বৃহস্পতিবার, মে ২৩, ২০১৯
দিল্লির মসনদে ফের মোদি
২৩মে,বৃহস্পতিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ভারতের ১৭ তম লোকসভা নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট। আর এর মধ্য দিয়ে আগামী পাঁচ বছরের জন্য আবারও দিল্লির মসনদে বসবেন নরেন্দ্র মোদি। ফল গণনার দুই ঘণ্টা না হতেই মোদির দল ক্ষমতায় থাকছে বলে খবর প্রকাশিত হয়েছে। ভারতে কেন্দ্রীয় সরকার গঠন করতে হলে ৫৪৩টি আসনের মধ্যে কমপক্ষে ২৭২টি আসন পেতে হবে কোন রাজনৈতিক দল কিংবা জোটকে। সেই ম্যাজিক নাম্বার বিজেপি খুব দ্রুতই অতিক্রম করে গেল। এনডিটিভির সরাসরি প্রচারিত তথ্যানুযায়ী, ৫৪৩ আসনের মধ্যে ৫১০টির ভোট গণনা সম্পন্ন হয়েছে। এরমধ্যে বিজেপি ৩১০ আসন পেয়েছে বিজেপি। বিপরীতে ১০৯ আসন পেয়েছে কংগ্রেস। স্বাধীন প্রার্থী কিংবা জোট পেয়েছে ৯২ টি আসন। ফল ঘোষণা বাকী ৪২টি আসনে। এর আগে বৃহস্পতিবার (২৩ মে) সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়েছে ভোট গণনা। বিকেলের দিকে সম্পূর্ণ ফলাফল জানা যাবে বলে দেশটির সংবাদমাধ্যমগুলো নিশ্চিত করেছে।
ভারতের লোকসভা ভোটের ফল আগামীকাল
২২মে,বুধবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ভারতে লোকসভা ভোটের ফল জানা যাবে আগামীকাল বৃহস্পতিবার। তার আগে বুথফেরত জরিপ যে আভাস দিয়েছে, তাতে বিজেপি নেতৃত্বাধীন জোট এনডিএ একটু স্বস্তি পেতেই পারে। জোটের নেতারা যে সেই জরিপের পূর্বাভাস ধরে আগামী দিনের কর্মপরিকল্পনা শুরু করে দিয়েছেন, তা-ও আভাস মিলছে। বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহর আমন্ত্রণে গতকাল রাতে দিল্লির একটি পাঁচতারা হোটেলে বিশেষ ডিনারে হাজির হয়েছিলেন বিজেপি নেতৃত্বাধীন জোটের নেতারা। ডিনারের আগে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ দিল্লিতে বিজেপির সদর দপ্তরে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের সঙ্গে একান্ত কথা বলেন। গত পাঁচ বছরে কাজের জন্য সব মন্ত্রীকে ধন্যবাদ দেওয়া হয়। এদিন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের টিম মোদি সরকার বলে ধন্যবাদ দিয়েছেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। তিনি নিজের টুইটারে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে নতুন ভারত ফের গঠন হবে বলেও জানান। গত রোববার শেষ পর্বের ভোটের দিন সন্ধ্যায় ভারতের বিভিন্ন সংস্থা তাদের বুথফেরত সমীক্ষায় বিজেপি তথা এনডিএকে এগিয়ে রাখলেও এদিনের ডিনার ছিল মূলত এনডিএর পরবর্তী স্ট্র্যাটেজি ঠিক করার জন্য। এদিন এনডিএ নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পাঞ্জাবে বিজেপির সহযোগী অকালি নেতা প্রকাশ সিং বাদল, তাঁর ছেলে সুখবীর বাদল, শিবসেনা নেতা উদ্ধব ঠাকরে, বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার, রামবিলাস পাসোয়ান, তাঁর ছেলে চিরাগ পাসোয়ান, এআইএডিএমকের ই পালানিস্বামী ও পনিরসিলভম, আপনা দলের নেতা অনুপ্রিয়া প্যাটেল, রামদাস আটওয়ালে প্রমুখ। নির্বাচনী ফল প্রকাশের আগে এই নৈশভোজ ও বৈঠকে গত এনডিএ সরকারের বিভিন্ন কাজ এবং আগামী দিনের বিভিন্ন পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা হয় বলে জানা গেছে। আলোচনায় উঠে আসে তৃণমূল কংগ্রেসশাসিত পশ্চিমবঙ্গ এবং বামশাসিত কেরালা রাজ্যের কথাও। বিশেষ করে পশ্চিমবঙ্গে রাজনৈতিক হিংসার কড়া নিন্দা করা হয় বলে জানা গেছে। নৈশভোজে এনডিএর অটুট শক্তির কথা তুলে ধরে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেন, এনডিএ ভারতের স্তম্ভ। তিনি বলেন, এনডিএ ভারতকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। ভারতের নিরাপত্তায় বদ্ধপরিকর এনডিএ। শাসক জোট প্রতিশ্রুতি রাখতে পেরেছে বলেই মানুষ এই জোটের প্রতি ভরসা রেখেছেন। এনডিএ জোট আবার ক্ষমতায় আসছে ধরে নিয়েই রাজনাথ সিং আরো বলেন, আগামী বছরগুলোতে আমাদের আরো দ্রুততার সঙ্গে কাজ করতে হবে। এদিন সন্ত্রাস দমনে এই সরকারের সফলতার কথাও আলোচনা হয় বলে সূত্রের খবর। সে ক্ষেত্রে আগামী দিনে আরো কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন রাজনাথ সিং। গত রোববার ভারতের লোকসভা নির্বাচনের শেষ পর্ব সমাপ্ত হওয়ার পর যে বিভিন্ন বুথফেরত সমীক্ষা আসতে থাকে, তাতে গড় ফল এনডিএ পেতে পারে ৩০২টির মতো আসন। ইউপিএ পেতে পারে ১২২টির মতো আসন। ভারতের ৫৪৩টি লোকসভা আসনের মধ্যে এবার নির্বাচন হয়েছে ৫৪২টি আসনে। কেন্দ্রে ক্ষমতায় আসতে গেলে দরকার ২৭১টি আসন।
১৬ সেকেন্ডে গায়েব ১৬ হাজার টন ইস্পাত
২১মে,মঙ্গলবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ওয়াসার পানির লাইন সংস্কার কিংবা রাস্তা সংস্কারের জন্য খোঁড়াখুঁড়ি ঢাকাবাসীর জন্য নতুন কিছু নয়। তবুও ঢাকার রাস্তায় প্রায়ই দেখা যায়, উৎসুক জনতা ভিড় জমিয়েছেন এসব খোঁড়াখুঁড়ি দেখতে। যদি ঢাকাবাসী কখনো দেখতেন কয়েক সেকেন্ডের ব্যবধানে ভেঙে পড়ছে ২১তলা কোনো ভবন, তাও আবার হাজার হাজার টন ইস্পাতের তৈরি, তাহলে কেমন হতো ব্যাপারটি। এমন ঘটনা ঘটেছে, তবে ঢাকায় নয়, হাজার মাইল দূরে যুক্তরাষ্ট্রে। গত রোববার স্থানীয় সময় সকালে পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী ভাঙা হয় ভবনটি। বার্তা সংস্থা বিবিসি জানায়, মাত্র ১৬ সেকেন্ডে বালুর মতো গুঁড়ো গুঁড়ো হয়ে যায় ১৬ হাজার টন ইস্পাত দিয়ে নির্মিত ভবনটি। এ সময় হাজারো মানুষের ভিড় জমেছিল ৪৭ বছরের পুরোনো ভবনটির ভাঙন দেখতে। মোবাইল ফোনে ঘটনাটির ছবি তোলেন এবং ভিডিও করেন অনেকে। ১৯৭২ সাল থেকে পেনসিলভানিয়ার বেথেলহেমে মার্টিনে টাওয়ারে ছিল বেথেলহেম স্টিল কোম্পানির সদর দপ্তর। ভবনটি ছিল ওই এলাকার সে সময়কার সবচেয়ে উঁচু ভবন। ২০০৩ সালে কোম্পানিটি বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর ২০০৭ সাল থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে ছিল ভবনটি।
যুদ্ধে জড়ালে ইরানের ইতি ঘটবে: ট্রাম্প
২০মে,সোমবার,,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, যদি যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের মধ্যে যুদ্ধ বাঁধে তাহলে ইরানের সমাপ্তি ঘটবে। রোববার এক টুইট বার্তায় ট্রাম্প বলেন, যদি ইরান যুদ্ধে জড়াতে চায়; তাহলে তা হবে ইরানের আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি। আর কখনও যুক্তরাষ্ট্রকে হুমকি দেবেন না বলে ইরানি নেতাদের সতর্ক করে দিয়েছেন ট্রাম্প। খবর বিবিসির। সাম্প্রতিক দিনগুলোতে উভয় দেশের মধ্যে উত্তেজনা বৃদ্ধির পরিপ্রেক্ষিতে পারস্য উপসাগরে যুদ্ধজাহাজ ও বিমানবাহী রণতরী মোতায়েন করেছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে গত কয়েকদিন ধরে যুক্তরাষ্ট্র বলছিল, তারা যুদ্ধে জড়াতে চায় না। যদিও ট্রাম্প তার টুইটে যেভাবে স্বর উঁচিয়ে কথা বলেছেন, তাতে মনে হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র তাদের অবস্থান পরিবর্তন করেছে। এর আগে বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ইরানের সঙ্গে যুদ্ধের সম্ভাবনাকে নাকচ করে দিয়েছিলেন ট্রাম্প। উত্তেজনা বৃদ্ধির পরিপ্রেক্ষিতে ইরানও যুদ্ধের সম্ভাবনা নাকচ করে দিয়েছিল। শনিবার ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ জোর দিয়েই বলেন, যুদ্ধের ব্যাপারে আমাদের কোনো আগ্রহ নেই। রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা ইরনাকে ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কোনো যুদ্ধের সম্ভাবনা নেই। কেননা আমরা যুদ্ধ চাই না। আর এই অঞ্চলে ইরানের সঙ্গে লড়াই করতে পারবে এমন ভ্রান্তধারণাও কারও নেই। এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ইরানের যুদ্ধ বেঁধে যাওয়ার সম্ভাবনায় পুরো মধ্যপ্রাচ্য জুড়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। এমন পরিস্থিতিতে ৩০ মে মক্কায় এক জরুরি বৈঠকে বসতে আরব লীগ এবং উপসাগরীয় দেশগুলোর জোট জিসিসি সদস্যদের আমন্ত্রণ পাঠিয়েছেন সৌদি বাদশাহ সালমান। সৌদির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তাকে উদ্ধৃত করে সৌদি বার্তা সংস্থা (এসপিএ) জানিয়েছে, সংযুক্ত আরব আমিরাতে সমুদ্রসীমায় (সৌদি) বাণিজ্যিক জাহাজে হামলা এবং সৌদি আরবের ভেতর দুটি তেলক্ষেত্রে হুথি বিদ্রোহীদের হামলার পরিপ্রেক্ষিতে এই জরুরি বৈঠক ডাকা হয়েছে।
শেষ দফায় ৯১৮ প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ আজ
১৯মে,রবিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ভারতের লোকসভা নির্বাচনের শেষ দফার ভোটগ্রহণ চলছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিসহ মোট ৯১৮ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ হবে রোববারের সপ্তম ও শেষ দফার ভোটে। ১১ এপ্রিল শুরু হয়েছে ১৭তম লোকসভা নির্বাচনের ভোট। এবারের লোকসভা নির্বাচনে সাত দফায় ভোট গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয় ভারতের নির্বাচন কমিশন। দিল্লির মসনদে কে বসবে তা নির্ধারণের শেষ দিন আজ। শেষ দিনে উত্তরপ্রদেশের বারণসী কেন্দ্রে ভোট দেবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। নির্বাচনের শেষ সময়ে কেদারনাথে বিশেষ ধ্যানে বসেন তিনি। বারাণসী আসনে নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন কংগ্রেস প্রার্থী অজয় রায়, সমাজবাদী পার্টি প্রার্থী শালিনী যাদব। শেষ দফায় ভোট হবে উত্তরপ্রদেশের ১৩টি, পশ্চিমবঙ্গের ৯টি, পাঞ্জাবের ১৩টি, বিহারের ৮টি ও মধ্যপ্রদেশের ৮টি আসনে। এছাড়াও হিমাচল প্রদেশের ৪, ঝাড়খন্ডের ৩ এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল চণ্ডিগড়ের একটি লোকসভা আসনে ভোট হবে। পশ্চিমবঙ্গের ৯ আসনে লোকসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ হবে। তার মধ্যে রয়েছে, কলকাতা উত্তর ও দক্ষিণ, যাদবপুর, ডায়মন্ডহারবার, মথুরাপুর, জয়নগর দমদম, বারাসাত, বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্রে। ভোটগ্রহণ অবাধ ও শান্তিপূর্ণ করতে নিরাপত্তা জোরদার করেছে নির্বাচন কমিশন। নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, আজ ৯১৮ জন প্রার্থীর ভাগ্য ইভিএম ভোটে নির্ধারণ করবেন ৭ রাজ্য ও এক ইউনিয়ন অঞ্চলের প্রায় ১০.১৭ কোটি ভোটার। লোকসভা নির্বাচনের চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করা হবে ২৩ মে।
ভারতের উত্তর প্রদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৫
১৮মে,শনিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ভারতের উত্তর প্রদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় ৫ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া আরও অন্তত ৩০ জন আহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেছে কর্তৃপক্ষ। আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। এদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, শনিবার ভোরে লক্ষ্ণৌ -আগ্রা হাইওয়েতে এই দুর্ঘটনা ঘটে। এসময় যাত্রীবাহী একটি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ট্র্যাক্টরকে ধাক্কা দেয় এবং পরে বাসটি উল্টে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই ৫ জন নিহত হন। আহত হন আরও ৩০ জন। এর আগে গত ২১ এপ্রিল উত্তর প্রদেশের মইনপুরীতে বাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ হারান ৭ জন, গুরুতর আহত হন ৩৪ জন। এছাড়া ৪ এপ্রিল আগ্রা-লক্ষ্ণৌ হাইওয়েতে আরও একটি সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়েছিলেন ২০ জন। তখন একটি ট্যুরিস্ট বাসের সঙ্গে ধাক্কা লেগেছিল ট্রাকের। গত দুমাসে উত্তর প্রদেশের সড়ক দুর্ঘটনায় সব মিলিয়ে ১২ জন নিহত হয়েছেন।
সৌদিতে স্পন্সর ছাড়াই মিলবে রেসিডেন্সি গ্রিন কার্ড
১৭মে,শুক্রবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সৌদি আরবে কোনো স্পন্সর ছাড়াই মিলবে রেসিডেন্সি গ্রিন কার্ড। গত বুধবার সৌদি আরবের শুরা কাউন্সিল এ পরিকল্পনায় অনুমোদন দেয়। এর উদ্দেশ্য বিদেশি উদ্যোক্তা ও বিনিযোগকারীদের আকৃষ্ট করা। বিভিন্ন দেশের নাগরিকদের পাশাপাশি বাংলাদেশিরাও এর সুবিধা পাবেন। বিদেশি উদ্যোক্তা ও বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্ট করতে বুধবার সৌদি আরবের শুরা কাউন্সিলে প্রিভিলেজড আকামা সিস্টেম নামে একটি পরিকল্পনার অনুমোদন দেয়া হয়। এর ফলে কোনো স্পন্সর ছাড়াই সৌদি আরবে চালু হচ্ছে রেসিডেন্সি গ্রিন কার্ড। নতুন পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হলে বিদেশি দক্ষ শ্রমিক এবং ব্যবসায়ীরা এর সুবিধা ভোগ করতে পারবে। এমন খবরে উচ্ছ্বসিত প্রবাসী বাংলাদেশিরাও। বাংলাদেশি প্রবাসী ব্যবসায়ীরা জানান, সৌদি সরকার তাদের উন্নয়ে কাজটি করতে যাচ্ছে। এটি হলে তাদের জন্য ভাল হবে আমাদের জন্য ভাল হবে। বিদ্যমান আকামা ব্যবস্থায় রেসিডেন্সিয়াল পারমিটের জন্য একজন স্পন্সর বা নিয়োগকর্তার অনুমতি জরুরি। তবে, নতুন ব্যবস্থায় এ সবের দরকার হবে না। কিন্তু এ সুবিধার জন্য নির্দিষ্ট ফি দিতে হবে। দুই ক্যাটাগরিতে রেসিডেন্সি গ্রিন কার্ড দেয়া হবে। একটি স্থায়ী এবং অন্যটি অস্থায়ী। এর জন্য বৈধ অভিবাসীর, ক্রেডিট কার্ড, হেলথ কার্ড এবং পাসপোর্ট থাকতে হবে। সৌদি যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমানের ভিশন ২০৩০ বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে সৌদি আরবে এ সুবিধা দেয়া হচ্ছে।
অভিযানের সময় জম্মু কাশ্মিরে সেনাসহ চারজন নিহত
১৬মে,বৃহস্পতিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু কাশ্মিরের পুলাওয়ামায় অভিযানের সময় একজন সেনা সদস্যসহ তিন সন্ত্রাসী গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়েছেন। পুলিশের বরাত দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার সকালে ভারতের সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্স, রাষ্ট্রীয় রাইফেলস এবং স্পেশাল অপারেশন্স গ্রুপ মিলে তল্লাশি চালাচ্ছিল। এসময় সন্ত্রাসীরা তাদের উদ্দেশে গুলি ছুড়ে। পরে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরাও সন্ত্রাসীদের ওপর পাল্টা গুলি চালান। এতে চারজন নিহত হওয়ার পাশাপাশি আরও দুই সেনা এবং এক বেসামরিক ব্যক্তি আহত হন। ধারণা করা হচ্ছে সন্ত্রাসীরা জইশ-ই-মোহাম্মদের কর্মী। তারা সবাই একটি বাড়িতে লুকিয়ে ছিলেন। তল্লাশি চালানোর সময় হঠাৎ করে তারা নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর হামলা চালায়। পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনাস্থল থেকে অনেক অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। বর্তমানে ওই পুরো এলাকার ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ আছে।
বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙেছে,আমরা এটা ছেড়ে দেব না
১৫মে,বুধবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: কলকাতার বিদ্যাসাগর কলেজে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার পর বিজেপিকে চরম হুঁশিয়ারি দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গতকাল মঙ্গলবার কলকাতাসংলগ্ন বেহালার এক জনসভায় দাঁড়িয়ে মমতা হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙে দিয়েছে। আমরা এটা ছেড়ে দেব না। ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে জবাব নেব, শুনে রাখো বিজেপি। বিদ্যাসাগর কলেজে ভাঙচুরের ঘটনায় ক্ষুব্ধ মমতা বলেন, অমিত শাহ বাবু নাকি বিরাট নেতা। তাঁর মুখ দেখলেই মানুষ ভয় পায়। উত্তর কলকাতায় মিছিল করতে উত্তরপ্রদেশ, বিহার, ঝাড়খন্ড থেকে লোক এনেছেন। অমিত শাহর মিছিল যেই শেষ হয়েছে, বিজেপির কিছু গুণ্ডা হাতে ডাণ্ডা নিয়ে বিদ্যাসাগর কলেজে আগুন লাগিয়েছে, ঈশ্বরচন্দ্রের মূর্তি ভেঙে দিয়েছে। এটা নকশাল আমলেও ঘটেনি। এটা আমাদের লজ্জা। আমরা এটা ছেড়ে দেব না। ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে জবাব নেব। মমতা বিজেপিকে কটাক্ষ করে বলেন, তোমরা জানো ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর কে? যিনি নারী শিক্ষার প্রচলন করেছিলেন। যিনি মানুষকে শিক্ষিত করেছিলেন। বিজেপি মিছিল করার নামে বাইরের গুণ্ডা এনে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙেছে, আগুন লাগিয়েছে, দাঙ্গা বাধিয়েছে। তাদের কোনো ক্ষমা নেই। মমতা বলেন, এটা বিদ্যাসাগরের দ্বিশত বর্ষ। বাংলার হেরিটেজের গায়ে হাত দিলে আমার থেকে ভয়ংকর কেউ নেই। বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহর রোড শো ঘিরে কলকাতার বিদ্যাসাগর কলেজে মঙ্গলবার বিকালে যে তাণ্ডব চলে এবং বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার যে ঘটনা ঘটে, তার জেরে দুটি এফআইআর দায়ের হয়েছে। কলকাতার জোড়াসাঁকো থানায় বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা। অন্যদিকে, কলকাতার আর্মহার্স্ট স্ট্রিট থানায় মঙ্গলবার মধ্যরাতে অভিযোগ দায়ের করেন বিদ্যাসাগর কলেজের শিক্ষার্থীরা। দুটি অভিযোগের ক্ষেত্রেই অভিযোগের তীর বিজেপির দিকে। বিজেপির লোকজন কলেজ চত্বরে ঢুকে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে বলেও অভিযোগ। শুধু তাই নয়, অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, কলেজে ঢুকে পড়ুয়াদের মারধর এবং শ্লীলতাহানি করা হয়। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে একাধিক ধারায় মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় যারা যুক্ত, তাদের কঠোর শাস্তির দাবি তুলেছেন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরাও। আজ সকাল থেকে ওই ঘটনার প্রতিবাদে সত্যাগ্রহ আন্দোলনে বসার হুমকি দিয়েছেন ছাত্রছাত্রীরা। এদিকে, বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার প্রতিবাদে মধ্যরাত থেকেই পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীসহ রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রসের প্রায় সব নেতা-নেত্রীই সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেদের প্রোফাইলে বিদ্যাসাগরের ছবি লাগিয়েছেন। অমিত শাহর রোড শো ঘিরে কলকাতার বিদ্যাসাগর কলেজে তাণ্ডবের ঘটনায় সরব হয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার অর্থাৎ আজ রাজ্যজুড়ে প্রতিবাদ মিছিলের ডাক দিয়েছেন তিনি। মঙ্গলবার রাতেই পশ্চিম মেদিনীপুরের ডেবরা এবং চন্দ্রকোনা টাউনে প্রতিবাদ জানায় তৃনমূল ছাত্র পরিষদ। ডেবরায় ৬ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে নরেন্দ্র মোদি ও অমিত শাহর কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়। বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার প্রতিবাদে সোচ্চার হয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন মহল। আজ বুধবার সকাল থেকেই কলকাতা শহরে একাধিক মিছিল বের করেছে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠন। এদিন কলকাতার কলেজ স্কয়ার থেকে হেদুয়ায় বিদ্যাসাগর মূর্তির পাদদেশ পর্যন্ত প্রতিবাদ মিছিলের ডাক দিয়েছে বামফ্রন্ট।