নাইজেরিয়ায় ৪৩ শ্রমিককে গলা কেটে হত্যা
২৯নভেম্বর,রবিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: নাইজেরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলে ৪৩ শ্রমিককে গলা কেটে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। গত শনিবার দেশটির কশোবি নামক প্রত্যন্ত এক গ্রামে ধানক্ষেতে কাজ করার সময় এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, শ্রমিকদের সবাইকেই বাঁধার পর গলা কেটে হত্যা করা হয়। হামলাকারীদের খুঁজতে তল্লাশি শুরু করেছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। খবর আল জাজিরা, এএফপি ও রয়টার্সের। ওই ধানক্ষেতে কাজ করা মোট ৬০ জন কৃষকের মধ্যে ৪৩ জনকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে, আহত হয়েছেন ছয়জন। আরও আট কৃষক নিখোঁজ রয়েছেন। ধারণা করা হচ্ছে, তাদেরকে অপহরণ করা হয়েছে। বার্তা সংস্থা এএফপি কে স্থানীয় একটি সশস্ত্র গোষ্ঠীর নেতা বাবাকুরা কোলো বলেন, ৪৩টি মরদেহ পেয়েছি। সবাইকে হত্যা করা হয়েছে। গুরুতর আহত অবস্থায় পাওয়া গেছে ছয়জনকে। এই হামলার বিষয়ে কোলো বলেন, এটা বোকো হারামের কাজ তাতে কোনো সন্দেহ নেই। তারা এই এলাকায় কৃষকদের ক্রমাগত আক্রমণ করছে। স্থানীয় এক নেতার বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলেছে, হামলায় অন্তত ৪০ জন নিহত হয়েছে। ইব্রাহিম লিমান নামে আরেক স্থানীয় যোদ্ধা জানান, নিহত কৃষকরা কাজের খোঁজে প্রায় এক হাজার কিলোমিটার দূরবর্তী সোকোতো অঞ্চল থেকে কশোবি এসেছিলেন। এর আগে, গত মাসে মাইদুগুরি এলাকার কাছে পৃথক দুটি ঘটনায় ২২ জন কৃষককে হত্যা করেছিল বোকো হারামের সদস্যরা। দেশটির উত্তর-পূর্বাংশে বোকো হারাম ও ইসলামিক স্টেট (আইএসডব্লিউএপি) বেশ সক্রিয়। তাদের সঙ্গে সহিংসতায় হাজার হাজার মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। ২০০৯ সাল থেকে এ পর্যন্ত বাস্তুচ্যুত হয়েছেন অন্তত ২০ লাখ অধিবাসী।
সন্ত্রাসী হামলায় নিহত কে এই ইরানের পরমাণু বিজ্ঞানী
২৮নভেম্বর,শনিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চলতি বছরের শুরুতে মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত হন ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসির কুদস ফোর্সের কমান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল কাসেম সোলাইমানি। এবার আরও এক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিকে হারিয়েছে দেশটি। স্থানীয় সময় শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) সন্ধ্যায় সন্ত্রাসী হামলায় নিহত হন ইরানের বোমার জনক নামে পরিচিত মোহসেন ফখরিযাদে। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোর তথ্যানুযায়ী, নিহত মোহসেন ফখরিযাদে ইরানের সবচেয়ে প্রবীণ পরমাণু বিজ্ঞানী। যিনি ছিলেন দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের গবেষণা ও উদ্ভাবনী সংস্থার প্রধান। এর আগে ইসলামী প্রজাতান্ত্রিক দেশটির রেভল্যুশনারি গার্ডের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন ফখরিযাদে। যিনি ইরানে বোমার জনক নামে পরিচিত। তার মর্যাদা ছিল মন্ত্রণালয়ের উপ-প্রতিরক্ষামন্ত্রী ও রেভরল্যুশনারি গার্ডের ব্রিগেডিয়ার জেনারেলের সমান। প্রবীণ এই পদার্থ বিজ্ঞানী ১৯৫৮ সালে ইরানের শিয়া সম্প্রদায়ের পবিত্র নগরী হিসিবে পরিচিত কওম নামক শহরে জন্মগ্রহণ করেন। পরমাণু প্রকৌশল নিয়ে ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করেছেন তিনি। ইরানের ইউনিভার্সিটি অব ইমাম হোসেইনর পরমাণু বিভাগের অধ্যাপকেরও দায়িত্ব পালন করেছেন মোহসেন ফাখরিযাদে। দীর্ঘ দিন পর্যন্ত ইরানি পরমাণু বিজ্ঞানী হিসেবে তাকে কখনই দেশটির গণমাধ্যম প্রকাশ্যে আনতো না। বরং তাকে একজন সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক হিসেবেই তুলে ধরা হয়ে আসছিল। কিন্তু যখন ছয় জাতি জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে ইরানের পরমাণু বিষয়ক চুক্তি হয় তারপর থেকেই মোহসেন ফাখরিযাদের নাম প্রকাশ্যে আসে। সেই থেকে ইসরায়েল ও পশ্চিমা গোয়েন্দা সংস্থাগুলো বলে আসছে তিনি ইরানের খুবই ক্ষমতাশালী ব্যক্তি এবং ইরানের পরমাণু কর্মসূচির প্রধান স্তম্ভ। ২০১৮ সালে ইসরায়েল বলেছিল, তাদের হাতে যেসব গোপন নথিপত্র এসেছে সেগুলো অনুয়ায়ী ইরানের পরমাণু কর্মসূচির তিনি প্রধান রূপকার মোহসেন ফাখরিযাদে। তার নেতৃত্বেই ইরানের পরমাণু কর্মসূচি গড়ে উঠেছে। ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু সেসময় বলেছিলেন ওই নামটা (মোহসেন ফাখরিযাদে) মনে রাখবেন- তিনিই ইরানের পরমাণু কর্মসূচির প্রধান বিজ্ঞানী। ২০১৫ সালে নিউইয়র্ক টাইমস তার তুলনা করেছিল জে রবার্ট ওপেনহাইমারের সাথে। ওপেনহাইমার দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ম্যানহাটান প্রকল্পের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন যে প্রকল্পের অধীনে প্রথম আণবিক বোমা তৈরি করা হয়। এদিকে, এ হামলার জন্য ইসরায়েলকে অভিযুক্ত করছে ইরান। পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে প্রতিশোধ নেয়া ঘোষণা দিয়েছে দেশটির সেনা প্রধান। এর আগে ২০১০ থেকে ২০১২ সালের মধ্যে ইরানের চারজন পরমাণু বিজ্ঞানী আততায়ীর হাতে প্রাণ হারিয়েছেন এবং এইসব হত্যার ঘটনায় ইসরায়েল জড়িত বলে ইরান অভিযোগ করে আসছে দেশটি। ইরানের রেভরল্যুশনারি গার্ডের কমান্ডার বলেছেন এই হত্যাকাণ্ডের প্রতিশোধ নেয়া হবে।
গুজরাটে কোভিড হাসপাতালে আগুন, ৫ রোগীর মৃত্যু
২৭নভেম্বর,শুক্রবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ভারতের গুজরাট রাজ্যের রাজকোটে একটি কোভিড হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে ওই হাসপাতালের ৫ রোগীর মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার সকালে ওই দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে। ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও ৩০ রোগীকে অগ্নিকাণ্ড থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। বার্তা সংস্থা এএনআই জানিয়েছে, মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানি এই ঘটনা তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। শুক্রবার ভোরে মাভদি এলাকার উদয় শিভানন্দ হাসপাতালের আইসিইউতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটেছে। কী কারণে ওই দুর্ঘটনা ঘটেছে তা এখনও নিশ্চিত নয়। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে। পিটিআই নিউজ এজেন্সিকে এক দমকল কর্মকর্তা বলেন, অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়েই আমরা দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে গেছি। আইসিইউর ভেতরে অগ্নিকাণ্ডের র্ঘটনায় তিন রোগী প্রাণ হারিয়েছেন। সেখান থেকে ৩০ জনকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। উদ্ধার করা রোগীদের অন্য একটি কোভিড হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। এর আগে গত আগস্টে আহমেদাবাদে একটি চারতলা বিশিষ্ট হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এতে আট করোনা রোগী নিহত হয়।
ব্রাজিলে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪১
২৬নভেম্বর,বৃহস্পতিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ব্রাজিলে যাত্রীবাহী বাস ও ট্রাকের সংঘর্ষে অন্তত ৪১ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া অনেকের অবস্থা আশংকাজনক। বুধবার (২৫ নভেম্বর) দেশটির সাও পাওলো রাজ্যের তাগুই শহরে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ব্রাজিল পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়, বাসটিতে একটি গার্মেন্টসের ৫৩ জন শ্রমিক ছিল। বাসটির সঙ্গে সামনে থেকে আসা একটি ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে এতে ৪১ জন নিহত হন। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। ব্রাজিলের ফায়ার সার্ভিস জানায়, ঘটনাস্থলেই ৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। পরে হাসপাতালে মারা যান আরও চারজন। গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে বেশ কয়েকজনকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
বিশ্বকে নেতৃত্ব দিতে প্রস্তুত যুক্তরাষ্ট্র: বাইডেন
২৫নভেম্বর,বুধবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: গত ৩ নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত হয়েছে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। এই নির্বাচনে বর্তমান প্রেসিডেন্ট রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে হারিয়ে জয় পেয়েছেন ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রার্থী জো বাইডেন। তিনি বলেছেন, বিশ্বকে নেতৃত্ব দিতে প্রস্তুত যুক্তরাষ্ট্র। আমরা এই থেকে পিছপা হবো না। যুক্তরাষ্ট্রের উইলমিংটনে মঙ্গলবার নিজের প্রশাসনের বেশ কয়েকজন কূটনীতিক এবং নীতি প্রণেতাদের নাম ঘোষণার সময় এমনটি বলেন বাইডেন। এদিকে জো বাইডেন তার সম্ভাব্য মন্ত্রিসভার ৬ সদস্যের নাম ঘোষণা করেছেন। নতুন মন্ত্রীসভায় সাবেক ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি ও আরো শীর্ষ কর্মকর্তা রয়েছেন বলে জানা গেছে। আগামী ২০ জানুয়ারি আনুষ্ঠানিকভাবে ৪৬তম মার্কিন প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব গ্রহণ করবেন জো বাইডেন।
ক্ষমতা হস্তান্তরে রাজি হয়েছেন ট্রাম্প
২৪নভেম্বর,মঙ্গলবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নির্বাচনে বিজয়ী জো বাইডেনের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তরের আনুষ্ঠানিক প্রক্রিয়া শুরু করতে রাজি হয়েছেন। তিনি বলেছেন, হস্তান্তর প্রক্রিয়া দেখভালের দায়িত্বে থাকা সংস্থার যা করার প্রয়োজন করুক। দি জেনারেল সার্ভিস এডমিনিস্ট্রেশন বা জিএসএ বলছে তারা বাইডেনকে আপাত বিজয়ী হিসেবে স্বীকৃতি দিচ্ছে। মূলত মিশিগানে নির্বাচনের ফল আনুষ্ঠানিকভাবে সার্টিফায়েড হওয়ার পরপরই বাইডেনের জয় চূড়ান্ত স্বীকৃতি লাভ করে। বাইডেন টিম ক্ষমতা হস্তান্তর প্রক্রিয়া শুরু করার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে। এক বিবৃতিতে তারা বলেছে, মহামারি নিয়ন্ত্রণ ও অর্থনীতিতে গতি আনাসহ জাতির সামনে চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবেলায় আজকের এই সিদ্ধান্তটি ছিলো প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ। এদিকে ট্রাম্প এক টুইট বার্তায় বলেছেন, ক্ষমতা হস্তান্তরের আনুষ্ঠানিক প্রক্রিয়ায় থাকা জিএসএ বাইডেন শিবিরকে জানিয়েছেন যে তারা প্রক্রিয়া শুরু করতে যাচ্ছে। প্রশাসক এমিলি মারফি বলেছেন, তিনি নতুন প্রেসিডেন্টের জন্য ৬৩ লাখ ডলার অবমুক্ত করেছেন। তবে ভালো লড়াই চালিয়ে যাওয়ার প্রত্যয়ও ব্যক্ত করেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেছেন, জাতির বৃহত্তর স্বার্থে এমিলি ও তার টিমের করণীয় কাজটাই করা উচিৎ এবং আমার টিমকেও তাই বলেছি। প্রসঙ্গত, মারফিকে ট্রাম্পই জিএসএ প্রধান হিসেবে মনোনয়ন দিয়েছিলেন। তিনি নির্বাচনের ফল সার্টিফিকেশন ও আইনি চ্যালেঞ্জসহ সাম্প্রতিক ঘটনাপ্রবাহকে তার সিদ্ধান্তের ভিত্তি হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তবে হোয়াইট হাউজের দিক থেকে কোনো চাপের বিষয়টি তিনি প্রত্যাখ্যান করেছেন। বাইডেনকে দেয়া তার চিঠিতে তিনি উল্লেখ করেছেনম আমি পরিষ্কার করতে চাই যে আমি প্রক্রিয়াটি বিলম্বিত করতে কোনো নির্দেশনা পাইনি। তবে আমি অনলাইনে, ফোনে এবং ই-মেইলে হুমকি পেয়েছি যাতে আমার নিরাপত্তা, আমার পরিবার, কর্মকর্তা এমনকি আমার পোষা প্রাণীটিকে জড়ানো হয়েছে। যাতে সময়ের আগেই আমি সিদ্ধান্ত নেই। এমনকি হাজার হাজার হুমকির মুখেও আমি আইনকে সর্বাগ্রে রাখতে অঙ্গীকারাবদ্ধ ছিলাম। নির্বাচনের পর রুটিন কাজ হিসেবে ক্ষমতা হস্তান্তর প্রক্রিয়া শুরু করতে না পারায় যুক্তরাষ্ট্রের দুই রাজনৈতিক শিবির থেকেই এমিলি মারফির তুমুল সমালোচনা হচ্ছিলো। ডেমোক্র্যাটরা এটি শুরু করতে তাকে গত সোমবার পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছিলো।
অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন ৭০ ভাগ কার্যকর
২৩নভেম্বর,সোমবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের তৈরি করোনার সম্ভাব্য ভ্যাকসিন ৭০ শতাংশ কার্যকর। একটি বিশাল আকারের ট্রায়াল থেকে এ তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে। এটি একই সঙ্গে অক্সফোর্ডের জন্য একটি বিজয় আবার হতাশারও। কারণ সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি ফাইজার এবং মডার্নার ভ্যাকসিনে ৯৫ ভাগ কার্যকারিতার প্রমাণ পাওয়া গেছে। ইতোমধ্যে তৃতীয় ধাপের ট্রায়ালের প্রাথমিক ফলে দেখা গেছে, ফাইজার-বায়োএনটেক, রাশয়ার স্পুটনিক এবং মডার্নার তৈরি ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা ৯০ শতাংশের বেশি। এর মধ্যে একটি অর্থাৎ ফাইজার-বায়োএনটেকের তৈরি ভ্যাকসিনটি ৬৫ বছরের বেশি বয়সীদের ক্ষেত্রে ৯৪ শতাংশ কার্যকর বলে জানানো হয়েছে। সেই হিসেবে অক্সফোর্ডের কার্যকারিতা অন্যসব ভ্যাকসিনের চেয়ে কিছুটা পিছিয়ে পড়েছে। তবে অন্যান্য ভ্যাকসিনের চেয়ে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনের দাম অনেকটাই সস্তা হবে এবং এটি বিশ্বের যে কোনো স্থানে সংরক্ষণ করাও বেশ সহজ। তাই এদিক দিয়ে বলা যায়, অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন নিয়ে তেমন একটা ঝক্কি-ঝামেলা পোহাতে হবে না। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমোদন পেলে মহামারি নিয়ন্ত্রণে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন বিজ্ঞানীরা। তাছাড়া সঠিকভাবে এই ভ্যাকসিনের ডোজ প্রদান করা গেলে তা শরীরে ৯০ শতাংশ পর্যন্ত কার্যকারিতা বৃদ্ধি করতে সক্ষম বলেও জানানো হয়েছে। এর মধ্যেই ভ্যাকসিনের ১০ কোটি ডোজ তৈরির জন্য অক্সফোর্ডকে পূর্ব-নির্দেশনা দিয়েছে ব্রিটিশ সরকার। ব্রিটেনের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক বলেন, আমরা হয়তো আগামী গ্রীষ্মের মধ্যেই স্বাভাবিক জীবন-যাত্রার অনেকটা কাছাকাছি চলে যেতে পারব। ভ্যাকসিন না পাওয়া পর্যন্ত আমাদের একে অপরকে দেখে রাখতে হবে। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের তৈরি মহামারি করোনার সম্ভাব্য ভ্যাকসিনটি ৬০ থেকে ৭০ বছর বয়সীদের ক্ষেত্রে শক্তিশালী রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা তৈরি করছে। এতে করে এই আশা তৈরি হয়েছে যে, করোনায় সবচেয়ে ঝুঁকিতে থাকা এসব মানুষ হয়তো এই ভ্যাকসিনের মাধ্যমে সুরক্ষা পাবেন।
২৫-৩৭ ডলারেই পাওয়া যাবে মডার্নার ভ্যাকসিন
২২নভেম্বর,রবিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনা মহামারি থেকে বাঁচতে ভ্যাকসিনের দিকেই তাকিয়ে আছে সারাবিশ্ব। বিশেষজ্ঞরাও ভ্যাকসিন সহজলভ্য করতে প্রাণপন চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এর মধ্যেই বেশ কিছু ভ্যাকসিন আশা জাগিয়েছে। এসব ভ্যাকসিনের কার্যকারিতার প্রমাণও হাতে এসেছে। বিশ্বে বিভিন্ন দেশের ভ্যাকসিনের মধ্যে যে কয়টি এগিয়ে আছে তার মধ্যে মডার্নার ভ্যাকসিন অন্যতম। করোনাভাইরাস নির্মূলে মার্কিন বায়োটেক ফার্ম মর্ডানার তৈরি ভ্যাকসিন অতিমাত্রায় আশাব্যঞ্জক বলে সম্প্রতি নিশ্চিত করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক রোগের বিশেষজ্ঞ ডা. অ্যান্থনি ফাউসি। পরপর দুটি ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা প্রমাণের ফলে মেসেঞ্জার আরএনএ প্রযুক্তি নিয়ে বিদ্যমান সন্দেহও দূর হয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। বার্তা সংস্থা এএফপি কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ডা. ফউসি জানান, তিনি ৭০ থেকে ৭৫ শতাংশ কার্যকর ভ্যাকসিনেই সন্তুষ্ট হয়ে যেতেন। কিন্তু ৯৪ দশমিক ৫ শতাংশ কার্যকর ভ্যাকসিন পাওয়া আশ্চর্যজনক আশাব্যঞ্জক। ভ্যাকসিনটি এতটা সফল হবে তা কেউই আশা করেননি। গত সোমবার মডার্না ও এনআইএআইডি ৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবকের ওপর চালানো ট্রায়ালের প্রাথমিক ফলাফলের ভিত্তিতে তাদের ভ্যাকসিন ৯৪ দশমিক ৫ শতাংশ কার্যকর বলে ঘোষণা দেয়। স্বেচ্ছাসেবকদের মধ্যে মাত্র ৯৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। এদের মধ্যে সাধারণ প্ল্যাসেবো গ্রুপে ছিলেন ৯০ জন। বাকি পাঁচজন ভ্যাকসিন নেয়ার পরে অসুস্থ হন। সেক্ষেত্রে, ভ্যাকসিনটির সফলতার হার দাঁড়ায় প্রায় ৯৫ শতাংশ। এদিকে, মডার্নার তৈরি এই ভ্যাকসিনের দাম কত হতে পারে তা নিয়ে আগ্রহের শেষ নেই। সংস্থাটির প্রধান নির্বাহী স্টিফেন ব্যানসেল জার্মানির একটি দৈনিককে দেওয়া সাক্ষাতকারে এই ভ্যাকসিনের দাম জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ২৫ থেকে ৩৭ মার্কিন ডলারের মধ্যেই এই ভ্যাকসিন পাওয়া যাবে। স্টিফেন ব্যানসেল বলেন, যে কোনো ফ্লুর টিকার দাম যা সে অনুসারেই করোনার ভ্যাকসিনের মূল্য ধার্য করা হবে। ইউরোপীয় দেশগুলো এই ভ্যাকসিনের জন্য প্রস্তাব পাঠিয়েছে। ভ্যাকসিনের দাম নিয়ে ইউরোপীয় কমিশনের সঙ্গে আলোচনা চলছে। কমিশন এই ভ্যাকসিনের দাম তাদের পক্ষ থেকে ২৫ ডলার বা তার নিচে ধার্য করতে পারে। মডার্নার দাবি, তাদের এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয়েছে এমন স্বেচ্ছাসেবীদের শরীরে অ্যান্টিবডিও তৈরি হচ্ছে। বেশ কিছু ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে ভ্যাকসিন নেওয়া অল্প বয়সীদের চেয়ে বয়স্কদের শরীরে অ্যান্টিবডি বেশি তৈরি হয়েছে। যা ভ্যাকসিন প্রয়োগের ইতিবাচক দিক বলেই বিবেচিত হচ্ছে। এ বছরের ডিসেম্বরেই মডার্নার ভ্যাকসিন বাজারে আসতে পারে বলে জানানো হয়েছে। এর আগে, গত সপ্তাহে আরেক মার্কিন ফার্মাসিউটিক্যাল জায়ান্ট ফাইজার এবং জার্মান প্রতিষ্ঠান বায়োএনটেক তাদের করোনা ভ্যাকসিনকে ৯০ শতাংশ কার্যকর ঘোষণা দিয়েছিল।
বিক্ষোভ-সংঘর্ষে উত্তাল উগান্ডা, তিন দিনে ৩৭ জন নিহত
২১নভেম্বর,শনিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: পূর্ব আফ্রিকার দেশ উগান্ডায় সাধারণ নির্বাচনের আগে প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ববি ওয়েইনকে গ্রেফতারের ঘটনায় চলছে ব্যাপক বিক্ষোভ-সহিংসতা। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো বলছে, গেলো তিন দিনের দাঙ্গা-সহিংসতায় মারা গেছে কমপক্ষে ৩৭ জন। আহত হয়েছে আরও বহু মানুষ। গেলো বুধবার নির্বাচনী প্রচারণায় করোনা শিষ্টাচার না মানায় গ্রেফতার করা হয় ৩৮ বছর বয়সী সাবেক এই পপ তারকা এবং রাজনীতিবিদকে। এর পরই প্রতিবাদে রাস্তায় নামে তার সমর্থকরা। শুরু হয় সহিংস বিক্ষোভ। পরে আদালত তাকে জামিন দিলেও পরিস্থিতি এখনও থমথমে। নিরাপত্তা নিশ্চিতে দেশটির রাজধানীতে মোতায়েন করা হয়েছে সেনাবাহিনী।

আন্তর্জাতিক পাতার আরো খবর