বুধবার, জানুয়ারী ২৯, ২০২০
চট্টগ্রামে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু
২২মে,বুধবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রামে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। আজ দেয়া হচ্ছে আগামী ৩১ মের টিকিট। বুধবার (২২ মে) সকাল ৯টা থেকে নয়টি আন্তঃনগর ও দুটি স্পেশাল ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে চট্টগ্রাম রেল স্টেশনের ১০টি কাউন্টারে। এবার একজন যাত্রী একসঙ্গে সর্বোচ্চ চারটি টিকিট কিনতে পারবেন। এজন্য অবশ্যই জাতীয় পরিচয়পত্র লাগবে। এবারই রেলের ৫০ শতাংশ টিকিট অ্যাপের মধ্যে বিক্রি করা হচ্ছে। রেলওয়ের পূর্বাঞ্চল সূত্র জানায়, আজ (২২ মে) দেয়া হবে ৩১ মে তারিখের টিকিট। এরপর ২৩, ২৪, ২৫ ও ২৬ মে দেয়া হবে যথাক্রমে ১, ২, ৩ ও ৪ জুনের টিকিট।, একইভাবে আগামী ২৯ মে থেকে ঈদ পরবর্তী ফেরার টিকিট বিক্রি শুরু হবে। ওই দিন দেয়া হবে ৭ জুনের টিকিট। এরপর ৩০ ও ৩১ এবং ১ ও ২ জুন দেয়া হবে যথাক্রমে ৮, ৯, ১০ ও ১১ জুনের টিকিট। সরেজমিনে দেখা যায়, প্রথম দিনে অগ্রিম টিকিট প্রত্যাশীরা সেহেরি খেয়েই লাইনে অবস্থান নেন। যদিও আগাম টিকিট বিক্রি শুরু হয় সকাল ৯টায়। আবার অনেকে সেহেরি পর্যন্ত অপেক্ষা না করে মধ্যরাত থেকেই চাটাই-মাদুর বিছিয়ে অপেক্ষা করেছেন টিকিটের জন্য। বিক্রি শুরুর আগ পর্যন্ত প্রতিটি কাউন্টারের সামনে শুয়ে-বসে সময় পার করেছেন টিকিট সংগ্রহকারীরা। রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের প্রধান বাণিজ্যিক কর্মকর্তা এস এম মুরাদ হোসেন বলেন, প্রতিদিন মোট ১২ হাজার টিকিট বিক্রি করা হবে। এরমধ্যে রেলওয়ের অ্যাপসে ৫০ শতাংশ অর্থাৎ ৬ হাজার টিকিট এবং বাকি ৬ হাজার টিকিট রেল স্টেশন থেকে দেয়া হবে। রেলের অ্যাপে ভোগান্তির জন্য মন্ত্রীর দু:খ প্রকাশ রেলসেবা নামে টিকিট বিক্রির অ্যাপে ভোগান্তির জন্য দু:খ প্রকাশ করেছেন রেলপথমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন। আসন্ন ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রির সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে বুধবার ( ২২ মে) সকালে রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশনে আসেন মন্ত্রী। পর্যবেক্ষণ শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপাকালে বিষয়টির জন্য দু:খ প্রকাশ করে রেলপথ মন্ত্রী বলেন, সার্ভারে ত্রুটি, বিক্রি শুরুর আগেই টিকিট শেষ হয়ে যাওয়াসহ নানা ধরনের অভিযোগ পাচ্ছি। এসব কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায়নি। এ ধরনের ভোগান্তি সত্যিই দু:খজনক। তিনি বলেন, নতুন একটি অ্যাপ চালু করেছি আমরা। তাই নানা ধরনের অব্যবস্থাপনা ধরা পড়ছে। আগামীতে যেন এ ধরনের ঘটনা আর না ঘটে সেজন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ঈদের পরেই এ বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করে কার্যক্রম গ্রহণ করবো। প্রসঙ্গত, গত ২৮ এপ্রিল রেলসেবা একটি অ্যাপ উদ্বোধন করেন রেলপথমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন। সার্ভারে ত্রুটি, বিক্রি শুরুর আগেই টিকিট শেষ, টিকিট না দিয়েই টাকা কেটে রাখা-প্রতিদিন এ ধরনের অসংখ্য অভিযোগ রেলপথ মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ রেলওয়েতে জমা পড়ছে। এসব অভিযোগের কোনো সুরাহা না করেই আজ শুরু হয়েছে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি।
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতির সম্পদ
২১মে,মঙ্গলবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: সিটি মেয়র ও চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেছেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতির সম্পদ। বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা এ মহৎ পুরুষের নেতৃত্বে অর্জিত হয়েছে। বঙ্গবন্ধুকে সব দল-মতের ঊর্ধ্বে উঠে স্থান দিতে হবে, কারণ তিনি সকলের। তিনি বলেন, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব জাতির বিবেকের কণ্ঠস্বর এবং মুক্তিযুদ্ধে চেতনায় বিশ্বাসী সংগঠন। তারা বঙ্গবন্ধুকে অনন্য উচ্চতায় স্থান দিয়েছেন। সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন গতকাল (সোমবার) সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব চত্বরে স্থাপিত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালের মূল স্থাপনা অক্ষত রেখে এর আধুনিকায়ন ও নিরাপত্তা বেস্টনির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব সভাপতি আলী আব্বাসের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সম্পাদক নজরুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী। এসময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিএফইউজের সহ-সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি কলিম সরওয়ার, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মহসিন চৌধুরী। ধন্যবাদ বক্তব্য রাখেন ক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি সালাহ উদ্দিন মো. রেজা। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সাংবাদিক এম নাসিরুল হক, ক্লাবের সহ-সভাপতি মনজুর কাদের মনজু, অর্থ সম্পাদক দেব দুলাল ভৌমিক, সাংস্কৃতিক সম্পাদক রুপম চক্রবর্তী, গ্রন্থাগার সম্পাদক রাশেদ মাহমুদ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মিন্টু চৌধুরী, কার্যকরী সদস্য ম. শামসুল ইসলাম, স ম ইব্রাহীম ও কাজী আবুল মনসুর এবং ক্লাবের স্থায়ী অস্থায়ী সদস্যরা। সভাপতির বক্তব্যে আলী আব্বাস বলেন, এ ম্যুরাল উদ্বোধনের পর আমরা শংকায় থাকতাম কখন এটি ভেঙ্গে বা নষ্ট করে দেবে। কিন্তু বর্তমানে পরিস্থিতি বদলেছে। এ কার্যক্রমে সহায়তার জন্য তিনি সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিনকে ধন্যবাদ জানান। উল্লেখ্য,অপরাজেয় বাংলা ভাস্কর্যের স্থপতি সৈয়দ আবদুল্লাহ খালিদ চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে ঐতিহাসিক এই বঙ্গবন্ধু ম্যুরাল নির্মাণ করেন। ২০১৩ সালের ১২ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে এসে এ মুর;্যালের উদ্বোধন করেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।
চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের মাসিক কল্যাণ সভা অনুষ্ঠিত
২০মে,সোমবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: প্রত্যয় একটাই মানবিক পুলিশ হতে চাই, এই লক্ষ্যে অদ্য সকাল ১০.০০ ঘটিকায় দামপাড়া পুলিশ লাইন্সস্থ মাল্টিপারপাস সেডে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার জনাব মোঃ মাহাবুবর রহমান, বিপিএম, পিপিএম মহোদয়ের সভাপতিত্বে কল্যাণ সভা মে-২০১৯ অনুষ্ঠিত হয়।সভার শুরুতে সিএমপির সেবা তহবিলে আর্থিক অনুদান হিসেবে সাউথ ইস্ট ব্যাংক এর ডেপুটি ম্যানিজিং ডিরেক্টর জনাব মোঃ আনোয়ার উদ্দিন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার জনাব মোঃ মাহাবুবর রহমান, বিপিএম, পিপিএম মহোদয়ের নিকট ১০ লক্ষ টাকার চেক হস্তান্তর করেন। ইতিপূর্বে তিনি সিএমপির বৃত্তি তহবিলে ১০ লক্ষ টাকার চেক হস্তান্তর করেন।সভায় অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম এন্ড অপারেশন) জনাব আমেনা বেগম, বিপিএম-সেবা, সকল উপ-পুলিশ কমিশনার, অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার, সহকারী পুলিশ কমিশনার, সকল থানার অফিসার ইনচার্জ সহ বিভিন্ন স্তরের পুলিশ সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।কল্যাণ সভায় পিএসসি ও জেএসসিতে ভাল ফলাফল অর্জন করায় ১৬১ জনকে ১০ লক্ষ ৫৬ হাজার টাকা মেধা বৃত্তি এবং চিকিৎসা সহায়তা বাবদ ২১ জন পুলিশ সদস্য ও সিভিল স্টাফকে ১৭ লক্ষ ৪৬ হাজার টাকা প্রদান করা হয়। এছাড়াও এবারের কল্যাণ সভায় অপরাধ দমন সংক্রান্তে তথ্য দিয়ে পুলিশি কার্যক্রমে সহায়তা করার জন্য জনৈক সবিতা রানী বিশকে বিশেষভাবে পুরস্কৃত করা হয়।সভায় কমিশনার মহোদয় বিভিন্ন স্তরের পুলিশ সদস্যদের সমস্যার কথা শুনেন এবং তাৎক্ষনিক সমাধানের ব্যবস্থা করেন। ডিউটিরত পুলিশ সদস্যদের মাঝে রমজান উপলক্ষে ইফতার, সেহেরী, ভাল মানের খাবার ও পানীয় সরবরাহের বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। কল্যাণ সভায় পুলিশ সদস্যদের প্রাপ্য ছুটি শতভাগ ভোগ করার ব্যাপারে নিশ্চিত করার জন্য পুলিশ কমিশনার মহোদয় সকল উপ-পুলিশ কমিশনারদের নির্দেশ প্রদান করেন এবং বাংলাদেশ পুলিশের নতুন উদাহরণ হিসেবে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের সকল সদস্যের ছুটি মঞ্জুর সংক্রান্ত তথ্য মোবাইল এসএমএস এ প্রেরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করেন। পুলিশ কমিশনার মহোদয় বলেন, আমি ছুটি ভোগ না করলেও আমার ফোর্স যেন প্রাপ্য ছুটি ভোগ করতে পারে তা নিশ্চিত করতে হবে।সূত্র সিএমপির ফেইজবুক । সভায় মার্চ-২০১৯ মাসে অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার, মামলার রহস্য উদঘাটন, আসামী গ্রেফতার ও ভাল কাজের জন্য বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভিন্ন স্তরের ৬০ (ষাট) জন পুলিশ সদস্য ও সিভিল স্টাফদেরকে নগদ ২ লক্ষ ৪২ হাজার টাকা ও সম্মাননা সনদ প্রদান করা হয়। মার্চ-২০১৯ মাসে শ্রেষ্ঠ বিভাগ, শ্রেষ্ঠ সহকারী পুলিশ কমিশনার, শ্রেষ্ঠ সহকারী পুলিশ কমিশনার (ডিবি), শ্রেষ্ঠ পরিদর্শক, শ্রেষ্ঠ উপ-পরিদর্শক এর সম্মাননা সনদ প্রাপ্ত হয়েছেন যথাক্রমে উপ-পুলিশ কমিশনার (বন্দর) জনাব মোঃ হামিদুল আলম, বিপিএম, পিপিএম, সহকারী পুলিশ কমিশনার (কর্ণফুলী জোন) জনাব মোঃ জাহেদুল ইসলাম, সহকারী পুলিশ কমিশনার (ডিবি-পশ্চিম) জনাব মোহাম্মদ মঈনুল ইসলাম, পুলিশ পরিদর্শক জনাব মোঃ আতাউর রহমান খন্দকার, অফিসার ইনচার্জ, বায়েজিদ থানা, এসআই/মোঃ কায়সার হামিদ, ডবলমুরিং থানা।এপ্রিল-২০১৯ মাসে অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার, মামলার রহস্য উদঘাটন, আসামী গ্রেফতার ও ভাল কাজের জন্য বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভিন্ন স্তরের ৫৯ (উনষাট) জন পুলিশ সদস্য ও সিভিল স্টাফদেরকে নগদ ২ লক্ষ ৬৭ হাজার টাকা ও সম্মাননা সনদ প্রদান করা হয়। এপ্রিল-২০১৯ মাসে শ্রেষ্ঠ বিভাগ, শ্রেষ্ঠ সহকারী পুলিশ কমিশনার, শ্রেষ্ঠ সহকারী পুলিশ কমিশনার (ডিবি), শ্রেষ্ঠ থানা, শ্রেষ্ঠ উপ-পরিদর্শক এর সম্মাননা সনদ প্রাপ্ত হয়েছেন যথাক্রমে উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) জনাব এসএম মেহেদী হাসান, বিপিএম (বার), পিপিএম (বার), সহকারী পুলিশ কমিশনার (কোতোয়ালী জোন) জনাব নোবেল চাকমা, পুলিশ পরিদর্শক জনাব মোহাম্মদ মহসীন, পিপিএম, অফিসার ইনচার্জ, কোতোয়ালী থানা, এসআই/মোঃ মনিরুল ইসলাম, কর্ণফুলী থানা। এবারের অপরাধ সভায় ১ম বারের মতো শ্রেষ্ঠ মানবিক পুলিশ ক্যাটাগরিতে জনাব দেবব্রত কর, টিআই (সদরঘাট) কে পুরস্কৃত করে পুলিশ কমিশনার মহোদয় একটি ব্যতিক্রমী উদ্যোগ গ্রহণ করেন।পুলিশ কমিশনার মহোদয় তাহার বক্তব্যে নগরীর আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকায় সিএমপির পুলিশ সদস্যকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। এই প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখার জন্য সকল থানা ও ডিবিকে যৌথভাবে কাজ করার পরামর্শ প্রদান করেন। পুলিশ কমিশনার মহোদয় সকল জোনের ডিসিদের স্ব স্ব জোনে মাদক ও ছিনতাই প্রতিরোধে অধিকতর তৎপর হতে বলেন। সংশ্লিষ্ট ডিসিগণকে এই বিষয়টি তদারকি করার জন্য নির্দেশনা প্রদান করেন। রুজুকৃত মামলা ও অভিযোগ সমূহের দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করে পুলিশি সেবা নিশ্চিত করতে হবে।সভায় পুলিশ কমিশনার মহোদয় আসন্ন পবিত্র ঈদুল ফিতর-২০১৯ উপলক্ষে নগরবাসী যাতে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার মধ্যে তাদের কেনাকাটা, গমনাগমন ও ঈদ উদযাপন করতে পারে যেজন্য সকল পুলিশ সদস্যকে আন্তরিকতার সাথে দায়িত্ব পালনের জন্য নির্দেশনা প্রদান করেন। তাছাড়া পুলিশি কার্যক্রমে সহায়তা করার জন্য নগরবাসীর প্রতি আহ্বান জানান।
চট্টগ্রামে পুলিশের সঙ্গে গোলাগুলিতে একজন নিহত
২০মে,সোমবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রামের পোলোগ্রাউন্ড মাঠ সংলগ্ন এলাকায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে এক ছিনতাইকারী নিহত হয়েছেন। চার মামলা আসামি নিহত মনসুর (৪২) সিএনজিচালিত অটোরিকশা ছিনতাইকারী চক্রের অন্যতম সদস্য। রোববার (১৯ মে) দিনগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) তারেক ও সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) অনুপ আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশি বন্দুক (এলজি) উদ্ধার করা হয় জানিয়ে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) সিনিয়র সহকারী কমিশনার (কোতোয়ালি জোন) নোবেল চাকমা বলেন, পোলোগ্রাউন্ড মাঠের পাশে ছিনতাকারী চক্রের সদস্যরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়লে একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায় এবং অন্যরা পালিয়ে যায়। কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন বলেন, গোলাগুলির ঘটনার পর গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত মনসুরকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
ইডিইউ প্রকৃত মানুষ গড়ে তুলতে কাজ করছে
২০মে,সোমবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: অন্যের মুখে হাসি ফোটানোর মতো বড় কাজ আর নেই, বলেছেন ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমান। গত ১৬ মে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে সার্টিফিকেট অ্যাওয়ার্ডিং সিরোমনি ফর ভলান্টিয়ার্স অব কনভোকেশন ২০১৯ অনুষ্ঠানে এ মন্তব্য করেন তিনি। ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি এ বছরের ১০ মার্চ আয়োজন করে বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রথম সমাবর্তন। যা আয়োজন ও ব্যাপকতার দিক থেকে বাংলাদেশের ইতিহাসে ব্যতিক্রম ও মৌলিক। রাজসিক এই আয়োজন সার্থক করে তুলতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের পাশাপাশি কাজ করেছিলো ১০০ জনের স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী। সমাবর্তনের মূল অনুষ্ঠানের অতিথি, গ্র্যাজুয়েট ও তাদের অভিভাবকদের সুবিধার্থে তারা হাসিমুখে সহযোগিতা করে গেছে সর্বক্ষণ। তাদের এই প্রয়াসকে সম্মানিত করতে প্রত্যেককে সার্টিফিকেট অব অ্যাপ্রিসিয়েশন দিয়ে ভূষিত করেছে ইডিইউ কর্তৃপক্ষ। প্রত্যেকের হাতে এই সার্টিফিকেট তুলে দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমান। এ সময় তিনি বলেন, যারা অন্যের জন্য কাজ করে, অন্যের মুখে হাসি ফোটাতে কাজ করে, তারাই মানুষ হিসেবে সার্থক। আমরা গর্ব ভরে বলতে পারি ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি প্রকৃত মানুষে পূর্ণ। আমরা আমাদের শিক্ষার্থীদের প্রকৃত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলছি। সমাবর্তনে আসা প্রত্যেকের মুখে তোমরা হাসি ফুটিয়েছো। পরবর্তী সমাবর্তনগুলোতে যারা স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করবে এটি তাদের জন্য একটি অনন্য দৃষ্টান্ত। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন, ভলান্টিয়ার রিক্রুটিং কমিটির আহ্বায়ক তৌফিক আহমেদ, কোয়ালিটি অ্যাশিওরেন্স অ্যান্ড এঙটার্নাল অ্যাফায়ার্স ডিরেক্টর এটিএম মাহমুদুর রহমান, সিনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট রেজিস্ট্রার ফারহানা আহমদ সিগমা, অ্যাডমিনস্ট্রেশন অ্যান্ড অ্যাকাউন্টসের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ রাকিব মোহাম্মদ ওমর গণি প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।
যুবকরাই পারে সমাজকে মাদক ও জঙ্গিমুক্ত করতে
১৯মে,রবিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: মেধাকে কাজে লাগিয়ে সমাজ ও দেশের সেবায় এগিয়ে আসতে হবে আজকের যুবকদের। যুবকেরাই পারে সমাজকে মাদক ও জঙ্গি মুক্ত করতে। তাই যুবকদের পাশাপাশি অন্যদেরকেও এসব ভালো কাজের জন্য এগিয়ে আসতে হবে এবং যুবকদের উৎসাহিত করতে হবে। গতকাল শনিবার বঙ্গবন্ধু ছাত্র-যুব উন্নয়ন পরিষদ ৭নং পশ্চিম ষোলশহর ওয়ার্ডের উদ্যোগে কর্মীসভা ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন সিডিএর সাবেক চেয়ারম্যান ও মহানগর আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ আবদুচ ছালাম। মো. এম এ আজিজের সভাপতিত্বে ও মো. ফরিদুল আলমের সঞ্চালনায় স্থানীয় আজাদ কমিউনিটি হলে সভায় আবদুচ ছালাম আরো বলেন, সুশৃঙ্খল ও সুন্দর জীবন-যাপনের জন্য কুরআনের শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে। জানতে হবে মানব জীবনকে সুন্দর, পরিপাটি ও শান্তিময় করার দিক-নির্দেশনা। মানতে হবে কুরআনের সকল করণীয় বিধি-বিধান। পরিহার করতে হবে ক্ষতিকর গুণাহর সকল কাজ। নিষিদ্ধ কাজ পরিহারে কুরআনের নির্দেশ বাস্তবায়ন করতে হবে মানব জীবনে। তবেই মানুষ লাভ করবে শান্তিময় নিয়মতান্ত্রিক জীবন। সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী রাশেদ আলী জাহাঙ্গীর, কাউন্সিলর জেসমিন পারভীন জেসি, স্বাগত বক্তব্য দেন, বঙ্গবন্ধু ছাত্র যুব উন্নয়ন পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম। বক্তব্য দেন, সোহেল মাহমুদ, এস এম খালদ বাবলু, দেলোয়ার হোসেন বাবুল, মো. কফিল উদ্দিন, বেবী আক্তার, হোসনে আরা পারুল, আলমগীর আলম, নুর ফরিদ, দেবাশীষ আচার্য্য, সরোয়ার আলম, মো. জাহেদুল আলম প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।
বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্ট এর প্রতিনিধি নির্বাচনে আব্দুল আজিজ নির্বাচিত
১৮মে,শনিবার,নিজেস্ব প্রতিনিধি,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: গত ১৫ মে বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্ট চট্টগ্রাম বিভাগের শ্রমিক প্রতিনিধি নির্বাচন ২০১৯ অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত নির্বাচন চট্টগ্রাম বিভাগে মোট- ৮ টি কেন্দ্রে একযোগে সকাল ৯ টা থেকে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত ভোট গ্রহন করা হয়। উক্ত ৮ টি কেন্দ্র হলো ঃ কেন্দ্র নং-০১ কুমিল্লা,কেন্দ্র নং-০২ লাকসাম,কেন্দ্র নং-০৩ চাঁদপুর,কেন্দ্র নং-০৪ ফেনি,কেন্দ্র নং-০৫ পাহাড়তলী,কেন্দ্র নং-০৬ সিজিপিওয়াই,কেন্দ্র নং-০৭ ষোলশহর,কেন্দ্র নং-০৮ চট্টগ্রাম। বাংলাদেশ রেলওয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং কাউন্সিল কতৃক এক যোগে উক্ত ৮টি কেন্দ্রে সুষ্ঠভাবে ভোট গ্রহন করা হয়। প্রতিনিধি নির্বাচনে কমিশন কতৃক নিরাপত্তা বিধানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়। উক্ত নির্বাচনে মোঃ আব্দুল আজিজ মই মার্কায় প্রায় সবকটি কেন্দ্রে বিপুল ভোটে জয় লাভ করেন।
এতিম ও হাফেজদের নিয়ে সাবেক মেয়র মনজুর আলমের ইফতার
১৬মে,বৃহস্পতিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র ও আলহাজ্ব মোস্তফা-হাকিম ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনর নির্বাহী পরিচালক এম মনজুর আলমের উদ্যোগে ও আলহাজ্ব মোস্তফা-হাকিম ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনর ব্যবস্থাপনায় পুরা রমজান মাসব্যাপী উত্তর কাট্টলীস্থ নিজ বাড়িতে প্রতিদিন এতিম ও হাফেজদের নিয়ে ইফতার করেন মনজুর আলম। পহেলা রমজান থেকে শুরু হয়ে এই ইফতার কার্যক্রম চলবে ২৮ রমজান পর্যন্ত। রুটিন অনুযায়ী নগরির বিভিন্ন মাদ্রাসা ও এতিমখানার ছাত্রদের প্রতিদিন ইফতারের দাওয়াত দেন মনজুর আলম। আর নিজ পরিবারের সদস্যদের নিয়ে এতিম ও হাফেজদের সাথে ইফতার করেন তিনি। ইফতারের পর বিদায়কালে উপহার দেওয়া হচ্ছে প্রত্যেক এতিম ও হাফেজকে ঈদের নতুন পাঞ্জাবী-পায়জামা, টুপি ইত্যাদি। আবার সাথে কিছু নগদ টাকাও। এদিকে রমজানের পূর্বে নগরির ৪১ টি ওয়ার্ড ও সীতাকুন্ডের ১০টি ওয়ার্ডে দুঃস্থ রোজাদারদের মাঝে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে সেহেরী ও ইফতার সামগ্রী। গত দুই দশক ধরে এই কার্যক্রম করছেন নগরির এই সাবেক মেয়র। শুধু তাই নয়, রমজান শুরু হওয়ার সাথে সাথে শুরু হয়েছে দুঃস্থদের মাঝে ঈদ সামগ্রি বিতরণও। চট্টগ্রাম মহানগরসহ ঢাকা সিটির বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে দুঃস্থদের জন্য আয়োজন করেছেন নিয়মিত ইফতারের। এ প্রসঙ্গে মনজুর আলম বলেন, আমার ধ্যান-ধারণায় সব সময় থাকে মানবতা ও মানব সেবা। মানবতা ও সমাজ সেবাই আমার একমাত্র ব্রত। দীর্ঘ বছর ধরে মানব সেবা ধর্মীয় অনুশাসন, সামাজিক ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ বিভিন্নভাবে সমাজ ও মানুষের জন্য কিছু করার চেষ্টা করেছি। তাই মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি ও এতিমদের কথা চিন্তা করে আমি প্রতিবছর রোজাদার, এতিম ও হাফেজদের সাথে ইফতার করে থাকি।এছাড়াও নিজ বাড়িতে নিয়মিত ইফতার আয়োজনে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষও শরীক হন সাবেক মেয়রের এই ইফতার আয়োজনে। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর