চট্টগ্রামে পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার
০৮সেপ্টেম্বর,রবিবার,চট্টগ্রাম প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: ৯ দাবিতে ডাকা অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হয়েছে। রোববার বিকেল ৪টার দিকে পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হয়েছে বলে জানান আন্দোলনরত সংগঠন চট্টগ্রাম বিভাগীয় গণ ও পণ্য পরিবহন মালিক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক মঞ্জুরুল আলম চৌধুরী। তিনি বলেন,চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। তিনি আশ্বাস দিয়েছেন, আমাদের দাবিগুলো পূরণে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে তিনি মন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলবেন। তার আশ্বাসে আমরা ধর্মঘট প্রত্যাহার করেছি। এর আগে রোববার (৮ সেপ্টেম্বর) ভোর থেকে চট্টগ্রাম বিভাগীয় গণ ও পণ্য পরিবহন মালিক ঐক্য পরিষদের ডাকে ৯ জেলায় ধর্মঘট কর্মসূচি শুরু হয়। গণ ও পণ্য পরিবহন মালিক ঐক্য পরিষদ সূত্র জানায়, তাদের ৯ দফা দাবি হলো- গণ ও পণ্য পরিবহনের কাগজপত্র হালনাগাদ করার জন্য জরিমানা মওকুফ করা, জরিমানা মওকুফের সিদ্ধান্ত না আসা পর্যন্ত কাগজপত্র যাচাই বাছাইয়ের নামে হয়রানি বন্ধ করা, বিআরটিএ ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কর্তৃক ভোক্তা অধিকার আইন প্রয়োগ করে গণ ও পণ্য পরিবহনে কোনও অতিরিক্ত জরিমানা আদায় না করা, হাইওয়ে ও থানা পুলিশ কর্তৃক গাড়ি জব্দ ও রিকুইজিশন বন্ধ করা, চট্টগ্রাম মেট্টো-এলাকায় গাড়ির ইকোনোমিক লাইফের অজুহাত দেখিয়ে ফিটনেস ও পারমিট নবায়ন বন্ধ না রাখা, ট্রাফিক পুলিশ কর্তৃক যান্ত্রিক ক্রুটিযুক্ত গাড়ি ছাড়া অন্যকোন অজুহাত দেখিয়ে গণ ও পণ্য পরিবহন টু বা ডাম্পিং না করা, ড্রাইভার কর্তৃক চালিত গাড়ির রেকার ভাড়া আদায় না করা, সহজ শর্তে চালকদের ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদান করা ও কাগজপত্র হালনাগাদের ক্ষেত্রে বিআরটিএর কার্যক্রমে ভোগান্তি বন্ধ করা। এদিকে ধর্মঘটের কারণে নগরে গণপরিবহন সংকট দেখা দেয়। ফলে চাকরীজীবী ও শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগে পড়তে হয়। তবে বেলা বাড়ার বাড়ার সঙ্গে রাস্তায় গণপরিবহনের দেখা মেলে।
চট্টগ্রামে পরিবহন মালিকদের একাংশের ধর্মঘট চলছে
০৮সেপ্টেম্বর,রবিবার,চট্টগ্রাম প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: ৯ দফা দাবিতে বৃহত্তর চট্টগ্রামে পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে চট্টগ্রাম বিভাগীয় গণ ও পণ্য পরিবহন মালিক ঐক্য পরিষদ। পরিবহন ধর্মঘটের কারণে সকালে গণপরিবহন সংকটে চাকরিজীবী ও শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগে পড়তে হয়। আজ রোববার (৮ সেপ্টেম্বর) ভোর ৬টা থেকে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটের কর্মসূচি ডাক দেয় গণ ও পণ্য পরিবহন মালিক ঐক্য পরিষদ। এর আগে ৯ দফা দাবি মেনে নিতে গত ৪ সেপ্টেম্বর সংবাদ সম্মেলন করে এই সময়সীমা বেঁধে দিয়েছিল সংগঠনটি। এরপর প্রশাসন সাড়া না দেয়ায় ভোর থেকে চট্টগ্রাম বিভাগের ৯ জেলায় এই ধর্মঘট কর্মসূচির ডাক দেয়া হয়। এদিকে ধর্মঘটের কারণে চট্টগ্রামের সঙ্গে কক্সবাজার, রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান, নোয়াখালী, কুমিল্লা, ফেনী, লক্ষ্মীপুর জেলায় যাত্রী ও পণ্যবাহী গাড়ি চলাচল বন্ধ রয়েছে। চট্টগ্রাম বিভাগীয় গণ ও পণ্য পরিবহন মালিক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক মঞ্জুরুল আলম জানান, নয় দফা মেনে নিতে প্রশাসনকে ৭২ ঘণ্টার সময় দিয়েছিলাম, কিন্তু প্রশাসন সাড়া দেয়নি। তাই অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটে যেতে বাধ্য হয়েছি। অন্যদিকে এ দাবি অযৌক্তিক ও বেআইনি বলে ঘোষণা দিয়েছে চট্টগ্রাম বাস মিনিবাস হিউম্যান হলার মালিক সমিতি। তারা ধর্মঘট প্রত্যাখ্যান করে নগরে কিছু সংখ্যক গণপরিবহন চলাচল করছে।
নৈতিক শিক্ষায় শিক্ষিত হওয়ার কোন বিকল্প নেই: সুমন বড়ুয়া
০৮সেপ্টেম্বর,রবিবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: রোটারি ক্লাব অব গ্রেটার চিটাগাং-এর নিয়মিত সভা গতকাল ৭ সেপ্টেম্বর সকালে চট্টগ্রাম ক্লাবে ক্লাব সভাপতি আজিজ-উল-গণি চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে অতিথি বক্তা ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা ও বাংলাদেশ সরকারের উপ-সচিব সুমন বড়ুয়া। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন এডিশনাল লে. গভর্নর সিপি মোহাম্মদ শাহজাহান, ডেপুটি গভর্নর সিপি নজরুল ইসলাম নান্টু, এসিস্টেন্ট গভর্নর আসাদ চৌধুরী, এসিসটেন্ট গভর্নর পিপি এমদাদুল আজিজ চৌধুরী, রোটারী ক্লাব রিভারশাইনের সভাপতি মর্তুজা বেগম, রোটারী ক্লাব নর্থের সভাপতি আবদুল খালেক, ক্লাবের সহ-সভাপতি জামাল উদ্দিন শিকদার ও প্রফেসর ডা. সৈয়দা খুরশিদা বেগম, ক্লাব সেক্রেটারি সৈয়দা কামরুন নাহার, রোটারি ক্লাব রিভারশাইনের সেক্রেটারী আশিক এলাহি, ক্লাব সদস্য মোহাম্মদ আলী, মোহাম্মদ বেলাল এবং ফিলিপ গোমেজ। অতিথি বক্তা সুমন বড়ুয়া তাঁর বক্তব্যে বলেন, মৌলিক ও নৈতিক শিক্ষায় শিক্ষিত হওয়ার কোন বিকল্প নেই। তাঁর মতে এই সময়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও শিক্ষক-শিক্ষিকার সংখ্যা বাড়লেও পড়ালেখার মান অতটুকু বাড়েনি। তিনি আরো বলেন, সর্বপ্রথমে পরিবার থেকে মৌলিক ও গুনগত যে শিক্ষা আমরা পাই সেটাকে যদি বাস্তব জীবনে প্রতিফলিত করতে পারি তাহলে আমাদের পরিবার, সমাজ ও জাতি সকলেই উপকৃত হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।
সাত সড়কের উন্নয়ন কাজ উদ্বোধন
০৮সেপ্টেম্বর,রবিবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: নগরীর দক্ষিণ পাহাড়তলী ওয়ার্ডের উন্নয়নকৃত সাত সড়কের উদ্বোধন করলেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। এডিবির অর্থায়নে এই সড়কসমূহের উন্নয়ন কাজ করা হয়েছে। এই ওয়ার্ডে প্রায় ৩৩ কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে। উদ্বোধন করা সড়কের মধ্যে রয়েছে-লোকনাথ সেবাশ্রম সড়ক, ড. আরপি সেনগুপ্ত সড়ক, কেবি দাশ সড়ক, সেনবাড়ি বাই লেইন, জনার্দ্দন দেব বিগ্রহ, প্রণব সাহা বাই লেইন ও ডা. রবীন্দ্র দত্ত বাই লেইন। গতকাল শুক্রবার দুপুরে লোকনাথ ব্রহ্মচারী সেবাশ্রম কেন্দ্রে ফলক উন্মোচন করে এসব প্রকল্পের কাজ উদ্বোধন করেন মেয়র। ফতেয়াবাদে ড. রামপ্রসাদ সেনগুপ্ত সংবর্ধিত : বরেণ্য নিউরো সার্জন প্রফেসর ড. রামপ্রসাদ সেনগুপ্তকে গতকাল শুক্রবার উত্তর ফতেয়াবাদস্থ লোকনাথ ব্রহ্মচারী সেবাশ্রম কেন্দ্রের উদ্যোগে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। লোকনাথ ব্রহ্মচারীর ২৮৯তম আবির্ভাব দিবস ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। লোকনাথ সেবাশ্রম পরিচালনা পরিষদের সভাপতি মনোজ কান্তি দের সভাপতিত্বে সভায় চুয়েটের উপাচার্য রফিকুল আলম, কাউন্সিলর তৌফিক আহমেদ চৌধুরী বিশেষ অতিথি ছিলেন। অনুষ্ঠানে পটিয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ডা. তিমির বরণ, কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন, চসিক অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মানিক, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী ঝুলন কুমার দাশ, নির্বাহী প্রকৌশলী শাহিনুর ইসলাম, বিপ্লব দাশ উপস্থিত ছিলেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।
ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশের প্রজেক্ট গ্রিন রুফের কার্যক্রম
০৫সেপ্টেম্বর,বৃহস্পতিবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশের (ভিবিডি) উদ্যোগে প্রজেক্ট গ্রীন রুফের সপ্তম পর্ব অনুষ্ঠিত হয় বাকলিয়া ঘাটকুল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। প্রোগ্রাম সঞ্চালনা করেন ভিবিডি চট্টগ্রাম জেলার সাধারণ সম্পাদক মো. কাউসার হোসেন। এই পর্বে শিশুদের গাছ লাগানো এবং গাছের উপকারিতা সম্পর্কে একটি স্লাইড ও একটি ভিডিও প্রদর্শন করা হয়। পরে গাছ রোপণের সচেতনতা বৃদ্ধি করতে বৃক্ষরোপণ করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন ভিবিডি চট্টগ্রাম জেলার সভাপতি মো. জিয়াউল হক সোহেল। উপস্থিত ছিলেন ভিবিডি চট্টগ্রাম জেলার এলুমনাই মেম্বার শর্মিষ্ঠা দেব, বোর্ডের মানব সম্পদ কর্মকর্তা সৌরভ বড়ুয়া, প্রকল্প কর্মকর্তা গোলাম ইসহাক খান, কমিটি সদস্য মামুন, প্রতিষ্ঠান প্রতিনিধি সুজানা, ফয়সাল, সুমাইয়া এবং মো. ইমরান। প্রেস বিজ্ঞপ্তি
রমা চৌধুরীর জীবনী পাঠ্যবইয়ে অন্তর্ভুক্ত করলে অনুপ্রেরণা পাবে তরুণ প্রজন্ম
০৫সেপ্টেম্বর,বৃহস্পতিবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: প্রকৃত দেশপ্রেমিক এবং দায়বদ্ধ সাহিত্যিক ছিলেন রমা চৌধুরী। সাধারণ জীবনাযাপন উন্নত জীবনদর্শন ও চিন্তা পরিশীলন-অনুশীলনের জীবন্ত কিংবদন্তি ছিলেন রমা চৌধুরী একাত্তরের জননী সাহিত্যিক রমা চৌধুরীর ১ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে গত ৩ সেপ্টেম্বর জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত স্মরণানুষ্ঠানে বক্তারা উপরোক্ত অভিমত ব্যক্ত করেন। রমা চৌধুরীর স্মৃতি সংসদের আয়োজনে এবং জেলা শিল্পকলা একাডেমী চট্টগ্রামের সহযোগিতায় রমা চৌধুরীর ১ম মৃত্যুবার্ষিকী উদযাপন পরিষদের আহ্&বায়ক অধ্যাপক রীতা দত্তের সভাপতিত্বে এবং সাংস্কৃতিক সংগঠক মোজাহিদুল ইসলামের সঞ্চালনায় স্মরণানুষ্ঠানে স্মৃতিচারণ করেন শহীদ জায়া বেগম মুশতারী শফি, কবি ও সাংবাদিক কামরুল হাসান বাদল, লেখক ও কথা সাহিত্যিক বাদল সৈয়দ, জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আলম বাবু, নারী নেত্রী জেসমিন সুলতানা পারু, অধ্যাপক বিচিত্রা সেন, সংগঠক লায়ন নবাব হোসেন মুন্না, ভাষ্কর ডি কে দাশ মামুন, সজল চৌধুরী, অধ্যাপক ফিরোজা খানম, সুদর্শন চক্রবর্তী, মোহাম্মদ এহসান, এম এইচ স্বপন প্রমুখ। রমা চৌধুরী স্মৃতি সংসদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন সমন্বয়কারী আলাউদ্দিন খোকন এবং সদস্য সচিব শামশুজ্জোহা আজাদ পলাশ। স্মরণানুষ্ঠানের শুরুতে ভাষ্কর ডি কে দাশ মামুন নির্মিত রমা চৌধুরীর আবক্ষ প্রতিকৃতি ভাষ্কর্য উন্মোচন করেন শহীদ জায়া মুশতারী শফি ও অতিথিরা। শোক সংগীত পরিবেশন করেন সৃষ্টি বড়ুয়া। রমা চৌধুরীর রচিত গান নিজে সুরারোপ করে পরিবেশন করেন আনন্দ প্রকৃতি। কবিতা পাঠ করেন মিলি চৌধুরী, কংকন দাশ, ফারুক তাহের, জাবেদ হোসেন, জেবুন নাহার শারমিন, সুপ্রিয়া চৌধুরী, শারমিন মুশতারী, মিশু ভটাচার্য্য, উনেসিং মারমা উর্মি, সৌরভ শর্মা, তৌহিদুল ইসলাম, নাজমুন সুলতানা। একাত্তরের জননী উপন্যাসের অংশ বিশেষ পাঠ করেন তৈয়বা জহির আর্শী, শ্রাবনী দাশ গুপ্তা, মৌসুমী চক্রবর্তী, লুবাবা ফেরদৌসী সাইকা ও সেজুতি দে। সবশেষে চারুশিল্পী অধ্যাপক দিলারা বেগম জলি নির্মিত রমা চৌধুরীর জীবনভিত্তিক চলচ্চিত্র জঠরলীনা প্রদর্শিত হয়। রমা চৌধুরীকে চেরাগি আড্ডার স্মরণ বই হাতে রমা চৌধুরী হেঁটে বেড়াচ্ছেন। বেদনা ছাড়া শিল্প হয় না। কষ্ট থেকে উৎসারিত রমা চৌধুরীর অক্ষরগুলি। গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় নগরীর চেরাগি পাহাড় মোড়ে সুপ্রভাত স্টুডিও হলে চেরাগি আড্ডার উদ্যোগে একাত্তরের জননী রমা চৌধুরীর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীর স্মৃতিসভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন সাংবাদিক সুভাষ দে, নাট্যজন অভীক ওসমান, কবি খালেদ হামিদী, কবি ও সাংবাদিক রাশেদ রউফ, কবি ও সাংবাদিক নাজিমুদ্দীন শ্যামল, কথাসাহিত্যিক আজাদ বুলবুল, রমা চৌধুরীর দীর্ঘদিনের সহচর আলাউদ্দীন খোকন ও সংস্কৃতিজন সজল চৌধুরী। আবৃত্তি করেন রাশেদ হাসান, ফারুক তাহের ও মুজাহিদুল ইসলাম। একাত্তরের জননী থেকে পাঠ করেন তৈয়বা জহির আরশি ও লুবাবা ফেরদৌসী সায়কা। কবিতা পাঠ করেন কবি সাথী দাশ, বিদ্যুৎ কুমার দাশ ও আখতারী ইসলাম। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।
সাতকানিয়াসহ আট উপজেলায় ভোটগ্রহণ ১৪ অক্টোবর
০৪সেপ্টেম্বর,বুধবার,স্টাফ রির্পোটার,নিউজ একাত্তর ডট কম: পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের অংশ হিসেবে আগামী ১৪ অক্টোবর সাতকানিয়াসহ আটটি উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচন কমিশন গতকাল মঙ্গলবার এসব উপজেলার নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ১২ সেপ্টেম্বর এবং প্রত্যাহারের শেষ সময় ২২ সেপ্টেম্বর। যেসব উপজেলায় ভোটগ্রহণ করা হবে সেগুলো হলো-শেরপুর সদর, নেত্রকোনার আটপাড়া, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর, বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জ, ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর ও মহেশপুর, নোয়াখালীর কবিরহাট ও চট্টগ্রামের সাতকানিয়া। এর আগে গেল মার্চ থেকে জুন পর্যন্ত পাঁচ ধাপে চার শতাধিক উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল।
এসএসসি ১৯৯৮, এইচএসসি ২০০০ চট্টগ্রাম লোগো উম্মোচন
০৪সেপ্টেম্বর,বুধবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম বিভাগের এস.এস.সি-৯৮, এইচএসসি-২০০০ ব্যাচের লোগো উম্মোচন অনুষ্ঠান সকাল ১১টায় নগরীর একটি রেষ্টুরেন্টে সতীর্থ কাজী জাবেদুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে লোগো উম্মোচন করেন চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি, রুপালী ব্যাংকের সাবেক পরিচালক মো. আবু সুফিয়ান। সর্তীথদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আলমগীর হোসেন আকাশ, এইচ.এম. জুয়েল, জয়নাল আবেদীন জয়, কে এম জাহেদ, মুসাররাত রাহী মুমু, সজীব বড়ুয়া, শাহেদ মাহমুদ, আফরোজা নীরু, হামিদ হাসান নোমানী, হাসনাইন চৌধুরী, কানিজ ফাতেমা, মো. খোরশেদ আলী, কামরুল ইসলাম, মোমিনুল ইসলাম, সায়মন শাহাদাত চৌধুরী, শাখাওয়াত শিবলী, রাজীব দাশ, সুস্মিতা দে, সুদর্শন দেবাশীষ দাশ, উজ্জ্বল দাশ, শাহ আলম ইমন, জেনিফার করিম প্রমুখ। প্রধান অতিথি আবু সুফিয়ান লোগো উম্মোচনের পরে তার বক্তব্যে বলেন, সারা চট্টগ্রাম বিভাগের হাজার হাজার প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের এ উদ্যোগ অত্যন্ত প্রশংসনীয়। ভাল উদ্যোগ সবসময় সমাজ বিনির্মানে ও দেশের অগ্রগামীতে ভূমিকা রাখে। পৃথিবীর সকল মানুষের চেতনা শক্তি এক নয়। বিভিন্ন মানসিকতার লোক সমাজে বাস করে। কিন্তু বন্ধুত্বের ক্ষেত্রে রাজনৈতিক দর্শন থাকতে পারে না। বন্ধু বন্ধুই। যে সম্পর্কের সাথে অন্য কোন সম্পর্কের তুলনা করা যায় না। প্রকৃত বন্ধুত্বের সম্পর্ক কখনই নষ্ট হয় না। তাই নেতিবাচক মানসিকতা পরিহার করে নতুন প্রজম্মকে এগিয়ে যেতে হবে। তোমাদের এই ঐক্য সমাজ ও রাষ্ট্রের স্বার্থে অনেক ভূমিকা রাখবে। ফেসবুক ভিত্তিক প্রায় হাজার হাজার সদস্য এই গ্রপের এডমিন, মডেরেটর ও এডভাইজার প্যানেলের সদস্য খোরশেদ আলী বলেন, মুলত: চট্টগ্রাম বিভাগের ১৯৯৮ সালের এস.এস.সি ও ২০০০ এইচ.এস.সি ব্যাচের সকল বন্ধুদের একত্রিত করাই গ্রপের মূল উদ্দেশ্য। এই Group পর্যায়ক্রমে সকল বন্ধুদের একি ছাদের নিচে এনে পরস্পরের মধ্যে সৌহার্দ্য, বন্ধন ও সম্প্রতীর মাধ্যমে যে কোন বন্ধুর বিপদে পাশে থাকাসহ সমাজ ও দেশের যে কোন উন্নয়ন মূলক কাজে অংশগ্রহণ থাকাই মূল উদ্দেশ্য। আগামী ২৫ অক্টোবর স্মরণিকা কমিউনিটি সেন্টারে দিনব্যাপী এস.এস.সি ৯৮, এইচ.এস.সি ২০০০ চট্টগ্রামের উদ্যোগে বন্ধু সম্মিলন অনুষ্ঠিত হবে। যারা এখনো রেজিষ্ট্রেশন ভুক্ত হননি, তাদেরকে ০১৮১৭৭১৭৪৩৯, ০১৭১১৩১৬৬৩৪, ০১৭০১৭৩২৭৮৬ নাম্বারে যোগাযোগ করে অনুরোধ করা যাচ্ছে।প্রেস বিজ্ঞপ্তি।
লায়ন্স ক্লাব চিটাগাং পারিজাত এলিটের দায়িত্ব হস্তান্তর
০৪সেপ্টেম্বর,বুধবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগাং পারিজাত এলিটর দায়িত্ব হস্তান্তর অনুষ্ঠান নগরীর ওয়েল পার্ক রেস্টুরেন্টে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন লায়ন জেলা ৩১৫-বি৪ এর গভর্নর লায়ন কামরুন মালেক। বিশেষ অতিথি ছিলেন, জেলা সদ্য প্রাক্তন গভর্নর লায়ন নাছির উদ্দীন চৌধুরী, দ্বিতীয় ভাইস জেলা গভর্নর লায়ন আল সাদাত দোভাষ, প্রাক্তন জেলা গভর্নর লায়ন মোস্তাক হোসেন, প্রাক্তন জেলা গভর্নর লায়ন মঞ্জুরুল আলম মঞ্জু। অনুষ্ঠানে পারিজাত এলিট লায়ন্স ক্লাবের প্রাক্তন সভাপতি লায়ন এম এ মালেকের কাছ থেকে ২০১৯-২০২০ সেবা বর্ষের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন লায়ন পারভিন মাহমুদ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, লায়ন জেলা ৩১৫ বি-৪ এর কেবিনেট সেক্রেটারী লায়ন জি.কে লালা, কেবিনেট ট্রেজারার লায়ন আশরাফুল আলম আরজু, রিজিয়ন চেয়ারপার্সন রাজীব সিনহা, জয়েন্ট ট্রেজারার লায়ন মনিরুল কবির, পারিজাত এলিট লায়ন্স ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি লায়ন জাহানারা বেগম, প্রাক্তন সভাপতি লায়ন হুমায়রা কবির চৌধুরী, সহসভাপতি লায়ন জামাল উদ্দিন, লিও ক্লাব এডভাইাজার লায়ন আসিফ চৌধুরী লিমন, ক্লাব সদস্য লায়ন কামাল হোসেন, লিও জেলা ৩১৫ বি-৪ এর সভাপতি লিও শাহরিয়ার ইকবাল, সহ সভাপতি লিও এইচ এম হাকিম, সেক্রেটারী লিও আফিফা ইসলাম, পারিজাত এলিট লিও ক্লাবের সভাপতি লিও সিজারুল ইসলাম, সদ্য প্রাক্তন সভাপতি লিও রাসেল চৌধুরী, ক্লাব সেক্রেটারী লিও রেজাউল করিম ইফতি, ক্লাব ট্রেজারার মরিয়ম কোরাইশী প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর