মঙ্গলবার, আগস্ট ২০, ২০১৯
গ্যাস সিলিন্ডার গুদামে ভয়াবহ আগুন
৩১ জানুয়ারি,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: সাভারে একটি গ্যাস সিলিন্ডারের গুদামে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে গুদাম ও পার্শ্ববর্তী একটি বাড়ি পুড়ে গেছে। এদিকে, নারায়ণগঞ্জে আগুনে একটি ফার্নিচার কারখানার বিপুল পরিমাণ মালামাল পুড়ে গেছে। ফায়ার সার্ভিস জানায়, বুধবার (৩০ জানুয়ারি) বিকেলে সাভারের বাইপাইল এলাকায় গ্যাস সিলিন্ডারের একটি গুদামে আগুনের সূত্রপাত হয়। এসময় সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়ে দ্রুত আগুন আশপাশে ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ৩টি ইউনিট প্রায় এক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এরই মধ্যে পুড়ে যায় গুদাম এবং পাশের একটি বাড়ি। গ্যাস সিলিন্ডারের লিকেজ থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে জানায় ফায়ার সার্ভিস। ফায়ার সার্ভিস জানায়, নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার মুড়াপাড়া এলাকায় প্রাণ আরএফএলের একটি ফার্নিচার কারখানায় আগুন লাগে। কেমিক্যাল ও স্পিরিট থাকায় মুহূর্তেই আগুন কারখানার চারপাশে ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ছয়টি ইউনিট প্রায় ২ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে আগুনের সূত্রপাত সম্পর্কে তাৎক্ষণিকভাবে কিছু জানাতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস।
সাতক্ষীরায় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মশিয়ার রহমানকে ছুরিকাঘাত
৩০ জানুয়ারি,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: সাতক্ষীরার তালা উপজেলার সাবেক সভাপতি ও আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী সরদার মশিয়ার রহমানকে ছুরিকাঘাত করেছে দুর্বৃত্তরা মঙ্গলবার (২৯ জানুয়ারি) রাত ১১টার দিকে পুরাতন হাসপাতাল সংলগ্ন চায়ের দোনের সামনে তাকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান দুর্বৃত্তরা। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। মশিয়ারের ভাই শিমুল বলেন, গতকাল রাত ১০টার দিকে তার ভাই (সরদার মশিয়ার) সাতক্ষীরার ওয়াহিদ পারভেজ ও রবিনের সঙ্গে বসে পুরাতন সদর হাসপাতাল সংলগ্ন চায়ের দোকানে চা পান করছিলেন। এ সময় হঠাৎ দুর্বৃত্তরা মশিয়ারের পিঠে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান। উল্লেখ্য, সম্প্রতি তালা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বাছাইকে কেন্দ্র করে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। গত শনিবার ও রোববার এ নিয়ে উত্তপ্ত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছিল।
১৫শ টাকার জন্য শিশু হত্যা
৩০ জানুয়ারি,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: নিখোঁজের তিনদিন পর কামরাঙ্গীরচরের আলী নগর এলাকা থেকে এক শিশুর বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২৯ জানুয়ারি) বিকেলে অভিযুক্ত ইয়াসিনের খাটের নিচ থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হয়। মাত্র ১৫'শ টাকার জন্য শিশুটি হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন স্বজনরা। এ ঘটনায় জড়িত ইয়াসিনকে আটক করেছে পুলিশ। তিনদিন ধরে সন্তানকে হারিয়েও কিছুটা আশায় ছিলেন মা সোমা বেগম। হয়তো ফিরে আসবে সন্তান। ৮ বছরের সন্তান ফিরলো ঠিকই কিন্তু লাশ হয়ে। পুলিশ জানায়, শনিবার মাত্র ১৫শ পাওনা টাকার জেরে শিশু হৃদয়কে তুলে নিয়ে যায় ইয়াসিন। কিন্তু মা-বাবার জন্য হৃদয় কান্না শুরু করলে নাক-মুখ চেপে ধরে ইয়াসিন। এতেই শ্বাসরোধ মারা যায় হৃদয়। পরে কামরাঙ্গীর চরের নিজ বাসায় বস্তাবন্দী করে রাখে ইয়াসিন। এদিকে সন্তানকে না পেয়ে হৃদয়ের বাবা লালবাগ থানায় রোববার একটি জিডি করে। পরে পুলিশ মঙ্গলবার বিকেলে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনার সঠিক বিচার দাবি করেছেন তার পরিবার ও এলাকাবাসী। নিহতের মা বলেন, এভাবে আমার সন্তানকে মারছে আপনারা শাস্তি দেন। ওরে অনেক কঠিন ভাবে ফাঁসি দেন।' এলাকাবাসী জানায়, 'ওরে ফাঁসি দিলে যারা এই সব কাছে জড়িত এবং এই কাজ করছে তারা যেন সচেতন হয়ে যায়। আসামি ইয়াসিনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেছে তার হৃদয়ের বাবা রমজান আলী।
সিরাজগঞ্জে শিক্ষা কর্মকর্তা বরখাস্ত দুদকের মামলায়
৩০ জানুয়ারি,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর ফিরোজকে বরখাস্ত করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার রাতে চৌহালী উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সানোয়ার হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, দুর্নীতির একটি মামলার কারণে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জাহাঙ্গীর ফিরোজকে বরখাস্ত করা হয়। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব আকরাম-আল হোসেন স্বাক্ষরিত পত্রটি ইউএনও গত সোমবার হাতে পেয়েছেন বলে জানান। জানা যায়, ২০১৭ সালের ১৬ নভেম্বর চৌহালী উপজেলা শিক্ষা কার্যালয়ের সহকারী আবদুল মালেককে ১০ হাজার টাকা ঘুষ গ্রহণের সময় দুদক তাঁকে হাতেনাতে আটক করে। এ ঘটনায় দুর্নীতি দমন কমিশনের পাবনার সহকারী পরিচালক শেখ গোলাম মওলা বাদী হয়ে চৌহালী থানায় তাঁর বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার দীর্ঘ তদন্তের পর ঘুষ-দুর্নীতির সঙ্গে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর ফিরোজের সম্পৃক্ততার প্রমাণ পাওয়া যায়। পরে দুদক উপজেলা শিক্ষা কার্যালয়ের অফিস সহকারী আবদুল মালেককে এক নম্বর ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর ফিরোজকে দুই নম্বর আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। গত বছরের ২৪ অক্টোবর সিরাজগঞ্জের জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ আদালত অভিযোগপত্র (চার্জশিট) গ্রহণ করেন।
পিপি রথীশ চন্দ্র হত্যায় স্ত্রীর মৃত্যুদণ্ড
২৯ জানুয়ারি,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: রংপুর জেলা আওয়ামী লীগের আইনবিষয়ক সম্পাদক ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক পিপি এ্যাড. রথীশ চন্দ্র ভৌমিক বাবুসোনা হত্যা মামলার রায়ে স্ত্রী স্নিগ্ধাকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার বেলা পৌনে ১টায় রংপুরের সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক এবিএম নিজামুল হক এ মামলার একমাত্র জীবিত আসামি নিহত বাবুসোনার স্ত্রী স্নিগ্ধা ভৌমিক দীপার মৃত্যুদণ্ড রায় ঘোষণা করেন। এর আগে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে আসামি দীপাকে কারাগার থেকে আদালতে নিয়ে আসা হয়। হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় বাবু সোনার স্ত্রী স্নিগ্ধা সরকার দীপা ও তার প্রেমিক কামরুল ইসলামকে অভিযুক্ত করে গত বছরের ১৩ সেপ্টেম্বর অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে চার্জশিট দাখিল করা হয়। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা তৎকালীন রংপুর কোতোয়ালি থানার এসআই আল-আমিন চার্জশিট দাখিল করেন। পরে মামলাটি জেলা ও দায়রা জজ আদালতে বদলি করা হয়। ওই বছরের ২১ অক্টোবর অভিযোগপত্র আমলে নিয়ে বিচারকাজ শুরু করেন বিচারক। এ মামলায় মোট ৩৭ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণের পর চলতি বছরের ২১ জানুয়ারি উভয়পক্ষের যুক্তিতর্ক শেষে মঙ্গলবার রায়ের দিন নির্ধারণ করেন বিচারক। এ মামলার চার্জশিটভুক্ত দুই আসামির মধ্যে একমাত্র জীবিত আছেন নিহত বাবুসোনার স্ত্রী স্নিগ্ধা সরকার দীপা। তার প্রেমিক কামরুল ইসলাম গত বছরের ১০ নভেম্বর ভোরে কারাগারে বন্দি থাকা অবস্থায় আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। পরে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর মারা যান কামরুল। রংপুর সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) আব্দুল মালেক জানান, গত বছরের ১৩ সেপ্টেম্বর অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আরিফা ইয়াসমীন মুক্তার আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা তৎকালীন রংপুর জেলা কোতোয়ালি থানার এসআই আল-আমিন। পরে মামলাটি জেলা ও দায়রা জজ আদালতে বদলি করা হয়। ওই বছরের ২১ অক্টোবর অভিযোগপত্র আমলে নিয়ে বিচারকাজ শুরু করেন বিচারক এবং ৩০ অক্টোবর থেকে এই হত্যা মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়। পিপি আব্দুল মালেক জানান, গত বছরের ২৯ মার্চ রাতে বাবুসোনাকে ১০টি ঘুমের ওষুধ খাইয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়। এরপর তার মরদেহ তাজহাট মোল্লাপাড়ায় প্রেমিক শিক্ষক কামরুলের ভাইয়ের নির্মাণাধীন বাড়ির ঘরের মেঝেতে পুঁতে রাখা হয়। পরবর্তীতে ৩ এপ্রিল মধ্যরাতে বাবুসোনার স্ত্রী স্নিগ্ধা সরকার ওরফে দীপাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য র‌্যাব আটক করে। তিনি এ হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করেন এবং মরদেহের অবস্থান সম্পর্কে তাদের জানান। সেই সূত্র ধরে ওই দিন রাতে মোল্লাপাড়ার ওই বাড়ির মেঝে খুঁড়ে নিহত আইনজীবী বাবুসোনার গলিত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় নিহত বাবু সোনার ছোট ভাই সাংবাদিক সুশান্ত ভৌমিক বাদী হয়ে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ বাবুসোনার স্ত্রী স্নিগ্ধা সরকার ওরফে দীপা, প্রেমিক শিক্ষক কামরুল ইসলাম, বাবুসোনার সহকারী মিলন মোহন্ত, ছাত্র মোল্লাপাড়া এলাকার সবুজ ইসলাম ও রোকনুজ্জামানকে গ্রেফতার করে। পরে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে এ হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করেন দীপা ও কামরুল। সেই সঙ্গে মিলন মোহন্তও হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে পুলিশকে চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রদান করেন। পরে ওই বছরের ১৩ এপ্রিল রাতে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রিজন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান মিলন মোহন্ত। হত্যাকাণ্ডে দুই শিক্ষার্থী রোকন ও সবুজের সম্পৃক্ততা খুঁজে না পাওয়ায় এবং মিলন মোহন্ত মারা যাওয়ায় তাদের বাদ দিয়ে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। আসামি পক্ষে রাষ্ট্রনিযুক্ত আইনজীবী বসুনিয়া মোঃ আরিফুল ইসলাম এ মামলা পরিচালনা করেন।
ভাই-বোনের প্রাণ কেড়ে নিল ট্রাক
২৮ জানুয়ারি,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাবার মোটরসাইকেলে স্কুল থেকে বাসায় ফিরছিল আফসার ও তার বোন আফরিন। পথে বেপরোয়া ট্রাকচাপায় ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারায় দুই ভাই-বোন। এতে গুরুতর আহত হয়েছেন বাবা। বাবাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সোমবার (২৮ জানুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের কেরানীগঞ্জের মোল্লারপুল এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার প্রতিবাদে কসমোপলিটন ল্যাবরেটরি স্কুল অ্যান্ড কলেজের স্কুলের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের ইকুরিয়া এলাকায় অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করলে গাড়ি চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জের কসমোপলিটন ল্যাবরেটরি স্কুল অ্যান্ড কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে বাড়ি ফিরছিল তারা। বেপরোয়া গতিতে ছুটে আসা ট্রাকের নিচে চাপা পড়েন মোটরসাইকেল আরোহী বাবা ও দুই সন্তান। ঘটনাস্থলেই মারা যায় তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী আফসার হোসেন ও পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী ফাতিমা আফরিন। প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, রড বোঝাই ট্রাক মোটরসাইকেলটিকে পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। ট্রাকের অল্প বয়সের চালক যার কোনো লাইসেন্স নাই, তারা গাড়ি চালাচ্ছে। এসবের কারণেই দুর্ঘটনা ঘটছে। এদিকে, শোকের ছায়া নেমে আসে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ এলাকায়। ঘটনাস্থল পরিদর্শনে এসে উপজেলা চেয়ারম্যান জানান, ঘাতক বাস ও চালকের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে। ট্রাক ও চালককে মুন্সিগঞ্জ এলাকা থেকে আটক করেছে পুলিশ।
১২ ঘণ্টা পর নিখোঁজ স্কুলছাত্রের মিলল লাশ
২৮ জানুয়ারি,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: ফেনীতে নিখোঁজের ১২ ঘণ্টা পর এক স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকেই শিশুটির এক বন্ধু পলাতক রয়েছে। সোমবার (২৮ জানুয়ারি) সকালে শহরের পাঠানবাড়ি সড়ক এলাকা থেকে মাটিতে পুঁতে রাখা অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করা হয়। পুলিশ ও স্বজনরা জানান, রাতে শহরের মমিন জাহান মসজিদ এলাকা থেকে নিখোঁজ হয় সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী আরাফাত। বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ নিয়ে তার সন্ধান না পাওয়ায় সদর মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন শিশুটির বাবা জসিম উদ্দিন। আজ সকালে পাঠানবাড়ি এলাকায় একটি নির্মাণাধীন বাড়ির পাশে মাটিতে পুঁতে রাখা অবস্থায় শিশুটির পায়ের একটি অংশ দেখতে পান স্থানীয়রা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ।
টেকনাফে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের গোলাগুলিতে, দুই যুবক নিহত
২৮ জানুয়ারি,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের মধ্যে গোলাগুলিতে দুই যুবক নিহত হয়েছেন বলে দাবি করছে পুলিশ। আজ সোমবার ভোররাত সাড়ে ৪টার দিকে উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের নয়াবাজার এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন হোয়াইক্যং ইউনিয়নের ঝিমংখালী এলাকার ফরিদ আলমের ছেলে দেলোয়ার হোসেন রুবেল (২৫) ও মিনাবাজার এলাকার সফর আলীর ছেলে মোহাম্মদ রফিক (৩০)। টেকনাফ মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) এম এস দোহার ভাষ্য হচ্ছে, গতকাল দিবাগত রাতে স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পাই, দুটি গ্রুপের মধ্যে গোলাগুলি চলছে। পরে ঘটনাস্থলে গেলে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থল তল্লাশি করে দুজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। এ ছাড়া দুটি দেশীয় এলজি ও ছয়টি তাজা গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। এরপর তাদের উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এম এস দোহা আরো দাবি করেন,নিহত রুবেল ও রফিক এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী। ইয়াবা, মানবপাচার ও সড়ক ডাকাতির অভিযোগ রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে। ধারণা করা হচ্ছে, দুই পক্ষের মধ্যে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষের সময় গোলাগুলিতে তারা নিহত হয়েছে। পুলিশ ঘটনাটি তদন্ত করছে এবং অন্য সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালাচ্ছে। ওই দুই যুবকের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।
ট্রাক উল্টে ব্যবসায়ী নিহত মাদারীপুরে
২৮ জানুয়ারি,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: : মাদারীপুরের শিবচর উপজেলায় চালভর্তি ট্রাক উল্টে এক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। আজ সোমবার ভোরে উপজেলার দাদাভাই তোরণসংলগ্ন এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাকির হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। নিহত ব্যক্তির নাম মিলন হাওলাদার। তিনি শিবচর পৌরসভার নলগোড়া গ্রামের মালাই হাওলাদারের ছেলে। শিবচর বাজারে বাঁশের ব্যবসা করতেন তিনি। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, আজ সোমবার ভোরে চালভর্তি ওই ট্রাকটি জেলার শিবচর-পাঁচ্চর সড়ক হয়ে একই উপজেলার চান্দেরচর এলাকায় যাচ্ছিল। ট্রাকটি পৌরসভার দাদাভাই তোরণসংলগ্ন এলাকায় পৌঁছালে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে গিয়ে রাস্তার পাশে পড়ে যায়। এ সময় পথচারী বাঁশ ব্যবসায়ী মিলন হাওলাদার ট্রাকটির নিচে চাপা পড়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হন। পরে খবর পেয়ে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করেছে।