জঙ্গিবাদে জড়াতে ইন্টারনেটে আকর্ষণীয় প্যাকেজ দেয়া হচ্ছে: মনিরুল ইসলাম
১৯অক্টোবর,শনিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) প্রধান ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেছেন, যাদের জঙ্গি সন্দেহে আটক বা গ্রেপ্তার করা হচ্ছে তারা আগেও কোনও না কোনোভাবে জঙ্গিবাদের সঙ্গে ছিল। কেউ কেউ নতুন করে র;্যডিকালাইজড হয়ে জঙ্গিবাদে জড়িয়েছে। জঙ্গিবাদের রিক্রুটার মটিভেটররা ইন্টারনেটে অ্যাট্রাকটিভ প্যাকেজ দিচ্ছে। আজ শনিবার (১৯ অক্টোবর) ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে ঢাকা পিস টক শীর্ষক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। মনিরুল ইসলাম বলেন, যারা মানসিকভাবে দুর্বল ও দেশপ্রেম নাই, মানুষের প্রতি দায়িত্ববোধ নাই, মতাদর্শিক জায়গায় ধারণা নাই, জীবনের বাস্তবতা যারা মেনে নিতে পারে না, যারা শর্টকাট পথ খুঁজছে তারাই জঙ্গিবাদে জড়াচ্ছে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, হলি আর্টিসান হামলার পর জঙ্গিবাদবিরোধী কাজ বেশি হচ্ছে যা আগে খুব একটা ছিল না। আমাদের একটি জঙ্গিবাদবিরোধী অ্যান্টিবডি তৈরির কাজ করতে হবে। আমরা সবসময় গোয়েন্দা নজরদারিতে রাখার চেষ্টা করছি। অনেকেই গ্রেপ্তার হয়েছে। তাদের রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তারা কোনও না কোনোভাবে অন্য কোনও জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে জড়িত ছিল বলে স্বীকার করেছে। এতটুকু নিশ্চিত করতে পারি জঙ্গিবাদ আর মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে দেয়া হবে না।
আবরার হত্যার চার্জশিট দ্রুত দেয়ার নির্দেশ
১৯অক্টোবর,শনিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দ্রুত আবরার হত্যার চার্জশিট দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। শনিবার দুপুরে বিএফডিসিতে ইউসিবি পাবলিক পার্লামেন্ট আয়োজিত সুশাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষে সরকার এগিয়ে চলছে শীর্ষক ছায়া সংসদের বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। আবরারের পরিবার একটি স্বচ্ছ বিচার পাবে বলে আশা করেন তিনি। সুশাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষে দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান নিয়মিত চলবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ক্যাসিনো ও টেন্ডারবাজি বড় বিষয় নয়, যেখানেই অনিয়ম ও দুর্নীতি সেখানেই অভিযান চলবে। এ সময় মন্ত্রী আরো বলেন, যেখানেই দুর্নীতি, অন্যায়, অবিচার দেখেছেন প্রধানমন্ত্রী সেখানেই ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন। দুর্নীতিবিরোধী এ অভিযানে তিনি কাউকে ছাড় দিচ্ছেন না।
শিশু নির্যাতনকারীদের কঠোর সাজা পেতে হবে : প্রধানমন্ত্রী
১৯অক্টোবর,শনিবার,স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট,নিউজ একাত্তর ডট কম: শিশু নির্যাতনকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, আজকের শিশুরা আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। শিশুদের প্রতি কোনো অন্যায়-অবিচার বরদাশত করা হবে না। যারা শিশু নির্যাতন করবে তাদের অবশ্যই সাজা পেতে হবে। কঠোর সাজা পেতে হবে। গতকাল শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদের উদ্যোগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে এ আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সমপ্রতি দেশব্যাপী শিশু নির্যাতনের কথা তুলে ধরে বঙ্গবন্ধুকন্যা বলেন, শিশুদের ওপর অত্যাচার বেড়েছে। বাবা হয়ে সন্তানকে হত্যা করছে অন্যকে ফাঁসানোর জন্য। কী এক মানসিকতা! এই ধরনের হীন মানসিকতা সমাজে বেড়ে চলেছে। শিশুদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, তোমাদের পাশে দরিদ্র ও প্রতিবন্ধী শিশু দেখলে তাদের অবহেলা করো না। কারণ তারাও তো তোমাদের মতোই মানুষ। এতে তাদের তো কোনো দোষ নেই। এটা অমানকিতা ও নিষ্ঠুরতা। সরকারের নেওয়া নানা উদ্যোগের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের শিশুরা যাতে আধুনিক মনস্ক হয়ে গড়ে উঠতে পারে সেজন্য সরকার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছে। প্রত্যেকটি শিশুর জীবন যেন অর্থবহ হয়, আমরা সে ব্যবস্থা নিয়েছি। ছোটভাই রাসেলের স্মৃতিচারণ করে বড়বোন শেখ হাসিনা বলেন, প্রতিটা শিশুরই একটা ইচ্ছা থাকে, বড় হয়ে কী হবে! রাসেলেরও শখ ছিল, বড় হয়ে আর্মি অফিসার হবে। এ নিয়ে তার অনেক আগ্রহ দেখেছি। যখন গ্রামে যেত, সেখানে গিয়ে শিশুদের নিয়ে খেলতো। তার ভিতরে একটা দরদি মন ছিলো। এখন মাঝে মাঝে মনে হয়, বেঁচে থাকলে ৫৪ বছর বয়সে রাসেল কেমন হতো দেখতে! কিন্তু ঘাতকের নির্মম বুলেট কাউকে বাঁচতে দেয়নি।
প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ফিফা সভাপতির সাক্ষাৎ
১৭অক্টোবর,বৃহস্পতিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো। বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তিনি। এর আগে ভোরে রাজধানীর শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নামেন ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো। বিমানবন্দরে নেমে তিনি বলেন, সবাইকে শুভ সকাল। প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে আসতে পেরে আমি খুবই আনন্দিত। এ সফরটা আমার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। দেখুন বাংলাদেশ এখন বিশ্ব ফুটবলের রাজধানী, কারণটা খুবই পরিষ্কার ফিফা সভাপতি এখন ঢাকায়। আর সম্প্রতি বাংলাদেশ ফুটবল দলের পারফরম্যান্স সত্যিই চোখে পড়ার মতো। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন-বাফুফের আমন্ত্রণে একদিনের শুভেচ্ছা সফরে ঢাকায় ফিফা সভাপতি। এ সময় প্রথমবারের মতো ঢাকায় আসতে পেরে নিজের উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন তিনি। সেইসঙ্গে সংক্ষিপ্ত এ সফরে এশিয়া অঞ্চলের ফুটবল উন্নয়নে বাফুফের সঙ্গে আলোচনার কথা জানান জিয়ান্নি ইনফান্তিনো। কাতারে বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হতে এখনও তিন বছর বাকি। এরইমধ্যে এশিয়া সফর করছেন ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো। তারই অংশ হিসেবে বাংলাদেশে আগমন। রাতভর অপেক্ষা : বৃহস্পতিবার রাত ১টা ১০ মিনিটে ঢাকায় আসার কথা থাকলেও মঙ্গোলিয়ায় বৈরি আবহাওয়ার কারণে প্রায় চার ঘণ্টা দেরিতে বাংলাদেশে পৌঁছান ফিফা বস। বিশ্বকাপ বাছাইয়ে কলকাতার সল্ট লেকে বাংলাদেশের দুর্দান্ত পারফনম্যান্স। সবমিলিয়ে দেশের ফুটবল অঙ্গনে যেন সুবাতাস বইছে। ঠিক তখনই ফিফা সভাপতির বাংলাদেশে আগমন। বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন ও ফিফার কাউন্সিল মেম্বার মাহফুজা আক্তার কিরণের প্রশংসা করে ইনফান্তিনো জানান, এ সফরে এশিয়া অঞ্চলের ফুটবল উন্নয়নের পাশাপাশি ফুটবলের ইতিবাচক নানা দিক নিয়ে তাদের সঙ্গে আলোচনা হবে। দেখুন, খেলাধুলার দিক দিয়ে বাংলাদেশ অনেকটাই এগিয়ে যাচ্ছে। এখানকার মানুষ বেশ ক্রীড়াপ্রেমী। আশা করছি এশিয়া অঞ্চলের ফুটবল উন্নয়নের বাফুফের সঙ্গে আলোচনা ফলপ্রসু হবে। এর আগে ১৯৮০ সালে জোয়া হ্যাভিলেঞ্জ ফিফার প্রথম সভাপতি হিসেবে বাংলাদেশে আসেন। এরপর ২০০৬ ও ২০১২ সালে ঢাকা সফরে এসেছিলেন ফিফার সাবেক সভাপতি সেপ ব্লাটার। এবার ফিফার সভাপতি হিসেবে চতুর্থবারের মতো বাংলাদেশে এলেন জিয়ান্নি ইনফান্তিনো। প্রায় ১৬ ঘণ্টার সংক্ষিপ্ত সফর শেষে বৃহস্পতিবার বিকেলেই লাওসের উদ্দেশ্যে রওনা করবেন ফিফা বস।
আগামীতে ডিজিটাইল ডিভাইস রফতানিকারক দেশ হবে বাংলাদেশ
১৭অক্টোবর,বৃহস্পতিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: শুধু উৎপাদক নয়, আগামীতে ডিজিটাইল ডিভাইস রফতানিকারক দেশ হবে বাংলাদেশ। এ লক্ষ্য অর্জনে দেশে ২৮টি হাইটেক পার্ক স্থাপনসহ তথ্য প্রযুতিখাতে দক্ষ জনবল গড়ে তুলতে আইটি ট্রেনিং সেন্টার ও আইসিটি ল্যাব প্রতিষ্ঠা করছে সরকার। বুধবার (১৬ অক্টোবর) রাজধানীর হোটেল প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁওয়ে ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপো অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। আগামী ২০২০ সালে বাংলাদেশ ৫ বিলিয়ন ডলারের হার্ডওয়্যার, সফটওয়্যার ও তথ্য প্রযুক্তি সেবা রফতানি করবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। পলক বলেন, দেশে প্রতিবছর পাঁচ কোটি স্মার্টফোন এবং চার লাখ ল্যাপটপ আমদানি করতে হয়। অথচ আমাদের এখানেই পাঁচ কোটি মধ্যবিত্ত গ্রাহক শ্রেণি রয়েছে যা একটি বিশাল মার্কেট। এমন অবস্থায় আমরা শুধু আমদানিকারক দেশ হিসেবে থাকতে চাই না। নিজেদের দেশে এসব ডিভাইস প্রস্তুত করে দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশে রপ্তানি করতে চাই। আমরা হতে চাই রফতানিকারক দেশ, ছড়িয়ে দিতে চাই মেইড ইন বাংলাদেশ। এজন্য যেসব খাতে কাজ করা দরকার সরকারি নীতি সেভাবেই প্রণয়ন করে কাজ করে যাচ্ছি আমরা। যুব উদ্যোক্তাদের সব স্বপ্ন পূরণ করতে চাই। এ লক্ষে স্টার্টআপের জন্য ১০০ কোটি টাকা পর্যন্ত বরাদ্দ রেখেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের সঙ্গে সম্পর্কিত ইমার্জিং টেকনোলজি নিয়ে গবেষণার জন্য প্রধানমন্ত্রী রেখেছেন ৫০ কোটি টাকা। মেলায় প্রদর্শিত ৩০টি উদ্ভাবনীর মধ্যে অনুষ্ঠানে তরুণদের শীর্ষ ১০ উদ্যোগকে মোট এক কোটি টাকার বঙ্গবন্ধু উদ্ভাবনী অনুদান তুলে দেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। এ সময় তিনি বলেন, বর্তমানের মেধাবী তরুণ প্রজন্ম বাংলাদেশকে সামনে এগিয়ে নেবে। টানা তিন দিনের আয়োজন শেষে পর্দা নামলো ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপো-২০১৯ এর। জাঁকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে শেষ হলো দেশে প্রথমবারের মতো আয়োজিত এই অনুষ্ঠান। পরে অ্যাওয়ার্ড নাইটের মধ্য দিয়ে শেষ হয় এ আয়োজন।
রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ প্রধানমন্ত্রীর
১৭অক্টোবর,বৃহস্পতিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গভবনে পৌঁছালে রাষ্ট্রপতি এবং তার স্ত্রী রাশিদা খানম তাকে স্বাগত জানান। দুটি সফর সম্পর্কে পৃথক দুটি প্রতিবেদন এসময় রাষ্ট্রপতির কাছে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সাধারণত বিদেশ সফর থেকে ফিরে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ করে বিভিন্ন বিষয়ে অবহিত করেন প্রধানমন্ত্রী। এ সময় ভ্যাকসিন হিরো এবং চ্যাম্পিয়ন অব স্কিল ডেভেলপমেন্ট ফর ইয়ুথ সম্মাননা পাওয়ার জন্য শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানান রাষ্ট্রপতি। রাষ্ট্র ও সরকার প্রধান এসময় পারস্পরিক স্বাস্থ্যের খোঁজ-খবর নেন। রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।
দক্ষিণ এশিয়ার এক নম্বর দেশ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ
১৬অক্টোবর,বুধবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নে দক্ষিণ এশিয়ার এক নম্বর দেশ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। সাম্প্রতিক বিভিন্ন সূচক ও গবেষকদের কথায় এ বিষয়টি উঠে আসছে। বিশ্ব ক্ষুধা সূচক (গ্লোবাল হাঙ্গার ইনডেক্স-জিএইচআই) সর্বশেষ রিপোর্টেও বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়ার প্রমাণ পাওয়া গেল। জিএইচআই ২০১৯ এ ভারতের চেয়ে ১৭ ধাপ এগিয়ে আছে বাংলাদেশ। অবধারিতভাবেই পাকিস্তান আছে আরও পেছনে। এবারের সূচক অনুসারে বাংলাদেশের অবস্থান ৮৬তম। ভারত আছে ১০৩ এ। আর পাকিস্তানের অবস্থান ১০৬। তবে নেপাল (৭২), শ্রীলঙ্কা (৬৭) এবং মিয়ানমার (৬৮) বাংলাদেশের চেয়ে এগিয়ে আছে। জিএইচআই এর রিপোর্ট বলছে, ক্ষুধা, দারিদ্র্য ও অপুষ্টি দূরীকরণে ভারত ও পাকিস্তানের চেয়ে অনেকটাই এগিয়ে আছে বাংলাদেশ। উন্নয়নের এই ধারা অব্যাহত থাকলে ২০২০ সাল নাগাদ বাংলাদেশ মাথাপিছু আয়েও ভারতকে পেছনে ফেলবে। উল্লেখ্য, গতকাল মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) জিএইচআই ২০১৯ প্রকাশ করা হয়েছে। যৌথভাবে এটি প্রকাশ করেছে আয়ারল্যান্ড ভিত্তিক বেসরকারি সংস্থা কনসার্ন ওয়ার্ল্ডওয়াইড এবং জার্মানভিত্তিক সংস্থা ওয়েলটহাঙ্গারহিলফ। এবারের সূচকে সবার উপরে অর্থাৎ এক নম্বরে আছে বেলারুশ। আর সবার শেষে অর্থাৎ ১১৯ নম্বরে আছে মধ্য আফ্রিকান রিপাবলিক।
বালিশকাণ্ডে গণপূর্তের ১৬ কর্মকর্তা বরখাস্ত
১৬অক্টোবর,বুধবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: পাবনার রূপপুর পরমাণু বিদ্যুৎ প্রকল্প এলাকায় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের থাকার জন্য বিছানা, বালিশ ও আসবাবপত্র কেনায় দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত থাকার প্রাথমিক সত্যতা প্রমাণিত হয়েছে। প্রকৌশলী মোহাম্মদ মাসুদুল আলমসহ গণপূর্ত অধিদপ্তরের ১৬ কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে গণপূর্ত মন্ত্রণালয়। মঙ্গলবার হাইকোর্টে আসা গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের দাখিল করা প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব জিল্লুর রহমান স্বাক্ষরিত এ প্রতিবেদন পাঠানো হয়েছে। সাময়িক বরখাস্তকৃত কর্মকর্তারা হলেন মো. শফিকুল ইসলাম, মো. আবু সাঈদ, মো. শাহিন উদ্দিন, মো. জাহিদুল কবীর, মো. রফিকুজ্জামান, সুমন কুমার নন্দী, মো. ফজলে হক, মো. রওশন আলী, মো. আমিনুল ইসলাম, মো. রুবেল হোসাইন, মো. তারেক, আহম্মেদ সাজ্জাদ খান, মো. মোস্তফা কামাল, মো. তাহাজ্জুদ হোসেন, একেএম জিল্লুর রহমান। গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মোসা. সুরাইয়া বেগম স্বাক্ষরিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অস্বাভাবিক ব্যয় করার বিষয়ে তদন্তে প্রাথমিক সত্যতা প্রমাণিত হওয়ায় গণপূর্ত অধিদপ্তরের ১৬ কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এ ছাড়া যাচাই-বাছাই ও বিল প্রদানের সঙ্গে জড়িত ১৪ জন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। এর মধ্যে অবসর সুবিধা ভোগকারী গণপূর্ত অধিদফতরের প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মো. শফিকুর রহমান রয়েছেন।
বরগুনার রিফাত হত্যার প্রধান আসামি রিফাত ফরাজির জামিন নামঞ্জুর
১৬অক্টোবর,বুধবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বরগুনার রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান আসামি রাকিবুল হাসান রিফাত ফরাজির জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেছেন আদালত। এছাড়া মামলার চার আসামির জামিন আবেদন শিশু আদালতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। পাশাপাশি পলাতক এক আসামিকে আদালতে হাজির হওয়ার জন্য পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশেরও আদেশ দেয়া হয়েছে। বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের ভারপ্রাপ্ত বিচারক মো. ইয়াসিন আরাফাত বুধবার (১৬ অক্টোবর) সকালে এ আদেশ দেন। এ বিষয়ে মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবী মো. মজিবুল হক কিসলু বলেন, রিফাত হত্যা মামলার ধার্য তারিখে বরগুনা জেলা কারাগারে থাকা আট আসামিকে আদালতে হাজির করে পুলিশ। এছাড়াও এ মামলায় জামিনে থাকা নিহত রিফাত শরীফের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিও আদালতে হাজির হন। তিনি আরও বলেন, ধার্য তারিখে আদালতে এ মামলার প্রধান আসামি রাকিবুল হাসান রিফাত ফরাজির জামিন আবেদন করা হয়। পরে আদালত তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন। এছাড়াও এ মামলার অপ্রাপ্তবয়স্ক আসামি রাশিদুল হাসান রিশান ফরাজি, তানভীর হোসেন, অয়ালিউল্লাহ ওলি এবং মারুফ মল্লিকের জামিন আবেদন করা হয়। পরে আদালত তাদের জামিন আবেদন শুনানির জন্য শিশু আদালতে প্রেরণ করেন। গত ২৬ জুন রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ড সংগঠিত হয়। এরপর গত ১ সেপ্টেম্বর বহুল আলোচিত এ মামলায় ২৪ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ। ২৪ আসামির মধ্যে ১৫ আসামিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর আদালত পলাতক আসামিদের মালামাল জব্দের আদেশ দিলে সাতজন পলাতক আসামি আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। এ মামলায় অভিযুক্ত মো. নাইম ও মুসা নামে দুই আসামি এখনো পলাকত রয়েছেন।

জাতীয় পাতার আরো খবর