বুধবার, জানুয়ারী ২৯, ২০২০
পৌরকর আদায়ের মাধ্যমে সিটি করপোরেশন এর সক্ষমতা অর্জন করতে হবে- মেয়র
২৩ডিসেম্বর,সোমবার,স্টাফ রির্পোটার,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেছেন, নগরবাসীর নাগরিক সেবা প্রদানে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনই একমাত্র অভিভাবক। নগরবাসীর জন্য সর্বোচ্চ সেবা প্রদানের জন্য চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন দিনরাত কাজ করে যাচ্ছে। সেবার মান বৃদ্ধির জন্য পৌরকর আদায়ের মাধ্যমে সিটি করপোরেশন এর সক্ষমতা অর্জন করতে হবে। মেয়র আজ চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন কে বি আবদুস সাত্তার মিলনায়তনে শহরে দরিদ্র সম্প্রদায়ের জীবনমান ও জীবিকা উন্নয়ন শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা জানান। এসময় প্যানেল মেয়র জোবায়রা নারগিস খান, কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব, মো. আজম, আবিদা আজাদ, জেসমিন পারভিন জেসি, জেসমিনা খানম উপস্থিত ছিলেন। মেয়র বলেন, চট্টগ্রাম নগরীতে ১৪ লক্ষ ৪০ হাজার দরিদ্র মানুষ বাস করছে যা অন্য শহরে নেই। দিনে পর দিন এদের সংখ্যা বাড়ছে। এদের নাগরিক সুযোগ-সুবিধা প্রদানে সিটি করপোরেশন হিমসিম খাচ্ছে। চট্টগ্রাম শহরের কাছে এমন কোন জায়গা নেই, যেখানে ভাসমান মানুষের পুনর্বাসন করা যাবে। তিনি বলেন, চট্টগ্রাম নগরীকে বাসযোগ্য ও ক্লিন এবং গ্রীন সিটি নির্মাণের লক্ষ্যে সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন। সিটি করপোরেশন এর নানা উন্নয়ন কর্মকান্ডের কথা তুলে ধরে মেয়র বলেন, শিক্ষা স্বাস্থ্য, অবকাঠামো উন্নয়নে সিটি করপোরেশন এর অবদান বহুগুণে বৃদ্ধি পেয়েছে। শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাতে সিটি করপোরেশন এর ভর্তুকি দিনের পর দিন বাড়ছে। নগরে সিটি করপোরেশন পরিচালিত ৪৭ টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় রয়েছে। ১৫ শতাংশ শিক্ষার্থী বিনা বেতনে অধ্যয়ণ করছে। অনেকে ভর্তি ফি ছাড়াও আমার সহযোগিতা নিয়ে ভর্তি হয়েছে। এত সেবা দেওয়ার পরেও নগরবাসীর আশানুরুপ সহযোগিতা পাওয়া যাচ্ছে না। পৌরকর না দেওয়ার জন্য নানা ধরনের তদবির করে। তিনি আরো বলেন, শহরের সুবিধা গ্রামে পৌঁছে দিতে পারলে গ্রামের মানুষ শহরে আসবে না। অতিরিক্ত জনসংখ্যার কারনে শহরের পরিচ্ছন্নতা রক্ষা করা যাচ্ছে না। আইন শৃঙ্খলারও অবনতি হচ্ছে।
চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ অর্জন করেছে শ্রেষ্ঠত্বের পুরস্কার
২৩ডিসেম্বর,সোমবার,স্টাফ রির্পোটার,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম রেঞ্জের অপরাধ পর্যালোচনা ও বিবিধ বিষয়ক সম্মেলনে নভেম্বর ১৯ মাসে অপরাধ নিয়ন্ত্রনে দক্ষতা, গুরুত্বপূর্ণ মামলার রহস্য উদঘাটন, অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার, নিয়মিত মামলার আসামি গ্রেফতার, পরোয়ানা তামিলসহ সার্বিক কর্মমূল্যায়ণে রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ জেলা নির্বাচিত হয়েছে চট্টগ্রাম জেলা এবং শ্রেষ্ঠ পুলিশ সুপার মনোনীত হয়েছেন চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার (অতিরিক্ত ডিআইজি) নুরেআলম মিনা, বিপিএম (বার), পিপিএম। আজ ২৩ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত রেঞ্জ সম্মেলনে চট্টগ্রাম রেঞ্জ ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক, বিপিএম(বার),পিপিএম নিকট হতে শ্রেষ্ঠত্বের স্বীকৃতিস্বরূপ বিশেষ সম্মাননা স্মারক ও সার্টিফিকেট অফ এপ্রিসিয়েশন গ্রহণ করেন চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার (অতিরিক্ত ডিআইজি) নুরেআলম মিনা, বিপিএম (বার), পিপিএম। এছাড়া রেঞ্জের,রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ সার্কেল অফিসার মনোনীত হয়েছেন চট্টগ্রাম জেলার মো: আবুল কালাম চৌধুরী,সহকারী পুলিশ সুপার , রাঙ্গুনিয়া সার্কেল । অস্ত্র কারখানা ও অস্ত্র-গোলাবারুদ উদ্ধারকালীন গুরুতর আহত হয়ে বিশেষ ক্যাটাগরীর পুরষ্কার অর্জন করেন রাউজান থানার অফিসার ইনচার্জ কেফায়েত উল্লাহ। শ্রেষ্ঠ কোর্ট পুলিশ পরিদর্শক অফিসার মনোনীত হয়েছেন চট্টগ্রাম জেলা সদর কোর্ট পুলিশ পরিদর্শক সুব্রত ব্যানার্জী। শ্রেষ্ঠ ওয়ারেন্ট তামিলকারী অফিসার মনোনীত হয়েছেন রাউজান থানার এসআই (নি:) মৃদুল বড়ুয়া। শ্রেষ্ঠ অবৈধ অস্ত্র-গুলি উদ্ধারকারী অফিসার মনোনীত হয়েছেন রাউজান থানার এসআই (নি:) সাইফুল ইসলাম। রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ মামলা তদন্তকারী অফিসার মনোনীত হয়েছেন রাঙ্গুনিয়া মডেল থানার এসআই (নি:) সুব্রত চৌধুরী। এ স্বীকৃতি চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের মনোবল, পেশাদারিত্ব ও কর্মোদ্দীপনা বৃদ্ধি করবে।
শুল্ক ফাঁকি দেওয়া ১৩ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা ভ্রাম্যমাণ আদালতের
২৩ডিসেম্বর,সোমবার,কমল চক্রবর্তী, বিশেষ প্রতিনিধি,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম:চট্টগ্রাম নগরীর পাচঁলাইশ ও খুলশী থানাধীন এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে শুল্ক ফাঁকি দেওয়া ৩৩৩ টি মোবাইল ফোন উদ্ধারসহ ১৩ প্রতিষ্ঠানকে সর্বমোট ০২ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে RAB-৭ এর ভ্রাম্যমাণ আদালত। গত শনিবার ২১শে ডিসেম্বর বেলা ২ টায় চট্টগ্রাম মহানগরীর পাচঁলাইশ ও খুলশী থানাধীন এলাকায় সানমার ওশান সিটি, ইউনুছ সিটি সেন্টার ও ফিনলে স্কয়ার মার্কেটে অভিযান চালায় ভ্রাম্যমাণ আদালত। RAB-৭, এর মিডিয়া অফিসার এএসপি মাহমুদুল হাসান মামুন জানান, গোপন সংবাদের মাধ্যমে আমরা জানতে পারি যে, চট্টগ্রাম মহানগরীর পাচঁলাইশ ও খুলশী থানাধীন এলাকায় সানমার ওশান সিটি, ইউনুছ সিটি সেন্টার ও ফিনলে স্কয়ার মার্কেটে কতিপয় অসাধু ব্যবসায়ী শুল্ক ফাঁকি দেওয়া বিপুল পরিমাণ বিদেশী মোবাইল ফোন ক্রয়-বিক্রয় করছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে গত ২১শে ডিসেম্বর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জিল্লুর রহমান, বিটিআরসির উপ-পরিচালক রোকসানা বেগম ও র্যাকব-৭ এর সমন্বয়ে একটি যৌথ অভিযান পরিচালনা হয়। এ সময় ১৩ টি মোবাইল দোকান হতে শুল্ক ফাঁকি দেওয়া বিভিন্ন ব্রান্ডের ৩৩৩ টি স্মাট ফোন (এর মধ্যে রয়েছে ০১ টি আইফোন, ১১ টি ওয়ান প্লাস, ০১ টি নকিয়া, ০১ টি ভিভো, ০১ টি লেনোভো, ০৭ টি হনর, ০১ টি নোভা এবং ৩১০ টি এমআই/রেডমি/রিয়েলমি) এবং ০৩ টি স্মার্ট ঘড়ি উদ্ধার করা হয়। পরবর্তীতে শুল্ক ফাঁকি দেওয়ার অপরাধে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন আইন ২০০৯ এর ৪৫ ধারা মোতাবেক সানমার ওশান সিটি এর বিশাল ইলেক্ট্রনিক্স এর মালিককে ৩০ হাজার টাকা, ফেমাস টেলিকম এবং জিএসএম ল্যাব এর মালিককে ২০ হাজার টাকা,বেস্ট ওয়ান এর মালিককে ২০ হাজার টাকা, ভিরাজ বাই সেল এক্সসেঞ্জ এর মালিককে ১৫ হাজার টাকা, গেম স্টেশন এর মালিককে ১০ হাজার টাকা, ইউনুছ সিটি সেন্টার মার্কেটের এ্যাপহোয়েল এর মালিককে ৩০ হাজার টাকা,পয়েন্ট এর মালিককে ২০ হাজার টাকা, ইজি কল এর মালিককে ২০ হাজার টাকা এবং ফিনলে স্কয়ার মার্কেটের ড্যাজেল এর মালিককে ২০ হাজার টাকা, সেলমার্ট এর মালিককে ২০ হাজার টাকা, আনবক্স এর মালিককে ১৫ হাজার টাকা, গ্লোবাল মিডিয়া এর মালিককে ১০ হাজার টাকা এবং ইউনিক পয়েন্ট এর মালিককে ১০ হাজার টাকা জরিমানাসহ সর্বমোট ০২ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। তিনি আরো জানান, উদ্ধারকৃত আলামত জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জিল্লুর রহমান ও বিটিআরসির উপ-পরিচালক রোকসানা বেগম এর উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হয়েছে। সেই সাথে আদায়কৃত জরিমানার ০২ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা সরকারি কোষাগারে জমা করা হয়েছে।
চট্টগ্রামের কোতোয়ালী থানায় আলোচিত সেবা ছাউনির উদ্বোধন
২৩ডিসেম্বর,সোমবার,স্টাফ রির্পোটার,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম নগরীর কোতোয়ালী থানায় আগত সেবাপ্রার্থীদের সুবিধার জন্য থানা প্রাঙ্গণে নির্মাণ করা হয়েছে সেবা ছাউনি সেই সাথে রয়েছে সচেতনতার জন্য নানা দেওয়াল লিখন। নগরীর বদলে যাওয়া থানা কোতোয়ালীকে ঘিরে বেশ আলোচনা চলছিল সংবাদ মাধ্যমে। আজ সোমবার ২৩শে ডিসেম্বর সকালে এ সেবা ছাউনি উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান।পরে সিএমপি কমিশনার থানায় নতুন করে সাজানো অফিসার কর্নারও পরিদর্শন করেন। এ সময় চসিকের প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, ইউসিবি ব্যাংকের ইসি কমিটির চেয়ারম্যান আনিসুজ্জামান চৌধুরী রনি, সিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার (ট্রাফিক) এসএম মোস্তাক আহমদ খান, উপ-কমিশনার (সদর) আমির জাফর, উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) এসএম মেহেদী হাসানসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এ সময় থানা প্রাঙ্গণে সুধী সমাবেশের আয়োজন করা হয়। সিএমপি কমিশনার বলেন, আমরা চাই থানা হোক জনবান্ধব। সাধারণ মানুষ যাতে নির্বিঘ্নে থানায় এসে সেবা নিতে পারেন। থানায় একটি সুন্দর পরিবেশ তৈরি করতে চাই আমরা। সেবা ছাউনির মাধ্যমে থানায় আগত মানুষ উপকৃত হবেন এবং উত্তম সেবা পাবে এটাই আমাদের প্রত্যাশা। উক্ত অনুষ্ঠানে সিএমপির অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) শাহ মুহাম্মদ আবদুর রউফ, সিনিয়র সহকারী কমিশনার (কোতোয়ালী জোন) নোবেল চাকমা, ওসি মোহাম্মদ মহসীন উপস্থিত ছিলেন।
গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামী ডাকাত জসিম Rab এর হাতে আটক
২২ডিসেম্বর,রবিবার,কমল চক্রবর্তী,বিশেষ প্রতিনিধি,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাঁশখালীর চাম্বল এলাকায় অভিজান চালিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগে দায়ের হওয়া মামলার এজাহারভুক্ত প্রধান আসামি জসিম উদ্দিন প্রকাশ পুতুইয়া ডাকাতকে (৩০) গ্রেফতার করেছে Rapid Action Battalion (Rab)। আটক জসিম বাঁশখালীর পূর্ব চাম্বল এলাকার মো. কালুর ছেলে। আজ রোববার ২২শে ডিসেম্বর সকালে বাঁশখালীর চাম্বল এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানান Rab-07 এর মিডিয়া অফিসার এএসপি মাহমুদুল হাসান মামুন। গ্রেফতার জসিমের কাছ থেকে একটি একনলা বন্দুক ও একটি ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান তিনি। Rab-07 এর সহকারী পুলিশ সুপার কাজী মোহাম্মদ তারেক আজিজ জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা জানতে পারি যে ২০১৮ সালের ১৯ আগস্ট বাঁশখালীর চাম্বল এলাকার এক কিশোরী গণধর্ষণের মূলহোতা ও এজাহারে প্রধান অভিযুক্ত ছিল জসিম উদ্দিন প্রকাশ পুতুইয়া ডাকাত বাঁশখালীর চাম্বল এলাকায় অবস্থান করছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে জসিম উদ্দিন প্রকাশ পুতুইয়া ডাকাতকে (৩০) কে আটক করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে একটি একনলা বন্দুক ও একটি ছুরি উদ্ধার করা হয়। তিনি আরো জানান, আটক কৃতের বিরুদ্ধে মামলা প্রক্রিয়াধীন আছে। পরবর্তীতে তাকে বাঁশখালী থানায় হস্তান্তর করা হবে।
চট্টগ্রাম নেভাল একাডেমিতে প্রধানমন্ত্রীর কুচকাওয়াজ পরিদর্শন
২২ডিসেম্বর,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: পতেঙ্গায় বাংলাদেশ নেভাল একাডেমিতে নৌবাহিনীর শীতকালীন রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ পরিদর্শনে এসেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার (২২ ডিসেম্বর) সকাল পৌনে ১১টার দিকে তিনি সেখানে পৌঁছান। এ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ২০১৭/এ ব্যাচের ৬১ জন মিডশীপম্যান ও ২০১৯/বি ব্যাচের ১১ জন ডাইরেক্ট এন্ট্রি অফিসার সহ মোট ৭২ জন নবীন কর্মকর্তা কমিশন লাভ করবেন। এদের মধ্যে ৭ জন মহিলা ও ২ জন মালদ্বীপের কর্মকর্তা রয়েছেন। রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে সেনা ও বিমানবাহিনীর আঞ্চলিক অধিনায়কসহ ঊর্ধ্বতন সামরিক-বেসামরিক কর্মকর্তা, ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, হুইপ সামশুল হক চৌধুরী, চসিক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, এমপি এম এ লতিফ, সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনীর প্রধান, নৌ সদর দপ্তরের পিএসও, মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণকারী নৌ কমান্ডোসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, দেশি-বিদেশি কূটনীতিক ও শিক্ষা সমাপনী ব্যাচের কমিশনপ্রাপ্ত ক্যাডেটদের অভিভাবকরা উপস্থিত আছেন।
বেগম রোকেয়া বাঙালি নারী জাগরণের আলো
২২ডিসেম্বর,রবিবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম সাহিত্য পাঠচক্রের উদ্যোগে ঊনবিংশ শতাব্দাদীর নারী শিক্ষা ও জাগরণের সাহসিকা জননী বেগম রোকেয়ার জন্ম ও মৃত্যুবার্ষিকী স্মরণে এক আলোচনা সভা, শিক্ষাবৃত্তি ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠান গত ১৯ ডিসেম্বর সুপ্রভাত স্টুডিও হলে অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি বাবুল কান্তি দাশ। প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য শিক্ষাবিদ প্রফেসর ড.ইফতেখার উদ্দীন চৌধুরী। প্রধান আলোচক ছিলেন চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর মোঃ আবু জাফর। সংবর্ধিত অতিথি ছিলেন বিশিষ্ট শিক্ষাববিদ, গবেষক ও সঙ্গীতজ্ঞ প্রফেসর হাসিনা জাকারিয়া বেলা। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আসিফ ইকবালের পরিচালনায় এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন চবির পালি বিভাগের অধ্যাপক প্রফেসর ড. জিনবোধি ভিক্ষু, অধ্যক্ষ বিজয় লক্ষী দেবী, প্রবীণ সাংবাদিক বেলায়েত হোসেন, চট্টগ্রাম দক্ষিণজেলা আওয়ামীলীগের শ্রমবিষয়ক সম্পাদক খোরশেদ আলম, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা জাসদের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা ভানুরঞ্জণ চক্রবর্তী, দৈনিক সমকালের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার সুজিত কুমার দাশ, লেখক কামাল উদ্দীন, অধ্যাপিকা নিশাত হাসিনা শিরিন, শারদাঞ্জলী ফোরাম চট্টগ্রামের সভাপতি অজিত কুমার শীল। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন শিক্ষক বিজয় শংকর চৌধুরী, কবি সজল দাশ, সংগঠক অমর কান্তি দত্ত, এম, নুরুল হুদা চৌধুরী, রতন দাশ গুপ্ত, স, ম, জিয়াউর রহমান, নারায়ন দাশ, সাইফুল আরাফাত বাপ্পা প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন নাট্যজন সজল চৌধুরী, নোমান উল্লাহ বাহার, রতন ঘোষ, মো. তিতাস। সভায় নারী শিক্ষার প্রসারে বিশেষ অবদানের জন্য প্রফেসর হাসিনা জাকারিয়া বেলাকে বেগম রোকেয়া স্মৃতি সম্মাননা স্মারক ২০১৯ প্রদান করা হয়। বৃত্তিপ্রাপ্ত ছাত্র ছাত্রীরা হল সায়মা আকতার, পুজা চৌধুরী, অর্পিতা দে, আরশি দে, আদিত্য দাশ। সভায় প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, যে কয়জন মানুষের প্রচেষ্টায় নারী সমাজের প্রভূত উন্নয়ন হয়েছে বেগম রোকেয়া তাদের মধ্যে অন্যতম। নারী জাগরণের অগ্রদূত এই মহীয়সী নারী কাজ করে গেছেন নারী স্বাধীনতা, নারীর ক্ষমতায়নের লক্ষ্যে। নারী শিক্ষা প্রসারে বেগম রোকেয়া আমৃত্যু কাজ করে গিয়েছেন। বেগম রোকেয়া তাঁর জীবন সংগ্রামের মাধ্যমে বুঝতে পেরেছিলেন শিক্ষা ছাড়া নারীর মুক্তি নেই। কেননা একমাত্র শিক্ষাই পারে আমাদের যুক্তির আলোয় নিয়ে আসতে, মুক্তির পথ দেখাতে।-প্রেস বিজ্ঞপ্তি
চট্গ্রামে চোরাই মোবাইল বিক্রেতা গ্রেফতার
২১ডিসেম্বর,শনিবার,স্টাফ রির্পোটার,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম:চট্গ্রামে ৬২টি মোবাইলসহ মোঃ আরমান (২৮) নামক এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেচে মহানগর গোয়েন্দা (উত্তর) বিভাগ। শনিবার (২১ডিসেম্বর) সিএমপির কোতোয়ালী থানাধীন স্টেশন রোড এলাকা হতে তাকে গ্রেফতার করে মহানগর গোয়েন্দা (উত্তর) বিভাগ। সিএমপির নিয়োমিত অভিযানের অংশ হিসাবে বিশেষ টিমরর পুলিশ পরিদর্শক মোহাম্মদ হোছাইন এর নেতৃত্বতে মহানগর এলাকায় আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় অভিযান পরিচালনাকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আরমান গ্রেফতার হয়। গ্রেফতারকৃত আসামি আরমান লোহাগাড়া থানাধীন পাহাড়িকা গুচ্ছ গ্রামের বাসিন্দা। আরমানকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, সে একজন পেশাদার চোরাই মোবাইল বিক্রেতা। সে দীর্ঘদিন যাবৎ চট্টগ্রাম শহরের বিভিন্ন এলাকা হইতে চোরাইকৃত মোবাইল সংগ্রহ পূর্বক বিক্রি করে আসছে। এমনকি ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন এলাকা হতে চোরাইকৃত মোবাইল সংগ্রহ পূর্বক বিক্রি করে। এ সংক্রান্তে কোতোয়ালী থানায় নিয়মিত মামলা রুজু প্রক্রিয়াধীন।
সুবিধাবঞ্চিত মানুষের মাঝে জয়ীর শীতবস্ত্র বিতরণ
২১ডিসেম্বর,শনিবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: কুয়াশা ঢাকা সকালে শীতের উপকরণ নিয়ে সুখকর নিদ্রায় যখন আমরা বিভোর থাকি, তখন সমাজের অসহায় সুবিধাবঞ্চিত মানুষ কনকনে এই শীতে মানবেতর জীবনযাপন করছে । এসকল সুবিধাবঞ্চিত শীতার্ত মানুষদের কথা চিন্তা করে, তাদের পাশে দাঁড়াতে সামাজিক সংগঠন জয়ীর এ মহৎ কর্মকান্ড সত্যিই প্রশংসনীয়। তাদের এ প্রয়াসের সাথে সামিল হয়ে সমাজের বিত্তশালীদের প্রতি এমন মানবিক কর্মকাণ্ডে সহযোগিতার হাত নিয়ে এগিয়ে আসার জন্য আহ্বান জানান ৮নং শুলকবহর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. মোরশেদ আলম ।গত ১৮ ডিসেম্বর সকাল ১১টায় বেবি সুপার মার্কেটস্থ এক কমিউনিটি সেন্টারে সামাজিক সংগঠন জয়ীর উদ্যোগে শীতার্ত মানুষদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণকালে অনুষ্ঠিত সভায় তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের আহ্বায়ক যমুনা তালুকদার। সদস্য জান্নাতুন্নাহার মহুয়ার সঞ্চালনায় সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন শেখ ফরিদ চশমা ইউনিট আওয়ামী লীগ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা এম.এ.মান্নান খান, পলিটেকনিক্যাল ইউনিট আওয়ামীলীগের সভাপতি হোসেন মো. মাসুদ, নাসিরাবাদ শিল্পাঞ্চল ইউনিট আওয়ামীলীগের সভাপতি মো. জাফর আহম্মদ, ৪২নং সাংগঠনিক ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ শাহজাহান, পলিটেকনিক্যাল ইউনিট আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোতালেব সরকার, শেখ ফরিদ চশমা ইউনিট আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সালাউদ্দিন লেদু, সমাজসেবক আব্দুস সালাম, ইউএনডিপি চট্টগ্রাম মহানগরের সভাপতি আনোয়ারা আলম, পলিটেকনিক্যাল ইউনিট আওয়ামীলীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মো. কামাল হোসেন, সমাজসেবক মনির হোসেন, জয়ীর সদস্য লুৎফুন্নেসা, রিমু বেগম, শিরিন আক্তার, লিপি বেগম, সাকি দাস, মনোয়ারা বেগম, ফেরদৌসি ইয়াসমিন, অঞ্জু ভৌমিক, নুরনাহার বেগম, শিমুল আক্তার, মর্জিনা আক্তার, পাপিয়া তালুকদার প্রমুুুখ।- প্রেস বিজ্ঞপ্তি

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর