পটিয়াবাসীর দিনবদলের রাজকুমার সাইফুল আলম মাসুদ
১৫জানুয়ারী,বুধবার,মো:ইরফান চৌধুরী,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: অব্যাহত শিল্পায়নের পথ ধরে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ, ধীরে ধীরে স্থান করে নিচ্ছে বিশ্বের শিল্পোন্নত দেশের কাতারে। এই শিল্পায়ন প্রক্রিয়ায় যে সকল বেসরকারি উদ্যোক্তা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন তাঁদেরই একজন সাইফুল আলম মাসুদ। এদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়য়ে যে সকল শিল্পোদ্যোক্তা নিজেদের শ্রম, মেধা ও দূরদর্শিতা দিয়ে জাতিকে এগিয়ে নিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে চলেছেন এস আলম গ্রুপ এর চেয়ারম্যান অ্যান্ড ম্যানেজিং ডিরেক্টর মোঃ সাইফুল আলম মাসুদ তাঁদেরই একজন। ছোটবেলা থেকে জীবন নিয়ে সংগ্রাম করে যিনি শুধু নিজের ভাগ্য বদলাননি, বদলে দিয়েছেন পটিয়াসহ সারাদেশের মানুষের অর্থনৈতিক ভাগ্যের চিত্র। সাধারন ব্যবসায়ী থেকে হয়ে উঠেন উদ্যোক্তর । এ যেন এক জনপদে জন্মেছিলেন এক বরপুত্র| মানুষের হৃদয়ে তিনি এতটাই মিশে গেছেন যে, পটিয়ার ঘরে ঘরে এখন মিলাদ পড়িয়ে তাঁর সুস্ততা ও দীর্ঘায়ুর জন্য দোয়া করা হয়। তিনি এলাকায় আসবেন শুনলে এক নজর দেখতে ভিড় করেন শতশত মানুষ। যেন আগুনে পুড়ে খাঁটি হওয়া এক সোনার গল্প। সময়ের সাথে পাল্লা দিয়েই মোঃ সাইফুল আলম মাসুদ নিজেকে ব্যবসা-বাণিজ্য অঙ্গনের সফল পর্যায়ে উঠিয়ে এনেছেন। এটি ঘটেছে তাঁর আন্তরিকতা এবং একনিষ্ঠতার ফলে। তিনি যখন যে ব্যবসার দিকে ঝুঁকেছেন সেখানে মেধা ও নিবিড় শ্রমের সমন্বয় ঘটিয়ে আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করেছেন। ২৭ বছরেরও অধিক সময় ধরে এস আলম গ্রুপ শুধু নিজেদের জন্যেই নয়, সমাজ এবং সর্বোপরি দেশের মানুষের জন্যে উন্নতমানের সেবা প্রদান করে চলেছেন। সাইফুল আলম মাসুদের জন্ম চট্টগ্রাম জেলার পটিয়া পৌরসদরে । দেশের অর্থনীতিতে বিশাল অবদান রাখার পাশাপাশি এস আলম গ্রুপের মাধ্যমে হাজার হাজার পরিবার এখন স্বাবলম্বী। বর্তমানে শুধু পটিয়া নয়, দক্ষিণ জেলার বিভিন্ন উপজেলার শিক্ষিত যুবকদের কর্মসংস্থানেও তিনি ভূমিকা রাখছেন। একজন মানুষই বদলে দিলেন পুরো জনপদের দু:খ। চাকরি দিয়ে ঘুচালেন বেকারত্ব। হাসি ফুটালেন হাজার হাজার পরিবারের মুখে। একসময় নারীদের পরিবারে বোঝা মনে করতো সবাই। সাইফুল আলম মাসুদের কল্যাণে ব্যাংকে চাকরি পেয়েছেন পটিয়াও দক্ষিণ চট্টগ্রামের শতশত নারী। সবার পক্ষে-বিপক্ষে মত থাকে। কিন্তু এলাকাবাসীর কাছে এস আলম এখন অবিসংবাদিত। দিনবদলের রাজকুমার।
RAB পক্ষ থেকে শীতবস্ত্র বিতরণ করেছে RAB-7
১৪জানুয়ারী,মঙ্গলবার,কমল চক্রবর্তী,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: দুর্যোগে দুঃসময়ে জনগনের পাশে আছে RAB-7, চট্টগ্রাম। শুধু সন্ত্রাস দমনই নয়, জনসেবামূলক কাজেও এগিয়ে আছে RAB-7। তাই অন্যান্য বছরের মত এই শীতেও চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন স্থানে শীতার্ত অসহায় দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন RAB-7 এর অধিনায়ক লেঃ কর্নেল মোঃ মশিউর রহমান জুয়েল, পিএসসি। এরই ধারাবাহিকতায় অদ্য ১৪ জানুয়ারি চট্টগ্রাম মহানগরীর বাকলিয়া থানাধীন ১৮ নং কাউন্সিল অফিস এবং বায়েজীদ বোস্তামী ক্যান্টেনমেন্ট সুপার মার্কেট এর সামনে শীতবস্ত্র বিতরন করেন RAB-7 এর অধিনায়ক । শীতবস্ত্র পেয়ে অসহায় দুঃখী লোকজন RAB এর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে। RAB জনস্বার্থে জনগণের সেবা করার জন্য সর্বদা নিয়োজিত থাকবে। ভবিষ্যতে এধরনের জনকল্যানমূলক কাজ অব্যহত থাকবে। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন RAB-7 এর সহকারী পুলিশ সুপার কাজী মোঃ তারেক আজিজ।
বাংলাদেশ পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের সহ সভাপতি নির্বাচিত হলেন সিএমপি কমিশনার
১৪জানুয়ারী,মঙ্গলবার,মো:ইরফান চৌধুরী,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাংলাদেশ পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের বার্ষিক সাধারণ সভায় গঠিত নতুন কার্যনির্বাহী কমিটির সহ সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোঃ মাহাবুবর রহমান, বিপিএম, পিপিএম , যা চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ পরিবারের জন্য অত্যন্ত গর্বের ও আনন্দের। গত ৮ জানুয়ারি বুধবার বাংলাদেশ পুলিশ অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের বার্ষিক সাধারণ সভায় গঠিত এ কার্যনির্বাহী কমিটি গঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ পুলিশের এএসপি থেকে তদূর্ধ কর্মকর্তাদের সর্বসম্মতিক্রমে ২০২০ সালের জন্য নতুন নেতৃত্ব নির্বাচন করা হয়। ১২১ সদস্যের এই কমিটির মেয়াদ এক বছর। বর্তমানে বাংলাদেশ পুলিশ ক্যাডারে এএসপি থেকে তদূর্ধ কর্মকর্তা রয়েছেন ৩০৮৮ জন। বাংলাদেশ পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন বিসিএস পুলিশ অফিসারদের প্রতিনিধিত্ব করে।
শীতার্ত হতদরিদ্রদের পাশে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে সকলকে এগিয়ে আসা উচিত:আবিদা আজাদ
১৪জানুয়ারী,মঙ্গলবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র আলহাজ্ব আ.জ.ম নাছির উদ্দিন দায়িত্ব গ্রহণের পর হতে মেয়রের সম্মানি খাত হতে সকল আয় মানব কল্যাণে সমাজের হতদরিদ্রদের মাঝে বিতরণের অংশ হিসেবে সামাজিক দায়বদ্ধতার দায়িত্ব হিসেবে শীতার্ত হতদরিদ্র নগর বাসীদের মাঝে কম্বল বিতরণ করছেন। তারই অংশ হিসেবে ১০নং উত্তর কাট্টলী ওয়ার্ডস্থ জয়তারা জোনাকী ক্লাবে ওয়ার্ডের দরিদ্র পূজার্থীদের মাঝে মাননীয় মেয়র আলহাজ্ব আ.জ.ম নাছির উদ্দিনের পক্ষে ৯ ১০ ও ১৩নং পাহাড়তলী ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলর ও চট্টগ্রাম ওয়াসা পরিচালনা বোর্ডের সদস্য নারীনেত্রী আবিদা আজাদ শীতবস্ত্র বিতরণ করা করেন। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বীরেন্দ্র লাল দে। এসময় উপস্থিত ছিলেন ১০নং উত্তর কাট্টলী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক গিয়াস উদ্দিন জুয়েল, যুব নেতা টুনটু দাশ বিজয়, আওয়ামী লীগ নেত্রী সবিতা বিশ্বাস, সোমা দাশ, বেবী দাশ, ইঞ্জিনিয়ার কৃষ্ণ ভজন আচার্য্য, দীলিপ দাশ, যামিনী দে, উজ্জ্বল দে প্রমুখ।
আগামী বাংলাদেশ বর্তমান প্রজন্মের কাছে
১৪জানুয়ারী,মঙ্গলবার,ষ্টাফ রিপোর্টার,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাংলাদেশ Rapid Action Battalion (RAb) মহাপরিচালক ড.বেনজীর আহমেদ বলেন, এখনকার ছেলেমেয়েরা স্কুল কলেজের বাইরে কোন বই পড়তে চায় না। বই পড়তে হবে। আগামী বাংলাদেশ বর্তমান প্রজন্মের কাছে । ২০৪১সালে বাংলাদেশের মানুষের গড় আয় থাকবে ১৬ হাজার ডলার। সে লক্ষ্যে সমাজের প্রত্যেকটা সেক্টরের উন্নয়ন করতে হবে। অতিমাত্রায় মাছ ধরা বন্ধ করতে হবে। যেহারে প্রতিনিয়ত মাছ ধরা হচ্ছে একসময় হাওরে লেকে আর মাছ পাওয়া যাবে না। কোন উন্নত দেশকে অনুসরণ করে নয়, নিজের কাছে যা আছে তা নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হবে। মহাপরিচালক ড.বেনজীর আহমেদ আজ চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি এন্ড এ্যানিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাস) আয়োজিত শিক্ষাবর্ষ সমারম্ভ ২০২০ অনুষ্টান এসব কথা বলেন। ড. বেনজীর বলেন, বিভিন্ন দেশ থেকে গবেষক আসছে এর মানে আমরা উন্নয়নের পথেই চলছি। যত কমে সুখ পাওয়া যায় তাতেই প্রকৃত সুখ।একারণে এদেশে অসংখ্য বাউল দার্শনিক গবেষক সঙ্গীত শিল্পীর জন্ম হয়েছে। একসময় বলা হতো, জনসংখ্যার কারণে বাংলাদেশের উন্নয়ন হবে না, কিন্তু জনসংখ্যাকে কিভাবে জনসম্পদে রুপান্তর করা যায় বাংলাদেশ পুরো বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, মাদকাসক্ত ব্যক্তিকে এড়িয়ে না চলে তার পুনর্বাসনে সহযোগীতা করতে হবে। তোমার ভেতরে যে শক্তি আছে, তা ভালো কাজে ব্যবহার কর। ব্যবহার করার চ্যালেঞ্জ নাও নিজেকে। উক্ত অনুষ্টানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সিএমপির পুলিশ কমিশনার মো:মাহবুবর রহমান। বাংলাদেশ পুলিশ চট্টগ্রাম রেঞ্জ ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক । সভাপতিত্ব করেন সিভাসু উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন পরিচালক কল্যাণ প্রফেসর ড.মেজবাহ উদ্দিন। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মাহাবুবর রহমান বলেন,আজকের শিক্ষার্থীরা যদি জঙ্গিবাদে জড়িয়ে না পড়ে, সন্ত্রাসবাদীতে জড়িয়ে না পড়ে, তাহলে তাদের জীবন উজ্জ্বল। অতএব সুন্দর জীবন গঠনে ভালো বিষয়গুলো জীবন পরিচালনায় গ্রহণ করতে হবে। খন্দকার গোলাম ফারুক বলেন, একসময় পুলিশকে ঠোলা বলত, এখন আর পুলিশকে ঠোলা বলা হয় না কারন পুলিশ বিভাগের অনেক উন্নয়ন ও পরিবর্তন হয়েছে। বাংলাদেশ এখন খাদ্যে স্বয়ং সম্পূর্ন। আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভালো থাকলে সবকিছু ভালো থাকবে। যেকোন অন্যায়ের তথ্য শেয়ার করুন যেটা পুলিশের সাথে শেয়ার করা উচিত।
আইনের শাসন গণতন্ত্র মানবাধিকার উন্নয়নে আইনজীবীরা গুরত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবেন
১৪জানুয়ারী,মঙ্গলবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: চিটাগাং ল একাডেমী চট্টগ্রাম (সিএলএ)র প্রতিষ্ঠার এক যুগ পূর্তি উপলক্ষে ল একাডেমি পরিবারের মিলন মেলা আলোচনা সভা ও বর্ণাঢ্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান গত ১১ জানুয়ারি চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব বঙ্গবন্ধু হলে চিটাগাং ল একাডেমীর প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ও চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট এস এম সিরাজদৌল্লাহ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৪ চট্টগ্রামের বিচারক মো. জামিউল হায়দার। এতে প্রধান বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সম্মানিত সদস্য ও চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এড. মো. দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এড. এ এস এম বদরুল আনোয়ার, চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এড. মুহাম্মদ মুজিবুল হক, সাবেক সভাপতি এড. মোহাম্মদ কফিল উদ্দিন চৌধুরী, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজী বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও সংস্কৃতি বিভাগের প্রধান প্রফেসর ড. সুকান্ত ভট্টাচার্য্য, চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এড. আবদুর রশিদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এড. নাজমুল আহসান খান আলমগীর, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এড. অশোক কুমার দাশ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এড. মুহাম্মদ এনামুল হক, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এড. মুজিবুর রহমান ফারুক, সাবেক সহ-সাধারণ সম্পাদক এড. আবুল হোসেন মুহাম্মদ জিয়াউদ্দিন, চন্দনাইশ আইনজীবী সংসদের সভাপতি এড. তুষার সিংহ হাজারী (মানিক), চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি এড. মোঃ মুজিবুর রহমান চৌধুরী, চন্দনাইশ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এড. আব্দুল হান্নান, বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি চট্টগ্রাম জেলা শাখার সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সাহাবউদ্দীন ডেকোরেটার্সর স্বত্বাধীকারী হাজী মো. সাহাব উদ্দীন, সাতকানিয়া বাজালিয়া ডিগ্রি কলেজের ইংরেজী বিভাগের অধ্যাপক এসএম শহীদুল্লাহ, এড. আব্দুল্লাহ মামুন, চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক মো. হাসান মুরাদ, চিটাগাং ল একাডেমির লেকচারার এড. ফিরোজ উদ্দিন তারেক, লেকচারার এড. মো. ফোরকান, লেকচারার এড. মো. জামাল উদ্দিন চৌধুরী, চন্দনাইশ সমিতির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. জামাল উদ্দিন, এড. কামরুল আজম চৌধুরী টিপু, এড. নজরুল ইসলাম, এড. আশকর আলী সুজন, এড. আরিফুজ্জামান আরিফ, এড. জাকারিয়া আল গিয়াস উদ্দিন, এড. মাইনুল আলম টিপু, এড. শহীদুল ইসলাম সুমন, এড. হাবিব উল্লাহ রুমি, এড. রুনা কাশেম, এড. তানজিলা মান্নান যুথি, এড. রবিউল আলম, এড. রিদুওয়ানুল করিম, এড. ইমরুল হক মেনন, এড. আলী ইয়াছিন, এড. মুহাম্মদ শাহজাহান, এড. পিন্টু কুমার দে, এড. ফোরকান খোকন, এড. আলী হোসেন, এড. আবু হেনা মোস্তফা কামাল, এড. সৈয়দ ইমতিয়াজ উদ্দিন সোহেল, এড. স্বদেশ শর্মা, এড. আইরিন আক্তার, রেবা বড়য়া, মোঃ মোশারফ উদ্দিন, নাজনীন জাহান চৌধুরী, বাবলী চক্রবর্তী, মোবিনুল হক, শিহাব উদ্দিন, নাজিম উদ্দিন, আইরিন সুলতানা, লিটন কান্তি দত্ত, রনি সিংহ, শারমিন ইয়াসমিন নিশু, সিরাজ উদ্দিন বাবলু, মো. এমদাদুল ইসলাম রুবেল, রুমা আক্তার, শাহজাদী মুক্তা, পারভীন আক্তার, মারুফুল হক চৌধুরী, তপন চন্দ্র ধর, সমীর কুমার আচার্য্য, আবুল কাশেম, মো. আজিজুর রহমান, নাজমুল হাসান খান, এড. সজরুল ইসলাম প্রমুখ। সমগ্র অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন এড. গোলাম মাওলা মুরাদ এবং এড. রুজিনা পারভীন রোজি। এক যুগ পূর্তি উপলক্ষে প্রধান অতিথি কেক কেটে একযুগ পূর্তি অনুষ্ঠান উদ্যাপন করেন এবং একযুগ পূর্তিতে আইজান স্মরনিকা মোড়ক উম্মোচন করেন। অনুষ্ঠান শেষে প্রধান অতিথি একাডেমীর শিক্ষার্থীদের মধ্যে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতি, পটিয়া আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে নির্বাচিত প্রতিনিধি এবং মহামান্য হাই কোর্টে তালিকাভুক্তি আইনজীবীদের ক্রেস্ট দিয়ে সংবর্ধিত করেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বলেন, জাতি গঠনে শিক্ষার গুরুত্ব অপরিসীম। সময়ের প্রেক্ষাটে স্বাধীন ও চ্যালেঞ্জিং পেশাগুলোর মধ্যে আইন পেশা একটি অন্যতম পেশা। আইন শিক্ষার মাধ্যমে আইনের শাসন গণতন্ত্র মানবাধিকার উন্নয়নে আইনজীবীরা গুরত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবেন। একযুগ পূর্তি অনুষ্ঠানের শুরুতে একটি বর্ণাঢ্য Railly জামাল খান হইতে চেরাগী পাহাড় মোড় পর্যন্ত শোভাযাত্রার আয়োজন করেন।-প্রেস বিজ্ঞপ্তি
চট্টগ্রাম-৮ আসনে পুনর্নির্বাচনের দাবি বিএনপি প্রার্থীর
১৩জানুয়ারী,সোমবার,ষ্টাফ রিপোর্টার,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে পুনর্নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপ-নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী আবু সুফিয়ান। সোমবার (১৩ জানুয়ারি) দুপুরে নির্বাচনের মধ্যেই সংবাদ সম্মেলন এ দাবি করেন তিনি। তবে, আওয়ামী লীগের প্রার্থী মোছলেম উদ্দিন চৌধুরীর দাবি, শান্তিপূর্ণভাবেই অনুষ্ঠিত হচ্ছে নির্বাচন। এর আগে সকাল ৯টায় নগরী ও উপজেলার ১৭০টি কেন্দ্রে ইভিএমের মাধ্যমে শুরু হয় ভোটগ্রহণ। চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে নির্বাচনী এলাকায় মোতায়েন রয়েছে পর্যাপ্ত আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর সদস্য। বোয়ালখালী উপজেলা, মহানগরীর চান্দগাঁও ও বায়েজিদের কিছু অংশ নিয়ে গঠিত চট্টগ্রাম-৮ আসন। এখানে ভোটার সংখ্যা চার লাখ ৭৪ হাজার ৪৮৫ জন। গতবছরের ৭ নভেম্বর সংসদ সদস্য মঈনুদ্দিন খান বাদলের মৃত্যুতে আসনটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।
চট্টগ্রাম-৮ আসনে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ চলছে
১৩জানুয়ারী,সোমবার,চট্টগ্রাম প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপ-নির্বাচনে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ চলছে। কুয়াশা উপেক্ষা করে ভোট দিতে কেন্দ্রে আসছেন ভোটাররা। নগরের কেন্দ্রগুলোতে দেখা গেছে ভোটারদের সারি। সোমবার (১৩ জানুয়ারি) সকাল ৯টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়, চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। মঈনুদ্দিন খান বাদলের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া এ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৬ জন প্রার্থী। দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ নৌকা প্রতীক নিয়ে এবং বিএনপি প্রার্থী আবু সুফিয়ান ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এছাড়া বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট (বিএনএফ) চেয়ারম্যান এস এম আবুল কালাম আজাদ, ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশের সৈয়দ মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন, ন্যাপের বাপন দাশগুপ্ত ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ এমদাদুল হক এ আসনের জন্য লড়ছেন। প্রার্থী ছয় জন হলেও বরাবরের মত আওয়ামী ও বিএনপি প্রার্থীর মধ্যে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে। চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ হাসানুজ্জামান বলেন, শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। ভোটকেন্দ্রে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশে পাশাপাশি Rab, বিজিবি মোতায়েন থাকবে। এছাড়া পুলিশের মোবাইল টিম ও স্ট্রাইকিং ফোর্সও কাজ করবে। প্রসঙ্গত, নির্বাচনে মোট ১৭০টি ভোটকেন্দ্র রয়েছে। যার মধ্যে ৫৮টি কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়া নির্বাচনে পুলিশ, এপিবিএন, আনসার ব্যাটালিয়নের সদস্যের সমন্বয়ে ১৪টি মোবাইল ফোর্স, ৬টি স্ট্রাইকিং ফোর্স, Rabর ৬টি টহল দল এবং ৫ প্লাটুন বিজিবি দায়িত্ব পালন করবেন। নির্বাচনী অপরাধ আমলে নিতে ১৬ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও দুইজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাঠে রয়েছেন। পাশাপাশি নির্বাচনী পরিবেশ পর্যবেক্ষণে আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ হাসানুজ্জামানের নেতৃত্বে ভিজিল্যান্স ও অবজারভেশন টিমও রয়েছে। ১৭০টি ভোটকেন্দ্রের এক হাজার ১৯৬টি কক্ষে চার লাখ ৭৪ হাজার ৪৮৫ ভোটার ভোট প্রদান করবেন। ভোটগ্রহণে নিয়োজিত রয়েছেন তিন হাজার ৭৫৮ জন কর্মকর্তা।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর