দেড় হাজার সাংবাদিক ১০ হাজার টাকা করে অনুদান পাবেন: তথ্যমন্ত্রী
২৯জুন,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: কোভিড-১৯ সংকট পরিস্থিতিতে দেড় হাজার সাংবাদিককে ১০ হাজার টাকা করে অনুদান দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের মাধ্যমে এই অনুদান দেয়ার প্রক্রিয়া প্রায় সম্পন্ন হয়েছে বলেও মন্ত্রী জানান। সোমবার জাতীয় সংসদে টেবিলে উত্থাপিত প্রশ্নোত্তর পর্বে সরকারি দলের সংসদ সদস্য শহীদুজ্জামান সরকারের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য জানান। হাছান মাহমুদ বলেন, মহামারী করোনাভাইরাসে দেশের সংবাদকর্মীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়েই সংবাদ সংগ্রহ ও প্রচার করছেন। তাদের বিষয়ে সরকার উদ্যোগ নিয়েছে। করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের মাধ্যমে প্রাথমিক পর্যায়ে এক হাজার ৫০০ সাংবাদিককে এককালীন ১০ হাজার টাকা করে অনুদান দেয়ার প্রক্রিয়া প্রায় শেষ করা হয়েছে। পরবর্তী পর্যায়ে আরও সাংবাদিককে এ অনুদান দেয়া হবে। এ ছাড়া এই ট্রাস্টের মাধ্যমে ২০১৯-২০ অর্থবছরে অসুস্থ, অসচ্ছল ও দুর্ঘটনাজনিত কারণে আহত ও নিহত সাংবাদিক পরিবারের মাঝে তিন কোটি ১০ লাখ টাকা অনুদান দেয়া হবে। ২০১১-১২ অর্থবছর থেকে এ পর্যন্ত ১০ কোটি ৭৯ লাখ ৫০ হাজার টাকা অনুদান হিসেবে দেয়া হয়েছে বলেও জানান মন্ত্রী। তিনি জানান, সাংবাদিকরা যাতে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে করোনা টেস্ট ও চিকিৎসাসেবা পান, এ জন্য ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। সূত্র : যুগান্তর
বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি, শিশুসহ ৩১ জনের মরদেহ উদ্ধার
২৯জুন,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: রাজধানীর শ্যামবাজার ফরাসগঞ্জে বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবির ঘটনা ঘটেছে। এখন পর্যন্ত ৩১ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। কর্তৃপক্ষের দাবি, লঞ্চটিতে অর্ধশতাধিক যাত্রী ছিল। তবে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, লঞ্চে দেড়শরও বেশি যাত্রী ছিল। ফায়ার সার্ভিসের সদরঘাট নদী ফায়ার স্টেশনের ডুবুরি ইউনিট অনুসন্ধান কার্যক্রম চালাচ্ছে। নিউজ একাত্তরকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ফায়ার সার্ভিস সদর দফতরের কর্মকর্তা আজিজুল ইসলাম। কোস্ট গার্ড সদর দফতরের মিডিয়া উইং এর কর্মকর্তা লেঃ কমান্ডার হায়াৎ ইবনে সিদ্দিক জানান, এখন পর্যন্ত ৩১ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে পাঁচ জন নারী, ২৩ জন পুরুষ এবং ২ জন শিশু রয়েছে। তিনি বলেন, যতক্ষণ পর্যন্ত সন্দেহ থাকবে এখনও মরদেহ থাকতে পারে, ততক্ষণ পর্যন্ত কোস্ট গার্ডের উদ্ধার অভিযান চলমান থাকবে। জানা যায়, সোমবার (২৯ জুন) সকাল নয়টার দিকে ময়ুর-২ নামের একটি লঞ্চের ধাক্কায় কমপক্ষে ৫০ জন যাত্রী নিয়ে মর্নিং বার্ড লঞ্চটি ডুবে যায়। কেরানীগঞ্জের একটি ডকইয়ার্ড থেকে মেরামত শেষে ময়ূর-২ নদীতে নামানোর সময় ওই দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানা গেছে। এদিকে ফায়ার সার্ভিসের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাজ্জাদ হোসেন নিউজ একাত্তরকে জানান, দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে কাজ চলছে। উদ্ধার তৎপরতা শেষে ফায়ার সার্ভিস আলাদা একটি তদন্ত কমিটি গঠন করবে। ঘটনাস্থলে উদ্ধারকাজ চালাচ্ছে নৌবাহিনী,ফায়ার সার্ভিস ও নৌপুলিশ। এদিকে খবর পেয়ে উদ্ধার কাজে অংশ নিতে নারায়ণগঞ্জ থেকে বিআইডব্লিউটিএর উদ্ধারকারী জাহাজ রওনা দিয়েছে বলে জানা গেছে।
ডিজিটাল মেলা-২০২০এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন আগামীকাল
২৮,জুন,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: অনলাইন প্লাটফর্মে আজ (২৮ জুন) থেকে সারাদেশে তিন দিনব্যাপী ডিজিটাল মেলা- ২০২০ শুরু হয়েছে। বর্তমান করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতি বিবেচনায় রেখে ৬৪টি জেলার ডিজিটাল কার্যক্রমকে জাতীয় তথ্য বাতায়নের মাধ্যমে নাগরিকদের কাছে উপস্থাপনের লক্ষ্যে এই মেলার আয়োজন করা হয়েছে। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর ও এটুআই-এর আয়োজনে এবং মাঠপ্রশাসনের সহযোগিতায়- এ মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক মেলার দ্বিতীয় দিন সোমবার বেলা ১১ টায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত খেকে এ মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম। এছাড়া সকল বিভাগীয় কমিশনার, জেলা প্রশাসক, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) ও আইসিটি অধিদপ্তরের মাঠপর্যায়ের প্রোগ্রামার ও সহকারী প্রোগ্রামারগণ এতে জুম অনলাইন মাধ্যমে অংশগ্রহণ করবেন। উল্লেখ্য, দেশের জেলা পর্যায়ের বিভিন্ন ডিজিটাল কার্যক্রমের টেক্সট বা প্রেজেন্টেশন, ছবি, ভিডিও, জেলা ব্র্যান্ডীং এবং প্রয়োজনীয় তথ্য জাতীয় তথ্য বাতায়নে সংযুক্ত করার মাধ্যমে নাগরিকদের কাছে উপস্থাপন করাই এ মেলার মূল উদ্দেশ্য। ডিজিটাল মেলা উদ্যাপনের লক্ষ্যে প্রনীত গাইডলাইন অনুযায়ী জেলা প্রশাসকগণ সরকারি কর্মকর্তা বা কর্মচারি ,জনপ্রতিনিধি, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, স্কুল বা কলেজের শিক্ষকবৃন্দ, আইসিটি ব্যক্তিত্ব বা উদ্যোক্তাসহ স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীদের সম্পৃক্ততায় অনলাইন প্রেস ব্রিফ্রিং, প্রচার এবং বিষয়ভিত্তিক সেমিনারের আয়োজন করবেন। এ ছাড়াও ডিজিটাল বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়ার ১১ বছরের অর্জন সম্পর্কিত কার্যক্রমসমূহ, কোভিড-১৯, প্রযুক্তিগত উদ্ভাবন ও সম্প্রসারণ ইত্যাদি ব্যানার বা পোস্টার-এর মাধ্যমে প্রচারের করবেন ।এই ডিজিটাল মেলা চলবে ৩০ জুন পর্যন্ত। মেলা ভিজিট করার ঠিকানা https://bangladesh.gov.bd/site/view/digitalfair2020
দেশের সকল সমস্যা সমাধানে প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীর পাশে আছেন : শ ম রেজাউল
২৮,জুন,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপি বলেছেন, এদেশের সকল সমস্যা সমাধানে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশবাসীর পাশে রয়েছেন। মহামারী করোনা, ঘূর্ণিঝড় বুলবুল ও আম্পানসহ সকল দুর্যোগময় মুহুর্তে তিনি সহায়তা দিয়ে প্রমাণ করেছেন যে তাঁর কোন বিকল্প নাই। মন্ত্রী আজ তার নির্বাচনী এলাকার নাজিরপুর উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে ক্ষতিগ্রস্ত ১৩৭ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ঢেউটিন ও টাকা বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে ১৩৭ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ২০০ বান্ডিল ঢেউটিন ও ৬ লাখ টাকা বিতরণ করা হয়েছে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে মন্ত্রী অনলাইনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন এবং টিন বিতরণের উদ্বোধন ঘোষণা করেন। অনান্যের মধ্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ওবায়দুর রহমান ও উপজেলা চেয়ারম্যান অমূল্য রঞ্জন হালদার বক্তব্য রাখেন। মন্ত্রী বলেন, ১৯৯১ সালের ২৯ এপ্রিল ঘুর্ণিঝড়ে ১ লাখ ৩৯ হাজার মানুষ প্রাণ হারালেও সে সময়ের বিএনপি সরকার উপকূলীয় অঞ্চলের মানুষদের প্রাণ বাঁচানোর জন্য পূর্ববর্তী কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি এবং দূর্যোগ পরবর্তী সময়ও তাদেরকে প্রয়োজন অনুযায়ী ত্রাণ ও গৃহ নির্মাণ সামগ্রী না দিয়ে চরম ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে। দেশে করোনা সংক্রমণ শুরু হলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে দেড় কোটিরও অধিক পরিবারের ৬ কোটি মানুষকে দীর্ঘ সময়ে ত্রাণ সহায়তা প্রদান করা হয়েছে এবং এখনও তা চলমান আছে। এছাড়া শিশুদের জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ শিশু খাদ্যেরও ব্যবস্থা করেছে বর্তমান সরকার। তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করে মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে আমাদের একটি স্বাধীন দেশ উপহার দিয়েছেন আর তারই কন্যা আজ ক্ষুধা, দারিদ্র মুক্ত বাংলাদেশ গড়তে নিরলস পরিশ্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। ২০০৮ সালে জননেত্রী শেখ হাসিনা তার নির্বাচনী ইশতেহারে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কথা বলেছিলেন, আজ তার সে স্বপ্ন বাস্তবায়িত হয়েছে। আজ আমরা ক্ষুধা মুক্ত-দারিদ্র মুক্ত, বিজ্ঞান মনষ্ক, অসাম্প্রদায়িক, কু-সংস্কারমুক্ত আধুনিক জ্ঞান বিজ্ঞানে সমৃদ্ধ একটি জাতিতে পরিণত হবার দ্বারপ্রান্তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে পৌঁছে গেছি।
গোয়েন্দা নজরদারি থেকে কেউ পার পাবে না: Rab ডিজি
২৮,জুন,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সুন্দরবনে নতুন করে দস্যুতায় নামার চেষ্টা করলে তাদের পরিণতি খারাপ হবে। আমাদের গোয়েন্দা নজরদারির হাত থেকে কেউ পার পাবে না। রোববার (২৮ জুন) দুপুরে খুলনায় Rab-06 এর কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে Rabর নবনিযুক্ত মহাপরিচালক (ডিজি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন এ কথা বলেন। Rab ডিজি বলেন, সুন্দরবনে নতুন করে দস্যুতায় নেমে Rabর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে তিনজন নিহত হয়েছেন। এসময় আরও দু জন দস্যু আটক ও দু জন জেলেকে উদ্ধার করা হয়। তাদের কাছ থেকে পাঁচটি আগ্নেয়াস্ত্র, ৩৩ রাউন্ড গুলি, দেশীয় অস্ত্র, দস্যুতায় ব্যবহারিক অন্য জিনিসপত্র ও ট্রলার জব্দ করা হয়েছে। সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জের মামদো নদী, মালঞ্চ নদী, খোপড়াখালী নদী ও ফিরিঙ্গি নদী এলাকায় এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। গত ২৫ জুন রাত থেকে ২৮ জুন ভোর পর্যন্ত অভিযান চালায় Rab। নিহত দস্যুরা হলেন- সাতক্ষীরার হরদহ এলাকার মো. লুৎফরের ছেলে শরিফুল ইসলাম (২৪), আশাশুনি উপজেলার বসুখালীর মৃত জামাত আলীর ছেলে হাবিবুর রহমান (২৪) ও অজ্ঞাত (২৫) একজন। এছাড়া আটক অপর দু’জনের নাম-পরিচয় এখনও পাওয়া যায়নি। প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন- Rab এর অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশন) কর্নেল তোফায়েল মোস্তফা সরোয়ার, Rab-06 এর অধিনায়ক লে. কর্নেল রওসোনুল ফিরোজসহ অন্য কর্মকর্তারা।
সরকার ভিআইপি কালচারে বিশ্বাসী নয়, সব রোগীকে চিকিৎসা দিন: ওবায়দুল কাদের
২৮,জুন,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সাধারণ রোগী ও উচ্চবিত্ত রোগীদের কোনো বাছ-বিচার নয়, সবাইকে সমান চেখে দেখে চিকিৎসা করুন। শেখ হাসিনা সরকার ভিআইপি কালচারে বিশ্বাসী নয়, সরকার এ সংকটে এমন চর্চাকে নিরুৎসাহিত করে। রোববার (২৮ জুন) নিজের সরকারি বাসভবনে নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের একথা বলেন। সরকারের দুর্নীতিবিরোধী অবস্থানের কথা আবারও সবাইকে স্মরণ করিয়ে দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, অপরাধী নিজদলীয় কিংবা ক্ষমতাবান হলেও ছাড় দেওয়া হবে না। শুধু স্বাস্থ্যখাতেই নয়, যে কোনো খাতের অনিয়ম, অন্যায়, দুর্নীতি রোধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জিরো টলারেন্স নীতিতে অটল। হাসপাতালগুলোর ব্যবস্থাপনা এবং সমন্বয় বাড়াতে স্বাস্থ্যবিভাগের দৃষ্টি আকর্ষণ করে সেতুমন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন গবেষণা ও গণমাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী করোনায় আক্রান্ত অনেক রোগী বাসাবাড়িতে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তাদের সেবা ও প্রয়োজনীয় ডাক্তারি পরামর্শ পেতে টেলিমেডিসিন সেবা ও হটলাইনে সেবার মান বাড়ানোর অনুরোধ করছি। করোনা এমন সংক্রমণ যে কাছের মানুষও দূরে চলে যায়, মুহূর্তেই প্রিয়জন অচেনা হয়ে যায়। মা-বাবাকে সন্তান কিংবা স্বামীকে স্ত্রীকে হাসপাতালে রেখে চলে যাচ্ছে। আবার মৃত্যুর পর কেউ কাছে আসছে না। পুরোটা জীবন প্রিয়জনের জন্য নিবেদন করে শেষ বিদায় নিচ্ছেন প্রিয় মানুষের স্পর্শহীনতায়। মন্ত্রী বলেন, রোগীর মৃত্যুর ৩ ঘণ্টা পর মরদেহ থেকে সংক্রমণ ছড়ানোর সুযোগ নেই। এ রোগ অভিশাপ নয়, নিজেকে সুরক্ষিত রেখে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিয়ম মেনে দাফন-কাফন করতে পারেন আপনজনেরা। তিনি বলেন, বর্তমানে ৬৬টি ল্যাবে টেস্ট করোনা হচ্ছে। এ সুবিধা সম্প্রসারণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি হাসপাতালসহ সংশ্লিষ্টদের জনস্বার্থে পিসিআর ল্যাব স্থাপনে উদ্যোগ নেওয়ারও আহ্বান জানাচ্ছি। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এসময় করোনার এই সংকটে দেশের কয়েকটি জেলায় বন্যা দেখা দেওয়ায় তাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের আহ্বান জানান।
করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৪৩ মৃত্যু, শনাক্ত ৩৮০৯
২৮,জুন,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত্যু হয়েছে এক হাজার ৭৩৮ জনের। নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন তিন হাজার ৮০৯ জন। সব মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে এক লাখ ৩৭ হাজার ৭৮৭ জনে। রোববার (২৮ জুন) দুপুর আড়াইটায় করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত অনলাইন স্বাস্থ্য বুলেটিনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এ তথ্য জানান। তিনি জানান, ঢাকা সিটিসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ও বাড়িতে উপসর্গ বিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৪০৯ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৫৫ হাজার ৭২৭ জন। তিনি আরো জানান, সারাদেশে ৬৮টি ল্যাব আছে। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় ৬৫টি ল্যাবের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১৭ হাজার ৩৪ টি। আগের নমুনাসহ মোট পরীক্ষা করা হয়েছে ১৮ হাজার ৯২টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে সাত লাখ ৩০ হাজার ১৯৭টি। নাসিমা সুলতানা জানান, ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৪৩ জনের মধ্যে ৩১ জন পুরুষ ও নারী ১৪ জন। এদের মধ্যে রয়েছেন ঢাকা বিভাগে ২১ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ১০ জন, রাজশাহী ও বরিশাল বিভাগে দুই জন করে চার জন, খুলনা ও সিলেট বিভাগে তিন জন করে ছয় জন, রংপুর বিভাগে এক জন ও ময়মনসিংহ বিভাগে এক জন। এদের মধ্যে হাসপাতালে মারা গেছেন ৩০ জন, বাসায় মারা গেছেন ১২ জন। মৃত অবস্থায় হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে এক জনকে। মৃত্যুদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে এক জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে সাত জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১২ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১৩ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে সাত জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে এক জন ও ২১ থেকে থেকে ৩০ বছরের মধ্যে দুই জন। তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ৭১৭ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ৪৬১ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন ২৪ হাজার ৮১০ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১৪ হাজার ৫২৪ জন।

জাতীয় পাতার আরো খবর