শনিবার, ডিসেম্বর ১৪, ২০১৯
নুসরাত হত্যায় জড়িত ১৬ জনকে শনাক্ত করেছে ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)
২৮এপ্রিল,রবিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: ফেনীর সোনাগাজীতে মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত হত্যার সাথে জড়িত ১৬ জনকে সুনির্দিষ্টভাবে শনাক্ত করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। রোববার পিবিআই প্রধান ডিআইজি বনজ কুমার মজুমদার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা জানান। একইসঙ্গে তিনি জানান মে মাসেই চার্জশিট দেওয়া হবে। তিনি বলেন, ঘটনার পরিকল্পনা, হত্যা মিশন বাস্তবায়ন, খুনের মিশনে অর্থ ব্যয়সহ নানাভাবে এখন পর্যন্ত ১৬ জনের সংশ্নিষ্টতা পাওয়া গেছে। শিগগিরই দেশব্যাপী চাঞ্চল্য তৈরি করে মে মাসে এ মামলার চার্জশিট দাখিল করা হবে। নুসরাত হত্যার ঘটনায় এই মামলায় আটজনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা আরও চার-পাঁচজনকে আসামি করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত এ ঘটনায় অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলাসহ ১৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে এজাহারভুক্ত সাতজন আসামি রয়েছেন। প্রসঙ্গত, গত ২৭ মার্চ সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ-দৌলার বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগে মামলা করেন ওই ছাত্রীর মা। মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, ২৭ মার্চ সকাল ১০টার দিকে অধ্যক্ষ তার অফিসের পিয়ন নূরুল আমিনের মাধ্যমে ছাত্রীকে ডেকে নেন। পরীক্ষার আধাঘণ্টা আগে প্রশ্নপত্র দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ওই ছাত্রীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেন অধ্যক্ষ। পরে পরিবারের দায়ের করা মামলায় গ্রেফতার হন অধ্যক্ষ। গত ৬ এপ্রিল সকালে আলিম পরীক্ষা দিতে সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসায় যান নুসরাত জাহান রাফি। সেখানে মাদ্রাসার এক ছাত্রী তাকে জানান, তার বান্ধবী নিশাতকে ছাদের ওপর কে বা কারা মারধর করেছে। এ কথা শুনে রাফি ওই ভবনের চারতলায় ছুটে যান। সেখানে মুখোশ পরা চার-পাঁচজন ছাত্রী তাকে অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ-দৌলার বিরুদ্ধে মামলা ও অভিযোগ তুলে নিতে চাপ দেয়। তিনি অস্বীকৃতি জানালে তারা গায়ে আগুন দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে আগুনে ঝলসে যাওয়া নুসরাতকে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে এবং পরে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গত বুধবার রাত সাড়ে ৯টায় না ফেরার দেশে চলে যান ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি। চিকিৎসকদের প্রাণপণ চেষ্টার পরও তাকে বাঁচানো যায়নি। টানা ১০৮ ঘণ্টা মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে অবশেষে হার মানেন এ ছাত্রী। পরদিন বৃহস্পতিবার স্থানীয় ছাবের সরকারি পাইলট উচ্চবিদ্যালয় মাঠে জানাজা শেষে সন্ধ্যায় পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয় নুসরাতের মরদেহ।
হাঁটাচলা করছেন ওবায়দুল কাদের (ভিডিও)
২৮এপ্রিল,রবিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এখন প্রায় সুস্থ। রবিবার (২৮ এপ্রিল) সকালে তাকে মর্নিং ওয়াক (হাঁটাহাঁটি) করতে দেখা গেছে। মন্ত্রণালয়ের সেতু বিভাগের তথ্য কর্মকর্তা শেখ ওয়ালিদ ফয়েজ তার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে এমন একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন। সেই ভিডিওতে দেখা যায়, ওবায়দুল কাদের সুস্থ ও স্বাভাবিকভাবে হাঁটাচলা করছেন। উল্লেখ্য, গত ৩ মার্চ হঠাৎ অসুস্থ হলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) ওবায়দুল কাদের ভর্তি হন। পরে তার হার্টে তিনটি ব্লক ধরা পড়ে। এরপরে উন্নত চিকিৎসার জন্য গত ৪ মার্চ তাকে ঢাকা থেকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে সিঙ্গাপুরে নেওয়া হয়। এক মাস চিকিৎসা শেষে গত ৫ এপ্রিল সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতাল থেকে তাকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়।-আলোকিত বাংলাদেশ
নিম্নচাপ রূপ নিচ্ছে ঘূর্ণিঝড়ে
২৭এপ্রিল,শনিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: ভারত মহাসাগর ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থানরত গভীর নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিয়েছে। আবহাওয়াবিদদের দেওয়া নাম অনুযায়ী এই ঝড়ের নাম ‘ফনি’। ঝড়টির বর্তমান গতিবেগ ঘণ্টায় ৬২ কিলোমিটার। আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, ঝড়টি এখন ভারতের অন্ধ্র ও তামিলনাড়ু উপকূলের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। এদিকে, বাংলাদেশ উপকূল থেকে এখনও অনেক দূরে অবস্থান করায় চার সমুদ্র বন্দরে দুই নম্বর সতর্ক সংকেত জারি করেছে আবহাওয়া অফিস। আবহাওয়াবিদ আবুল কালাম মল্লিক বলেন, নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিয়েছে। এবারের ঝড়টির নাম ‘ফনি’। তবে বাংলাদেশের উপকূল থেকে এখনও অনেক দূরে রয়েছে। এটি এখন ভারতের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। তবে শেষ পর্যন্ত কোনদিকে যাবে তা এখনই নিশ্চিত করে বলা সম্ভব নয়। আবহাওয়া অধিদফতর এক সতর্কবার্তায় জানায়, ভারত মহাসাগর ও দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থানরত নিম্নচাপটি ঘনীভূত হয়ে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে। এটি আরও ঘনীভূত অবস্থায় উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে ভারতের অন্ধ্র-তামিলনাড়ু উপকূলের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। ঝড়টি বিকেলের দিকে চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ৯৩৫ কিলোমিটার দক্ষিণে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ৮৫৫ কিলোমিটার দক্ষিণে, মংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ৯২৫ কিলোমিটার দক্ষিণে এবং পায়রা সমুদ্র বন্দর থেকে ১ হাজার ৮৮০ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থান করছিল। ঘূর্ণিঝড়ের কেন্দ্রের ৫৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৬২ কিলোমিটার- যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৮৮ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঝড়ের কেন্দ্রের কাছে সাগর খুবই উত্তাল রয়েছে। এ কারণে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরগুলোকে ২ নম্বর দূরবর্তী সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। এদিকে এক সতর্কবার্তায় বলা হয়, ঝড়ের প্রভাবে রাজশাহী, রংপুর, দিনাজপুর, পাবনা, বেড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর, যশোর, কুষ্টিয়া, এবং সিলেট অঞ্চলগুলোর ওপর দিয়ে পশ্চিম বা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, ঝড়ের প্রভাবে ঢাকা, মাদারীপুর, রাঙ্গামাটি, নোয়াখালী, ফেনী, রাজশাহী, যশোর, বাগেরহাট ও পটুয়াখালী অঞ্চলসহ সিলেট বিভাগের ওপর দিয়ে যে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছিল তা কমে যেতে পারে। আজ দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল যশোরে ৩৭ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এছাড়া ঢাকায় ৩৬ দশমিক ২, ময়মনসিংহে ৩৪ দশমিক ৮, চট্টগ্রামে ৩৪ দশমিক ২, সিলেট ৩৬ দশমিক ১, রাজশাহীতে ৩৬ দশমিক ২, রংপুরে ৩২ দশমিক ১, খুলনায় ৩৬ এবং বরিশালে ৩৫ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা ছিল।
বাংলাদেশ এক দিন বিশ্বকাপ জয় করবে: প্রধানমন্ত্রী
২৭এপ্রিল,শনিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, খেলাধূলায় হারজিত থাকবেই। এতে মন খারাপ করার কিছু নেই। আজ হারলে কাল জিতব- এই কথা মনে রাখতে হবে। জাতির পিতা নিজেকে সেভাবেই গড়ে তুলেছিলেন, সবক্ষেত্রেই হার না মানা একটি মনোভাব ছিল তার। যে কারণে মহান মুক্তিযুদ্ধে আমরা বিজয় অর্জন করেছিলাম। শনিবার বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ ২০১৯-এর পুরস্কার বিতরণী ও সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। এসময় সরকার প্রধান দেশের ক্রীড়াঙ্গনের প্রতিটি ক্ষেত্রে উৎকর্ষতা অর্জনে কাজ করে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন এবং প্রত্যাশা করেন এক দিন বাংলাদেশ বিশ্বকাপ জিতবে। টুর্নামেন্টে সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত খেলোয়াড়, শিক্ষক, সংগঠক, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিসহ আয়োজক সংস্থা সবাইকে অভিনন্দন জানাই। এছাড়া ক্রীড়াঙ্গনের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট প্রত্যন্ত অঞ্চলের সবার প্রতি রইলো আন্তরিক শুভেচ্ছা। সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ২০০৮ সালে নির্বাচিত হওয়ার পর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ আর্থসামাজিক উন্নয়ন ও দারিদ্র দূর করার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। পাশাপাশি ক্রীড়াক্ষেত্রে আমাদের ছেলেমেয়েরা যেন আরো বেশি দক্ষতা অর্জন করতে পারে সেই পদক্ষেপ নিয়েছি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে প্রতিযোগিতা শুরু করেছি। বঙ্গমাতা প্রাথমিক গোল্ডকাপ টুর্নামেন্ট আয়োজন করেছি। ছেলেদের বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ক্রীড়া প্রতিযোগিতার আয়োজনও হয়েছে। গত ১০ বছরে এখান থেকে দক্ষ ফুটবলার গড়ে উঠেছে। অন্য ক্ষেত্রগুলোতেও আমরা প্রতিযোগিতার ব্যবস্থা নিয়েছি। তারই অংশ হিসেবে বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপ প্রতিযোগিতা আয়োজন। শেখ হাসিনা বলেন, খেলাধুলার সঙ্গে আমাদের পারিবারিক সম্পর্ক। দাদা ফুটবল খেলতেন। বাবাও ফুটবল খেলতেন। শেখ কামাল ও শেখ জামালের স্ত্রী দুজনেই স্পোর্টসের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ছিল। খেলাধুলার উন্নয়নে প্রত্যেকটা পদক্ষেপ শেখ কামাল নিয়েছিল। ফাইনাল খেলার নির্ধারিত সময়ে ১-১ গোলে ড্র হওয়ায় টাইব্রেকারে ৪-৩ গোলে জেতে গণবিশ্ববিদ্যালয়।
এখন সময় অনলাইন সংবাদপত্রের: প্রধানমন্ত্রী
২৭এপ্রিল,শনিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: গণমাধ্যমের ক্ষেত্রে অনলাইন সংবাদমাধ্যমের সম্ভাবনার বিষয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, এখন চাহিদা হলো অনলাইন সংবাদপত্রের। ব্রুনাই সফর নিয়ে শুক্রবার বিকেলে গণভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী একথা বলেন। গণমাধ্যমের বিশেষ করে কাগুজে পত্রিকার খারাপ সময় নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এখন যুগের চাহিদা বা প্রযুক্তির চাহিদা হলো অনলাইন সংবাদপত্রের। বিশ্বের অনেক দেশে বড় বড় পত্রিকা বন্ধ হয়ে গেছে। সেগুলো এখন কেবল অনলাইনে আছে। কাগুজে পত্রিকা বের করে না। গণমাধ্যমের খারাপ সময় যাচ্ছে এমন বক্তব্যের সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করে শেখ হাসিনা বলেন, অনেকেই তো এখনো টেলিভিশনের জন্য আবেদন করছেন। আমি বলেছি দিয়ে দাও। এতে চাকরির বাজার বড় হবে। সাংবাদিকদের বেতন কাঠামো তথা ওয়েজবোর্ড বাস্তবায়ন নিয়ে তিনি বলেন, আমরা ওয়েজবোর্ড করে দিয়েছি। এখন মালিকপক্ষ সেটা কতটা বাস্তবায়ন করবে সেটা তাদের বিষয়।
প্রেসক্রিপশন ছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক বিক্রি বন্ধের নির্দেশ
২৫এপ্রিল,বৃহস্পতিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: প্রেসক্রিপশন ছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক বিক্রি বন্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। জনস্বার্থে দায়ের করা এক রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এ আদেশ দেন। এর আগে বুধবার (২৪ এপ্রিল) রিট আবেদনটি দায়ের করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোখলেছুর রহমান। রিটে ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি), দেশের সব জেলা প্রশাসক এবং ইউএনওকে রেসপনডেন্ট করা হয়। ব্যারিস্টার সুমন ওইদিন বলেন, রোগের চাহিদা ছাড়াও ফার্মেসিগুলোতে রোগীকে অ্যান্টিবায়োটিক দেয়া হয়। অতিরিক্ত অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহারের একপর্যায়ে এসব রোগীর শরীরে আর অ্যান্টিবায়োটিক কাজ করে না। সম্প্রতি অতিরিক্ত অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহারের কারণে ৪০০ মানুষ মারা গেছে। জাতীয় একটি দৈনিকে এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এই কারণে রিটটি করা হয়। তিনি বলেন, প্রেসক্রিপশন ছাড়া ফার্মেসিতে অ্যান্টিবায়োটিক বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা আছে। কিন্তু অনেকেই অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ সেবন করেন ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়াই। তিনি আরও বলেন, ২০১৬ সালে প্রকাশিত আরেক প্রতিবেদনে বলা হয়, সুপারবাগ দিন দিন এতটাই ভয়াবহ হয়ে উঠছে যে ২০৫০ সালের মধ্যে প্রতিবছর ১ কোটি মানুষের মৃত্যুর কারণ হতে পারে এটি। আজ আদালতের আদেশের পর সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন গণমাধ্যমকে জানান, আদালত রিট পিটিশনের শুনানি শেষে একটি রুল ইস্যু করেছেন। রুলে সারাদেশে প্রেসক্রিপশন ছাড়া অ্যান্টিবায়েটিক বিক্রি কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়েছেন। একইসাথে এ আদেশ পাওয়ার দুই দিনের মধ্যে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডিজি প্রতি জেলার সিভিল সার্জন ও ডিসিদের এসব আদেশ পাঠাবেন। এবং এ নির্দেশনা থাকবে আদেশ গ্রহণ করার সাথে এসব বিক্রি বন্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।
জুমার খুতবায় জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে প্রচারের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর
২৫এপ্রিল,বৃহস্পতিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: জঙ্গিদের বিরুদ্ধে মসজিদের ইমামদের ভূমিকা রাখার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন বলেন, জুমার খুতবায় আপনারা জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে প্রচার করবেন। বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সেরে মাধ্যমে রাজশাহী-ঢাকা-রাজশাহী রুটে নতুন বিরতিহীন বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি আরো বলেন, নিরীহ মানুষ হত্যা ইসলাম সমর্থন করে না। কাউকে হত্যা করার মাধ্যমে কারো বিচারের অধিকার ইসলাম কাউকে দেয়নি। আমরা শান্তি চাই। দেশে শান্তি থাকলে অবশ্যই উন্নয়ন হবে। নিউ জিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে এবং সর্বসম্প্রতি শ্রীলঙ্কায় হামলার প্রসঙ্গে টেনে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জঙ্গিবাদ শুধু বাংলাদেশে নয়। সারাবিশ্বে তারা জঘন্য কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। নিষ্পাপ শিশুরাও তাদের হাত থেকে রক্ষা পাচ্ছে না। আমাদের শিশু জায়ান চৌধুরীও রক্ষা পায়নি জঙ্গিদের হাত থেকে। জায়ানের জন্য আগামী শুক্রবার প্রত্যেক মসজিদে দোয়া করার জন্য বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। রাজশাহী-ঢাকা-রাজশাহী রুটে নতুন বিরতিহীন বনলতা এক্সপ্রস নিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, নতুন ট্রেন উদ্বোধন হওয়ায় রাজশাহীর মানুষ এখন ৫ ঘণ্টায় ঢাকা-রাজশাহী যাতায়াত করতে পারবেন। সামনে ঈদ এবং জ্যৈষ্ঠ মাস, পাকা আম। এ দুয়ে মিলে এই ট্রেন উদ্বোধন কার্যকর হবে। রাজশাহীর উন্নয়নে আমরা হাত দিয়েছি। ইতোমধ্যে আমরা উত্তরবঙ্গের মঙ্গা কাটিয়েছি। এখন আমরা যে ১০০টি শিল্পাঞ্চল করছি সেগুলোর মধ্যে বেশকিছু থাকবে উত্তরাঞ্চলে। পুরো উত্তরবঙ্গেই আমরা উন্নয়ন করতে চাই। অনুষ্ঠানের শুরুতে রেলের ওপর সংক্ষিপ্ত তথ্য উপস্থাপন করেন রেল মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোফাজ্জল হোসেন। রাজশাহী প্রান্তে বক্তব্য দেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন, রাজশাহীর মেয়র এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন। উল্লেখ্য, ১২টি কোচের সমন্বয়ে যাত্রীসেবা দেবে বনলতা এক্সপ্রেস। এর আসন সংখ্যা ৯২৮। এর মধ্যে এসি চেয়ার ১৬০টি, শোভন চেয়ার ৬৪৪, খাবার গাড়িতে আসন ১০৮ এবং পাওয়ার কারে ১৬টি। শুক্রবার ছাড়া চলবে প্রতিদিনই চলবে ট্রেনটি। এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) অর্থায়নে বাংলাদেশ রেলওয়ের জন্য মিটারগেজ ও ব্রডগেজ প্যাসেঞ্জার ক্যারেজ সংগ্রহ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ইন্দোনেশিয়া থেকে ট্রেনটির ব্রডগেজ কোচগুলো আনা হয়েছে।
অস্বাভাবিক কিছু দেখলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে খবর দিতে হবে
২৫এপ্রিল,বৃহস্পতিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাংলাদেশেও সন্ত্রাসী ঘটনা ঘটানোর চেষ্টা করা হচ্ছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন- অস্বাভাবিক কিছু দেখলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে খবর দিতে হবে। বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন গণভবনে ঢাকা-রাজশাহী-ঢাকা রুটে বিরতিহীন ট্রেন বনলতা এক্সপ্রেস সহ বিভিন্ন প্রকল্প উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন এ সময় বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন- রেল বিভাগটি এক সময় মুমূর্ষ অবস্থায় ছিল। অনেক রেললাইন এক সময় বন্ধ ছিল, সেসব রেল লাইন আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় এসে সেগুলো চালু করেছে এবং নতুন নতুন স্টেশন চালু করেছে। বিএনপি চেয়েছিল সম্পূর্ণ রেল সার্ভিস বন্ধ করে দিতে। সে অনুযায়ী তারা কাজও করেছে।
লালমাটিয়ায় ফুপুর মরদেহ দেখতে গেলেন প্রধানমন্ত্রী
২৪এপ্রিল,বুধবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের চাচাতো বোন হামিদা খানম রানুর মৃত্যুতে গভীর দুঃখ ও শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার (২৪ এপ্রিল) ভোর সাড়ে ৫টায় রাজধানীর লালমাটিয়ায় নিজের বাসায় মারা যান হামিদা খানম। তার বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর। এক ছেলে ও তিন মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন তিনি। হামিদা খানম রানু বাংলাদেশ ইনস্যুরেন্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শেখ কবির হোসেনের বোন। তাদের বাবা খান সাহেব শেখ মোশাররফ হোসেন ছিলেন বঙ্গবন্ধুর চাচা। শেখ হাসিনা বুধবার সকালে তার ফুপু হামিদা খাননের লালমাটিয়ার বাসায় যান এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কিছুক্ষণ সময় কাটান বলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে জানানো হয়। প্রধানমন্ত্রী মরহুমার আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানান।

জাতীয় পাতার আরো খবর