রবিবার, এপ্রিল ৫, ২০২০
অভাব-অনটনের কারণে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা
২৬মার্চ,বৃহস্পতিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম:মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার বালুচর ইউনিয়নের মোল্লাকান্দি বালুচর গ্রামে মো. সোহরাব হোসেন (২৫) নামের এক ব্যাক্তি ঘরের আড়ার সাথে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। তার স্ত্রী নিলুফা বেগম, সে এক ছেলে এক মেয়ের জনক। পুলিশ ও স্বজনদের থেকে জানা যায়, প্রায় দুই বছর যাবত সে মোল্লাকান্দি গ্রামের আজিজ মুন্সীর বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। বেশ কিছুদিন যাবত অভাব-অনটনে ভুগছিলো পরিবারটি। ২৫ মার্চ বুধবার বিকেল সাড়ে ৫ টার দিকে বাড়িতে কেউ না থাকায় গলায় ওড়না প্যাঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। তাকে ঝুলতে দেখে তার স্ত্রী চিৎকার দিলে আশপাশের লোকজন এসে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে ঘরের দরজা ভেঙ্গে লাশ নিচে নামায়। খবর নয়াদিগন্ত । সিরাজদিখান থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ফরিদ উদ্দিন জানান, সোহরাবের স্ত্রী ও ভাইয়ের আবেদনের প্রেক্ষিতে তাদেরকে লাশ দাফনের অনুমতি দেয়া হয়েছে। লাশের সুরতহাল করা হয়েছে। এ বিষয় তাদের কোনো অভিযোগ নাই। একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।
তিন লাখ টাকা না দেয়াতেই থানায় শানুকে নির্যাতন করে হত্যা!
২৬মার্চ,বৃহস্পতিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম:তিন লাখ টাকা না দেয়াতেই বরগুনার আমতলী থানায় হত্যা মামলার সন্দেহভাজন শানু হাওলাদারকে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে অভিযোগ করেছে তার পরিবার। বৃহস্পতিবার সকাল সোয়া ৬টার দিকে ওই থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মনোরঞ্জন মিস্ত্রির কক্ষে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়। পরিবারের অভিযোগ, থানার ওসি আবুল বাশার ও পরিদর্শক (তদন্ত) মনোরঞ্জন মিস্ত্রির দাবিকৃত তিন লাখ টাকা না দেয়ায় শানুকে নির্যাতন করে হত্যা করেছে। এ ঘটনায় আমতলী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মনোরঞ্জন মিস্ত্রি ও ডিউটি অফিসার এএসআই আরিফ হোসেনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। জানা গেছে, উপজেলার গুলিশাখালী ইউনিয়নের পশ্চিম কলাগাছিয়া গ্রামে গত বছর ৩ নভেম্বরে ইব্রাহিম নামের একজন কৃষককে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। ওই হত্যা মামলায় শানু হাওলাদারের সৎ ভাই মিজানুর রহমান হাওলাদার এজাহারভুক্ত আসামি। ওই মামলায় শানু হাওলাদারকে সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে সন্দেহভাজন আসামি হিসেবে আমতলী থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। নিহতের পরিবারের অভিযোগ, শানুকে আটকের তার পরিবারের কাছে তিন লাখ টাকা দাবি করেন আমতলী থানার ওসি আবুল বাশার ও পরিদর্শক (তদন্ত) মনোরঞ্জন মিস্ত্রি। টাকা না পেয়ে শানু হাওলাদারকে থানা হাজতে রেখে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের নামে নির্যাতন করে। পরে নিহতের ছেলে সাকিব হোসেন মঙ্গলবার ওসি আবুল বাশারকে ১০ হাজার টাকা দিয়ে আসে। কিন্তু তাতে তিনি তুষ্ট হননি। বুধবার পরিবারের লোকজন শানু হাওলাদারের সঙ্গে দেখা করতে চাইলে পুলিশ দেখা করতে দেয়নি। এদিকে ওসি আবুল বাশার দাবি করেন, বৃহস্পতিবার সকাল সোয়া ৬টার দিকে শানু ওয়াস রুমে যাওয়ার কথা বললে পুলিশ তাকে ওয়াশ রুমে নিয়ে যায়। পরে এক ফাঁকে শানু হাওলাদার পরিদর্শক (তদন্ত) মনোরঞ্জন মিস্ত্রির কক্ষে ফ্যানের সঙ্গে রশি পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। হাজতখানায় কোনো ফ্যান নেই সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি পূর্বের কথা পাল্টে বলেন, পরিদর্শক (তদন্ত) মনোরঞ্জনের কক্ষে ফ্যানের সঙ্গে রশি পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে। টাকা না দেয়ায় তাকে নির্যাতন করে হত্যা করেছেন এমন প্রশ্নের জবাব এড়িয়ে যান ওসি। এদিকে ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার জন্য চেষ্টা করছে পুলিশ। তারা নিহত স্বজনের পরিবার ও সংবাদ কর্মীদের থানার ভিতরে প্রবেশ করতে বাঁধা এবং থানা ফটকে তালা লাগিয়ে দেয়। পরে নিহতের স্বজনরা থানা ফটকের সামনে আহাজারি করে। আধা ঘণ্টা পরে পুলিশ ফটক খুলে দেয়। খবর পেয়ে বরগুনা পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন পিপিএম আমতলী থানা আসেন। ঘটনা তদন্তে জেলা পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) মো. তোফায়েল আহম্মেদকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বরগুনা সদর) মোঃ মহব্বত আলী ও সহকারী পুলিশ সুপার (আমতলী-তালতলী সার্কেল) সৈয়দ রবিউল ইসলাম। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনা জেলার সিনিয়র সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আসাদুজ্জামান ও আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা শঙ্কর প্রসাদ অধিকারী নিহত শানু হাওলাদারের সুরাতহাল করেন। এ ঘটনায় দায়িত্ব অবহেলার দায়ে তাৎক্ষনিক বরগুনা পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন আমতলী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মনোরঞ্জন মিস্ত্রি ও ডিউটি অফিসার এএসআই আরিফুর রহমানকে সাময়িক বরখাস্ত করেছেন। নিহত শানু হাওলাদারের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা মর্গে প্রেরণ করেছে পুলিশ। নিহত শানু হাওলাদারের ছেলে সাকিব হোসেন বলেন, বিনা অপরাধে আমার বাবাকে ওসি ধরে এনে তিন লাখ টাকা দাবি করেন। আমি ওসির দাবিকৃত ঘুষের টাকা দিতে অস্বীকার করায় আমার বাবাকে নির্যাতন করেছে। বাবার নির্যাতন সইতে না পেয়ে মঙ্গলবার দুপুরে আমি ওসিকে ১০ হাজার টাকা দিই। কিন্তু ১০ হাজার টাকায় ওসি তুষ্ট হয়নি। তিনি আরও বলেন, ‘বুধবার সকালে আমি বাবার সঙ্গে দেখা করতে থানায় আসি কিন্তু আমাকে দেখা করতে না দিয়ে ওসি আবুল বাশার ও পরিদর্শক (তদন্ত) মনোরঞ্জন মিস্ত্রি গালাগাল করে তাড়িয়ে দেয়। সারা দিনে আমাকে বাবার সঙ্গে দেখা করতে দেয়নি। ওসি বলেন টাকা নিয়ে আস তারপর দেখা করতে দেব।’ নিহত শানু হাওলাদারের শ্যালক রাকিবুল ইসলাম বলেন, দুলাভাইকে ধরে আনার পর থেকে আমি থানায় প্রাঙ্গণে ছিলাম। পুলিশ তাকে টাকার জন্য বেধরক মারধর করেছে। তার চিৎকার শুনেছি। বহুবার চেষ্টা করেছি তার সঙ্গে দেখা করতে কিন্তু পুলিশ দেয়া করতে দেয়নি। উল্টো আমাদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করেছে। নিহত শানু হাওলাদারের স্ত্রী মোসা. ঝরনা বেগম বলেন, ৫ জন পুলিশ সোমবার রাতে আমার স্বামীকে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে যায়। নেয়ার সময় আমার কাছে টাকা চায়। আমি টাকা দেতে রাজি না হওয়ায় আমার স্বামীকে পুলিশে পিটিয়ে মেরেছে। গুলিশালালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মো. নুরুল ইসলাম বলেন, শানু হাওলাদারকে বাড়ি থেকে ধরে এনে নির্যাতন করেছে। আত্মহত্যার ঘটনা পুলিশের সাজানো। আমতলী উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. মজিবুর রহমান বলেন, থানার ওসি মো. আবুল বাশার টাকা না পেয়ে নির্যাতন করে হত্যা করেছে। এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে বিচার দাবি করছি। আমতলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র মতিয়ার রহমান বলেন, পুলিশ পরিকল্পিতভাবে শানুকে নির্যাতন করে হত্যা করেছে। এ ঘটনার বিচার দাবি করছি। আমতলী থানার ওসি মো. আবুল বাশার বলেন, আসামী শানু হাওলাদার বৃহস্পতিবার সকাল সোয়া ৬ টার দিকে ওয়াশ রুমে যাওয়ার জন্য বলে। সে ওয়াশ রুম থেকে ফিরে এসে এক ফাঁকে হাজতখানার ফ্যানের সাথে গলায় রশি পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে। আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার ও পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শঙ্কর প্রসাদ অধিকারী বলেন, নিহত শানু হাওলাদারের শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছ। তবে ময়নাতদন্ত ছাড়া মৃত্যুর সঠিক কারণ বলা যাবে না। এ ঘটনার তদন্তকারী দলের প্রধান বরগুনা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার প্রশাসন ও অপরাধ মো. তোফায়েল আহম্মেদ বলেন, দায়িত্ব অবহেলার দায়ে পরিদর্শক (তদন্ত) মনোরঞ্জন মিস্ত্রি ও ডিউটি অফিসার এএসআই মো. আরিফুর রহমানকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। বরগুনা জেলা পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেন পিপিএম বলেন, এ ঘটনায় তিন সদস্যের একটি তদন্ত টিম গঠন করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। পুলিশ টাকা না পেয়ে নির্যাতন করে হত্যা করেছে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাব না দিয়ে তিনি আরও বলেন,অপরাধী যেই হোক নিরপেক্ষ তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।খবর যুগান্তর অনলাইন ।
সাংবাদিককে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে জেল-জরিমানার ঘটনায় ডিসি সহ চার কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামল
২৬মার্চ,বৃহস্পতিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম:সাংবাদিককে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে জেল-জরিমানার ঘটনায় ওএসডি হওয়া কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোছা. সুলতানা পারভীনসহ চার কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা হয়েছে। এছাড়াও তাদের কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বৃহস্পতিবার বলেন, ডিসিসহ চারজনকে জনপ্রশাসনে নিয়ে আসা হয়েছে। তাদের ওএসডি (বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) করা হয়েছে। ওএসডি থাকাকালে তাদের বেতন বন্ধ থাকে। তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা হয়েছে। ওখান (কুড়িগ্রাম) থেকেও একটি মামলা হবে। ফরহাদ হোসেন বলেন, জামালপুরের জেলা প্রশাসকের (নারী কেলেঙ্কারির ঘটনা) মতো এরপর তাদের শুনানির সম্মুখীন হতে হবে। দোষের মাত্রা ও সার্ভিস রুলস অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। জনপ্রশাসনের কর্মকর্তারা জানান, গত ২৩ মার্চ চার কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করা হয়েছে। গত ১৩ মার্চ মধ্যরাতে কুড়িগ্রামের সাংবাদিক আরিফুল ইসলামকে বাড়ির দরজা ভেঙে তুলে নিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এক বছরের জেল দেওয়ার ঘটনায় ১৫ মার্চ ডিসি সুলতানা পারভীনসহ চারজনকে জনপ্রশাসনে ওএসডি করা হয়। অপর তিন কর্মকর্তা হলেন- সহকারী সচিব নাজিম উদ্দিন, রিন্টু বিকাশ চাকমা ও এস এম রাহাতুল ইসলাম। জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, শুনানি শেষে তাদের ব্যবস্থা নেওয়া হবে। নাজিমুদ্দিনসহ দুই-তিন জনের বিরুদ্ধে শক্ত ব্যবস্থা নেয়া হবে। আমাদের তদন্ত শেষে দুদককেও বলবো তাদের দুর্নীতি তদন্ত করার জন্য। তিনি বলেন, নাজিম উদ্দিন উখিয়াতেও ঝামেলা করেছিল। একজন ছোট অফিসার জয়েন করে কোটি টাকা কামাই করেছে, এটা মানা যায় না। তাদের বিরুদ্ধে শক্ত ব্যবস্থা থাকবে। এটা উদাহরণ হবে সবার জন্য। তাদেরকে শাস্তি দিয়ে অন্যকে শেখানো যে দুর্নীতিকে এই সরকার টলারেন্স করবে না। আমরা জনমুখী ও জনবান্ধব প্রশাসন গড়বো, যোগ করেন জনপ্রশাসন মন্ত্রী। সূত্র: বাংলা নিউজ।
বান্দরবানের তিন উপজেলা লকডাউন
২৫মার্চ,বুধবার,আব্দুল আল নোমান,বান্দরবান,নিউজ একাত্তর ডট কম: বান্দরবানের লামা, নাইক্ষ্যংছড়ি ও আলীকদমসহ তিন উপজেলায় লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। করোনা ভাইরাস সংক্রমণের সতর্কতা হিসেবে এই পদক্ষেপ নেয়ার কথা জানিয়েছেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শামীম হোসেন। তিনি বলেন, পার্শ্ববর্তী জেলা কক্সবাজারে করোনাভাইরাসের রোগী শনাক্ত হওয়ায় সতর্কতার অংশ হিসেবে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা। লকডাউনের আওতায়, এই তিন উপজেলার বাসিন্দাদের চলাচল সীমিত করা হয়েছে। সাথে অন্য উপজেলা থেকেও মানুষজন এই উপজেলায় যাতায়াত করতে পারবে না। হোসেন বলেন, আপাতত এই তিন উপজেলা ঝুঁকির মুখে রয়েছে বলে আমরা মনে করছি। যার কারণে এই এই সিদ্ধান্ত। তিনি বলেন, এই তিন উপজেলা থেকে কক্সবাজার প্রতিদিনই অনেক মানুষ যাওয়া-আসা করে। তাদের মাধ্যমে যাতে কোন সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। তবে এই তিনটি উপজেলা ছাড়া আর কোন উপজেলায় এখনো লকডাউন করা হয়নি। প্রয়োজন হলে এ বিষয়ক কমিটির সাথে আলোচনা করে পরবর্তী নির্দেশনা জানানো হবে বলেও জানান তিনি। লামা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুর-এ-জান্নাত রুমি জানান, মঙ্গলবার রাত ৮টা থেকে লকডাউন শুরু হয়েছে। জেলা প্রশাসন থেকে পরবর্তী নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত লকডাউনের এই সিদ্ধান্ত কার্যকর থাকবে। নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া আফরিন কচি বলেন, নাইক্ষ্যংছড়ি থেকে প্রতিদিন প্রচুর মানুষ যাতায়াত করে। তাদের মাধ্যমে যাতে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে না পরে তার জন্য সতর্কতার অংশ হিসেবে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক কামাল হোসেন জানান, কক্সবাজারে এ পর্যন্ত এক জনের মধ্যে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত করা হয়েছে। ওই ব্যক্তি ও তার দুই ছেলের বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। এছাড়া চকোরিয়ার খুটাখালি এলাকায় থাকা তাদের গ্রামের বাড়ি ও এর আশপাশের এলাকা লকডাউনে রয়েছে। তবে আলাদা করে কোন উপজেলায় লকডাউন করা হয়নি বলেও জানান মিস্টার হোসেন। এদিকে, পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলায় লকডাউনের মতো পরিস্থিতি সৃষ্টি করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাজমুল আলম যদিও এটাকে লকডাউন বলতে চাচ্ছেন না। তিনি বলছেন, সতর্কতার অংশ হিসেবে তিনি হাট-বাজার বন্ধ করেছেন, লোক সমাগম নিয়ন্ত্রণ করছেন এবং উপজেলার প্রবেশপথ দিয়ে যে যানবাহন আসছে সেগুলো জীবাণুমুক্ত করার পদক্ষেপ নিয়েছেন। এই উপজেলায় ক্ষুদ্র ঋণ পরিচালনাকারী এনজিওগুলোকে তাদের কিস্তি সংগ্রহ কার্যক্রম আপাতত বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এর আগে গত ১৯শে মার্চ করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বাংলাদেশের প্রথম জায়গা হিসেবে মাদারীপুর জেলার শিবচর উপজেলাকে লকডাউন করা হয়। স্থানীয় প্রশাসন জানায়, ওই উপজেলায় সম্প্রতি ৬৩৯ মানুষ ইটালি, গ্রিস, স্পেন কিংবা জার্মানি থেকে এসেছেন বলে এই সিদ্ধান্ত নেয় তারা। রাজধানী ঢাকার মিরপুরের টোলারবাগ এলাকায় এক ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়ার পর সীমিত আকারে ওই এলাকা লকডাউন করা হয়েছে। ওই ব্যক্তি যে ভবনে থাকতেন তার আশেপাশের এলাকায় যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। সীমিত করা হয়েছে স্থানীয় বাসিন্দাদের চলাচলও। এছাড়া ঢাকার পুরনো অংশে ঢাকেশ্বরী মন্দির এলাকাতেও সম্প্রতি নোটিশ দিয়ে লকডাউন করা হয়।
ভৈরবে এক ইতালি ফেরত প্রবাসীর মৃত্যু
২৩মার্চ,সোমবার,কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: কিশোরগঞ্জের ভৈরবে ইতালি ফেরত এক প্রবাসী মারা গেছেন। তিনি গত ২৯শে ফেব্রুয়ারি দেশে ফেরেন। গতকাল রাত ১১টার দিকে তিনি মারা যান। এ ঘটনায় উপজেলা প্রশাসন দুটি বেসরকারি হাসপাতালে মানুষের চলাচল সীমিত করেছে। ওই ব্যক্তির বাড়ির চারপাশের ১০টি ঘরের মানুষের চলাচলও সীমিত করা হয়েছে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ওই ব্যক্তি দেড় যুগ আগে ইতালিতে যান। তার দুই ছেলেও ইতালি প্রবাসী। গত ২৯শে ফেব্রুয়ারি তিনি দেশে ফেরেন। দেশে ফেরার পর তিনি এলাকায় স্বাভাবিক চলাফেরা করেন। শনিবার থেকে ওই ব্যক্তি জ্বর ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। তার বয়স ৬০। সবশেষ তথ্যমতে মারা যাওয়া ব্যক্তিকে বিশেষ ব্যবস্থায় দাফনের ব্যবস্থা করছে স্বাস্থ্য বিভাগ।- মানবজমিন
সিলেটে আইসোলেশনে থাকা প্রবাসী নারীর মৃত্যু
২২মার্চ,রবিবার,মো.আরিফুল ইসলাম,সিলেট,নিউজ একাত্তর ডট কম: সিলেটের শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে করোনার সন্দেহে আইসোলেশনে থাকা এক প্রবাসী নারীর (৬১) মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (২১ মার্চ) দিনগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে তার মৃত্যু হয়। সম্প্রতি তিনি যুক্তরাজ্য থেকে দেশে ফেরেন। সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মন্ডল গণমাধ্যমকে জানান, সম্প্রতি বিদেশ ফেরত ওই নারীকে করোনা আক্রান্ত সন্দেহে গত ২০ মার্চ শহীদ শামসুদ্দিন হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। আজ রোববার ঢাকা থেকে আইইডিসিআরর লোক সিলেটে এসে তার রক্তের নমুনা সংগ্রহ করার কথা ছিল। তবে এর আগেই তিনি মারা গেলেন। তিনি বলেন, প্রবাসী ওই নারী করোনা ভাইরাসে মারা গেছেন কিনা তা নিরুপণের চেষ্টা চলছে। লাশ এখনো হাসপাতালে রয়েছে। মারা গেলেও তিনি করোনার মারা গেছেন কিনা তা পরীক্ষা করে জানা যাবে। পরে তার লাশ হস্তান্তরের সময় প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেয়া হবে। জানা গেছে, গত ৪ মার্চ যুক্তরাজ্য থেকে দেশে ফেরেন সিলেট নগরের শামীমাবাদ এলাকার ওই নারী। বিগত ১০ দিন ধরে জ্বর, সর্দি, কাশি ও শাসকষ্টে ভুগছিলেন তিনি। গত ২০ মার্চ থেকে তাকে করোনা সন্দেহে শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালের আইসোলেশনে রাখা হয়।
দেশের প্রথম বঙ্গবন্ধুর রঙিন রিলিফ ভাস্কর্য উদ্বোধন
১৬মার্চ,সোমবার,নড়াইল প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: নড়াইলে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে দেশের প্রথম বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রঙিন রিলিফ ভাস্কর্য নির্মাণ করা হয়েছে। গতকাল (১৫ মার্চ) রোববার বিকেলে জেলা পরিষদের উদ্যোগে নির্মিত রিলিফ ভাস্কর্যটি উদ্বোধন করা হয়। জেলা পরিষদ চত্বরে দেশের প্রথম ফাইবার গ্লাসে নির্মিত ৮ ফিট দৈর্ঘ্য ও ৬ ফুট প্রস্থের দৃষ্টিনন্দন এ রিলিফ ভাস্কর্যটি নির্মাণ করেছেন এসএম সুলতান বেঙ্গল চারুকলা মহাবিদ্যালয়ের ভাস্কর্যের প্রভাষক রিপন সিকদার। এতে রংতুলির বর্ণিল আঁচড়ে বঙ্গবন্ধুর স্বভাবসুলভ গাম্ভীর্যের অপার সুষমা দিয়েছেন একই মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ অনাদি কুমার বৈরাগী। জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সোহরাব হোসেন বিশ্বাস, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুভাষ চন্দ্র বোস, পৌর মেয়র মোঃ জাহাঙ্গীর বিশ্বাস, নড়াইল সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ জাকির হোসেন শিকদারসহ বিশিষ্টজনেরা ভাস্কর্যটি উদ্বোধন করেন। সে সময় আওয়ামী লীগ ও এর বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মী, জেলা পরিষদের কর্মকর্তা কর্মচারিসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।
Rab এর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে জকির বাহিনীর ২ সদস্য নিহত
১২মার্চ,বৃহস্পতিবার,টেকনাফ প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: কক্সবাজারের টেকনাফে Rabর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে রোহিঙ্গা ডাকাত জকির বাহিনীর ২ সদস্য নিহত হয়েছে। আজ বুধবার (১১ মার্চ) রাত ১টার দিকে টেকনাফের শাপলাপুর মেরিনড্রাইভ সড়কে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী ও Barর মধ্যে এ গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বিদেশি ১টি পিস্তল, ৬ রাউন্ড গুলি, ১টি এক নলা বন্দুক ও ৫ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়েছে। এতে Rabর ৩ সদস্য আহত হয়েছেন। Rab-15 এর টেকনাফ ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার মির্জা শাহেদ মাহতাব জানান, রাতে সশস্ত্র ডাকাত দল মেরিনড্রাইভ সড়কে জড়ো হয়েছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে Rab এর একটি দল সেখানে গেলে ডাকাত দলের সদস্যরা তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। এ সময় Rab ও পাল্টা গুলি ছুড়ে। এক পর্যায়ে পরিস্থিতি শান্ত হলে ঘটনাস্থল থেকে দু জনের মরদেহ, অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়। তিনি জানান, নিহত দু জনই রোহিঙ্গা ডাকাত সর্দার জকির গ্রুপের সদস্য। নিহতদের মরদেহ টেকনাফ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। সেখান থেকে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। তিনি আরও জানান, এর আগে গত ১ মার্চ দিবাগত রাতে টেকনাফের মোচনী জাদিমোরা ক্যাম্প সংলগ্ন গভীর পাহাড়ে রোহিঙ্গা শীর্ষ সন্ত্রাসী ও ডাকাত জকির বাহিনীর সঙ্গে Rab এর গোলাগুলিতে সাতজন নিহত হন। এসময় ১০টি অস্ত্র ও ২৫ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। ৬ মার্চ বিকেলে হাবিরছড়া পাহাড়ি এলাকায় ডাকাত জকির গ্রুপের সঙ্গে পুলিশের বন্দুকযুদ্ধে এক ডাকাত নিহত ও রোহিঙ্গা ৩ ডাকাতকে অস্ত্র, গুলি, ইয়াবা ও বিভিন্ন বাহিনীর পোশাকসহ আটক করা হয়। উল্লেখ্য, টেকনাফের নয়াপাড়া, শালবাগান ও জাদিমোরা রোহিঙ্গা ক্যাম্প সংলগ্ন পাহাড়ি এলাকায় অবস্থান নিয়ে অস্ত্রধারী জকির বাহিনীসহ বেশ কয়েকটি সন্ত্রাসী গ্রুপ মাদক ব্যবসা, খুন, অপহরণসহ নানা অপরাধ কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছিল। এর আগেও সন্ত্রাসীদের সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর গোলাগুলির একাধিক ঘটনা ঘটেছিল। এতে রোহিঙ্গা শীর্ষ সন্ত্রাসী নুরুল আলমসহ বেশ কয়েকজন সন্ত্রাসী নিহত হন।
দ্বীপবন্ধু মুস্তাফিজুর রহমান স্মৃতি বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠিত
১০মার্চ,মঙ্গলবার,মো.আনোয়ারুল জামান,সন্দ্বীপ,নিউজ একাত্তর ডট কম: সন্দ্বীপের সাবেক সাংসদ প্রয়াত দ্বীপবন্ধু মুস্তাফিজুর রহমানের নামে অনুষ্ঠিত দ্বীপবন্ধু স্মৃতিবৃত্তি পরীক্ষা-২০১৯ প্রদান করা হয়েছে। ৯ মার্চ সন্দ্বীপ উপজেলা মাঠে এই বৃত্তি প্রাপ্তদের মাঝে সনদ ক্রেস্ট ও পুরস্কার বিতরণ করা হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম। সভায় সভাপতিত্ব করেন স্থানীয় সাংসদ ও দ্বীপবন্ধু স্মৃতিবৃত্তি পরীক্ষার পৃষ্ঠপোষক মাহফুজুর রহমান মিতা। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান মাষ্টার শাহজাহান বি.এ,উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিদর্শী সম্বৌধী চাকমা। পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম বলেন,দ্বীপবন্ধু মরহুম মুস্তাফিজুর রহমান ছিলেন একজন মহৎ প্রাণ। এমন মানুষ বারবার জন্মগ্রহণ করে না। ওনার দান অনুদান ওনাকে সন্দ্বীপবাসীর মধ্যে হাজার বছর বাঁচিয়ে রাখবে। তার উত্তরসুরী মাহফুজুর রহমান মিতা জননেত্রী শেখ হাসিনার আশির্বাদ পুষ্ট হয়ে সন্দ্বীপকে একটি মডেল উপজেলায় পরিণত করবে। দ্বীপবন্ধু ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন কর্তৃক আয়োজিত ও দ্বীপবন্ধু মুস্তাফিজুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনায় এই পরীক্ষায় বৃত্তি প্রাপ্তদের বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠান আজ উপজেলা মাঠে বর্নাঢ্য কলেবরে আয়োজন করা হয়। সন্দ্বীপ প্রেসক্লাব সভাপতি রহিম মোহাম্মদ এর সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, পরীক্ষা পরিচালনা কমিটির আহব্বায়ক ও দ্বীপবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাষ্টার দিদারুল আলম। বৃত্তি সংক্রান্ত তথ্য উপস্থাপন করে বক্তব্য রাখেন মাষ্টার রতন মানিক বসু।বৃত্তি প্রাপ্ত ছাত্রছাত্রীদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন, তানিয়া আক্তার নিপা প্রাথমিক শিক্ষক প্রতিনিধি তাহমিনা বেগম, মাধ্যমিক শিক্ষক প্রতিনিধি মাষ্টার দেলোয়ার হোসেন। বক্তারা বলেন, ২০১৪ সাল থেকে শুরু হয়ে ২০১৯ সাল পর্যন্ত ষষ্ঠবারের মতো এ পরীক্ষায় শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে পরীক্ষা বাবদ কোন ফি নেওয়া হয় না। মোট ৩১ সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি ও শিক্ষক মন্ডলীদের সহায়তায় এই পরীক্ষা সুন্দর ও আনন্দঘন পরিবেশের মধ্য দিয়ে ছয় বছর সুনামের সহিত পরিচালিত হয়ে আসছে।

সারা দেশ পাতার আরো খবর