যুক্তরাষ্ট্রের দাবানলে শেষ ২০ লাখ একর বনভূমি
১৯সেপ্টেম্বর,শনিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যে ভয়াবহ দাবানলে পুড়ে গেছে ২০ লাখ একর এলাকা। এছাড়া এখন পর্যন্ত দাবানলে মারা গেছেন ৩৬ জনেরও বেশি মানুষ। সান ফ্রানসিসকো বে এলাকায় ক্যালিফোর্নিয়ার ইতিহাসের সবচেয়ে ভয়াবহ দুটি দাবানল জ্বলছে। খবর ভয়েস অব আমেরিকা, সিএনএন ও ওয়াশিংটন পোস্টর। আগস্টে শুরু হওয়া দাবানল নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য দেশটির দমকল বিভাগ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তবে আগুন এখনও নিয়ন্ত্রণে আনা যায়নি। বিভিন্ন এলাকায় এসব দাবানল নেভাতে কাজ করছেন ১৪ হাজার ফায়ার সার্ভিস কর্মী। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ক্ষতির শিকার হয়েছে সান ফ্রানসিসকো। শুষ্ক বাতাসের কারণে সামনের দিনে দাবানল আরও ভয়াবহ হতে পারে। দাবানল থেকে দুর্ঘটনা এড়াতে ২১টি এলাকার দেড় লাখের বেশি বাড়িতে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এল ডোরাডোতে একটি পার্টি থেকে শুরু হওয়া এই দাবানলে ৭ হাজারের বেশি এলাকা পুড়েছে। এই দাবানলের সূত্রপাত ঘটেছিলো ক্যালিফর্নিয়া রাজ্যে তবে এখন এর ভয়াবহ গ্রাসে বিধস্ত হচ্ছে ওরেগন রাজ্য। রাজ্যের গভর্নর কেইট ব্রাউন বলেছেন, এই ঐতিহাসিক দাবানল আমাদেরকে সামর্থের বাইরে নিতে চলেছে। লাখ লাখ হেক্টর জমি ভস্মিভুত হয়েছে এবং বহু জনপদ নিশ্চিহ্ন হয়েছে।
নিউইর্য়কে নাইট পার্টিতে গুলি, হতাহত ১৪
১৯সেপ্টেম্বর,শনিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের রসস্টারে একটি পার্টিতে অতর্কিত গুলিবর্ষণে অন্তত ১৪ জন হতাহত হয়েছেন। যাদের মধ্যে দু'জনের মৃত্যু হয়েছে। বন্দুকধারী কজন ছিল তা নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ। কাউকে গ্রেপ্তার করাও সম্ভব হয়নি। শনিবার স্থানীয় সময় রাত বারটায় রসস্টারের পেনিসিনভেনিয়া অ্যাভিনিউর গুডম্যান স্ট্রিটে এই সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। হামলার সময় পার্টিতে শতাধিক লোকের জমায়েত ছিল বলে জানিয়েছে বিএনইউ নিউজ। নিউইর্য়ক শহরের অভ্যন্তরীণ পুলিশ প্রধান মার্ক সিমনস বলেন, এই অনুষ্ঠান আয়োজনের ব্যাপারে আমরা আগে থেকে কিছুই জানতাম না। তবে ৯১১ এ কল পাওয়ার পর আমরা ঘটনাস্থলে দ্রুত ছুটে যাই। সিমিনস বলেন, প্রায় ১৬ জনকে গুলি করা হয়েছে। ঠিক কতজন স্যুটার ছিল তা জানা যায়নি। এরই মধ্যে দু'জন মারা গেছেন। তাদের বয়স ১৮ থেকে ২২ এর মধ্যে। তবে তাদের নাম তাৎক্ষণিক জানা যায়নি।
লন্ডনে মসজিদ পরিদর্শনে ব্রিটিশ রাজপুত্র ও পুত্রবধূ
১৬সেপ্টেম্বর,বুধবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: যুক্তরাজ্যের বৃহৎ মসজিদ ইস্ট লন্ডন মসজিদ এবং লন্ডন মুসলিম সেন্টার পরিদর্শন করেছেন ব্রিটিশ রাজ পরিবারের সদস্য দ্যা ডিউক প্রিন্স উইলিয়াম এবং তার স্ত্রী ডাচেস অব ক্যামব্রিজ কেট মিডলটন। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) এ পরিদর্শনকালে তারা মসজিদে কর্মরতদের সাথে কথা বলেন। এ সময় করোনাকালীন সময়ে অসহায়দের সেবা দেওয়া মসজিদের স্বেচ্ছাসেবীদের ধন্যবাদ জানান ডিউক এবং ডাচেস। প্রিন্স উইলিয়াম এবং প্রিন্সেস কেট মিডলটনকে মসজিদে স্বাগত জানান ইস্ট লন্ডন মসজিদ এবং লন্ডন মুসলিম সেন্টারের চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান, নির্বাহী পরিচালক দিলওয়ার খান এবং মসজিদের সিনিয়র ঈমাম মোহাম্মেদ মাহমুদ। এছাড়াও ডিউক এবং ডাচেসের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয় মসজিদের হেড অব এসেটস এবং ফ্যাসিলিটিজ আসাদ জামান এবং মরিয়ম সেন্টারের ম্যানেজার সুফিয়া আলমকে। প্রিন্স উইলিয়াম এবং প্রিন্সসহ কেটকে মসজিদের বিভিন্ন সেবা ও প্রজেক্ট সম্পর্কে অবহিত করা হয়। একইসঙ্গে করোনায় লকডাউন চলার সময় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যারা অসহায়দের সেবা দিয়েছেন তাদের সঙ্গেও কথা বলেন তারা। লকডাউনের সময় অসহায়দের সেবা দিতে গিয়ে যেসব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নিয়মিত মসজিদের পাশে ছিল সেই সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বো ক্যাশ এন্ড কারী এবং সাফর্ন কিচেনের প্রতিনিধিদের সঙ্গেও কথা বলেন এবং সবাইকে ধন্যবাদ জানান তারা। উল্লেখ্য, করোনা মোকাবিলায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনকারী ন্যাশনাল ইমার্জেন্সি ট্রাস্টের অন্যতম পৃষ্টপোষক হলেন দ্যা ডিউক। মসজিদ পরিদর্শন শেষে ডিউক এবং ডাচেসকে মসজিদে উৎপাদিত মধু উপহার দেওয়া হয়।
দ্বিপক্ষীয় উত্তেজনায় চীনে মার্কিন রাষ্ট্রদূতের পদত্যাগ
১৫সেপ্টেম্বর,মঙ্গলবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বেইজিংয়ে তিন বছরেরও বেশি সময় ধরে দায়িত্ব পালনের পর পদত্যাগ করতে যাচ্ছেন চীনের মার্কিন রাষ্ট্রদূত টেরি ব্র্যানস্ট্যাড। একটি সূত্রের বরাতে গতকাল এ তথ্য নিশ্চিত হয়েছে। খবর সিএনএন। আগামী নভেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে বেইজিং ছাড়বেন ব্র্যানস্ট্যাড। এখনো তার পদত্যাগের খবর আনুষ্ঠানিকভাবে নিশ্চিত হয়নি। চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম সিজিটিএন জানিয়েছে, গতকাল মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর এক টুইটে ব্র্যানস্ট্যাডের পদত্যাগের ইঙ্গিত পাওয়া গেছে। ব্র্যানস্ট্যাডকে ধন্যবাদ জানিয়ে এক টুইটে পম্পেও লেখেন, চীনের মার্কিন রাষ্ট্রদূত হিসেবে আমেরিকানদের কাছে তিন বছরেরও বেশি সময় ধরে সেবা পৌঁছে দেয়ায় আমি রাষ্ট্রদূত টেরি ব্র্যানস্ট্যাডকে ধন্যবাদ জানাই। কী কারণে রাষ্ট্রদূত চলে যাচ্ছেন বা গুরুত্বপূর্ণ এ দেশটিতে তার উত্তরসূরি কে হচ্ছেন এ বিষয়ে কোনো ইঙ্গিত দেননি পম্পেও। চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ও তার কাছ থেকে পদত্যাগের কোনো নোটিস পায়নি বলে জানিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের আইওয়া প্রদেশের সাবেক গভর্নর ২০১৭ সালের মে মাস থেকে এ পদে ছিলেন। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর রাষ্ট্রদূত হিসেবে ব্র্যানস্ট্যাডকে প্রথম বাছাই করেছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু গত দুই বছরে বেশ উত্তপ্ত পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে চীন-মার্কিন সম্পর্ক। সম্প্রতি হংকংয়ে নতুন নিরাপত্তা আইন, দক্ষিণ চীন সাগরে বেইজিংয়ের আধিপত্য, নভেল করোনাভাইরাস মহামারী নিয়ে ওয়াশিংটন ও বেইজিংয়ের মধ্যে উত্তেজনা বেড়েছে। কদিন আগে নিরাপত্তা শঙ্কায় চীনের হাজারের বেশি ভিসা বাতিল করে যুক্তরাষ্ট্র। এরপর গত শুক্রবার চীন জানায়, মার্কিন কূটনীতিকদের ওপর তারাও নিষেধাজ্ঞা জারি করতে যাচ্ছে।
কাল থেকে আন্তর্জাতিক ফ্লাইটে বিধিনিষেধ শিথিল করছে সৌদি আরব
১৪সেপ্টেম্বর,সোমবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচলে স্থগিতাদেশ শিথিল করার ঘোষণা দিয়েছে সৌদি আরব। আগামীকাল মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) থেকে বিধিনিষেধ আংশিক তুলে নেয়া হবে বলে জানিয়েছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে আন্তর্জাতিক রুটে টানা ছয় মাস বিধিনিষেধ থাকার পর এমন সিদ্ধান্ত নিল সৌদি আরব। সৌদি সরকারি সংবাদ সংস্থায় প্রকাশিত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, উপসাগরীয় অঞ্চলের নাগরিক ও সৌদি আরবে আবাসনের অনুমতি বা ভিসা আছে এমন নাগরিকেরা কাল (মঙ্গলবার) থেকে সৌদি আরবে ঢুকতে পারবেন। এছাড়া সৌদি সরকারি কর্মী বা সেনাসদস্য, দূতাবাসের কর্মী, শিক্ষার্থী ও চিকিৎসার জন্য আসা মানুষও সৌদিতে ঢুকতে ও বাইরে যেতে পারবেন। স্থানীয় সময় গতকাল রোববার দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আরো জানায়, সৌদি নাগরিকদের জন্য আকাশ, স্থল ও জলপথে ভ্রমণের সব ধরনের বিধিনিষেধ আগামী বছরের ১ জানুয়ারির পর থেকে তুলে নেয়া হবে। আর আগামী ডিসেম্বর মাসে এ ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট তারিখ ঘোষণা করা হবে। এদিকে একই বিবৃতিতে ওমরাহ পালনের জন্য অনুমতির বিষয়ে পরে ঘোষণা দেয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। কভিড-১৯ প্রাদুর্ভাবের কারণে গত মার্চে ওমরাহ স্থগিত করে সৌদি আরব। জুলাই মাসের শেষ দিকে সীমিত আকারে হজ পালন করা হয়। গত মার্চে সৌদি আরব আন্তর্জাতিক সব ফ্লাইট স্থগিত করে। এতে অনেক নাগরিক বিদেশে আটকে পড়েন। সৌদি আরবে এ পর্যন্ত ৩ লাখ ২৫ হাজারের বেশি মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ৪ হাজার ২০০ জনের বেশি।
নিয়ন্ত্রণে আসেনি যুক্তরাষ্ট্রের দাবানল
১৩সেপ্টেম্বর,রবিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য ক্যালিফোর্নিয়ায় গতকাল শনিবারও অগ্নিনির্বাপক দল ১০০ টির মতো দাবাগ্নি আয়ত্বে আনার চেষ্টা চালায়। অগ্নিকাণ্ডের তান্ডব ক্যালিফোর্নিয়া থেকে ওয়াশিংটন রাজ্য পর্যন্ত বিস্তৃত হচ্ছে। এ সব ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা থেকে বাংলাদেশ সময় রোববার সকাল পর্যন্ত ২৪ জনের মৃত্যুর খবর জানানো হয়। খবর ভয়েস অব আমেরিকার। বাতাস কিছুটা শান্ত হওয়ায় কর্তৃপক্ষ বলছে, আগুনের ফুলকি কমতে থাকলে আরও বহু মৃতদেহ উদ্ধারের সম্ভাবনা রয়েছে। ক্যালিফোর্নিয়া রাজ্যের গভর্নর গ্যাভিন নিওসম বলেছেন, এটা সত্যিকার এক আবহাওয়া দুর্যোগ। এই রাজ্যে ৬৮,০০০ জনগণকে অন্যত্র সরে যাওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
বাহরাইনের বিতর্কিত সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাল মিশর-আমিরাত
১২সেপ্টেম্বর,শনিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ইসরায়েলের সঙ্গে স্বাভাবিক কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনে বাহরাইন যে বিতর্কিত সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তাকে স্বাগত জানিয়েছে মিশর ও সংযুক্ত আরব আমিরাত। অবশ্য সংযুক্ত আরব আমিরাত ইসরায়েলের সঙ্গে শান্তিচুক্তি করে আগে থেকেই সে পথে হাঁটছে। মিশরের প্রেসিডেন্ট আব্দেল ফাত্তাহ আস-সিসি শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) রাতে এক টুইটে বাহরাইনকে অভিনন্দন জানিয়ে দাবি করেন, ইসরায়েল-বাহরাইন সমঝোতা মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এদিকে, ইসরায়েল ও বাহরাইন স্বাভাবিক সম্পর্ক স্থাপন করার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তাকে অতি গুরুত্বপূর্ণ বলে অভিহিত করেছেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হেন্দ আল-ওতাইবা। তিনি এক টুইটে দাবি করেন, এই সমঝোতার ফলে মধ্যপ্রাচ্যে উত্তেজনা প্রশমন ও স্বস্তির পরিবেশ ফিরে আসবে। এর আগে শুক্রবার ইসরায়েলের সঙ্গে স্বাভাবিক কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের ঘোষণা দেয় বাহরাইন। এরপর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প শুক্রবার রাতে এক টুইটে বাহরাইন সরকার ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে রাজি হয়েছে বলে জানান। এ ব্যাপারে আমেরিকা, ইসরায়েল ও বাহরাইন একটি যৌথ বিবৃতি প্রকাশ করেছে। এতে বলা হয়েছে, বাহরাইনের রাজতান্ত্রিক সরকার ইসরায়েলের সঙ্গে পূর্ণাঙ্গ কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করতে সম্মত হয়েছে।
অবশেষে আফগান সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বসতে তালেবানের সম্মতি
১১সেপ্টেম্বর,শুক্রবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: আফগানিস্তানের তালেবান শেষ পর্যন্ত সেদেশের যুদ্ধ ও সহিংসতা বন্ধের লক্ষ্যে কাবুল সরকারের সঙ্গে সরাসরি আলোচনায় বসতে নিজের সম্মতির কথা ঘোষণা করেছে। জানা গেছে, কাতারে তালেবানের রাজনৈতিক দফতরের মুখপাত্র মোহাম্মাদ নাঈম ওয়ারদাক তাদের এ প্রস্তুতির কথা ঘোষণা করেছেন। তিনি বলেছেন, কাতারে অর্জিত সমঝোতা অনুযায়ী আফগান-আফগান আলোচনা শুরু করতে তালেবান প্রস্তুত রয়েছে। ওয়ারদাক জানান, আফগানিস্তানের জাতীয় স্বার্থ ও ইসলামি মূল্যবোধ রক্ষা করার লক্ষ্যে তালেবান সারাদেশে শান্তি ও প্রকৃত ইসলামি শাসনব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করতে চায়। আফগানিস্তানের দ্বিতীয় ভাইস প্রেসিডেন্ট সুরুর দানিশ বৃহস্পতিবার এ সম্পর্কে বলেছেন, আফগান-আফগান আলোচনার পথে সকল প্রতিবন্ধকতা দূর করেছে কাবুল সরকার; কাজেই সরকার আশা করছে তালেবান যতশীঘ্র সম্ভব আলোচনার টেবিলে ফিরে আসবে। এদিকে আফগানিস্তানের গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, আফগান সরকারের পক্ষ থেকে তালেবানের সঙ্গে আলোচনা করার জন্য আব্দুল্লাহ আব্দুল্লাহর নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল আজ শুক্রবার কাতার যাবে। তালেবান গত এক বছরেরও বেশি সময় ধরে মার্কিন সরকারের সঙ্গে আলোচনা করলেও কাবুল সরকারর সঙ্গে আলোচনায় বসতে অস্বীকৃতি জানিয়ে আসছিল। আফগান কারাগারে আটক সকল তালেবান বন্দিকে মুক্ত করা ছিল আলোচনায় বসতে তাদের অন্যতম শর্ত। সম্প্রতি হাজার হাজার তালেবান বন্দিকে মুক্তি দিয়ে আফগান সরকার তালেবানের সে শর্ত পূরণ করেছে।- বিডি প্রতিদিন
লেবাননের বৈরুত বন্দরে এবার ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড
১০সেপ্টেম্বর,বৃহস্পতিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: লেবাননের বৈরুত বন্দরে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুন লাগার কারণ জানা যায়নি। এক মাস আগে বন্দরের গুদামে ভয়াবহ বিস্ফোরণে লণ্ডভণ্ড হয়ে যায় পুরো বৈরুত। এরমধ্যেই বৃহস্পতিবার (১০ সেপ্টেম্বর) আগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটলো। আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, বন্দরে দাউ দাউ করে আগুন জ্বলছে। আশপাশ কালো ধোঁয়ায় ছেয়ে গেছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস। তাৎক্ষণিকভাবে আগুনের সূত্রপাত কীভাবে তা জানা যায়নি। ৪ আগস্ট বৈরুতের রাসায়নিক গুদামে অগ্নিকাণ্ডে ১৯১ জন মারা যায়। আহত হয় ৬ হাজার জন। বাস্তুচ্যুত হয় ৩ লাখ মানুষ। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ১ হাজার ৫০০ কোটি মার্কিন ডলার। গুদামে রাখা ২ হাজার ৭৫০ টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট বিস্ফোরণে ক্ষয়ক্ষতির এ ঘটনা ঘটে।

আন্তর্জাতিক পাতার আরো খবর