ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় চার মোটরসাইকেলসহ চোরচক্রের ৬ সদস্য আটক
০৫মার্চ,বৃহস্পতিবার,মোহাম্মদ আলমগীর,ব্রাহ্মণবাড়িয়া,নিউজ একাত্তর ডট কম: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অভিযান চালিয়ে ৪টি চোরাই মোটরসাইকেলসহ ছয় যুবককে আটক করেছে Rab। বৃহস্পতিবার (৫ মার্চ) শহরের পীরবাড়ি এলাকা থেকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাদের গ্রেপ্তার করে Rab-14 এর ভৈরব ক্যাম্পের সদস্যরা। Rab জানায় আটক যুবকেরা চোরাকারবারের সঙ্গে জড়িত। তারা হলেন- ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার মুসা, নাদিম খান, কামাল হোসেন, ইফরাত খান হৃদয়, কসবা উপজেলার নাদিম এবং আখাউড়া উপজেলার জাহিদুল ইসলাম জনি। Rab-14 এর ভৈরব ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার রফিউদ্দীন মোহাম্মদ জোবায়ের জানান, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে Rab জেলা শহরের পীরবাড়ি এলাকায় অভিযান চালিয়ে চোরাই মোটরসাইকেলসহ দুই যুবককে আটক করে। পরে তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে বুধবার গভীর রাতে জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে অন্যদের আটক করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে সদর থানায় নিয়মিত মামলা করা হবে বলেও জানান তিনি। উদ্ধারকৃত মোটরসাইকেলের মধ্যে একটি ভারতীয় ব্র্যান্ড পালসার এবং তিনটি অ্যাপাচি। যেগুলোর আনুমানিক মূল্য ৬ লাখ ৬০ হাজার টাকা।
টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে ৭ রোহিঙ্গা ডাকাত নিহত
০২মার্চ,সোমবার,কক্সবাজার প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: কক্সবাজারের টেকনাফে Rapid Action Battalion Rab-15 এর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ৭ রোহিঙ্গা ডাকাত নিহত হয়েছে। আজ সোমবার ভোরে টেকনাফ উপজেলার জাদিমরা পাহাড়ে এই ঘটনা ঘটে। এসময় ৫টি দেশিয় এলজি ও বিপুল পরিমাণ গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়েছে। টেকনাফ Rab-15 সিটিসি-১ টেকনাফ ক্যাম্পের ইনচার্জ লে. মির্জা সাহেব মাহতাব বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, সোমবার ভোরে টেকনাফ জাদিমরা পাহাড়ে কুখ্যাত ডাকাত জকিরের সন্ধানের খবরে তিনিসহ Rabর একটি দল ওই ক্যাম্পের পাশের পাহাড়ে অভিযান চালান। এ সময় পাহাড় থেকে Rab কে লক্ষ্য করে গুলি চালায় ডাকাত দল। Rab ও আত্মরক্ষার্থে গুলি চালায়। এতে সাত রোহিঙ্গা ডাকাত নিহত হয়। এসময় ঘটনাস্থল থেকে ৫টি দেশিয় তৈরি এলজি বন্দুক ও বিপুল পরিমাণ আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। বিষয়টি টেকনাফ থানা পুলিশকে অবগত করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে আসলে ডাকাতদের পরিচয় নিশ্চিত করা যাবে বলে জানান তিনি।
জয়পুরহাটে জঙ্গলে গাছের ডালে স্বামী-স্ত্রীর ঝুলন্ত লাশ
০১মার্চ,রবিবার,জান্নাতুল ফেরদৌস,জয়পুরহাট,নিউজ একাত্তর ডট কম: জয়পুরহাটের আক্কেলপুরের গুডুম্বা চাত্রা গ্রামে স্বামী-স্ত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তারা দুজনেই গুডুম্বা গ্রামের বাসিন্দা। আজ রোববার ভোরে চাত্রা গ্রামের পুকুরপাড়ে গাছে ঝোলানো অবস্থায় মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। পরে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ মরদেহ দুটি উদ্ধার করে। নিহতরা হলেন, উপজেলার রায়কালী ইউনিয়নের গুডুম্বা গ্রামের শাহীন মিয়া (৩৮) ও তার স্ত্রী আশা পারভীন (২৬)। আক্কেলপুর থানার ওসি আবু ওবায়েদ জানান, সকালে বাড়ি থেকে কিছু দূরে পুকুরপাড়ের জঙ্গলাকৃর্ণ এলাকার গাছের ডালে ঝুলন্ত অবস্থায় স্বামী-স্ত্রীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তিনি বলেন, ময়নাতদন্তের জন্য তাদের মরদেহ জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে ওই দম্পতি গাছের সঙ্গে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। তবে, প্রতিবেদন পেলে মূল কারণ যাবে জানা যাবে।
কুমিল্লায় পিকনিকের বাস খাদে, নিহত ৩
২৯ফেব্রুয়ারী,শনিবার,কুমিল্লা প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: কুমিল্লার দাউদকান্দিতে পিকনিকের বাস খাদে পড়ে এক পথচারীসহ ৩ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও অন্তত ১৫ জন। আজ শনিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার দাউদকান্দির জিংলাতলী নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। দাউদকান্দি হাইওয়ে পুলিশের ওসি আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, পিকনিক শেষ করে কক্সবাজার থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী খাদিজা ভিআইপি কোচ সার্ভিসের একটি বাস সকাল সাড়ে ৭টার দিকে বেপোয়ারা গতিতে কুমিল্লার দাউদকান্দির জিংলাতলী এলাকায় এক পথচারীকে ধাক্কা দিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মহাসড়কের পাশের খাদে পড়ে যায়। এসময় হাইওয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা দুর্ঘটনা কবলিত বাস ও যাত্রীদের উদ্ধার করেন। পরে গুরুতর আহতাবস্থায় ৫ জনকে উদ্ধার করে দাউদকান্দির গৌরিপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পর এক পথচারী ও ২ বাসযাত্রী মারা যান। নিহতরা হলেন, পথচারী দাউদকান্দির সহিদ মোল্লা, বাসযাত্রী ঢাকা কেরানীগঞ্জের শফিকুল ইসলাম ও মুঞ্জিগঞ্জ জেলার মো. রমজান আলী। এ ঘটনায় দাউদকান্দি থানায় একটি মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।
পাপিয়ার আমলনামা,ভিডিও ক্লিপ দিয়ে ব্ল্যাকমেইল করতেন পাপিয়া
২৩ফেব্রুয়ারী,রবিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম:আজকে সবচেয়ে আলোচিত নাম পাপিয়া । রাজনীতির আড়ালে মাদক ও নারী বাণিজ্য করেন তিনি। রাজধানীর তারকা হোটেলগুলোতে আয়োজন করতেন পার্টির। সাপ্লাই দিতেন নারী। এসকর্ট সার্ভিস। সুন্দরী তরুণীদের চাকরি দেয়ার নামে নরসিংদী থেকে ঢাকায় নিয়ে আসতেন। তারপর তাদের জিম্মি করে দিনের পর দিন করাতেন দেহ ব্যবসা।নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাাদক পাপিয়ার আমলনামা প্রকাশের পর সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে তাকে। তার কুকর্মের ভিডি ক্লিপ রয়েছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে। কী আছে এসব ভিডিও ক্লিপে? তদন্ত সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, নরসিংদী ও ঢাকার অনেক তরুণীদের চাকরির নামে তারকা হোটেলে ডেকে নিতেন পাপিয়া। পার্টি গার্ল হিসেবে ব্যবহার করতেন তাদের। তারপর টাকার প্রলোভন দেখিয়ে অনেকের শয্যা সঙ্গী করতে বাধ্য করতেন। আইন শৃঙ্খলা বাহিনী সূত্রে জানা গেছে, তারকা হোটেলে এসকর্ট সার্ভিস দিতে বাধ্য করা হতো তরুণীদের। তার আগে পার্টিতে মদ পান করিয়ে মাতাল করা হয়। মাতাল অবস্থায় হোটেলের রুমে তরুণীর কক্ষে ঢুকানো হয় খদ্দেরকে। এভাবেই নির্যাতনের শিকার হন তার সংগ্রহ করা প্রায় সকল তরুণী। পরবর্তীতে পাপিয়ার হাত থেকে মুক্তি চাইলেও বিপাকে পড়ে যান তারা। কারণ ইতিমধ্যে মদ্য পান ও পরবর্তী দৃশ্য গোপনে ধারণ করা হয়েছে ক্যামেরায়। কথামতো না চললে ভিডিও ছড়িয়ে দেয়া হবে বলে হুমকি দেয়া হয়। এভাবেই জিম্মি করা হয় তরুণীদের। তদন্ত সংশ্লিষ্টরা জানান, এভাবেই তরুণীদের ভিডিও ধারণ করে জিম্মি করতেন পাপিয়া। সুন্দরী তরুণীদের পাঠানো হতো প্রভাবশালীদের বাসায়, হোটেলের রুমে। এছাড়াও ভয়ঙ্কর অনেক অপরাধমূলক কর্মকান্ডে জড়িত শামীমা নূর পাপিয়া ওরফে পিউ। পাপিয়ার কাছ থেকে গোপন ক্যামেরায় ধারণকৃত অনেক ভিডিও ক্লিপ উদ্ধার করা হয়েছে। এতে অনেক ধনাঢ্য ও প্রভাবশালী ব্যক্তির সঙ্গে তরুণীদের একান্ত মুহূর্তের দৃশ্য রয়েছে। কিছু ধনাঢ্যদেরও এসব ভিডিও ক্লিপ দিয়ে ব্ল্যাকমেইল করতেন পাপিয়া। কয়েক ভিডিও ক্লিপে দেখা গেছে, রাতের পার্টির দৃশ্য। গর্জিয়াস মেকাপে সেজে পাপিয়া উপভোগ করছে পার্টি। মেয়েরা সেখানে নাচছে। অভিযোগ রয়েছে, কোনো মেয়ে আপত্তি করলে ভিডিও ক্লিপ দিয়ে ব্ল্যাকমেইল ছাড়াও লাঠি দিয়ে পেটাতেন যুব মহিলী লীগের এই নেত্রী। লাঠি হাতে সোফায় বসে পার্টি উপভোগ করার ভিডিও পেয়েছেন তদন্ত সংশ্লিষ্টরা। গত শনিবার সকালে হযরত শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে পাপিয়া ও তার স্বামী মফিজুর রহমান সুমনসহ সহযোগীদের গ্রেপ্তার করেছে RAB।
বান্দরবানে আওয়ামী লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা
২৩ফেব্রুয়ারী,রবিবার,বান্দরবান প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: বান্দরবান সদরে স্থানীয় এক আওয়ামী লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো অন্তত পাঁচজন। উপজেলার জামছড়িমুখে একটি চায়ের দোকানে শনিবার সন্ধ্যায় এ হামলা হয় বলে সদর থানা ওসি শহিদুল আলম চৌধুরী জানান। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় নিহত আওয়ামী লীগ নেতা স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন। গুলিবিদ্ধ বাকিদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বান্দরবানের জামছড়িতে হঠাৎ করেই একদল সন্ত্রাসী গুলি শুরু করলে সন্ত্রাসীদের গুলিতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন আওয়ামী লীগ নেতা বাচনু মারমা (৬০)। সদর উপজেলার রাজবিলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ক্য অং প্রু বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান এ ঘটনায় আতঙ্কিত হয়ে বাতখই মারমা (৬৩) নামে একজনের মৃত্যু হয়েছে। আহতরা হলেন- মংক্য চিং (২৫), ক্য প্রু মং (৪০), আদাসে (৩২), লা মং সিং (৩৫), সাবেক মেম্বার উ চ থোয়া (৬০)। তারা সবাই একই এলাকার বাসিন্দা। জানা যায়, এ ঘটনার পর থেকেই ওই এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। তবে এ ঘটনায় কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।
সাংবাদিক সুমন হত্যাচেষ্টা,আরও এক আসামী গ্রেপ্তার
২২ফেব্রুয়ারী,শনিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম:শনিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) ভোরে রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানাধীন ৩৪ নাম্বার ওয়ার্ড থেকে ইমন মোল্লা (৩১) নামে একজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। মামলার তদন্ত কারী কর্মকর্তা মোহাম্মদ পুর থানার উপ পরিদর্শক (এসআই ) আলতাফ হোসেন জানান, শনিবার ভোরে রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানাধীন ৩৪ নাম্বার ওয়ার্ড থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর আগে এ ঘটনায় আরো চারজনকে গ্রেপ্তার করে Rab। তারা কারাগারে রযেছেন। প্রসঙ্গত, গত ১ ফেব্রয়ারি ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপেরেশনন নির্বাচন চলাকালিন সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে দুর্বৃত্তদের হামলার শিকার হন সুমন। মোহাম্মদপুর এলাকার এক ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থিীর লোকজন তার ওপর হামলা চালায় বলে ওই সময় ধারনকুত ভিডিও ফুটেজ থেকে নজানতে পেরেছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী।
বিয়ের ফাঁদে ফেলে ১০ লাখ টাকা দাবি,পুড়িয়ে দেয়া হল যুবকের যৌনাঙ্গ
২০ফেব্রুয়ারী,বৃহস্পতিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: নরসিংদীতে এক যুবককে প্রেম-বিয়ের ফাঁদে ফেলে অপহরণ ও মুক্তিপণ দাবি এবং তা দিতে অস্বীকৃতি জানানোয় তাকে নিপীড়ণের ঘটনা ঘটেছে। অপহরণকারীদের হাত থেকে পালিয়ে এসে নির্যাতিত যুবক নিজেই সময় সংবাদকে এ তথ্য ও ভিডিও দিয়েছেন। রাসেল জানান, তিনি একজন সৌদি প্রবাসী। তিন মাসের ছুটিতে দেশে এসেছিলেন তিনি। বিদেশে থাকাকালীন তার শ্বশুর নয়ন ইসলাম ব্যবসা করার কথা বলে তার কাছ থেকে দু লাখ টাকা ধার নেন। তিনি দেশে ফেরার পর পাওনা টাকা ফেরত চাইলে শ্বশুর তালবাহানা করতে থাকেন। পরে তার স্ত্রী মন্টির সহায়তায় মিথ্যা মামলায় রাসেলসহ তার পরিবারের সদস্যদের নামে মামলা করেন। রাসেল আরো জানান, জামিনে বেরিয়ে এলে একপর্যায়ে বিবাদ মিমাংসা করার কথা বলে গত বছরের ২৭ ডিসেম্বর তাকে শ্বশুরবাড়ি এলাকায় ডেকে নেয় প্রতিপক্ষের লোকজন। এসময় শ্বশুরবাড়ির লোকেরা ভুয়া পুলিশ সাজিয়ে গ্রেফতারের নামে অপহরণ করে তাকে। রাসেল অভিযোগ করেন, অপহরণের পর তার উপর নির্যাতন করা হয়। তার বড় শ্যালক চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী পাপ্পু ও তার বন্ধুরা ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। তা দিতে অস্বীকৃতি জানানোয় পাপ্পু ও তার বন্ধুরা শ্বশুর নয়ন ইসলামের নির্দেশে আবারো নির্যাতন করে। রাসেল অভিযোগে জানান, এসময় তাকে বিবস্ত্র করে তার পুরুষাঙ্গে আগুন ধরিয়ে দেয় তারা। অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র হাতে দিয়ে ছবি তোলে, মোবাইলে ভিডিও করে। রাসেলের উপর নির্যাতনের ভিডিও তার মাকে পাঠিয়ে ব্ল্যাকমেল করা হয়। আইনের সহায়তা না নেয়ার জন্য হুমকিও দেয়া হয়। এতে তার মা হার্ট অ্যাটাক করেন বলে জানান রাসেল। তিনি অভিযোগ করেন, চক্রের মূল হোতা তার কথিত স্ত্রী মন্টি। প্রতারণার জন্য সে অন্তত ৮/১০টি বিয়ে করেছে। পরে, কৌশলে অপহরণকারীদের কাছ থেকে পালিয়ে আসেন রাসেল। নরসিংদী মডেল থানায় মামলা করতে গেলে অস্ত্র হাতে তোলা সেসব ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকিতে মামলা না করেই ফেরত আসেন রাসেল।সময় সংবাদ

সারা দেশ পাতার আরো খবর