শুক্রবার, এপ্রিল ৩, ২০২০
সিটিজি ব্লাড ব্যাংকের ৭ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী
১৪ডিসেম্বর,শনিবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: সিটিজি ব্লাড ব্যাংক এর সপ্তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেছেন, যারা রক্ত দেয় তারা কখনো জঙ্গী এবং মাদকে যুক্ত হতে পারে না। রক্তের ফেরীওয়ালারা অপরাধে জড়াতে পারে না। চট্টগ্রামে সাত বছর আগে অনলাইনে গড়ে উঠা স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সিটিজি ব্লাড ব্যাংক এর সপ্তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন। গতকাল শুক্রবার বিকালে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এতে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রায় তিনশ স্বেচ্ছাসেবী প্রতিনিধি যোগ দেয়। অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিভাগের স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক ডা. হাসান শাহরিয়ার কবির, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি মোহাম্মদ আলী, সাংবাদিক আলমগীর সবুজ, ফকির আব্দুল মান্নান, শওকত হোসেন। সিটিজি ব্লাড ব্যাংকের অ্যাডমিন মোহাম্মদ মোরশেদুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সমাজ ও স্বেচ্চাসেবী কর্মকাণ্ডে অবদানের জন্য চমেক হাসপাতালের হেমাটোলজি বিভাগের অধ্যাপক ও থ্যালাসেমিয়া প্রিভেনশন ক্যাম্পেইন বাংলাদেশের চিফ সাইন্টিফিক এডভাইজর ডা. শাহেদ আহমদ চৌধুরী, সিএমপির উপকমিশনার বিজয় বসাক, চমেকের সমাজসেবা কর্মকর্তা অভিজিৎ সাহা, কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ মহসিন এবং পাঁচলাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কাশেম ভূঁইয়াকে সম্মাননা প্রদান করা হয়।- প্রেস বিজ্ঞপ্তি
চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপ-নির্বাচনে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন ছয়জন
১২ডিসেম্বর,বৃহস্পতিবার,স্টাফ রির্পোটার,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: বোয়ালখালী, চান্দগাঁও, পাঁচলাইশ, বায়েজিদ আংশিক এলাকা নিয়ে গঠিত চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপ-নির্বাচনে ছয়জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিনে চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন অফিসে রিটানিং কর্মকর্তা কাছে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মোছলেম উদ্দিন আহমদ , জাতীয় পার্টির প্রার্থী জিয়া উদ্দিন আহমদ বাবলু মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এর আগে গতকাল বুধবার মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন বিএনপি প্রার্থী মোহাম্মদ আবু সুফিয়ান। এছাড়াও বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্টের এস এম আবুল কালাম আজাদ, ন্যাশের বাপন দাশ গুপ্ত , ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশের সৈয়দ মোহাম্মদ ফরদি উদ্দিন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। আগামী ১৫ ডিসেম্বর যাচাই-বাছাই শেষে ২২ ডিসেম্বর পর্যন্ত মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের সুযোগ থাকবে। আর ইভিএমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে ১৩ জানুয়ারি। এ আসনে ১৮৯টি কেন্দ্রে মোট ভোটার চার লাখ ৭৫ হাজার ৯৮৮ জন।
রোহিঙ্গাদের এনআইডি: সোয়া কোটি টাকার দুর্নীতির অভিযোগে চট্টগ্রামে ২ মামলা
১১ডিসেম্বর,বুধবার,চট্টগ্রাম প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: জালিয়াতির মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের ভোটার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত করে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন ও অর্থ পাচারের অভিযোগে চট্টগ্রামের ডবলমুরিং থানা নির্বাচন কার্যালয়ের অফিস সহায়ক জয়নাল আবেদীনসহ আটজনের বিরুদ্ধে আলাদা মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। বুধবার চট্টগ্রামের ১ নম্বর ও ২ নম্বর সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে মামলা দুটি দায়ের করা হয় হয় বলে ২ নম্বর সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপ-সহকারী পরিচালক শরীফ উদ্দিন জানিয়েছেন। এর মধ্যে দুদকের ২ নম্বর চট্টগ্রাম সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের ৬৯ লাখ সাত হাজার ৪৪২ টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের মামলায় শুধু জয়নালকে আসামি করা হয়েছে, যার বাদী শরীফ নিজে। অপরদিকে মোট ৬৭ লাখ ৮৩ হাজার ২৯৬ টাকা পাচারের অভিযোগে দুদকের ১ নম্বর চট্টগ্রাম সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে উপ-সহকারী পরিচালক জাফর সাদে শিবলীর করা মামলায় জয়নালসহ সবাইকে আসামি করা হয়েছে। অপর আসামিরা হলেন- জয়নালের স্ত্রী আনিছুন নাহার, জাফর, ঢাকায় এনআইডি প্রকল্পের ডাটা এন্ট্রি অপারেটর সত্য সুন্দর দে, জয়নালের সহযোগী সীমা দাশ, তার ভাই বিজয় দাশ, চট্টগ্রাম জেলা নির্বাচন অফিসের অস্থায়ী অফিস সহায়ক ঋষিকেশ দাশ, বান্দরবান সদর উপজেলার ডাটা এন্ট্রি অপারেটর নিরুপম কান্তি নাথ। অর্থ পাচারের মামলার নথি অনুযায়ী, পরস্পর যোগসাজসে ইসলামী ব্যাংক চশবাজার শাখায় ৩৪ লাখ তিন হাজার ১৫২ টাকা, আল আরাফা ইসলামী ব্যাংক আনোয়ারা শাখায় ২৮ লাখ ২০ হাজার ১৪৪ টাকা, প্রাইম ব্যাংক বাঁশখালী এক লাখ ১০ হাজার এবং এসএ পরিবহনের মাধ্যমে তিন লাখ ৫০ হাজার টাকাসহ মোট ৬৭ লাখ ৮৩ হাজার ২৯৬ টাকা হস্তান্তর, স্থানান্তর বাড়ি নির্মাণে ব্যয়ের ঘটনায় আট আসামির বিরুদ্ধে মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইনের ২০১২ এর ৪(২) ও দণ্ডবিধির ১০৯ এবং দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় মামলা হয়েছে। অন্যদিকে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত ৬৯ লাখ সাত হাজার ৪৪২ টাকার সম্পদ নিজের ভোগ দখলে রাখার ঘটনায় জয়নালের বিরুদ্ধে দুর্নীতি কমিশন আইন, ২০০৪ এর ২৭(১) ধারায় মামলা হয়েছে। গত অগাস্টে এক রোহিঙ্গা নারী ভুয়া জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) নিয়ে চট্টগ্রামে পাসপোর্ট সংগ্রহ করতে গিয়ে ধরা পড়ার পর জালিয়াত চক্রের খোঁজে নামে নির্বাচন কমিশন। আটকে দেয় রোহিঙ্গা সন্দেহে অর্ধশত এনআইডি বিতরণ। এনআইডি জালিয়াতিতে সম্পৃক্ততার অভিযোগে গত ১৬ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রাম নির্বাচন কার্যালয়ের অফিস সহায়ক জয়নাল, দুই সহযোগী সীমা ও বিজয়কে আটক ও একটি ল্যাপটপ জব্দ করে পুলিশে দেন ইসি কর্মকর্তারা। এ ঘটনায় চট্টগ্রামের কোতোয়ালী থানায় করা মামলার তদন্ত করছে নগর পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট। ইতোমধ্যে কাউন্টার টেরোরিজম নির্বাচন অফিসের চারজন স্থায়ী ও প্রকল্পের অধীনে কর্মরত সাতজনসহ মোট ১৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এদিকে নির্বাচন কর্মকর্তাদের অর্থিক দুর্নীতির তদন্তে নেমেছে দুদক। চট্টগ্রামের বেশ কয়েকজন নির্বাচনী কর্মকর্তার সম্পদের তথ্য চেয়ে চিঠিও দিয়েছে।
নীতি নৈতিকতা সম্পন্ন নয় এমন কাজই দুর্নীতি: বিভাগীয় কমিশনার
০৯ডিসেম্বর,সোমবার,স্টাফ রির্পোটার,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: বিভাগীয় কমিশনার আবদুল মান্নান বলেছেন, নীতি নৈতিকতাসম্পন্ন নয় এমন কাজই দুর্নীতি। কাজে ফাঁকি দেওয়া, কর্মক্ষেত্রে উপস্থিত না হওয়াও দুর্নীতি। দুর্নীতি একটি রোগ। এ রোগবালাই থেকে দেশকে রক্ষা করতে ও দেশকে দুর্নীতিমুক্ত করতে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। বিভাগীয় কমিশনার আজ নগরীর শিল্পকলা একাডেমিতে শিক্ষার্থী সততা সংঘের সমাবেশ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে আমরা দুর্নীতির বিরুদ্ধে একতাবদ্ধ প্রতিপাদ্যে আন্তর্জাতিক দুর্নীতি বিরোধী দিবস উপলক্ষে আয়োজিত মানববন্ধন ও আলোচনা সভায় এ আহ্বান জানান। এর আগে সকালে পতাকা উত্তোলনের মধ্যদিয়ে শুরু হয় দিনের কার্যক্রম। পরে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন বিভাগীয় কমিশনার। মানববন্ধনে চট্টগ্রাম বিভাগের সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা কর্মচারীগণ অংশ নেন। আলোচনা সভায় চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক মো.মাহমুদ হাসান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রেঞ্জ ডিআইজি মো. আবুল ফজল, অতিরিক্ত কমিশনার মোসা. আমেনা বেগম, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াছ হোসেন, পুলিশ সুপার নুরে আলম মীনা, চট্টগ্রাম মহানগর দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি মনোয়ারা হাকিম আলী প্রমুখ। বিভাগীয় কমিশনার বলেন, সরকার দুর্নীতি প্রতিরোধে কঠোর অবস্থানে রয়েছে। শুধু সরকার নয় আমরা যে যেখানে আছি এই ব্যাধির বিরুদ্ধে অবস্থান নিতে হবে। এর সাথে জনগণের মাঝে সচেতনতা তৈরি করাও জরুরি। ২০০৩ সালে সারা বিশ্বকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ করার লক্ষ্যে জাতিসংঘ ৯ ডিসেম্বরকে আন্তর্জাতিক দুর্নীতি বিরোধী দিবস হিসেবে ঘোষনা করে। পরে ২০০৭ সাল থেকে বিশ্বজুড়ে দিবসটি পালন শুরু করে। বাংলাদেশে ২০১৭ সাল থেকে সরকারিভাবে দিবসটি পালন করা হচ্ছে।
রোটারি সাগরিকার গভর্নর ক্লাব ভিজিট
০৯ডিসেম্বর,সোমবার,মো:ইরফান চৌধুরী,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: রোটারী ক্লাব অব চিটাগাং সাগরিকার গভর্নর ভিজিট ২০১৯-২০ সম্প্রতি নগরীর একটি রেস্টুরেন্টে সম্পন্ন হয়। তিনটি পর্বে অনুষ্ঠিত এই ভিজিটে প্রথম পর্বে ক্লোজডোর মিটিং সম্মানিত জেলা গভর্নর লে, কর্ণেল অধ্যক্ষ এম আতাউর রহমান পীর (অব.), অত্র ক্লাবের দায়িত্বপ্রাপ্ত এসিস্ট্যান্ট গভর্নর পিপি সাইফুদ্দিন আহমেদ, ক্লাব সভাপতি রোটারিয়ান ফয়জুল কবির চৌধুরী, সেক্রেটারী রোটারিয়ান আরিফ আহমেদের মধ্যে অনুষ্ঠিত হয়। জেলা গভর্নর ক্লাবের বিভিন্ন প্রশাসনিক ও সেবামূলক কার্যক্রমের বিষয়ে আলোচনা ও প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদান করেন। জেলা গভর্ণরের অনুরোধে এসিস্ট্যান্ট গভর্নর পিপি অধ্যাপক মঈন উদ্দিন আহমদ কিছু সময়ের জন্য আলোচনায় উপস্হিত ছিলেন। দ্বিতীয় পর্বে ক্লাব এসেম্বলী ও তৃত্বীয় পর্বে নিয়মিত সভা ক্লাব সভাপতির সভাপতিত্বে ও রোটারী প্রত্যয়ের মাধ্যমে শুরু হয়। এতে প্রধান অতিথি জেলা গভর্নর সারাবিশ্বে রোটারীর অতীত, বর্তমান ও ভবিষ্যৎ কার্য্ক্রমের উপর আলোচনা করেন ও অত্র ক্লাবের কার্যক্রমের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং মানবতার সেবায় আগামীতে রোটারী ফাউন্ডেশনে আরো অবদান রাখবে বলে প্রত্যাশা করেন। এতে আরো বক্তব্য রাখেন দায়িত্বপ্রাপ্ত এসিস্ট্যান্ট গভর্ণর, ডিস্ট্রিক্ট সচিব পিপি নিরেশ চন্দ্র দাশ, ডিস্ট্রক্ট ফাষ্ট লেডি ফিরোজা রহমান, লে, গভর্নর পিপি মাহফুজুল হক, এসিস্ট্যান্ট গভর্ণর কামাল ভূইয়া, পিপি রেজাউল করিম, পিপি মুনিরুজ্জামান, পিপি এফ আর চৌধুরী পারভেজ, পিপি আজিজুল হক, পিপি নুর মোহাম্মদ, পিপি ছৈয়দ মোঃ তারিক, পিপি মঈন উদ্দিন আহমদ। এতে আরো উপস্হিত ছিলেন ডেপুটি গভর্নর নান্টু, পিপি সাইফুল্লাহ, নির্বাচিত সভাপতি রাশেদুল আমিন, ক্লাব সেক্রেটারী, কাওসার হায়াত, মোশাররফ হুসাইন, শরীফ তসলিম, আজিজুল ইসলাম, কামরুল হাসান, সম্পদ বড়ুঁয়া, রোকসানা ফারুক, ডা. নন্দন কুমার, ডা. তরুণ তপন, সাব্বির আহমেদ, শরীফুল ইসলাম, সারওয়াত জাহান, ইমতিয়াজ হোসাইন, নাসরিন নাহার, অধ্যক্ষ মনোয়ার জাহান, উৎপল বড়ুঁয়া, আজিজুল কাদের প্রমুখ।
কাতালগঞ্জ আবাসিক কল্যাণ সমিতির বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান
০৯ডিসেম্বর,সোমবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: গত শনিবার দুপুরে কিশালয় কমিউনিটি সেন্টারে কাতালগঞ্জ আবাসিক এলাকা কল্যাণ সমিতির ১৪ তম বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র, কাউন্সিলর চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী। সমিতির সভাপতি সৈয়দ খুরশিদ আলমের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চসিক কাউন্সিলর সাইয়েদ গোলাম হায়দার মিন্টু, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর আঞ্জুমান আরা বেগম, কাতালগঞ্জ আবাসিক এলাকা কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব জসিম উদ্দিন, মোরশেদুল আলম কাদেরী, নুরুল আলম সওদাগর, প্রকাশনা কমিটির আহ;ায়ক মো. নাসিমুল আহসান চৌধুরী জুয়েল। অনুষ্ঠানে সমিতির সহ-সভাপতি মো. হারুণ অর রশিদ ডিউক, আলহাজ্ব মো. সেলিম রেজা চৌধুরী, উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্যদের মধ্যে আলহাজ্ব আক্তার আহমদ চৌধুরী, মো. সালাউদ্দিন জাহেদ চৌধুরী, কোষাধ্যক্ষ এইচ এম সামশুল ইসলাম চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক সেলিম পারভেজ ববি, সমাজকল্যাণ সম্পাদক মো. মঈনুল ইসলাম, আইন বিষয়ক সম্পাদক এ এস এম সাজ্জাদ হোসেন চৌধুরী, মহিলা সম্পাদিকা রিসালা রহমানসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও সমিতির সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে চসিক প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী বলেন, এলাকার সামাজিক উন্নয়ন কর্মকান্ড, শান্তিশৃংখলা প্রতিষ্ঠা, পরিবেশ সংরক্ষণ, যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি সাধন, শিক্ষা ব্যবস্থার প্রসার ঘটিয়ে একটি আদর্শ আবাসিক এলাকা হিসেবে গড়ে তোলার যে প্রচেষ্ঠা কাতালগঞ্জ এলাকা কল্যাণ সমিতি চালিয়ে যাচ্ছে তা সত্যিই প্রশংসার দাবীদার। তিনি বলেন, ছাত্র সমাজ ও যুব সমাজকে মাদক, সাইবার অপরাধ, অপসংস্কৃতি নৈতিক থেকে সুরক্ষা দিতে সামাজিক বন্ধন আরো জোরদার করা জরুরি। মূল্যবোধ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সুনাগরিক তৈরিতে সামাজিক সংগঠনগুলি রাখতে পারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মানে দেশকে নিরক্ষরতা মুক্ত, সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত দেশ গঠনে নতুন প্রজন্মসহ সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।-প্রেস বিজ্ঞপ্তি
লায়ন্স ক্লাব চিটাগাং বাতিঘরের গুণীজন সংবর্ধনা ও চিকিৎসা ক্যাম্প
০৮ডিসেম্বর,রবিবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগাং বাতিঘর এবং হাজী বাদশা মিয়া স্মৃতি সংসদের যৌথ উদ্যোগে গতকাল শনিবার মাঝিরঘাটে হাজী বাদশা মিয়া সওদাগর বাড়িতে ডিজি টিম রিসিপশন, গুণীজন সংবর্ধনা, Raily, বিনামূল্যে চক্ষু চিকিৎসা, ব্লাড গ্রুপিং, ডায়াবেটিক টেস্ট ও বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন লায়ন্স জেলা গভর্নর লায়ন কামরুন মালেক, বিশেষ অতিথি ছিলেন, প্রথম ভাইস জেলা গভর্নর লায়ন ডা. সুকান্ত ভট্টাচার্য। গুণীজন সংবর্ধিত অতিথি ছিলেন, চট্টগ্রাম বন্দর লাইটারেজ ঠিকাদার সমিতি ও ইনল্যান্ড ভেসেল ওনার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি শফিক আহ্&মেদ, মাঝিরঘাট সমাজ উন্নয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ, বোর্ড অব সিনিয়র অ্যাডভাইজর লায়ন আসেদা জালাল, অতিথি ছিলেন কেবিনেট সেক্রেটারি লায়ন জি কে লালা, কেবিনেট ট্রেজারার লায়ন আশরাফুল আলম আরজু, জিএমটি ডিস্ট্রিক্ট কো-অর্ডিনেটর লায়ন জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী, কনসার্ন রিজিয়ন চেয়ারপারসন লায়ন অ্যাড. নুরুল ইসলাম, কনসার্ন জোন চেয়ারপারসন লায়ন অসিত সেন। ক্লাব প্রেসিডেন্ট লায়ন এমএ মুসা বাবলুর সভাপতিত্বে রিজিয়ন চেয়ারপারসন লায়ন কাজী মনিরুল ইসলামের সঞ্চালনায় আরো উপস্থিত ছিলেন পিডিজি লায়ন এম শামসুল হক, পিডিজি লায়ন সিরাজুল ইসলাম আনসারী, বোর্ড অব সিনিয়র অ্যাডভাইজর লায়ন প্রসুন কুমার বড়ুয়া, রিজিয়ন চেয়ারপারসন হেডকোয়ার্টার লায়ন মো. হারুন ইউসুফ, লায়ন আশরাফ আলী আশু, লায়ন শেখ সামশুদ্দিন সিদ্দিকী, লায়ন চৌধুরী শামীম মোস্তফা, লায়ন গোলাম মহিউদ্দিন বাবুল, রিজিয়ন চেয়ারপারসন-১ লায়ন আবু মোরশেদ, রিজিয়ন চেয়ারপারসন লায়ন অশেষ কুমার উকিল, লায়ন আশিষ ভট্টাচার্য, লায়ন মো. শওকত আলী চৌধুরী, লায়ন ইঞ্জিনিয়ার মুজিবুর রহমান, লায়ন হুমায়ুন কবির, লায়ন মোসলেহ উদ্দিন আহমেদ অপু, লায়ন ফাতেমা রহমান, লায়ন আফরোজা বেগম, জোন চেয়ারপারসন লায়ন রতন কুমার শীল, ক্লাবের আইপিপি লায়ন রূপক রক্ষিত, ১ম ভাইস প্রেসিডেন্ট লায়ন ডা. রাহেলা বানু, ২য় ভাইস প্রেসিডেন্ট লায়ন প্রদীপ চক্রবর্তী, ৩য় ভাইস প্রেসিডেন্ট লায়ন মানিক রতন শর্মা, ক্লাব সেক্রেটারি লায়ন হারুন অর রশিদ মান্না, ক্লাব ট্রেজারার লায়ন লতিফা ইয়াসমিন নিপা, মেম্বারশীপ চেয়ারপারসন লায়ন ডা. জাকি হোসেন, লায়ন নোবেল কিশোর চৌধূরী, লায়ন স্বপন কান্তি দাশ, লায়ন প্রদ্যুৎ বিস্বাস, লায়ন অরজিত চৌধুরী, লায়ন স্বপন চৌধুরী, লায়ন স্বপন পাল, লায়ন আবু ইউসুপ, লায়ন তিলক চক্রবর্তী, লায়ন মো. হারুন অর রশিদ, লায়ন প্রনব সাহা, লায়ন অলক চক্রবর্তী, লায়ন নোমান ভুঁইয়া, লায়ন নাজমা জাহাঙ্গীর, লায়ন প্রণব কান্তি দাশ, লিও জেলা প্রেসিডেন্ট লিও শাহরিয়ার ইকবাল প্রমুখ।- প্রেস বিজ্ঞপ্তি
সরকারি সিটি কলেজে,ইতিহাস কথা কয়- আলোকচিত্র প্রদর্শনী
০৮ডিসেম্বর,রবিবার,মো:ইরফান চৌধুরী,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলন এবং মহান মুক্তিযুদ্ধে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবদান সম্পর্কে তরুন প্রজন্মকে জানানোর লক্ষ্যে মহান বিজয়ের মাসে সরকারি সিটি কলেজে দেশ একটি সম্মিলিত উচ্চরণ এর উদ্যোগে ইতিহাস কথা কয়- শিরোনামে একটি আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মঞ্জুর আহমদ। শিক্ষক পরিষদ সম্পাদক ও গণিত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আহম্মদ ছোবহানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রসেফসর ড. সুদীপা দত্ত ও মুক্তিযোদ্ধা মোজাফফর আহমেদ। প্রদর্শনী পরিচালনা করেন আলোকচিত্র সংগ্রাহক ও সম্পাদক শাহাবুদ্দীন মজুমদার। এতে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষক ক্লাব সম্পাদক ওমর ফারুক, উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হ্যাপী বড়ুয়া সহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ।- প্রেস বিজ্ঞপ্তি
অতিথি পাখিদের স্থান হবে না আওয়ামী লীগে: ওবায়দুল কাদের
০৭ডিসেম্বর,শনিবার,নিউজ চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: শনিবার ৭ ডিসেম্বর নগরের লালদিঘি ময়দানে উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, সুন্দর ছবি, ব্যানারে ও পোস্টার ছাপিয়ে নেতা হওয়া যাবে না, আমরা সুশৃঙ্খল আওয়ামী লীগ চাই, সুসংগঠিত আওয়ামী লীগ চাই। বিশৃঙ্খলা চাই না। সুবিধাবাদীদের দলে চাই না। অতিথি পাখিদের স্থান হবে না আওয়ামী লীগে। ত্যাগী কর্মীদের নেতা বানানো হবে।তিনি বলেন, আমাদের বহু কর্মী আছে। খারাপ লোকের কোনো প্রয়োজন নেই। বুয়েটে আবরারকে যারা হত্যা করে- এই কর্মীর আমাদের প্রয়োজন নেই। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে কথায় কথায় যারা কলহ করে, মারামারি করে এই কর্মীর আমাদের প্রয়োজন নেই। যারা রাজশাহীতে অধ্যক্ষকে পানিতে ফেলে দেয় এই কর্মীর আমাদের কোনো প্রয়োজন নেই। মাস্তানি করে, গডফাদারগিরি করে নেতা হওয়া যাবে না।উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে এর আগে সম্মেলন উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন।উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এমএ সালামের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট আবদুল মতিন খসরু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ, প্রচার সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, পানিসম্পদ উপমন্ত্রী ও সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও শিক্ষা উপ-মন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, কেন্দ্রীয় উপ প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, উপ দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া।মঞ্চে আরো উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, সিটি মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, সংসদ সদস্য দিদারুল আলম, মাহফুজুর রহমান মিতাসহ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সম্পাদকরা।সম্মেলনে উত্তর চট্টগ্রাম থেকে ১৫-২০ হাজারেরও বেশি নেতাকর্মীর সমাগম হয়।তার আগে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের দুই নেতার অনুসারীদের মধ্যে হাতাহাতি ও চেয়ার ছোড়াছুড়ির ঘটনা ঘটেছে। শনিবার সকালে নগরীর লালদিঘী মাঠে সম্মেলন শুরুর আগে এই ঘটনা ঘটে। তবে এসময় কেন্দ্রীয় নেতারা সেখানে উপস্থিত ছিলেন না। পরে সম্মেলন যথাসময়ে শুরু হয়।কেন্দ্রীয় সম্মেলনের আগে দেশজুড়ে জেলা-উপজেলায় এখন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সম্মেলন চলছে। এর ধারাবাহিকতায় চট্টগ্রাম উত্তর জেলার সম্মেলন হচ্ছে।সম্মেলন উপলক্ষে সকাল থেকেই চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলা থেকে মিছিল নিয়ে দলে দলে লালদিঘী মাঠে আসতে থাকে আওয়ামী লীগের নেতা, কর্মী ও সমর্থকরা।প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সকাল থেকে মাঠে অবস্থান নিয়েছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও মিরসরাই উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিনের অনুসারীরা। ১০টার কিছু সময় আগে মাঠে আসেন মিরসরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আতাউর রহমানের অনুসারীরা।এই সময় দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হয়, পরে শুরু হয় চেয়ার ছোড়াছুড়ি, যা প্রায় ১০ মিনিট ধরে চলে। তখন পুলিশ গিয়ে তাদের থামায়।কোতোয়ালি থানার ওসি মো. মহসিন বলেন, দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে এতে বড় ধরনের কিছু হয়নি।সংঘর্ষের পর একে একে কেন্দ্রীয় নেতারা লালদিঘী মাঠে সম্মেলনস্থলে আসেন।বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন সম্মেলন উদ্বোধন করেন।উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অধিবেশনে বিশেষ অতিথি রয়েছেন সাবেক আইনমন্ত্রী আব্দুল মতিন খসরু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, প্রচার সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী হাসান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক ও পানিসম্পদ উপ-মন্ত্রী এনামুল হক শামীম, শিক্ষা উপ-মন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, উপ-দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া।উদ্বোধন অধিবেশনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের প্রধান অতিথি। অনুষ্ঠান শুরুর সময় তিনি ছিলেন না, দুপুর ১টার দিকে তিনি অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর