রবিবার, আগস্ট ১৮, ২০১৯
সাংবাদিক শাহ আলমগীর আইসিইউতে
২৭ফেব্রুয়ারী,বুধবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: বিশিষ্ট সাংবাদিক প্রেস ইনস্টিটিউট বাংলাদেশের (পিআইবি) মহাপরিচালক শাহ আলমগীর গুরুতর অসুস্থ হয়ে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের (সিএমএইচে) আইসিইউতে চিকিৎসাধীন আছেন। স্বজনরা তার রোগমুক্তির জন্য দেশের মানুষের কাছে দোয়া চেয়েছেন। পরিবারের সদস্যরা জানান, আগে থেকেই তার কিছু জটিল শারিরীক সমস্যা ছিল। এর মধ্যে গত ২১ ফেব্রুয়ারি আরও নতুন কিছু উপসর্গ দেখা দেয়। দ্রুত তাকে সিএমএইচে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার অবস্থার অবনতি হলে মঙ্গলবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) রাতে তাকে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বিদেশে নেয়া কথা থাকলেও তার শারীরিক অবস্থা বিবেচনা করে চিকিৎসকরা বিদেশে না নিতে পরামর্শ দিয়েছেন। পিআইবির প্রধানের দায়িত্ব ছাড়াও শাহ আলমগীর বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যান ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ছিলেন। শাহ আলমগীর একাধিক ইলেক্ট্রনিক ও প্রিণ্ট মিডিয়ায় গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন। পিআইবিতে যোগ দেওয়ার আগে তিনি সর্বশেষ এশিয়ান টেলিভিশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রধান সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। উপমহাদেশের প্রথম শিশু-কিশোর সাপ্তাহিক কিশোর বাংলা পত্রিকায় যোগদানের মাধ্যমে শাহ আলমগীরের সাংবাদিকতা জীবন শুরু। এরপর তিনি কাজ করেন দৈনিক জনতা, বাংলার বাণী, আজাদ ও সংবাদ-এ। প্রথম আলো প্রকাশের সময় থেকেই তিনি পত্রিকাটির সাথে জড়িত ছিলেন এবং ১৯৯৮ সালের নভেম্বর মাস থেকে ২০০১ সালের সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত যুগ্ম বার্তা-সম্পাদক-এর দায়িত্ব পালন করেন। এরপর তিনি টেলিভিশন মিডিয়ায় কাজ শুরু করেন। চ্যানেল আই-এর প্রধান বার্তা সম্পাদক, একুশে টেলিভিশনে হেড অব নিউজ, যমুনা টেলিভিশনে পরিচালক (বার্তা) এবং মাছরাঙা টেলিভিশনে বার্তা প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। শাহ আলমগীর ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি শিশু কল্যাণ পরিষদ এবং শিশু ও কিশোরদের জাতীয় প্রতিষ্ঠান -চাঁদের হাট-এর সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও তিনি জাতীয় প্রেসক্লাবের সদস্য। বাংলাদেশ শিশু একাডেমীর পরিচালনা বোর্ডেরও সদস্য তিনি।
দেশে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটে ভ্রমণের ক্ষেত্রে ফটো আইডি আবশ্যিক
২৬ফেব্রুয়ারী,মঙ্গলবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: দেশের সব এয়ারলাইন্সের অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটে ভ্রমণে যাত্রীদের আবশ্যিকভাবে ফটো আইডি সাথে রাখতে হবে। চট্টগ্রামে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের উড়োজাহাজ ছিনতাই চেষ্টার দুদিন পর মঙ্গলবার এ নির্দেশনা জারি করেছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ। বিমানের সংবাদ বিজ্ঞপ্তি জানানো হয়, কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা মোতাবেক বিমানসহ সব এয়ারলাইন্সের অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটে ভ্রমণের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট যাত্রীদের বিমানবন্দরে বোর্ডিং কার্ড নেয়ার সময় টিকেটের সাথে আবশ্যিকভাবে ফটো আইডি দেখাতে হবে। আইডি হিসাবে যাত্রীর বৈধ পাসপোর্ট, ন্যাশনাল আইডি বা স্মার্ট কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স, স্টুডেন্ট আইডি অথবা সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের অফিস আইডি গ্রহণযোগ্য হবে। বিমান তাদের যাত্রীদের সরকারি নির্দেশনা যথাযথভাবে অনুসরণ করে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটে ভ্রমণের সময় ফটো আইডি সাথে রাখার অনুরোধ করছে। অন্যথায় সংস্থার উড়োজাহাজে ভ্রমণ করতে দেয়া হবে না বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।
কর্তৃপক্ষের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ নয় জানতে চেয়ে হাইকোর্টের রুল
২৬ফেব্রুয়ারী,মঙ্গলবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: পুরান ঢাকাকে রাসায়নিক দ্রব্যমুক্ত করতে কর্তৃপক্ষের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ নয় জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে মন্ত্রিপরিষদ সচিব, সিটি করপোরেশনসহ সংশ্লিষ্টদের এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। আলাদা চারটি রিটের প্রেক্ষিতে (মঙ্গলবার ২৬ ফেব্রুয়ারি) বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের দ্বৈত বেঞ্চ এ রুল জারি করেন। আদালত শুনানিতে বলেন, নিমতলীর ঘটনার পর প্রশাসন কার্যকর পদক্ষেপ নিলে চকবাজারের ঘটনা এড়ানো যেতো। নিহতের স্বজন ও আহতদের যে ক্ষতিপূরণ দেয়া হয়েছে তাও পর্যাপ্ত নয় বলে মনে করেন উচ্চ আদালত। গত ২০ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর পুরান ঢাকার চুড়িহাট্টায় ভয়াবহ আগুনে ৬৯ জন নিহত হন।- somoynews
নির্বাচনের মনোনয়নপত্র জমা দিলেন ডাকসু-হল সংসদ প্রার্থীরা
২৬ফেব্রুয়ারী,মঙ্গলবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন প্রার্থীরা। ডাকসুতে তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতার আভাস মিললেও হল সংসদে ছাত্রলীগ ছাড়া পূর্ণ প্যানেল দিতে পারেনি অন্য কোনো সংগঠন। ফলে বেশ কিছু পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হবেন ছাত্রলীগ প্রার্থীরা। যাচাই বাছাই শেষে কালই প্রকাশ করা হবে প্রার্থীদের প্রাথমিক তালিকা। ক্যাম্পাসে নির্বাচনের পরিবেশ নিয়ে ছাত্রসংগঠনগুলোর মধ্যে আছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার জন্য প্রার্থীদের সময় দেয়া হয় মাত্র ৩ ঘণ্টা। এ সময়ের মধ্যেই নিজ নিজ হলে মনোনয়নপত্র জমা দেন প্রার্থীরা। এদিকে, ক্যাম্পাসে নির্বাচনের পরিবেশ নিয়ে ছাত্রসংগঠনগুলোর মধ্যে রয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। সরকারবিরোধী সংগঠনগুলো বলছে, নানাভাবে তাদের ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে। যদিও সব অভিযোগ অস্বীকার করেছে ছাত্রলীগ। ডাকসু নির্বাচনে ছাত্রদলের ভিপি প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, পরিস্থিতি বুঝে আমি সিদ্ধান্ত নিবো। এখন পর্যন্ত পরিস্থিতি ভাল। ডাকসু নির্বাচনে সাধারণ ছাত্র পরিষদের জিএস প্রার্থী রাশেদ খান বলেন, এখন পর্যন্ত ডাকসু নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টি হয়নি। ছাত্রদের মধ্যে এখনো আতঙ্ক রয়েছে। তারা এক ধরনের ভয়ের মধ্যে রয়েছে। আসলে তারা ভোট দিতে পারবে। ছাত্রলীগের ভিপি প্রার্থী রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন বলেন, এখানে সহাবস্থানের বিষয় নয়, সাধারণ শিক্ষার্থীরা যদি তাদেরকে সেভাবে গ্রহণ না করে, আমাদের কি করার আছে, আমরা তো তাদেরকে বাধা দিচ্ছি না। কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদে সবগুলো সংগঠন তাদের পূর্ণ প্যানেল দিয়েছে। কিন্তু হল সংসদে একেবারে ভিন্ন চিত্র। ছাত্রলীগ ছাড়া বাকিরা পারেনি প্রার্থী তালিকা পূর্ণ করতে। মেয়েদের পাঁচটি হল ও ছেলেদের জগন্নাথ হলে কোনো প্রার্থীই দিতে পারেনি ছাত্রদল। বাম ছাত্রজোট ও কোটা আন্দোলনকারীরা কোনোরকম গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি পদে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে। বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলে ১৩টি পদের বিপরীতে মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে ১৯টি। সুফিয়া কামাল ও শামসুন্নাহার হলে ১৩ পদের বিপরীতে ২২টি। অন্য হলগুলোতে একটু বেশি জমা পড়লেও বেশ কিছু পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হবেন ছাত্রলীগের প্রার্থীরা।
অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোতে প্রবাসীদের বিনিয়োগের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর
২৬ফেব্রুয়ারী,মঙ্গলবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিদেশি বিনিয়োগকারীদের পাশাপাশি বাংলাদেশের প্রবাসীরাও দেশের ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগ করতে পারে। তিনি বলেন, আমরা ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল তৈরি করছি। আশা করবো শুধু বিদেশি বিনিয়োগকারীই শুধু নয়, প্রবাসীরাও সেখানে বিনিয়োগ করতে পারবে। আমরা প্রবাসীদের জন্য সে বিনিয়োগের সুযোগ রেখেছি। মঙ্গলবার রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে অনাবাসিক বাংলাদেশি (এনআরবি) প্রকৌশলীদের দু দিনব্যাপী সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। শিল্পায়ন ও বিনিয়োগ বাংলাদেশের জন্য জরুরি উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার বিনিয়োগের জন্য অনেক সুযোগ সৃষ্টি করেছে। বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধাও দিয়েছে। তিনি বলেন, সরকার শুধু শহর ও রাজধানীর উন্নয়ন নয়, দেশের গ্রামগুলোরও উন্নয়ন করতে চায়। এসময় বাংলাদেশি প্রবাসীদের তাদের নিজ নিজ পূর্ব পুরুষদের গ্রামে উন্নয়নের জন্য বিশেষ দৃষ্টি দেয়ার আহ্বন জানান শেখ হাসিনা। পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নানের সভাপতিত্বে সম্মেলনে জাতীয় অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব মনোয়ার আহমেদ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। ব্রিজ টু বাংলাদেশ, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ ও অ্যাকসেস টু ইনফোরমেশন (এটুআই) আয়োজিত এ সম্মেলনে বিশ্বের ৩০ টি দেশের ৩০০ জন এনআরবি প্রকৌশলী অংশ নিয়েছেন।-ইউএনবি
চকবাজারের চুড়িহাট্টায় দগ্ধ আরো দুজনের মৃত্যু
২৬ফেব্রুয়ারী,মঙ্গলবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: প্রাণ হারালেন রাজধানীর চকবাজারের চুড়িহাট্টায় আগুনে দগ্ধ আরো একজন। এ নিয়ে অগ্নিকাণ্ডে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৬৮ জনে। সোমবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) রাত পৌনে এগারোটায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। নিহত আনোয়ার হোসেনের দেহের ২৮ ভাগ পুড়ে গিয়েছিল। তিনি রাজধানীর কামরাঙ্গীর চর এলাকায় রিকশা চালাতেন বলে জানিয়েছেন তার স্বজনেরা। ঘটনার দিন আনোয়ার হোসেন চুড়িহাট্টায় রিকশা চালাচ্ছিলেন। আনোয়ারের সন্তানদের পাশে দাঁড়াতে সরকারের সহযোগিতা চেয়েছেন তার স্ত্রী ও স্বজনেরা। রাত পৌনে ২ টার দিকে সোহাগ নামে আরো একজনের মৃত্যু হয়। তার দেহের ৬০ ভাগ পুড়ে গিয়েছিল। ২২ বছর বয়সী সোহাগ একটি প্রসাধনীর দোকানে কাজ করতেন।
দাফন সম্পন্ন পলাশের
২৬ফেব্রুয়ারী,মঙ্গলবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: বিমান ছিনতাইয়ের চেষ্টা করতে গিয়ে গুলিতে নিহত পলাশ আহমেদের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। মঙ্গলবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টার দিকে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের পিরোজপুরের দুধঘাটায় পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তার বাবা। পলাশ গেল রোববার সন্ধ্যায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের একটি উড়োজাহাজ ছিনতাইয়ের চেষ্টা করতে গিয়ে গুলিতে নিহত হন। এর আগে সোমবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে গিয়ে লাশ শনাক্ত করেন পলাশের বাবা। শনাক্তের পর যাচাই-বাছাই শেষে তিনি লাশ গ্রহণ করেন। লাশ নিয়ে রাতেই তিনি নারায়ণগঞ্জে বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেন। পরে মঙ্গলবার সকাল ৬টায় বাড়িতে পৌঁছান তিনি। সকাল ৯টায় পলাশকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। তবে ছেলের মরদেহ দেখা কিংবা গ্রহণ করার কোনো ইচ্ছা ছিল না বলে উল্লেখ করে পলাশের বাবা পিয়ার জাহান বলেন, স্বজনদের চাপে ও প্রশাসন তাকে ডাকায় সোমবার রাতে তিনি লাশ নিতে চট্টগ্রামে যান। এর আগে সোমবার দুপুরে ময়নাতদন্ত শেষে পলাশের মরদেহ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছিল।
নতুন প্রজন্মকে ইতিহাস ও ঐহিত্য সচেতন করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির
২৫ফেব্রুয়ারী,সোমবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: নতুন প্রজন্মকে ইতিহাস ও ঐতিহ্য সচেতন করে তুলতে সবাইকে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করার আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। তিনি বলেন, নতুন প্রজন্মকে ইতিহাস ও ঐতিহ্য সচেতন করে তোলার দায়িত্ব অনেকখানিই আমাদের। যদি আমাদের সন্তানদের ইতিহাস, ঐতিহ্য, বেদনা আর অহংকারের বিষয়গুলোর সাথে পরিচয় করিয়ে না দিই, তাহলে তারা আত্মমর্যাদাসম্পন্ন সচেতন নাগরিক হিসেবে গড়ে উঠবে না। তাই প্রচলিত শিক্ষার সাথে তাদের শিকড়ের সন্ধান দিতে হবে, জানাতে হবে আমাদের গৌরবদীপ্ত অতীতের কথা। সোমবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশের (ইউল্যাব) পঞ্চম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি এসব কথা বলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য হামিদের মতে, বিশ্ববিদ্যালয় কেবল পাঠদান কেন্দ্র নয় বরং তা উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার শ্রেষ্ঠ পাদপীঠ। শিক্ষার্থীদের পরিপূর্ণভাবে গড়ে তুলতে এবং তাদের বিশ্ব নাগরিকে পরিণত করতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তাই পাঠ্যক্রম ভিত্তিক শিক্ষার পাশাপাশি মুক্তচিন্তা, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন ইস্যুতে আলোচনা, জাতিগঠনমূলক কর্মকাণ্ড, সমকালীন ভাবনা, সাংস্কৃতিক চর্চা, খেলাধুলা ইত্যাদি সৃজনশীল কর্মকাণ্ডে শিক্ষার্থীদের সম্পৃক্ত করতে হবে। এর প্রভাব ব্যক্তি জীবনে তো বটেই, সামষ্টিক জীবনকেও গভীরভাবে প্রভাবিত করে, যোগ করেন তিনি। জাতি গঠনে শিক্ষার পাশাপাশি নৈতিকতার গুরুত্ব অপরিসীম উল্লেখ করে তিনি বলেন, শিক্ষা সমাজকে বিকশিত করে, কিন্তু নীতি নৈতিকতা বিবর্জিত শিক্ষা সমাজ, দেশ ও জাতির কোনো উপকারে আসে না। আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি শিল্প, সাহিত্য ও সংস্কৃতিসহ সুষম উন্নয়নের জন্য সৃজনশীল ও মেধাসম্পন্ন জনবল অপরিহার্য জানিয়ে রাষ্ট্রপতি হামিদ বলেন, আলোকিত মানুষরাই পারে সমাজে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে। পাস করা শিক্ষার্থীদের কর্মসংস্থান নিয়ে তিনি বলেন, সরকারি-বেসরকারি মিলে প্রায় দেড়শ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দেশে প্রতিবছর হাজার হাজার শিক্ষার্থী উচ্চশিক্ষা নিয়ে বের হচ্ছে। এসব শিক্ষার্থী যাতে সম্মানজনক পেশায় নিয়োজিত হতে পারে সে ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা থাকতে হবে। শিক্ষার সাথে কর্মের সংযোগ ঘটাতে হবে। কর্মবিমুখ শিক্ষা হতাশার জন্ম দেয়, প্রতিভার বিকাশকে বাধাগ্রস্ত করে। তাই পাঠ্যক্রম এমনভাবে সাজাতে হবে যাতে একজন শিক্ষার্থী তার অর্জিত জ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে পারে, গ্র্যাজুয়েট হওয়ার পাশাপাশি নিজেকে একজন সৃজনশীল ও আলোকিত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে পারে। তাহলেই ব্যক্তি, সমাজ ও দেশ উপকৃত হবে। প্রতিষ্ঠিত হবে সুখী-সমৃদ্ধ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা, বলেন রাষ্ট্রপতি। ইউল্যাবের এবারের সমাবর্তনে মোট ১ হাজার ৩০২ জন স্নাতক সনদ গ্রহণ করেছেন। সেই সাথে তিনজন পেয়েছেন স্বর্ণপদক। অনুষ্ঠানে সমাবর্তন বক্তা ছিলেন অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল। আরও বক্তব্য দেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আব্দুল মান্নান।-ইউএনবি

জাতীয় পাতার আরো খবর