শুক্রবার, এপ্রিল ৩, ২০২০
এক পরিবারকে বাজার করে দিয়েছে সিএমপি কোতোয়ালী থানা পুলিশ
২৭মার্চ,শুক্রবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম:বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) চট্টগ্রাম নগরের কোতোয়ালী থানা মিরিন্ডা লেইনে এ ঘটনা ঘটে। করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সেনাবাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে দিনরাত কাজ করছে পুলিশও। অলি-গলিতে টহল দেয়া ছাড়াও সচেতনতামূলক মাইকিং করে জনগণকে সতর্ক করছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ। কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন মাইকিং করে নগরবাসীর উদ্দেশে বলেন, আপনারা ঘরে থাকুন, নিরাপদে থাকুন। কোনো প্রয়োজনে ৬১৯৯২২ এই নম্বরে কোতোয়ালী থানায় ফোন করে সহায়তা নিন। আমরা আপনার প্রয়োজনে চলে আসব। আপনি প্রয়োজন পূরণ করব। পুলিশের সে আহ্বান শুনে ঘোষিত নম্বরে ফোন করেন এক নারী। সমস্যা শুনে টিম কোতোয়ালীর এক পুলিশ সদস্য গিয়ে ওই নারীকে প্রয়োজনীয় বাজার করে দেন। খবর আমাদের সময় ।কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন বলেন, মিরিন্ডা লেনের মিসেস রেবেকা সুলতানা (৩০) আমাদের হেল্প লাইনে ফোন করে জানান, তার স্বামী আজাহারুল ইসলাম (৩৭) একজন ক্যাপ্টেন। তিনি সম্প্রতি জাহাজ থেকে বাসায় ফিরলেও করোনাভাইরাসের ঝুঁকি থাকায় সেলফ কোয়ারেন্টাইনে আছেন। বাসায় আর কোনো পুরুষ মানুষ নেই। এই লকডাউনে দুই মেয়ে নিয়ে তিনি অসহায় অবস্থায় আছেন। বাজারে যেতে পারছেন না। খবর পেয়েই আমি এক পুলিশ সদস্যকে তার বাসায় পাঠাই। পরে সেই পরিবারের প্রয়োজন অনুযায়ী বাজার-সদাই করে দেয়া হয়েছে।
নিস্তব্ধ চট্টগ্রাম,মানুষকে সচেতন করার কাজ অব্যাহত রেখেছে পুলিশ,সেনাবাহিনী ও মেয়র আ জ ম নাছির
২৭মার্চ,শুক্রবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম:করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে মানুষ ঘর থেকে বের হচ্ছে না। গণমাধ্যম কর্মী, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সহ কয়েকটি জরুরি সেবামূলক প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারী ছাড়া আর কেউ ঘরের বাইরে আসছে না।রাস্তায় মানুষ নেই বললেই চলে। তাই সড়কে যানবাহন চলাচলও কমে গেছে। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বন্ধ রয়েছে অভ্যন্তরীণ সব ধরনের গণপরিবহন। দূরপাল্লার কোনো বাসও চট্টগ্রাম ছেড়ে যায়নি। এতে নিরব-নিস্তব্ধতা বিরাজ করছে চট্টগ্রাম নগরে। নগরীর বহদ্দারহাট, জিইসি, লালখানবাজার, টাইগারপাস, দেওয়ানহাট, আগ্রাবাদ এলাকায় জরুরি পণ্যবাহী গাড়িও খুব কম চোখে পড়ছে।যদিও ট্রাক, কভার্ডভ্যান, ওষুধ, জরুরি সেবা, জ্বালানি, পচনশীল পণ্য পরিবহন- লকডাউনের নিষেধাজ্ঞার বাইরে রয়েছে। এদিকে চট্টগ্রামসহ সারা দেশে সব ধরনের যাত্রীবাহী লঞ্চ চলাচল মঙ্গলবার থেকেই বন্ধ ঘোষণা করেছে বিআইডব্লিউটিএ। বাংলাদেশ রেলওয়েও মঙ্গলবার থেকে সব ধরনের ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে। করোনাভাইরাস আক্রমণের শুরুর দিকে চট্টগ্রাম নগরীতে নির্দেশনা মানতে নগরবাসীর অবহেলা দেখা গেলেও এখন পরিস্থিতি একেবারে ভিন্ন। অনেকটাই সচেতন হয়ে উঠেছেন সব শ্রেণি-পেশার লোকজন। বুধবার থেকেই নগরের সড়ক, অলি-গলিতে টহল দেওয়া ছাড়াও সচেতনতামূলক মাইকিং এবং সিভিল প্রশাসনের কাজে সহায়তা করছেন সেনাবাহিনীর সদস্যরা।এদিকে নগরীর প্রত্যেক এলাকায় মসজিদ থেকে আযানের আগে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে জনগণকে সচেতনতার বার্তা দেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছে পুলিশ। সিএমপি কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান জনস্বার্থে এই নির্দেশনা দিয়েছেন। সিএমপির অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (মিডিয়া) আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, নগরে সুনশান নিরবতা বিরাজ করলেও বাসায় অবস্থান করা, নিরাপদ দূরত্বে থাকা, মাস্ক-পরিচ্ছন্ন সামগ্রী ব্যবহার করার বিষয়ে মানুষকে সচেতন করার কাজ অব্যাহত রেখেছে পুলিশ। মেয়র আ জ ম নাছিরের ভিডিও বার্তা করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে একান্ত প্রয়োজন ছাড়া নগরবাসীকে বাসা থেকে বের না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে ভিডিও বার্তা দিলেন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। বৃহসপতিবার দুপুরে নিজের ফেসবুক পেইজ থেকে লাইভে আসেন মেয়র আ জ ম নাছির। এ সময় তিনি বলেন, করোনা প্রতিরোধে সর্বোচ্চ সতর্ক রয়েছে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন। প্রতিদিনই পুরো শহরের অলি গলি থেকে রাজপথ পরিষ্কার করা হচ্ছে। ছিটানো হচ্ছে জীবাণুনাশক পানি, যা চলমান থাকবে। আ জ ম নাছির বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীকে ঘরে থাকার জন্য যে কয়দিন বন্ধ দিয়েছেন সে সময়টা পুরোটাই ঘরে বসে কাটান। করোনা প্রতিরোধে সচেতনতা আর সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার কোন বিকল্প নেই। নগরবাসীর প্রতি মেয়র নাছির অনুরোধ জানিয়ে বলেন, একান্ত প্রয়োজন ছাড়া কেউ বাইরে বের হবেন না। কেউ যদি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এমন সন্দেহ করেন, তাহলে নির্ধারিত হেল্প লাইনে ফোন (ফৌজদারহাটস্থ বিআইটিআইডির হটলাইন ০২৪৪০৭৫০৪২ ও ০২৪৪০৭৫০৪৩) দিলে ঘরে এসেই আপনার নমুনা সংগ্রহ করে নিয়ে যাবে। সচেতনতাই পারে করোনার প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে।
এখন চট্টগ্রামেও হচ্ছে করোনা পরীক্ষা
২৬মার্চ,বৃহস্পতিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম:করোনা শনাক্তের কিট আসার পর এখন পর্যন্ত ৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অফ ট্রিপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) এর পরিচালক ডা. মো. আবুল হাসান।বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) বিষয়টি জানিয়েছেন তিনি।তিনি বলেন, গতকাল কিট আসার পর থেকে এই পর্যন্ত ৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এসব নমুনার ফলাফল জানাবে আইইডিসিআর। চট্টগ্রাম থেকে কোনো ফলাফল প্রকাশ হবে না।তবে কী পরিমাণ কিট এসেছে তা আজও জানাতে পারেননি তিনি। সতর্কতা হিসেবে দায়িত্বশীল কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নিয়েছে, লক্ষন দেখা গেলে আপনি আগে ফোনে যোগাযোগ করুন। বিআইটিআইডিও ইতোমধ্যে দুটি ফোন নম্বর হটলাইন হিসেবে চালু করেছে। হটলাইন নম্বর দুটি এ লেখার শেষ অংশে দেয়া আছে। হট লাইনে ফোন করে বিস্তারিত জানান। বিআইটিআইডিতে করোনা পরীক্ষা সংক্রান্ত এরইমধ্যে ৬ সদস্যের একটি বিশেষজ্ঞ কমিটিও করা হয়েছে। বিশেষজ্ঞ কমিটি আপনার লক্ষন ও সার্বিক তথ্য পর্যালোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবেন, পরীক্ষার প্রয়োজন আছে কী না। চিকিৎসকরা যদি মনে করেন, করোনা পরীক্ষার প্রয়োজন আছে, সেক্ষেত্রেও আপনাকে ঘরের বাইরে যেতে হবেনা। অ্যাম্বুলেন্সযোগে একটি টিম আপনার ঠিকানায়- ঘরেই হাজির হবেন। তারা আপনার ঘর থেকেই প্রয়োজনীয় নমুনা সংগ্রহ করে নিয়ে যাবেন। তাই ঘরে থাকুন, নিজেকে নিরাপদ রাখুন-অন্যকেও নিরাপদ থাকার সুযোগ দিন। বিআইটিআইডি হাসপাতালে করোনা সংক্রান্ত হট লাইন - ০২৪৪০৭৫০৪২ এবং ০২৪৪০৭৫০৪৩ পরবর্তীতে হটলাইন হিসেবে মোবাইল নম্বরও যুক্ত করার চেষ্টা চলছে বলে বিআইটিআইডি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন।
চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব ও সাংবাদিক ইউনিয়নের মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস পালন, বিশেষ মোনাজাত
২৬মার্চ,বৃহস্পতিবার,কমল চক্রবর্তী,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব এবং চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের উদ্যোগে প্রেসক্লাব চত্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে শ্রদ্ধা নিবেদন এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ সকল বীর শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা ও মরণঘাতি করোনা ভাইরাস থেকে দেশবাসীকের রক্ষার জন্য বিশেষ মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন প্রেসক্লাব সভাপতি আলহাজ্ব আলী আব্বাস। দেশে করোনা ভাইরাসের কারণে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের উদ্যোগে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের কর্মসূচি সতর্কতামুলক এবং সংক্ষিপ্ত করা হয়। প্রেসক্লাব সভাপতি আলহাজ্ব আলী আব্বাসের সভাপতিত্বে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে বক্তব্য রাখেন প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ সভাপতি সালাহ উদ্দিন মোহাম্মদ রেজা, সাধারণ সম্পাদক ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী, সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সামশুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক নজরুল ইসলাম সহ অন্যরা। সেসময় প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি মনজুর কাদের মনজু, সাংস্কৃতিক সম্পাদক রূপম চক্রবর্তী, সাংবাদিক ইউনিয়নের সিনিয়র সহ সভাপতি রতন কান্তি দেবাশীষ, সাংবাদিক ইউনিয়নের নির্বাহী সদস্য মহররম হোসাইন, টিভি জার্নালিস্টস এসোসিয়েশনের সভাপতি নাসির উদ্দিন তোতা সহ প্রেসক্লাব ও সাংবাদিক ইউনিয়নের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
পটিয়ায় একটি মশার কয়েল কারখানায় আগুন
২৬মার্চ,বৃহস্পতিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম:পটিয়া পৌরসভার আমজুর হাট এলাকায় মেসার্স জিএম ক্যামিক্যাল কোম্পানি নামের একটি মশার কয়েল কারখানা পুড়ে ছাই হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। পটিয়া ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে আমজুর হাট এলাকায় একটি মশার কয়েল কারখানা আগুন লাগার খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে আধ ঘণ্টার মধ্যে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হই। পটিয়া ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার সৌমেন বড়ুয়া জানান, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনি। ধারণা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটহতে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। কয়েল কারখানার মালিক মাহবুবুল আলম জানান, আগুনে আমার কারখানার সব পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। প্রায় পাঁচ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান তিনি।
চট্টগ্রাম নগর ফাঁকা,দোকানপাট ও যানবাহন চলাচল বন্ধ
২৬মার্চ,বৃহস্পতিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম:করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে বৃহস্পতিবারও (২৬ মার্চ) মানুষ ঘর থেকে বের হচ্ছেন না। সংবাদকর্মী, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, গুটিকয়েক দোকানি ও স্বল্প আয়ের হাতেগোনা কিছু লোকজন ছাড়া কেউ বাইরে আসছেন না। সড়কে কমে গেছে যানবাহন চলাচলও। বুধবার (২৫ মার্চ) সকাল থেকে প্রশাসনের সঙ্গে মাঠে কাজ করছেন সেনাবাহিনীর সদস্যরা। শহরের সড়ক, অলি-গলিতে টহল দেওয়া ছাড়াও সচেতনতামূলক মাইকিং এবং সিভিল প্রশাসনের কাজে সহায়তা করছেন তারা। প্রশাসনের পক্ষ থেকে কঠোর নির্দেশনা পেয়ে সন্ধ্যার পর বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে নগরের অধিকাংশ দোকানপাট। শুধু খোলা রাখা হচ্ছে কয়েকটি ওষুধ এবং মুদির দোকান। বিভিন্ন এলাকায় মসজিদ থেকে আজানের আগে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে জনগণকে সচেতনতার বার্তা দিতে আহ্বান জানিয়েছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি)। বন্ধ রাখা হয়েছে বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানও। চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তৌহিদুল ইসলাম জানান, সড়কে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ বের হলে তাকে বাসায় ফেরত পাঠানো হচ্ছে। এছাড়া হোম কোয়ারেন্টিন ব্যবস্থা পর্যালোচনাসহ প্রশাসনকে সহায়তা করছেন সেনাবাহিনী। শহীদ মিনারমুখী জনস্রোত দেখা যায়নি ভোর থেকে, ছিল না জনকোলাহল। অন্য দিনগুলোর চাইতে তাই ব্যতিক্রমই বলতে হবে স্বাধীনতা দিবসের এই দিনটিকে।
নগরীতে ইয়াবাসহ ১ জন মহিলা মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে Rab-7
২৫মার্চ,বুধবার,কমল চক্রবর্তী,বিশেষ প্রতিনিধি,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম মহানগরীর ডবলমুরিং থানাধীন মতিয়ারপোল এলাকায় অভিযান চালিয়ে ২,৪২৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ ১ জন মহিলা মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে Rab-7। বুধবার ২৫ মার্চ বিকাল ৫:৩০ মিনিটের সময় চট্টগ্রাম মহানগরীর ডবলমুরিং থানাধীন মতিয়ারপোল বায়তুল হামদ মসজিদ লেন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ইয়াবাসহ ১ জন মহিলা মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে বলে জানান Rab-7 এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) এ এস পি মাহমুদুল হাসান মামুন। আটককৃত আসামী হলেন মোসাঃ নাছিমা বেগম (৩০) চট্টগ্রাম জেলার মীরসরাই থানাধীন হাইতকান্দি (নুরুল হকের বাড়ি) গ্রামের মোঃ আলমগীর হোসেন এর স্ত্রী। তার বর্তমান ঠিকানা- মতিয়ারপোল (দেলোয়ারা বেগমের বাড়ি), ২৩নং ওয়ার্ড, বায়তুল হামদ মসজিদ লেন, থানা- ডবলমুরিং, চট্টগ্রাম। Rab-7 এর সহকারী পরিচালক এ এস পি কাজী মোঃ তারেক আজিজ জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা জানতে পারি যে, চট্টগ্রাম মহানগরীর ডবলমুরিং থানাধীন মতিয়ারপোল বায়তুল হামদ মসজিদ লেন এলাকায় কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে র্যাাবের একটি টহল দল অভিযান চালিয়ে ১ মহিলা মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে। পরে আসামীর দেখানো ও সনাক্ত মতে তার ভাড়া বাসায় তল্লাশী চালিয়ে ২,৪২৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীকে নগরীর বন্দর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। Rab-7 এর সহকারী পরিচালক (অপারেশন) এ এস পি কাজী মাশকুর রহমান জানান, গ্রেফতারকৃত আসামীকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, সে দীর্ঘদিন যাবত বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ীদের সাথে যোগসাজশে ইয়াবা ট্যাবলেট সংগ্রহ করে উক্ত ভাড়া ঘরে মজুদ করে এবং পরবর্তীতে চট্টগ্রাম শহরের বিভিন্ন এলাকার মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক সেবীদের কাছে বিক্রয় করে আসছে। উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যের আনুমানিক মূল্য ১২ লক্ষ ১২ হাজার ৫০০ টাকা। গ্রেফতারকৃত আসামীকে নগরীর বন্দর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।
চট্টগ্রামে হোম কোয়ারেন্টিনে শিক্ষা বোর্ডের ৩ কর্মকর্তা
২৫মার্চ,বুধবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম:বুধবার (২৫ মার্চ) বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর প্রদীপ চক্রবর্ত্তী নিজেই। তিনি জানান, এইচএসসি পরীক্ষা নিয়ে গত ২২ মার্চ কক্সবাজারের ১২ জন কেন্দ্র প্রধানদের সঙ্গে আমরা একটি বৈঠক করি। হ্যান্ড স্যানিটাইজারসহ জীবাণুনাশক সামগ্রী দিয়ে হাত পরিষ্কার করে বোর্ডে সবাইকে প্রবেশ করানো হয়।তিনি আরও জানান, অন্য কেন্দ্র প্রধানদের সঙ্গে বৈঠকে অংশ নেন কক্সবাজার সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষও। তবে তার মা যে এর কয়েকদিন আগে সৌদিআরব থেকে ফিরেছেন, তিনি মায়ের সঙ্গে দেখা করার পরেও হোম কোয়ারেন্টিন পালন না করে যে বৈঠকে এসেছেন,তা গোপন করেন।বুধবার বিষয়টি জানাজানির পর ওই বৈঠকে অংশ নেওয়া চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক এবং পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকসহ সবাইকে হোম কোয়ারেন্টিন পালনের অনুরোধ জানিয়েছি। আমি নিজেও হোম কোয়ারেন্টিন পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।এক প্রশ্নের উত্তরে শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান জানান, বোর্ড কর্মকর্তাদের আতঙ্ক বা শঙ্কার কিছু নেই। ওই বৈঠকে আমরা সবাই নির্দিষ্ট দূরত্ব মেনে বসেছি। সবাই জীবাণুনাশক সামগ্রী দিয়ে হাত পরিষ্কার করেছি। আক্রান্ত ওই নারীর সঙ্গে দেখা করার পরেও কক্সবাজার সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষের মধ্যে কোনো উপসর্গ দেখা দেয়নি।তারপরেও সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। দেশের এই কঠিন পরিস্থিতে নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করে নিজেকে, পরিবারকে সুরক্ষিত রাখতে হবে। যোগ করেন তিনি।এদিকে তথ্য গোপন করে বৈঠকে অংশ নেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে কক্সবাজার সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ জানান, সৌদি ফেরত মায়ের সঙ্গে দেখা করলেও তার সংস্পর্শে যাইনি আমি। মঙ্গলবার সকালে মায়ের করোনা ভাইরাসের রিপোর্ট পজিটিভ আসার পর আমি নিজেই হোম কোয়ারেন্টিন পালন করছি।প্রসঙ্গত, কক্সবাজার মহিলা কলেজের অধ্যক্ষের মা কক্সবাজার জেলার চকরিয়ার বাসিন্দা ওই নারী গত ১৩ মার্চ ওমরাহ শেষে সৌদি আরব থেকে দেশে ফেরেন। এরপর তিনি নগরের চান্দগাঁও আবাসিক এলাকায় তার এক ছেলের বাসায় ওঠেন। পরে ১৪ মার্চ চকরিয়ার খুটাখালীতে গ্রামের বাড়িতে যান। সেখানে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তার অসুস্থতার ধরন দেখে নমুনা পরীক্ষার জন্য ২২ মার্চ রাজধানীর রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটে (আইইডিসিআর) পাঠায়। মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) ওই নারীর করোনা ভাইরাসের রিপোর্ট পজেটিভ আসে।এ খবরে মঙ্গলবার রাতে নগরের চান্দগাঁও এবং বাকলিয়া এলাকায় ওই নারীর দুই সন্তানের বাড়ি লকডাউন করে প্রশাসন। কক্সবাজারের বাড়িও লকডাউন করা হয়। পাশাপাশি তাকে সেবা দেওয়া চিকিৎসক, নার্স এবং সংস্পর্শে আসা পরিবারের লোকজনকে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়। খবর:আমাদের সময়.কম
বাঁশখালী থানার এসআই প্রদীপ চক্রবর্তীর মা চলে গেলেন না ফেরার দেশে
২৫মার্চ,বুধবার,কমল চক্রবর্তী,নিউজ একাত্তর ডট কম:বাঁশখালী থানার এসআই প্রদীপ চক্রবর্তীর মা পুতুল রানী চক্রবর্তী(৬৮) চলে গেলেন না ফেরার দেশে। তিনি দীর্ঘ দিন যাবত বেশ কিছু জটিল রোগে ভুগছিলেন এবং গত ৪ মার্চ থেকে চট্টগ্রাম নগরীর মাক্স হাসপাতালে(HDU ICU) তে ভর্তি ছিলেন। গতকাল তার অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে চট্টগ্রাম থেকে লাইফ সাপোর্ট এর মাধ্যমে এম্বুল্যাঞ্চ যোগে ফেনী জেলার পরশুরাম থানাধীন অনন্তপুর গ্রামের তাহার নিজ বাড়িতে আনা হয় । গতকাল মঙ্গলবার ২৪শে মার্চ রাত ১০.৪০ মিনিটের সময় পরশুরামের তার নিজ বাড়িতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (দহেয়ং সর্বগাত্রানি দিব্যান লোকান সগচ্ছতু)। আজ সকালে তার নিজ বাড়িতে শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়। উল্লেখ্য, তিনি দীর্ঘ দিন ধরে নানা শারীরিক সমস্যায় ভুগছিলেন এবং গত ৪ঠা মার্চ তার শারিরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে প্রথমে তাকে চট্টগ্রাম নগরীর ম্যাক্স হাস্পাতালের HDU তে ভর্তি করা হয়। পরে তার অবস্থার আরও অবনতি ঘটলে ICU তে স্থানান্তর করা হয়। পরে গত শুক্রুবার ২০শে মার্চ তাকে লাইফ সাপোর্ট এ নেয়া হয়। কিন্তু অবস্থার কোন উন্নতি না হওয়ায় গতকাল ২৪ মার্চ লাইফ সাপোর্ট এর মাধ্যমে এম্বুল্যাঞ্চ যোগে পরশুরাম তাহার নিজ বাড়িতে আনা হয় এবং ঐ দিনই রাত ১০.৪০ মিনিটের সময় মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।।তিনি দীর্ঘ ২০ দিন যাবত নগরীর ম্যাক্স হাসপাতালে চিকিৎসা্ধিন ছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি ২ ছেলে ১ মেয়ে ও ৪ নাতি নাতনিসহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন রেখে গেছেন।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর