করায় ফ্রন্ট লাইনে যোদ্ধা হিসেবে বাংলাদেশ পুলিশ অগ্রণী ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে। যুদ্ধক্ষেত্রে সম্মুখ সমরে যারা বুক চিতিয়ে দাঁড়ায় তাদের লক্ষ্য থাকে ডু ওর ডাই! বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর সব সদস্যবৃন্দও এমন অবস্থানে। পরিবার বিচ্ছিন্ন, জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দেশের সেবায়, মানুষের তরে নিবেদিত। বাংলাদেশ পুলিশের জীবন্ত কিংবদন্তী ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমান বিপিএম(বার), পিপিএম(বার) মহোদয়ের দাপ্তরিক নির্দেশনা অনুযায়ী মনিটরিং, নিয়ন্ত্রণ, তত্ত্বাবধানে নিঃস্বার্থভাবে কাজ করে যাচ্ছে স্যারের নেতৃত্বে ঢাকা রেঞ্জ পুলিশ। যুদ্ধের ময়দানে যেমন একজন দক্ষ ও যোগ্য সেনাপতি যুদ্ধক্ষেত্র নিয়ন্ত্রণ করে, কৌশলগত পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করে ধীরস্থিরভাবে সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করে এগিয়ে যায়- স্যারও তেমন একজন মানুষ। পুলিশ সদস্যরা দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে যখন বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি, বিশেষ করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে স্যার তখন অভিভাবক হিসেবে খোঁজ নিচ্ছেন, চিকিৎসা সেবা ঠিকমতো হচ্ছে কিনা সেটা নিশ্চিত করতে হাসপাতালে যাচ্ছেন। আক্রান্ত পুলিশ সদস্যদের বাসায় ফোন করে তাদের সাহস, মনোবল যোগাতে পাশে আছেন, সর্বোপরি সকল ধরনের সাপোর্ট দিয়ে যাচ্ছেন। এমন একজন মানবিক ও ভরসা করার মত পুলিশ কর্মকর্তার অধীনে যে কেউ নিঃসংকোচ চিত্তে দায়িত্ব পালন করতে বদ্ধ পরিকর। স্যার কতটা মানবিক ও দায়িত্বশীল পুলিশ কর্মকর্তা সেটা করোনা পরিস্থিতির কারণে আরো একবার প্রমাণিত হলো। উত্তরণ ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠিত করে সমাজের অবহেলিত ও সুবিধাবঞ্চিত হিজড়া এবং বেদে সম্প্রদায়ের লোকজনের পাশে দাঁড়িয়েছেন। ঢাকার সাভারের আমিনবাজার ও বি-বাড়িয়ায় হিজড়াদের জন্য বিউটি পার্লার তৈরি করে দিয়ে স্বাবলম্বী করে দিয়েছেন। পশ্চাৎপদ জনগোষ্ঠীকে আত্মসম্মান ও স্বপ্ন নিয়ে বাঁচার অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করে যাচ্ছেন। সবাই স্যারের জন্য দোয়া করবেন। লেখক : অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, নারায়ণগঞ্জ জেলা। (ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)
বাগেরহাটে মাছের পোনা অবমুক্তকরণ
২৫,জুলাই,শনিবার,মো.ইয়াসির,বাগেরহাট প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে বাগেরহাটের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়েছে। শনিবার (২৫ জুলাই) বেলা ১১টায় বাগেরহাট সদর উপজেলা পরিষদের পুকুরে মাছের পোনা অবমুক্ত করেন জেলা প্রশাসক মোঃ মামুনুর রশীদ। এসময় বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাফিন মাহমুদ, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা ড. খালেদ কনক, জেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা. লুৎফর রহমান, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সরদার নাসির উদ্দিন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মাদ মুছাব্বেরুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ ফিরোজুল ইসলাম, সদর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রিজিয়া পারভীন, সদর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ ফেরদাউস আনসারীসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে বাগেরহাট জেলার বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের পুকুর, নদী, খাল ও বিলে মৎস্য পোনা অবমুক্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন জেলা মৎস্য কর্মকর্তা ড. খালেদ কনক।
বাবার অসুস্থতায় সকলের দোয়া চেয়েছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক- সফিক
২৪,জুলাই,শুক্রবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: গত শুক্রবারে ২য় বারের মতো বাবার মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণজনিত কারনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন সফিক এর পিতাকে বগুড়া জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। তিনি বলেন, আজ ৮ দিন হলো তিঁনি আই,সি,ইউ বিভাগে অনেকটাই অচেতন অবস্হায় চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রয়েছেন। মস্তিষ্কে এবারের আঘাত বেশ গুরুতর। রক্তনালি ছিঁড়ে গিয়ে মস্তিষ্কের বেশ অংশ জুড়ে রক্ত জমাট বেঁধে আছে। বয়স এবং শারিরীক অবস্হা সহ সার্বিক বাস্তবতায় এ মুহূর্তে তার অপারেশন বা অন্য কোথাও তাঁকে স্থানান্তর করা সম্ভব নয় বলে চিকিৎসকগণের অভিমত। সহনীয় স্থিতিশীল অবস্থায় ফিরিয়ে আসতে সৃষ্টিকর্তা মহান রাব্বুল আলামিনের কাছে আমরা সর্বোচ্চ দোয়া এবং প্রার্থনা জানাই যেনো দ্রুতই অসীম দয়াময় প্রভু আমার পরম প্রিয় বাবাকে সুস্হ্যতা দান করেন। সকল বন্ধু, শুভানুধ্যায়ীদের নিকট কেবল সেই দোয়া চাই.. সকলের জীবন সুন্দর হোক, রহমানুর রাহিম আমাদের হেফাজত করুন - আ মী ন...!!
কুড়িগ্রামে তিস্তার ভাঙন রোধ ও স্পার রক্ষার দাবিতে মানববন্ধন
২৪,জুলাই,শুক্রবার,কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি ,নিউজ একাত্তর ডট কম: কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার বিদ্যানন্দ ইউনিয়নে তিস্তা নদীর ভাঙন রোধে বুড়িরহাট ও গাবুর হেলান স্পার ভাঙন রোধে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। শুক্রবার সকালে ভাঙন কবলিত গাবুর হেলান স্পারে ঘন্টাখানিক মানববন্ধন করা হয়। মানববন্ধনে এলাকাবাসী প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করে, ভাঙন কবলিত সন্তানদের রক্ষার জন্য এই এলাকায় নদী খনন ও স্থায়ী বাঁধ নির্মাণের দাবি জানান। এসময় এলাকাবাসীর পক্ষে বক্তব্য রাখেন সমাজকর্মী হক্কানী মিয়া, ইঞ্জিনিয়ার রেজওয়ান বাদশা, মোয়াজ্জেম বদিয়ত আলী, দিনমজুর মন্টু মিয়া, আনিছুর রহমান, আলেমা বেগম প্রমুখ। এলাকাবাসী জানান, ১৯৯৮ সালে ৩৫০ মিটার দীর্ঘ স্পারটি তিস্তার ভাঙন রোধে নির্মাণ করা হয়। গত ৮দিন ধরে এখানে ভাঙন চলছে। ভাঙন রোধে পানি উন্নয়ন বোর্ড কাজ করলেও তারা গাফিলতি করছে বলে অভিযোগ তোলা হয়। এলাকাবাসী স্বেচ্ছাশ্রমে বালু সংগ্রহ করে বস্তায় ভরালেও পানি উন্নয়ন বোর্ডের লোকজন দুর্ভোগ কবলিত এলাকায় এসে খোঁজখবর নিচ্ছেন না। তারা বস্তাগুলো শেলাই করে স্পারের মাথায় ফেলার ব্যবস্থা করছে না। ভাঙন রোধে স্থায়ী কাজের দাবিতে মানববন্ধন আয়োজন করে এলাকাবাসী। স্থানীয়রা জানান, ভাঙনরোধ করা না গেলে গাবুর হেলান মসজিদ, গাবুর হেলান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মাজাপাড়া বালিকা দাখিল মাদ্রাসা, সোলাগাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, তৈয়ব খা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, রাঘব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মহাসিনিয়া দাখিল মাদ্রাসাসহ বেশ কয়েকটি মসজিদ. মন্দির, ঈদগাহ মাঠ, কবরস্থান, রাইচমিল এবং শত শত বাড়িঘর নদীগর্ভে চলে যাবে।
ঠাকুরগাঁও সীমান্তে বিজিবির পাহারা জোরদার
২১,জুলাই,মঙ্গলবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: আসন্ন কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে ঠাকুরগাঁও সীমান্তে পাহারাসহ অন্যান্য কার্যক্রম জোরদার করেছে বিজিবি। এছাড়া সীমান্ত এলাকাগুলোতেও মাদক ও চোরাচালান বিরোধী অন্যান্য কার্যক্রমও জোরদার করেছে তারা। সোমবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ঠাকুরগাঁও ৫০ বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. শহিদুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। বিজিবি জানায়, গত কয়েকদিন অভিযান চালিয়ে জেলার কাঠালডাঙ্গী, রত্নাই, ডাবরী ও অন্যান্য সীমান্তে বিপুল পরিমাণ ভারতীয় ফেনসিডিল ও চোরাই গরু উদ্ধার করা হয়েছে। ৫০ বিজিবির অধিনায়ক আরও জানান, মাদকদ্রব্যের বিরুদ্ধে সরকার ঘোষিত জিরো টলারেন্স নীতিকে অটুট রাখার স্বার্থে ঠাকুরগাঁও সীমান্তে টহল ও অপারেশনসহ গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে বিশেষ অভিযান চালানো হচ্ছে। এছাড়া সভা সেমিনারের মাধ্যমে সীমান্তবর্তী জনসাধারণকে সচেতন করা হচ্ছে।
নড়াইলে সাংবাদিকদের ঈদ উপহার দিলেন দুদক কমিশনার
২০,জুলাই,সোমবার,মো.আব্দুল্লাহ,নড়াইল প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে দুর্নীতি দমন কমিশনার (তদন্ত) এফ এম আমিনুল ইসলামের পক্ষ থেকে নড়াইল প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের মাঝে ঈদ উপহার দেয়া হয়েছে। সোমবার (২০ জুলাই) বেলা ১১টার দিকে প্রেসক্লাবের ৪০ সদস্যদের মাঝে ঈদের নতুন পোশাক দেয়া হয়। নড়াইল প্রেসক্লাবের সভাপতি এনামুল কবির টুকু, সাধারণ সম্পাদক শামীমূল ইসলাম টুলু ও দুদক কমিশনারের স্বজন ফারুক আহম্মেদ সাংবাদিকদের হাতে এ উপহার তুলে দেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রেসক্লাবের সহসভাপতি নইমুর রহমান ফিরোজ, সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট আলমগীর সিদ্দিকী, সাবেক সহসভাপতি সুলতান মাহমুদ, প্রথম আলোর সাংবাদিক কার্তিক দাস, নড়াইল বার্তার নির্বাহী সম্পাদক হাফিজুর রহমান, সাংবাদিক গুলশান আরা, মাছরাঙা টিভির সাংবাদিক মীর্জা নজরুল ইসলাম, আরটিভির সাংবাদিক সুজয় বকসী, একুশে টিভির সাংবাদিক ফরহাদ খান, মোহনা টিভির সাংবাদিক হাফিজুল নিলু, প্রতিদিনের সংবাদের সাংবাদিক লুৎফুল আলম সজলসহ অন্যরা।
হুমায়ূন আহমেদ স্মরণে ২ ছেলেকে নিয়ে নুহাশপল্লীতে শাওন
১৯,জুলাই,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: গাজীপুরের পিরুজালীর নুহাশপল্লীতে জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের অষ্টম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়েছে। তবে করোনাকালের বাস্তবতায় অনাড়ম্বর আয়োজনে এবার এই লেখককে স্মরণ করা হলো। রবিবার সকালে লেখকের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন, দুই ছেলে নিনিত ও নিষাদ হুমায়ূনের উপস্থিতিতে কবর জিয়ারত করা হয়। পরিবারের লোকজনের সাথে হুমায়ূন আহমেদের প্রকাশক, শুভানুধ্যায়ী ও ভক্তরা উপস্থিত ছিলেন। এসময় লেখকের আত্মার শান্তি কামনায় প্রার্থনা করা হয়। কবর জিয়ারত শেষে হুমায়ূন আহমদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন গণমাধ্যমকে হুমায়ূনের স্বপ্ন এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় পুনর্ব্যক্ত করেন। তবে পারিবারিক সিদ্ধান্তহীনতার কারণে ক্যান্সার হাসপাতাল ও জাদুঘর নির্মাণ শুরু করতে না পারায় দুঃখ প্রকাশ করেন। প্রতিবছর সকাল থেকে হুমায়ূন পরিবার, তার ভক্ত, কবি, লেখক এবং নাট্যজনেরা ফুল হাতে শ্রদ্ধা জানাতে ভিড় করেন নুহাশপল্লীর লিচু তলায়। নন্দিত লেখকের প্রিয় চরিত্র হলুদ পাঞ্জাবিতে হিমু এবং নীল শাড়িতে রূপা সেজে আসেন ভক্ত ও পাঠকেরা। এবার করোনা ঝুঁকিতে স্বাস্থ্যবিধির বাধ্যবাধকতা থাকায় দূর দূরান্তের বিপুল সংখ্যক লেখক ভক্তরা নুহাশপল্লীতে না এলেও কিছু সংখ্যক ভক্ত অনুরাগী উপস্থিত হয়েছিলেন। তারা লেখকের প্রতি অতল শ্রদ্ধা ও ভালোবাসার কথা জানান। প্রয়াণ দিবসের স্মরণসভায় উপস্থিত ছিলেন হুমায়ূন আহমেদের প্রকাশকেরা। এখানে আসা অন্যপ্রকাশের প্রকাশক মাজহারুল ইসলাম বলেন, বাংলা ভাষা যতদিন থাকবে ততদিন হুমায়ূন আহমেদ পঠিত হবে। ১৯৪৮ সালের ১৩ নভেম্বর নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার কুতুবপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদ। তার বাবা ফয়েজুর রহমান ও মা আয়েশা ফয়েজ। ১৯৭২ সালে প্রথম উপন্যাস নন্দিত নরকে প্রকাশের পরপরই খ্যাতি লাভ করেন তিনি। বাংলাদেশে পাঠকপ্রিয় এই লেখক দুই শতাধিক ফিকসন ও নন-ফিকসন বই লিখেছেন। হিমু, মিছির আলীর মতো চরিত্র দিয়ে লাখো-কোটি পাঠক-ভক্ত তৈরি করেছেন এই কথার জাদুকর। ১৯৯০ ও ২০০০ দশকে তার বইগুলো একুশে বইমেলায় সর্বাধিক বিক্রি হয়। তাকে বাংলাদেশের স্বাধীনতা পরবর্তী শ্রেষ্ঠ লেখকদের মধ্যে অন্যতম গণ্য করা হয়। বাংলা কথাসাহিত্যে তিনি সংলাপপ্রধান নতুন শৈলীর জনক। বাংলা সাহিত্যে অসাধারণ অবদান রাখার স্বীকৃতিস্বরূপ হুমায়ূন আহমেদকে একুশে পদক, বাংলা একাডেমি পুরস্কার, মাইকেল মধুসূদন পদক দেয়া হয়। ২০১২ সালে ১৯ জুলাই মরণ ব্যাধি ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে তিনি নিউইয়কের্র একটি হাসপাতালে মারা যান।

সারা দেশ পাতার আরো খবর