চট্টগ্রামে মুক্তিযোদ্ধাসহ করোনায় আরও ৩ জনের মৃত্যু
২০মে,বুধবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতাল ও ফিল্ড হাসপাতালে করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) এক মুক্তিযোদ্ধাসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (১৯ মে) রাতে তাদের মৃত্যু হয়। এছাড়া করোনার উপসর্গ নিয়ে বুধবার কামাল নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন কিনা তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। করোনায় মৃত মুক্তিযোদ্ধার নাম রফিকুল আলম। তিনি মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কোতোয়ালী থানা শাখার ডেপুটি কমান্ডার ছিলেন। ১৯৭১ সালে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম শহর কেন্দ্রিক বেশ কয়েকটি গেরিলা অপারেশনে নেতৃত্ব দেন তিনি। রফিকুল আলমের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে চট্টগ্রাম ফিল্ড হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা ডা. বিদুৎ বড়ুয়া বলেন, রাত তিনটার দিকে হাসপাতাল থেকে বাসায় নেয়ার পর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল আলমের মৃত্যু হয়। গতকাল রাতে তিনি কিছুটা অস্বাভাবিক আচরণ করছিলেন, কিন্তু অবস্থা ভালো ছিল। বারবার ভেন্টিলেটরে অক্সিজেন দেয়া হলেও তিনি অক্সিজেনের সরবরাহ লাইনটি খুলে ফেলছিলেন। পরে তার পরিবারের সদস্যরা তাকে বাড়িতে নিয়ে যান। তিনি আরও বলেন, আজ দুপুর ১২টার দিকে করোনা উপসর্গ নিয়ে কামাল নামের এক যুবক মারা গেছেন। গতকাল রাতে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি। তবে অবস্থা খুব খারাপ ছিল। এদিকে, চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক জামাল মোস্তফা বলেন, মঙ্গলবার রাতে হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন দুজনের মৃত্যু হয়েছে। তারা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন। তাদের একজনের বয়স ৫৫ অপরজনের ৫৮ বছর।
আল্লামা সাখাওয়াত হোসেনের জানাজা সম্পন্ন
২০মে,বুধবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম নেছারিয়া কামিল মাদ্রাসার সাবেক প্রিন্সিপাল, জমিউতুল মোদাচ্ছেরিন বাংলাদেশ চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি, বাংলাদেশ মাদ্রাসা বোর্ডের সদস্য প্রখ্যাত ইসলামী গবেষক আল্লামা সাখাওয়াত হোসেনের নামাজে জানাজা আজ বাদে জোহর তাঁর দীর্ঘদিনের কর্মস্থল চট্টগ্রাম নেছারিয়া কামিল মাদ্রাসা মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। প্রখ্যাত ইসলামী এই গবেষকের জানাজায় ইমামতি করেন মরহুমের ২য় পুত্র মারুফ চৌধুরী। মুনাজাত পরিচালনা করেন মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত প্রিন্সিপাল মাওলানা রফিকুল ইসলাম। জানাজায় বিভিন্ন রাজনৈতিক ও ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ ছাড়াও মরহুমের অসংখ্য ছাত্র অংশ নেন।
জামিয়াতুল ফালাহ জামে মসজিদে জীবানুনাশক মেশিন উদ্বোধন
২০মে,বুধবার,শারমিন আকতার,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: নগরীর জামিয়াতুল ফালাহ জামে মসজিদে জীবাণুনাশক মেশিন স্থাপন করা হয়েছে। জীবাণুনাশক মেশিন স্থাপনাটি উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও আওয়ামী লীগের মনোনীত চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের মেয়র পদপ্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এম. রেজাউল করিম চৌধুরী। মঙ্গলবার ১৯ মে বিকালে নগরীর জামিয়াতুল ফালাহ জামে মসজিদ কমিটির সভাপতি চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক,বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব বদিউল আলমের নিকট চেম্বারটি উপহার স্বরুপ তুলে দেন চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের বেসরকারি পরিদর্শক আজিজুর রহমান আজিজ। এরপরই এটি উদ্বোধন করেন আসন্ন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এম. রেজাউল করিম চৌধুরী। এসময় তিনি বলেন, দেশ ও জনপদ আজ করোনা ভয়াবহতায় হুমকির মুখে। মানুষের সচেতনতা বৃদ্ধিতে জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে আমাদের দলীয় সংগঠক আজিজ মহামারী শুরুর প্রথম থেকেই চট্টগ্রাম শহরের জনসাধারণের জন্য জনসেবা মূলক কাজ করে যাচ্ছেন। তারই ধারাবাহিকতায় আজকের চট্টগ্রামের জামিয়াতুল ফালাহ জামে মসজিদে জীবাণুনাশ স্প্রে চেম্বার বসানোর উদ্যোগ গ্রহণ করায় আমি তাকে ধন্যবাদ জানচ্ছি। আজিজের এই জনসচেতনতামূলক কর্মকান্ডগুলোকে আমি সাধুবাদ জানাই। এই সময় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মশিউর রহমান, ১৪নং লালখান বাজার ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব সিদ্দিক আলম, ১৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর গিয়াস উদ্দিন, চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগের আহবায়ক মহিউদ্দিন বাচ্চু, যুগ্ম আহবায়ক ফরিদ মাহমুদ, যুবলীগ নেতা মনির উদ্দিন, সৈয়দ শওকত, খুলশি থানা সেচ্ছাসেবক লীগ নেতা জামশেদ, ওমরগণি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা ইলিয়াস, ফরহাদুল ইসলাম রিন্টু, পিয়ারু, মাসুদ রানা, জুয়েল, চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক রনি মির্জা, সদস্য ফরহাদ সায়েম, ফয়সাল অভি, মোরশেদ বাবলু, জুয়েল, হাসান আলী, রাসেল ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রসংসদের শাহিন, সাংস্কৃতিক সম্পাদক আল-আমিন, উপ সাংস্কৃতিক সম্পাদক মাহফুজ, সহ-সম্পাদক নিশান সানি, ডবলমুরিং থানা ছাত্রলীগ নেতা রিয়াদ, লালখান বাজার ওয়ার্ড ছাত্রলীগ নেতা নাছির মোবিন, ১৫নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগ নেতা অপি, আবির সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।
চট্টগ্রামে সাংবাদিকসহ আরো ৫৯ জনের করোনা শনাক্ত
২০মে,বুধবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রামে আরো ৫৯ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে চট্টগ্রাম জেলার ৫৪ জন। বাকি দুজন খাগড়াছড়ি জেলার। এরমধ্যে চট্টগ্রামে কর্মরত তিন সাংবাদিক ও চারজন পুলিশ সদস্য রয়েছে। এ নিয়ে চট্টগ্রাম জেলায় করোনা আক্রান্ত বেড়ে দাঁড়ালো ৮৪৫ জনে। চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন শেখ ফজলে রাব্বি এ তথ্য জানান। তিনি জানান, সোমবার রাতে চট্টগ্রামের দুটি ও কক্সবাজারের একটি ল্যাবে নমুনা পরীক্ষার এই ফলাফল প্রকাশ করা হয়। এরমধ্যে চট্টগ্রামের বিআইটিআইডি ল্যাবে ১২৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় ২৭ জনের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে ২১ জন চট্টগ্রাম নগরীর। বাকি ৬ জনের মধ্যে পটিয়া, চন্দনাইশ, মীরসরাই, সীতাকুন্ড, হাটহাজারী ও বাঁশখালী উপজেলার ১ জন করে আছেন। অন্যদিকে, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ের (সিভাসু) ল্যাবে ৭৪টি নমুনা পরীক্ষায় ২৪ জনের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এদের মধ্যে ২২ জন চট্টগ্রামের ও দুই জন খাগড়াছড়ি জেলার বাসিন্দা। চট্টগ্রামের ২২ জনের মধ্যে পটিয়া উপজেলার ৮ জন, সীতাকুন্ডের ৭ জন, হাটহাজারীর ৬ জন এবং কর্ণফুলী উপজেলার ১ জন আছেন। এছাড়া কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ল্যাবে চট্টগ্রামের ২৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৫ জনের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এরা সবাই চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার বাসিন্দা। এদের মধ্যে আক্রান্ত চট্টগ্রামে কর্মরত ৩ সাংবাদিক হলেন, চ্যানেল টুয়েন্টিফোরের স্টাফ রিপোর্টার জোবায়ের মনজুর ও ক্যামেরাপারসন হারুনুর রশীদ এবং ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনেরর ক্যামেরাপারসন মোহাম্মদ আলমগীর। চ্যানেল টুয়েন্টিফোরের আবাসিক স¤পাদক কামাল পারভেজ বলেন, এক সপ্তাহ আগে আমাদের দুজন সহকর্মীর শরীরে হালকা জ্বর আসে। অফিসের নির্দেশে তখনই তাদের বাসায় কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়। ১৬ই মে তাদের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। সোমবার রাতের ফলাফলে পজিটিভ এসেছে। এখন তাদের শরীরে কোনো উপসর্গ নেই। তারা বাসাতেই আইসোলেশনে আছেন। ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনের ব্যুরো প্রধান অনুপম শীল বলেন, আমাদের ক্যামেরাপারসন আলমগীর অসুস্থবোধ করায় গত ৮ই মে থেকে ছুটিতে আছেন। তার শরীরে এখন কোনো লক্ষণ নেই। নমুনা পরীক্ষায় পজিটিভ এসেছে। তাকে বাসায় আইসোলেশনে থাকতে বলা হয়েছে। এ নিয়ে চট্টগ্রামে ৫ জন সাংবাদিক করোনায় আক্রান্ত হলেন। এর আগে ইউএনবির চট্টগ্রাম প্রতিনিধি সাইফুল ইসলাম শিল্পী এবং ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনের স্টাফ রিপোর্টার আহসানুল কবির রিটন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এদিকে, চট্টগ্রামে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত পুলিশ সদস্যদের ৩ জন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) এবং ১ জন জেলা পুলিশের। সিএমপি উপকমিশনার (বিশেষ শাখা) আব্দুল ওয়ারিশ খান জানিয়েছেন, আক্রন্তদের মধ্যে ২ জন কনস্টেবল। তারা বিভিন্ন থানায় কর্মরত। এছাড়া ট্রাফিক বিভাগে কর্মরত ১ জন সার্জেন্টও আক্রান্ত হয়েছেন। সিএমপিতে এ নিয়ে ৬৭ জন পুলিশ সদস্য আক্রান্ত হয়েছে। ডসভিল সার্জন সূত্র জানায়, চট্টগ্রাম জেলায় এ নিয়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাড়াল ৮৪৫ জনে। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ১১১ জন। মারা গেছেন ৩৮ জন।
ঘূর্ণিঝড় আস্ফান মোকাবেলায় ব্যাপক প্রস্তুতি চসিকের
১৯মে,মঙ্গলবার,সৈয়দুল ইসলাম,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: বিশ্বময় মহামারি করোনার মধ্যেই বিধ্বংসী রূপ নিয়ে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় আম্ফান। এটি আরো শক্তি সঞ্চয় করে সুপার সাইক্লোনে রূপ নেয়া ঝড়টি উপকূলীয় অঞ্চলে আঘাত হানতে পারে মঙ্গলবার শেষ রাতেই। এর প্রভাবে চট্রগ্রামসহ সারাদেশে বেড়েছে তাপপ্রবাহ, জনজীবনে নেমে এসেছে অস্বস্তি। আবহাওয়া অধিদপ্তর হতে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্রবন্দরের জন্য রয়েছে ৬ নম্বর সতর্ক সংকেত। পশ্চিম মধ্যবঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় আম্ফান উত্তর দিকে অগ্রসর ও ঘনীভূত হয়ে সুপার ঘূর্ণিঝড় আকারে বর্তমানে একই এলাকায় অবস্থান করছে। আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্যমতে এটি চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৮৮৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ৮৩০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, অবস্থান করছিল। এটি আরও উত্তর দিকে অগ্রসর হতে পারে এবং পরবর্তীতে দিক পরিবর্তন করে উত্তর-উত্তর পূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে খুলনা ও চট্টগ্রামের মধ্যবর্তী অঞ্চল দিয়ে ১৯ মে শেষরাত থেকে ২০ মে বিকাল/সন্ধ্যার মধ্যে বাংলাদেশের উপকূল অতিক্রম করতে পারে। আজ সকালে দামপাড়স্থ চসিক কন্ট্রোলরুমে ঘূর্ণিঝড় আস্ফান বিষয়ে প্রস্তুতি বৈঠকে চসিকের পক্ষ থেকে এইসব তথ্য জানানো হয় । দামপাড়াস্থ কন্ট্রোলরুম হতে ঝূকিপূর্ণ ওয়ার্ড এর স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলদের সাথে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষা করা হচ্ছে। ঝুঁকি এড়াতে চসিকের পক্ষ থেকে পাহাড়ের পাদদেশে অবস্থানরত ও উপকূলীয় অঞ্চলের বাসিন্দাদের সরিয়ে নিতে মাইকিং করা হচ্ছে । এছাড়া দূর্যোগ পূর্ববর্তী, দুর্যোগকালিন ও দূর্যোগ পরবর্তী সময়ে অবস্থানের জন্য আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে প্রস্তুত রাখা হয়েছে তৎসংশ্লিষ্ট সাইক্লোন শেল্টার ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এইসব আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে জীবনুনাশক স্প্রে করে জীবানুমুক্ত করা হচ্ছে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য প্রশিক্ষিত ভোলান্টিয়ার প্রস্তুত রাখা হয়েছে। পর্যাপ্ত শুকনো খাবার ও সুপেয় পানির ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। জরুরী চিকিৎসাসেবায় চসিকের মেডিকেল টীম প্রস্তুত রয়েছে। চসিকের পক্ষ থেকে জানানো হয়, যেহেতু করোনার প্রাদুর্ভাব রয়েছে তাই অবশ্যই তাড়াহুড়ো না করে অবশ্যই সামাজিক দূরত্ব মেনে ও সরকারি স্বাস্থ্য বিধি মেনে কার্য সম্পাদন করতে হবে। ঘূর্ণিঝড় সম্পর্কীত যে কোন প্রয়োজনে চসিকের কন্ট্রোল রুম ০৩১-৬৩০৭৩৯, ০৩১-৬৩৩৬৪৯-তে যোগাযোগ করলে সাথে সাথে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আজ বৈঠকে চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামসুদ্দোহা, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল সোহেল আহমদ,প্রধান নগর পরিকল্পনাবিদ এ.কে.এম রেজাউল করিম, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌলশী সুদীপ বসাক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে সাংবাদিকদের করোনা টেস্টের নমুনা সংগ্রহ শুরু
১৯মে,মঙ্গলবার,রাজিব দাশ,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব ও চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন (সিইউজে)র যৌথউদ্যোগে মঙ্গলবার থেকে সাংবাদিকদের করোনা ভাইরাসের নমুনা সংগ্রহ শুরু করা হয়েছে। উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. হাসান শাহরিয়ার কবির। নমুনা সংগ্রহের প্রাক্কালে সংক্ষিপ্ত সভায় তিনি বলেন, ভয়াবহ করোনা ভাইরাসে সারা বিশ্ব আক্রান্ত। এই মহামারীতে চট্টগ্রামসহ দেশের সাংবাদিক বন্ধুরা সম্মুখযোদ্ধা হিসেবে কাজ করছেন। ইতোমধ্যে চট্টগ্রামের কয়েকজন সাংবাদিক আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশিত নিয়মাবলী পালন করে কঠোর সতর্কতার সাথে দায়িত্ব পালনের আহ্বান জানান। নমুনা সংগ্রহ করেন বিআইটিআইডি, চট্টগ্রামের সিনিয়র মেডিকেল টেকনোলজিস্ট মো. শামসুল আলম এবং টেকনোলজিস্ট মো. ফখরুদ্দিন সুমন। প্রেস ক্লাব সভাপতি আলহাজ্ব আলী আব্বাসের সভাপতিত্বে স্বগত বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ। যুগ্ম সম্পাদক নজরুল ইসলামের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোহাম্মদ আলী। এ সময় প্রেস ক্লাবের সিনিয়র সহসভাপতি সালাহউদ্দিন মো. রেজা, সিইউজের সিনিয়র সহ-সভাপতি রতন কান্তি দেবাশীষ, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শামসুল ইসলাম, প্রেস ক্লাবের সাংস্কৃতিক সম্পাদক রূপম চক্রবর্তী, কার্যকরী সদস্য স ম ইব্রাহীম, সিনিয়র সদস্য মোয়াজ্জেমুল হক, মাখন লাল সরকার, দেবপ্রসাদ দাস দেবু, জামালুদ্দীন ইউছুফ, মিহরাজ রায়হান, বিশ্বজিৎ বড়ুয়া, অমিত বড়ুয়া, খোরশেদুল আলম শামীম, মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিনসহ বেশ কয়েকজন সাংবাদিক উপস্থিত ছিলেন।
চট্টগ্রামে আরো ৫৪জনের করোনা শনাক্ত
১৮মে,সোমবার,রাজিব দাশ,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রামে সোমবার ২২২টি নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ৫৪ জনের। চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. ফজলে রাব্বি এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, সোমবার(১৮ মে) চট্টগ্রাম বিআইটিআইডি তে ১২৪ টি নমুনা পরীক্ষায় ২৭ টি পজিটিভ পাওয়া গেছে। এর মধ্যে চট্টগ্রাম মহানগরীর ২১টি আর হাটহাজারীর ১টি, পটিয়ার ১টি, চন্দনাইশের ১টি, মিরসরাইর ১টি,বাঁশখালীর ১টি, সীতাকুণ্ডের ১ টি। নগরীর ২১টির মধ্যে আলফালাহ গলির ১জন,দামপাড়ার ৩ জন, মিস্ত্রি পাড়ার ২জন, হালিশহর পুলিশ লাইনের ১জন, বন্দরটিলার ১জন, ইন্ডাস্টিয়াল পুলিশের ১জন, পাহাড়তলীর ১জন, সাংবাদিক ৩জন, আকবরশাহ এলাকার ২জন, টেক্সটাইল এলাকার ২জন। চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ইউনিভার্সিটির (সিভাসু) ল্যাবে ৭৪ টি নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে ২৪ টি পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। শনাক্ত ২৪জনের মধ্যে খাগড়াছড়ি ২ জন, চট্টগ্রামের ২২জন। চট্টগ্রামের ২২জনের মধ্যে পটিয়ার ৮জন, সীতাকুণ্ডের ৭, হাটহাজারীর ৬, বাঁশখালীর ১জন। এছাড়া কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চট্টগ্রাম জেলার ২৪ টি নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার ৫ টি পজিটিভ পাওয়া গেছে।
চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মাঝে ঈদের উপহার সামগ্রী বিতরণ
১৮মে,সোমবার,শারমিন আকতার,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: পবিত্র ঈদ-উল ফিতর উপলক্ষে চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ে কর্মরত সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী ও কোভিড-১৯ কন্ট্রোল রুমের কর্মচারীদের মাঝে ঈদের উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। আজ ১৮ মে সোমবার বিকেল ৪টায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে উপহার সামগ্রী বিতরণ করেন বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. হাসান শাহরিয়ার কবীর। জেলা সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বির সভাপতিত্বে ও ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ আসিফ খানের সঞ্চালনায় অনুষ্টিত ঈদের উপহার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্টানে বিশেষ অতিথি ছিলেন আন্দরকিল্লা ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. অসীম কুমার নাথ (উপ-পরিচালক)। বক্তব্য রাখেন সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার ডা. ওয়াজেদ চৌধুরী অভি, মেডিকেল অফিসার (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ও কোভিড-১৯ এর ফোকাল পারসন ডা. মোঃ নুরুল হায়দার। উপস্থিত ছিলেন ৩৯তম বিসিএসর মেডিকেল অফিসার ডা. মোহাম্মদ আনিস, ডা. মোঃ রফিক, ডা. ফাহিমা আক্তার, জেলা স্বাস্থ্য তত্বাবধায়ক সুজন বড়ুয়া, সিভিল সার্জন কার্যালয়ের প্রধান সহকারী (প্রেষণে) মোঃ সাহিদুল ইসলাম, প্রধান সহকারী মোঃ আবু তৈয়ব ও পিএ টু সিভিল সার্জনের মোঃ মফিজুল ইসলাম প্রমূখ। উপহার সামগ্রীর মধ্যে ছিল-চিনিগুড়া চাউল, সেমাই, চিনি, নুডলস, সোয়াবিন তেল, ঘি ও নারিকেল। অনুষ্টানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. হাসান শাহরিয়ার কবীর বলেন, করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে হলে প্রত্যেককে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জনগণকে আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন হতে হবে।সবসময় পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা থেকে সাবধানতা অবলম্বনের মাধ্যমে চলাফেরা করলে করোনা ভাইরাস থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের উদ্যোগে ঈদের উপহার সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমকে সাধুবাদ জানান তিনি।
ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় কন্ট্রোল রুম খুলেছে চসিক
১৮মে,সোমবার,রাজিব দাশ,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: ঘূর্ণিঝড় আম্ফান সম্পর্কিত যেকোনো তথ্য ও সহযোগিতার প্রয়োজনে নগরবাসীদের সেবা দিতে সার্বক্ষণিক কন্ট্রোল রুম খুলেছে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক)। আজ সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের নির্দেশে কন্ট্রোল রুম চালু করা হয়েছে। এছাড়া দূর্যোগ পূর্ববর্তী, দুর্যোগকালীন ও দূর্যোগ পরবর্তী সময়ে অবস্থানের জন্য উপকূলীয় এলাকায় চসিক পরিচালিত সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সর্বদা প্রস্তুত রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এছাড়াও ঘূর্ণিঝড় সম্পর্কিত যে কোনো তথ্য ও সহযোগিতার প্রয়োজনে কন্ট্রোল রুমের সঙ্গে যোগাযোগের জন্য চসিকের পক্ষ থেকে নগরবাসীদের অনুরোধ জানানো হয়েছে। চসিকর কন্ট্রোল রুমের ফোন নম্ব^রগুলো হলো- ০৩১-৬৩০৭৩৯, ০৩১-৬৩৩৬৪৯। চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন এর পক্ষ থেকে জানানো হয়, দুর্যোগপূর্ণ মুহূর্তে উপকূলবাসীকে নিরাপদে সরিয়ে আনতে সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন। উপকূলীয় এবং পাহাড়ের তলদেশে অবস্থানরত জনসাধারণের মাঝে সচেতনতার জন্য মাইকিং কার্যক্রমসহ দূর্যোগ পরবর্তী সময়ের জন্য শুকনো খাবার, পর্যাপ্ত সুপেয় পানির ব্যবস্থা এবং চিকিৎসা সেবাদানের জন্য মেডিকেল টিম ও পর্যাপ্ত ওষুধ প্রস্তুত রেখেছে চসিক। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন ঘূর্ণিঝড় আম্ফান এর সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ ও কন্ট্রোল রুমের তদারকি করছেন।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর