ডাঃ জাহাঙ্গীর সাত্তার টিংকুর মৃত্যুবার্ষিকীতে দোয়া ও মিলাদ মাহাফিল অনুষ্ঠিত
৯,ফেব্রুয়ারী,মঙ্গলবার,আহম্মদ হোসেন ভূইয়া,ঢাকা,নিউজ একাত্তর ডট কম: বীর চট্রলার সুর্য সন্তান, ৯০ স্বৈরচ্চার বিরোধী গণআন্দোলনের নায়ক, জাতীয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা, জাতীয় বীর ডাঃ জাহাঙ্গীর সাত্তার টিংকুর ৯ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া ও মিলাদ মাহাফিল ঢাকা হাইকোর্ট মাজার মসজিদে বাদে আসর ৯ই ফ্রেব্রুয়ারী২১ ঢাকাস্থ চট্রগ্রাম আওয়ামী পরিবারের নেতৃবৃন্দ উদ্যোগে সাবেক ছাত্রনেতা ও দেশ ওলামালীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব মুফতী মাসুম বিল্লাহ নাফিয়ী পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা মহিউদ্দিন আহমেদ হেলাল, যুবলীগের কেন্দ্রীয় সাবেক সদস্য রাশেদ খান মেনন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ উপকমিটির সদস্য তসলিম উদ্দিন রানা, নাসির উদ্দিন এম এ রাশেদ, মিজানুর রহমান, কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় ধর্ম সম্পাদক মোশাররফ হোসেন আলমগীর, স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য আবু হানিফ চৌধুরী, আওয়ামী লীগ নেতা ক্বারী মাওলানা আসাদুজ্জামান, মাওলানা রবিউল আলম সিদ্দিকী, নায়ক ইউছুফ রনি, শেখ বাহার,আলমগীর আলম খান, সন্তোষ দাশ, জিকু বড়ুয়া, শাহা মুহাম্মদ আমান উল্লাহ, নাজমুল আলম খান বিপ্লব, সৈয়দ গোলাম আয়েজ, আব্দুল করিম, মোঃ মোস্তফা, সরোয়ার উদ্দিন প্রমুখ। সভায় ডাঃ জাহাঙ্গীর সাত্তার টিংকুর মাগফিরাত কামনায় দোয়ার হয়।তার প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানাই।তার আত্ত্বার মাগফেরাত কামনা করেন ও পরিবারের জন্য দোয়া করেন। ডাঃ টিংকু আওয়ামী রাজনীতির দুঃসময়ের যোদ্ধা হিসেবে ৯০ গণ-আন্দোলনের নায়ক ছিলেন।জাতীয় বীর হিসেবে পরিচিত ছিলেন। দলের জন্য তার অবদান অতুলনীয়।মানুষের কল্যাণে অনেক দান করে গেছেন। আজীবন মানুষ তার উপকারের কথা স্মরণ করবে। আল্লাহ তাকে জান্নাতুল ফেরদৌস দান করুন আমিন। দোয়ায় ডা. জাহাঙ্গীর সাত্তার টিংকু রূহের মাগফেরাতসহ সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ১৫ আগস্ট নিহত সকলের রূহের মাগফেরাত কামনা করা হয়। এছাড়াও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ুসহ সুস্বাস্থ্য কামনা এবং করোনা মহামারী থেকে বিশ^বাসীর মুক্তির জন্য বিশেষ প্রার্থনা করা হয়।
দ্রুত এগিয়ে চলছে বঙ্গবন্ধু বায়োপিকের কাজ : মুম্বাইতে চিত্রায়ন পরিদর্শনে তথ্যমন্ত্রী
৯,ফেব্রুয়ারী,মঙ্গলবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথ উদ্যোগে শ্যাম বেনেগালের পরিচালনায় নির্মীয়মান বঙ্গবন্ধু বায়োপিকের কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে, অনেকটাই সম্পন্ন হয়েছে বলেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। ভারত সফররত তথ্যমন্ত্রী সোমবার মুম্বাই ফিল্ম সিটিতে বঙ্গবন্ধুর জীবনী ভিত্তিক এই চলচ্চিত্র চিত্রায়নের অগ্রগতি পরিদর্শন শেষে একথা জানান। সোমবার দুপুরে ড. হাছান মাহমুদ মুম্বাই ফিল্ম সিটিতে পৌঁছুলে মহারাষ্ট্রের স্বাস্থ্যশিক্ষা ও সংস্কৃতি মন্ত্রী অমিত দেশমুখ তাকে স্বাগত জানান এবং ফিল্ম সিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মনীষা ভার্মা, বঙ্গবন্ধু বায়োপিকের পরিচালক শ্যাম বেনেগাল ও আরেফিন শুভ, তিশা, নুসরাত ফারিয়া, দিলারা জামান প্রমুখসহ বায়োপিকের অভিনয় শিল্পীদের নিয়ে স্যুটিং সেট পরিদর্শন করেন তারা। স্যুটিং সেটে ১৯৭১ সালে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনাসহ বঙ্গবন্ধু পরিবারকে ঢাকায় ধানমন্ডির যে বাড়িতে অন্তরীণ রাখা হয়েছিল, যেখানে সজীব ওয়াজেদ জয়ের জন্ম, তখনকার সেই পাকিস্তানি বাঙ্কার ও পতাকাসমেত বাড়িটি এবং আশেপাশের বাড়িগুলোর অবিকল প্রতিরূপ তৈরি করে চলচ্চিত্র চিত্রায়ণের প্রশংসা করেন ড. হাছান মাহমুদ। মহারাষ্ট্রের স্বাস্থ্যশিক্ষা ও সংস্কৃতি মন্ত্রী অমিত দেশমুখের সাথে বৈঠক ও বঙ্গবন্ধু বায়োপিকের সেট পরিদর্শন শেষে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ জানান, এপ্রিল মাসের মধ্যে বঙ্গবন্ধু বায়োপিকের মুম্বাই অংশের স্যুটিং শেষ হবে এবং সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশে স্যুটিং শুরু হবে। এদিন বিকেলে মুম্বাইতে ন্যাশনাল মিউজিয়াম অভ ইন্ডিয়ান সিনেমা পরিদর্শন ও সন্ধ্যায় মুম্বাইতে বাংলাদেশ উপ-দূতাবাস আয়োজিত অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণকারী ভারতীয় নাগরিক এবং মুম্বাইয়ের চলচ্চিত্র অঙ্গণের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সঙ্গে মতবিনিময় করেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান। ৫ ফেব্রুয়ারি থেকে পাঁচদিনের এ সফরে তথ্যমন্ত্রী কলকাতায় ৩য় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসব উদ্বোধন করেন ও ১৯৭২ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি কলকাতার ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে ইন্দিরা গান্ধীর উপস্থিতিতে ১০ লাখেরও বেশি বাঙালির উদ্দেশে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণের ৪৯ বছরপূর্তি উপলক্ষে সেই ময়দানে বক্তব্য রাখেন। সফর শেষে বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) তথ্যমন্ত্রীর দেশে ফেরার কথা।
করোনা ভাইরাসের টিকা নিতে মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরার আহ্বান
৯,ফেব্রুয়ারী,মঙ্গলবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা দেশের সবাইকে করোনা ভাইরাসের টিকা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। আজ মঙ্গলবার রাজধানীতে শিশু একাডেমির সম্মেলন কক্ষে ভার্চুয়াল মাধ্যমে রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের- জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ শীর্ষক সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ আহবান জানান। প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে করোনা আক্রান্তের হার ও মৃত্যুর হার কম। প্রতিদিন নানা বয়সী মানুষ করোনার ভ্যাকসিন নিচ্ছে। এতে কারো সাইড এফেক্ট হচ্ছে না। তিনি বলেন, উন্নত দেশগুলো চেষ্টা করেও যেখানে ভ্যাকসিন পাচ্ছে না সেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় বাংলাদেশে ভ্যাকসিন পৌঁছেছে এবং জনসাধারণ তা গ্রহণ করছে। জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ- শীর্ষক সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে যথাক্রমে রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার ড. মো: হুমায়ুন কবীর ও রংপুরের বিভাগীয় কমিশনার মো: আব্দুল ওয়াহাব ভূইয়া সভাপতিত্ব করেন। দুই বিভাগের ১০ জন শ্রেষ্ঠ জয়িতাকে অর্থনৈতিকভাবে সাফল্য অর্জনকারী, শিক্ষা ও চাকরি ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী, সফল জননী, নির্যাতনের বিভীষিকা মুছে ফেলে নতুন উদ্যমে জীবন শুরু করা এবং সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদান রাখা ক্যাটাগরিতে সম্মাননা ক্রেস্ট, সনদ ও পুরস্কারের নগদ অর্থ প্রদান করা হয়।
ক্যাম্পাসে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিতের আহ্বান রাষ্ট্রপতির
৯,ফেব্রুয়ারী,মঙ্গলবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: শিক্ষার্থীরা যাতে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ পায় এবং দেশ ও মহান মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে জানতে পারে সে বিষয়ে অগ্রাধিকার দিতে দেশের কিশোরগঞ্জে নব প্রতিষ্ঠিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রথম উপাচার্য (ভিসি) ড. জেড. এম. পারভেজ সাজ্জাদ সোমবার (৮ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি এমন আহ্বান জানান। বিশ্বব্যাপী শিক্ষা পদ্ধতির পরিবর্তনশীল পরিস্থিতির কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, বিশ্ব দ্রুত পাল্টে যাচ্ছে। পরিবর্তিত পরিস্থিতির সঙ্গে তাল মিলিয়ে শিক্ষা কার্যক্রম যাতে এগিয়ে যেতে পারে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। পদাধিকার বলে বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর আবদুল হামিদ আরও বলেন, বিভাগ নির্বাচনের ক্ষেত্রেও যুগের চাহিদাকে বিবেচনায় রাখতে হবে। অবকাঠামো নির্মাণের ক্ষেত্রে গুণগত মান এবং পরিবেশের ব্যাপারে সচেতন থাকতে হবে। বৈঠক শেষে রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব গণমাধ্যমকে বলেন, সাক্ষাৎকালে উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠালগ্নে করণীয় বিষয়বস্তু সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন এবং প্রতিষ্ঠান পরিচালনায় রাষ্ট্রপতির সার্বিক সহযোগিতা চান। নবনিযুক্ত উপাচার্যকে অভিনন্দন জানিয়ে রাষ্ট্রপতি বলেন, কিশোরগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয় দেশে বিশেষ করে হাওর অঞ্চলে উচ্চ শিক্ষার বিস্তারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। কিশোরগঞ্জের এই নতুন বিশ্ববিদ্যালয়টি সরকারি অর্থায়নে দেশের একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়। গত বছরের ২৯ জুন জাতীয় সংসদে এটির বিল উত্থাপিত হয়। উচ্চতর শিক্ষা ও গবেষণার সম্প্রসারণসহ দেশের উচ্চশিক্ষার প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা বাড়াতে ওই বছরেরই ৯ সেপ্টেম্বর বিলটি পাস হয়। রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়ুয়া, সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এস এম সালাহ উদ্দিন ইসলাম, প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন ও সচিব (সংযুক্ত) মো. ওয়াহিদুল ইসলাম খান এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
ডিপ্লোম্যাসি অ্যাওয়ার্ড পেলেন সাইদা মুনা তাসনীম
৯,ফেব্রুয়ারী,মঙ্গলবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনীম উইমেন্স ইন্ডিয়ান চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ (ডব্লিওআইসিসিআই) প্রদত্ত- উইমেন অব দি ডিকেড ইন পাবলিক লাইফ অ্যান্ড ডিপ্লোম্যাসি অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন। বাংলাদেশের শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া বিজনেস কাউন্সিল অব উইমেন্স ইন্ডিয়ান চেম্বার অব কমার্স এ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ (বিআইবিসি-ডব্লিওআইসিসিআই)-এর উদ্যোগে আয়োজিত দুই দিনব্যাপী উইমেন অন্ট্রাপ্রেনিওর সামিট-২০২১র ভার্চুয়াল সমাপনী অনুষ্ঠানে হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনীমকে এ পুরস্কার প্রদান করেন। মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) যুক্তরাজ্যের বাংলাদেশ হাইকমিশন এ তথ্য জানিয়েছে। বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ভিন্ন ক্যাটাগরীতে এবছর ডব্লিওআইসিসিআই পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন। পুরস্কার গ্রহণের পর হাইকমিশনার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে তার এ পুরস্কার বাংলাদেশের তৃনমূলের নারী যারা প্রতিদিন কৃষি, পোষাক শিল্প, মৎস্য খামার, নির্মাণ শিল্প, গৃহকর্মী ও বিদেশে প্রবাসী শ্রমিক হিসেবে কাজ করছেন তাদের উদ্দেশে উৎসর্গ করেন। হাইকমিশনার প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি গভীর প্রদ্ধা জানিয়ে বিগত এক দশকে তার নেতৃত্বে বাংলাদেশে নারীদের অভূতপূর্ব ক্ষমতায়নের মাধ্যমে দেশকে ওয়ার্ল্ড ইকোনোমিক ফোরামের- গ্লোবাল জেন্ডার গেফ ইনডেস্কের শীর্ষস্থানে অধিষ্ঠিত করার কথা উল্লেখ করেন। বিগত বছরগুলোতে বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র প্রধান, নোবেল বিজয়ী ও বিশ্ব নেতৃবৃন্দকে ডব্লিওআইসিসিআই এ পুরস্কারে ভূষিত করেছে। তাদের মধ্যে রয়েছেন মাল্টার প্রেসিডেন্ট ম্যারি লুই কোলেইরো প্রেসা, কোস্টারিকার প্রেসিডেন্ট লরা সিনসিলা মিরান্ডা, কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো ও অস্ট্রেলিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী জুলিয়া গিলার্ড। ডা. দীপু মনির সভাপতিত্বে সমাপনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন এশিয়া ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের চ্যান্সেলর মিসেস শেরি ব্লেয়ার, বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত নাওকি ইতো, বাংলাদেশে জাতিসংঘের আবাসিক কোঅর্ডিনেটর মিস নিয়া শেফু, ডাব্লিওআইসিসিআই-এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ড. হারবিন ওরোরা এবং বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া বিজনেস কাউন্সিল অব উইমেন্স ইন্ডিয়ান চেম্বার অব কমার্স এ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ'র (বিআইবিসি-ডব্লিওআইসিসিআই) সভাপতি মিস মানতাসা আহমেদ।
সামরিক শাসনামলের অধ্যাদেশগুলো জুনের মধ্যে আইন করার নির্দেশ
৮,ফেব্রুয়ারী,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সামরিক শাসনামলে জারি করা অধ্যাদেশগুলো আগামী জুন মাসের মধ্যে আইনে পরিণত করার নির্দেশনা দিয়েছে মন্ত্রিসভা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে (৮ ফেব্রুয়ারি) ভার্চ্যুয়াল মন্ত্রিসভা বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। বৈঠক শেষে সচিবালয়ে ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, একটা উল্লেখযোগ্য বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে। ২০১৩ সালে রুলিং দেওয়া হলো হাইকোর্ট থেকে, যে পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট থেকে আটাত্তর পর্যন্ত এবং বিরাশি থেকে ছিয়াশির সেপ্টেম্বর পর্যন্ত যে অর্ডিন্যান্সগুলো (অধ্যাদেশ) করা হয়েছিল সেগুলো বাছাই করে প্রয়োজনীয় আইন করতে হবে। আর যেগুলোর প্রয়োজন নেই সেগুলো ড্রপ করে দিতে হবে। এগুলোর কয়েকশ আইন ছিল সেগুলো সব হয়ে গেছে। এখন ৫৯টি আইন বাকি আছে। প্রত্যেক মন্ত্রণালয় অনুযায়ী লিস্ট করে দিয়ে দেওয়া হয়েছে এবং কেবিনেট থেকে সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়েছে আগামী জুন মাসের মধ্যে অবশ্যই এগুলো আইনে পরিণত করবে। এজন্য কিছু নির্দেশনাও দেওয়া হয়েছে। মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, অনেক নতুন সচিব আসছেন তারা হয়তো জানেন না। তাদের নিয়ে আমরা আগামী ২০ জানুয়ারি বসে গাইডলাইন দিয়ে দেবো। যাতে আগামী জুন মাসের মধ্যে এগুলো সংসদে পাঠানোর মাধ্যমে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়া হয়।
মেডিকেল কলেজের ভর্তি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ
৮,ফেব্রুয়ারী,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দেশের সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল কলেজের ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষের এমবিবিএস কোর্সে ভর্তির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর। গতকাল রোববার (৭ ফেব্রুয়ারি) স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক অধ্যাপক ডা. এ কে এম আহসান হাবীব স্বাক্ষরিত এ ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিলের ভর্তি নীতিমালা অনুযায়ী, অনলাইনে আগামী ১১ ফেব্রুয়ারি দুপুর ১২টা থেকে আবেদন শুরু হয়ে চলবে ১ মার্চ রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত। টেলিটক প্রিপেইড সিমের মাধ্যমে এক হাজার টাকা জমা দিয়ে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের নির্দেশনা অনুযায়ী আবেদনপত্র পূরণ করতে হবে। সেখানে বলা হয়, বাংলাদেশের নাগরিক যারা ২০১৭ বা ২০১৮ সালে এসএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় এবং ২০১৯ বা ২০২০ সালে এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় (পদার্থ, রসায়ন ও জীববিজ্ঞানসহ) উত্তীর্ণ হয়েছেন তারা ভর্তি আবেদন করতে পারবেন। ২০১৭ সালের আগে এসএসসি বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীরা আবেদনের যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন না। দেশ কিংবা বিদেশে পরিচালিত শিক্ষা কার্যক্রমে এসএসসি বা সমমান এবং এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় মোট জিপিএ কমপক্ষে ৯ হতে হবে। ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী ও পার্বত্য জেলার প্রার্থীদের ক্ষেত্রে এসএসসি বা সমমান ও এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় মোট জিপিএ কমপক্ষে ৮ হতে হবে। এছাড়া সবার জন্য এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় জীববিজ্ঞানে ন্যূনতম গ্রেড পয়েন্ট ৩ দশমিক ৫০ থাকতে হবে। উল্লেখ্য, আগামী ২ এপ্রিল সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত ১০০ নম্বরের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এর সময়কাল এক ঘণ্টা।
মন্ত্রীরা আগে ভ্যাকসিন নিলাম, তাতেও সমস্যা দেখাবে অপপ্রচারকারীরা: খাদ্যমন্ত্রী
৮,ফেব্রুয়ারী,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, জনগণকে ভ্যাকসিন সম্পর্কে অভয় দেয়ার জন্য আমরা মন্ত্রীরা আগেই ভ্যাকসিন গ্রহণ করলাম। এরপরও অপপ্রচারকারীরা বলবে, মন্ত্রীরা ভ্যাকসিন নিলো জনগণকে রেখেই। সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে রাজধানীর শ্যামলীতে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট টিবি হাসপাতালে কোভিড-১৯ টিকার প্রথম ডোজ গ্রহণ শেষে তিনি এসব কথা বলেন। টিকা গ্রহণ শেষে খাদ্যমন্ত্রী কিছু সময় অপেক্ষা করেন। এরপর তিনি বলেন, আমি শারীরিকভাবে সম্পূর্ণ সুস্থ আছি। কোনো সমস্যা অনুভব করছি না। খাদ্যমন্ত্রী আরও বলেন, দেশবিরোধী একটি চক্র দেশের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালিয়ে আসছে। যখন ভ্যাকসিন নিয়ে ভারতের সঙ্গে চুক্তি হয় তখন তারা বলেছিল ভ্যাকসিন এ দেশে আসবে না। জনগণের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় ভ্যাকসিন দেশে এসে পৌঁছেছে। এখন তারা ভ্যাকসিন নিয়ে নেতিবাচক অপপ্রচার চালিয়ে জনগণের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করছে। এ সময় করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে নেতিবাচক প্রচারণায় বিভ্রান্ত না হওয়ারও আহ্বান জানান খাদ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, এখনো পৃথিবীর অনেক দেশ করোনা ভ্যাকসিন নিতে পারেনি। বাংলাদেশ দ্রুততম সময়ের মধ্যে ভ্যাকসিন আনতে সক্ষম হয়েছে। করোনা মহামারিতে দেশের মানুষের স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে।
প্রত্যাবর্তনই রোহিঙ্গা সঙ্কটের সমাধান: তুর্কি রাষ্ট্রদূত
৭,ফেব্রুয়ারী,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের নিজ মাতৃভূমি মিয়ানমারে ফিরে যাওয়ার মধ্যেই এ সঙ্কটের একমাত্র সমাধান দেখছে তুরস্ক। রোববার (৭ জানুয়ারি) সকালে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতকালে ঢাকায় নিযুক্ত তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মুস্তাফা ওসমান তুরান বলেন, মিয়ানমারের নাগরিকদের নিজ মাতৃভূমিতে প্রত্যাবর্তনই এ সঙ্কটের একমাত্র সমাধান। রোহিঙ্গা সঙ্কটে তুরস্ক বাংলাদেশের পাশে থাকবে বলেও জানান তিনি। পরে প্রধানমন্ত্রীর সহকারী প্রেস সচিব এম এম ইমরুল কায়েস সাংবাদিকদের এ বিষয়ে ব্রিফ করেন। তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মুস্তাফা ওসমান তুরান বলেন, রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধানে তুরস্ক সব সময় বাংলাদেশের পাশে থাকবে। এসময় বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গা দেখতে তুর্কি ফাস্ট লেডির কক্সবাজারের ক্যাম্প পরিদর্শনের কথা কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দু'দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের সফর বিনিময়ের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুই দেশের বিদ্যমান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং আগামীতে আরও শক্তিশালী হবে বলে আশা প্রকাশ করেন। বাংলাদেশে তুর্কি বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ আগ্রহের কথা জেনে সন্তোষ প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী। এছাড়া লেবানরের বৈরুত বিস্ফোরণে ক্ষতিগ্রস্ত বাংলাদেশে নৌবাহিনীর জাহাজ মেরামত করে দেওয়ার জন্য তুর্কি সরকারকে ধন্যবাদ দেন তিনি। রাষ্ট্রদূতের মাধ্যমে তুর্কি প্রেসিডেন্টকে শুভেচ্ছা জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মুস্তফা ওসমান তুরান বলেন, তার দেশের অনেক ব্যবসায়ী ও ব্যবসায়ী সংগঠন বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে আগ্রহী। তুর্কি একটি ব্যবসায়ী সংগঠন এলপিজি সেক্টরে বাংলাদেশে ১০০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করতে যাচ্ছে বলেও জানান রাষ্ট্রদূত। বাংলাদেশের একটি গুরুত্বপূর্ণ সড়কের নাম সাবেক তুর্কি প্রেসিডেন্ট মুস্তফা কামাল আতার্তুকের নামে রাখায় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।

জাতীয় পাতার আরো খবর