৪৬ হাজার গ্রাম পুলিশকে ৬ কোটি টাকা প্রণোদনা
১১মে,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বর্তমান করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় দেশের ৪৬ হাজার গ্রাম পুলিশকে ছয় কোটি টাকা প্রণোদনা দিচ্ছে সরকার। গ্রাম পুলিশের প্রত্যেক সদস্য ১৩০০ টাকা করে এই প্রণোদনা পাবেন। আজ সোমবার (১১ মে) স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে এ প্রণোদনার অর্থ বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব তানভীর আজম সিদ্দিকী স্বাক্ষরিত বরাদ্দপত্র এরইমধ্যে জেলা প্রশাসকদের কাছে পাঠানো হয়েছে। মন্ত্রণালয় সূত্রমতে, বর্তমান পরিস্থিতিতে দেশের চার হাজার ৫৬৯টি ইউনিয়র পরিষদের অধীনে ৪৬ হাজার গ্রাম পুলিশ বিশেষ ভূমিকা পালন করছে। গ্রামবাসীকে সচেনতামূলক মাইকিং করা, কেউ অসুস্থ হলে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা ইত্যাদি কাজে সহযোগিতা করেন এসব সদস্য। এজন্য জেলা প্রশাসকদের মাধ্যমে এসব গ্রাম পুলিশকে ১৩০০ টাকা করে প্রণোদনা দেওয়া হচ্ছে। স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম নিউজ একাত্তরকে বলেন, বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে ক্ষতিগ্রস্ত দেশের অসহায় ও দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে সরকার। এছাড়া সরকার নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে। তৃণমূলের সবচেয়ে নিম্ন গ্রেডের কর্মচারী গ্রাম পুলিশ। বর্তমান পরিস্থিতিতে তাঁরাও অনেকটা অসহায় হয়ে পড়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী এসব গ্রাম পুলিশের মানবিক দিক বিবেচনায় বিশেষ এ প্রণোদনা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।
দলীয় পরিচয়ে অনিয়ম করলে কঠোর ব্যবস্থা: কাদের
১১মে,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দেশে করোনাকালে ত্রাণ কার্যক্রমে স্বচ্ছতা নিশ্চিতকরণে শেখ হাসিনা সরকার কঠোর অবস্থানে রযেছে। যারা দলীয় পরিচয়ে অনিয়ম করবে তাদের স্মরণ করিয়ে দিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, অনিয়ম দুর্নীতির বিরুদ্ধে সরকারের শুদ্ধি অভিযান এখনো চলমান রয়েছে। সোমবার (১১ মে) তার সরকারি বাসভবনে ব্রিফিংকালে এসব কথা বলেন তিনি। ওবায়দুল কাদের বলেন, করোনার বিস্তার রোধ করতে সরকার সক্ষমতা বাড়িয়েছে। তিনি বলেন, সম্মুখ সারিতে তারুণ্যের শক্তি হিসেবে নতুন ডাক্তার ও নার্স যুক্ত হওয়ায় করোনা প্রতিরোধ লড়াইয়ে নতুন গতির সঞ্চার হয়েছে। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, দেশ যখন করোনার করাল গ্রাসে বিপর্যস্ত, তখন জনগণের প্রত্যাশা ছিলো বিএনপি ত্রাণ নিয়ে অসহায় মানুষদের দাঁড়াবে। কিন্তু তারা তা না করে তাদের নেতাকর্মীদের ঈদ উপহার কিনে দিচ্ছেন, এই দুর্যোগে যা কোনোভাবেই প্রত্যাশা নয়।
যুক্তরাজ্যে আটকে পড়া ১১৪ বাংলাদেশী দেশে ফিরেছেন
১১মে,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সরকার কোভিড-১৯ মহামারীজনিত কারণে ফ্লাইট স্থগিত হওয়ায় যুক্তরাজ্যে আটকে থাকা ১১৪ জন বাংলাদেশীকে আজ একটি বিশেষ বিমান করে লন্ডন থেকে দেশে ফিরিয়ে এনেছে। বিমানের উপ-মহাব্যবস্থাপক (পিআর) তাহেরা খোন্দোকার গণমাধ্যমকে বলেন, আমাদের বিশেষ বিমানটি আজ সকাল ৯টা ৪০ মিনিটে লন্ডন থেকে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে (এইচএসআইএ) অবতরণ করেছে। এদিকে, লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশন থেকে জারি করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ সরকারের বিশেষ বিমান বিজি-৪০৪১ রোববার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টা ৪৫ মিনিটে লন্ডন থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা করেছে। এতে বলা হয়, প্রত্যাবর্তনকারী যাত্রীদের বেশিরভাগই বাংলাদেশ থেকে আসা শিক্ষার্থী। যারা করোনা ভাইরাসের কারণে ফ্লাইট স্থগিত হওয়ায় যুক্তরাজ্যে আটকা পড়েছিলেন। যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের হাই কমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম হিথ্রো বিমানবন্দরে প্রত্যাবর্তনরত যাত্রীদের সঙ্গে দেখা করেছেন। তিনি বলেন, আমরা অত্যন্ত বিনীতভাবে সন্তোষ প্রকাশ করছি যে, পবিত্র ঈদুল ফিতর উৎসবের আগেই যুক্তরাজ্যে আটকে থাকা বাংলাদেশী নাগরিকদের, বিশেষত শিক্ষার্থীদের, বাংলাদেশে তাদের পরিবারের সঙ্গে পুনরায় একত্রিত করতে পারলাম। এর আগে, লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশনের অনুরোধে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বিশেষ ফ্লাইটটি বাংলাদেশ বিমান বাহিনী কল্যাণ ট্রাস্টের পক্ষ থেকে পরিচালনা করেছে। লন্ডন হাই কমিশন ইতিমধ্যে সব যাত্রীকেই স্বাস্থ্য মূল্যায়নের ভিত্তিতে একটি স্বাস্থ্য সনদ সরবরাহ করেছে, যাতে তাদের কেবল হোম কোরেন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে। বাংলাদেশ সরকারের সিদ্ধান্ত অনুসারে, বিমানবন্দরে আসার পরে বাংলাদেশীরা যদি সুস্থতার মেডিকেল সনদপত্র প্রদর্শন করতে ব্যর্থ হতেন, তাহলে সরকারের সিদ্ধান্ত অনুসারে তাদেরকে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ (এএফডি)-এর অধীনে পরিচালিত ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারান্টিনে প্রেরণ করা হতো। বাংলাদেশ এখন ভারত, অস্ট্রেলিয়া, থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুর এবং মিয়ানমার, যুক্তরাষ্ট্র ও মালয়েশিয়ায় আটকে পড়া বাংলাদেশীদের শিগগিরই ফিরিয়ে আনার পরিকল্পনা করেছে। করোনা ভাইরাসের কারণে বাংলাদেশ বিমান চলাচলে নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ গত ৫ মে টানা পঞ্চম বারের মতো বাড়িয়ে আগামী ১৬ মে পর্যন্ত করেছে। ফলে, এখন শুধু বিশেষ কিছু ফ্লাইট পরিচালিত হচ্ছে।
গণপরিবহন চালুর দাবি
১১মে,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার শর্তে সীমিত আকারে গণপরিবহন চালু করার দাবি জানিয়েছে যাত্রী অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ। একইসঙ্গে গণপরিবহন চলাচলের জন্য ১১টি সুপারিশ করেছে সংগঠনটি। সোমবার (১১ মে) গণমাধ্যমে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মেয়র এই দাবি জানান। এতে বলা হয়েছে, সারাদেশে ২৬ মার্চ থেকে সাধারণ ছুটি চলছে। ছুটিতে সারাদেশ কার্যত লকডাউন থাকার কথা। প্রথমদিকে সব বন্ধ থাকলেও গত কয়েকদিন পরিস্থিতি ভেঙে পড়েছে। দিনমজুর, গৃহকর্মীসহ শ্রমজীবী মানুষে রাস্তায় বেরিয়ে পড়ছে। পোশাক কারখানাসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানগুলো খুলে দেওয়া হয়েছে। সে কারণে সীমিত আকারে ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহন চালুর করা দরকার। বিজ্ঞপ্তিতে সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক সামসুদ্দীন চৌধুরী বলেন, জীবন যেমন জরুরি তেমনি জীবিকাও দরকার। আর এ দুটোকে সমন্বয় করতে গেলে গণপরিবহন চালুর বিকল্প নেই। জীবিকার তাগিদে একটু একটু করে সবই চালু করতে হবে। তবে তা স্বাস্থ্যবিধি মেনে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহনে ৪০ সিটের গাড়িতে ২০ সিট পরিপূর্ণ করে এক আসন ফাঁকা রেখে যাত্রী বহন করলে ও গাড়িতে উঠার আগে স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিষ্কার করার ব্যবস্থা এবং প্রতি টিপ শেষে জীবাণুনাশক স্প্রে দিয়ে গাড়ি পরিষ্কার করলে করোনার সংক্রমণ থেকে যাত্রীদের রক্ষা করা সম্ভব। একইসঙ্গে ৭০ লাখ পরিবহন শ্রমিকদেরও রুটি রুজি শুরু হবে। সংগঠনটটি ১১টি সুপারিশ করেছে। এগুলো হচ্ছে- বাস স্টপেজ ও রেল স্টেশনে আসা যাত্রীদের তাপমাত্রা মাপার জন্য স্টেশনে ইনফ্রারেড থার্মোমিটার রাখতে হবে। যাত্রীদের চলাচলের স্থানগুলো পরিষ্কার এবং জীবাণুমুক্ত রাখতে হবে। বাস স্টপেজ ও রেলস্টেশনে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা বা হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। যাত্রীদের অপেক্ষা করার স্থান, বাস কম্পার্টমেন্ট ও অন্যান্য এলাকা পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। যাত্রীদের মাস্ক ও হ্যান্ড গ্লাভস ব্যবহারে সচেতন করতে হবে। সিট কভারগুলোকে প্রতিনিয়ত ধোয়া, পরিষ্কার এবং জীবাণুমুক্ত করতে হবে। যাত্রীদের অনলাইনে টিকিট কেনার পরামর্শ দিতে হবে। গণপরিবহনের ওঠা ও নামার সময় শারীরিক দূরুত্ব বজায় রাখার জন্য যাত্রীদের সচেতন করতে হবে। গণপরিবহনের চালক-শ্রমিক ও পরিবহন সংশ্লিষ্টদের মাস্ক, হ্যান্ড গ্লাভস, পিপিই ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। যাত্রীদের স্বাস্থ্য সচেতন করার জন্য পত্রিকা, টেলিভিশন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অডিও, ভিডিও ও পোস্টারের মাধ্যমে সচেতনতামূলক বক্তব্য প্রদান করতে হবে। যুক্তিসঙ্গতভাবে পরিবহনের ধারণক্ষমতা সীমিত করে যাত্রী নিয়ন্ত্রণ ও যথাসম্ভব যাত্রীদের আলাদা বসার ব্যবস্থা করতে হবে। ফেরি বা নৌ টার্মিনাল এবং নৌযানগুলোকে পরিষ্কার ও জীবাণুমুক্ত রাখতে হবে।
পুলিশের ১৫০৯ সদস্য করোনায় আক্রান্ত
১০মে,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: নোভেল করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) দেশের মোট ১ হাজার ৫০৯ পুলিশ সদস্য আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে শুধু ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ৭০৮ সদস্য আক্রান্ত হয়েছেন। পুলিশ সদর দপ্তর সূত্রে জানা গেছে এ তথ্য। এদিকে করোনায় সাত পুলিশ সদস্য মারা গেছেন। বর্তমানে ২ হাজার ৮৭০ পুলিশ সদস্য কোয়ারেন্টাইনে আছেন এবং ৪৬৬ জন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। সেই সঙ্গে ১১০ পুলিশ সদস্য সুস্থ হয়ে উঠেছেন। করোনার সংক্রমণ রোধে দেশে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করার জন্য পুলিশ, সশস্ত্র বাহিনী, Rab ও অন্যান্য সংস্থা যৌথভাবে কাজ করছে। করোনাভাইরাস আক্রান্ত বাহিনীর সদস্যদের চিকিৎসার জন্য রাজধানীর ইমপালস হাসপাতাল ভাড়া করেছে বাংলাদেশ পুলিশ। পুলিশ সদর দপ্তরের সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি-মিডিয়া) সোহেল রানা নিউজ একাত্তরকে বলেন, ২৫০ শয্যার হাসপাতালটিতে কেবল করোনাভাইরাস আক্রান্ত পুলিশ সদস্যদের চিকিৎসা দেয়া হবে। দেশে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে নিশ্চিত করে ১৪ হাজার ৬৫৭ জন আক্রান্ত এবং ২১৮ জন মারা গেছেন। সরকার ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সাধারণ ছুটির মেয়াদ ১৬ মে পর্যন্ত বাড়িয়েছে। কিন্তু রমজান ও ঈদুল ফিতরের কথা বিবেচনা করে কিছু ক্ষেত্রে মানুষের চলাচলের ওপর বিধিনিষেধ শিথিল করা হয়েছে। ব্যবসায়ীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রতিদিন বিকাল ৪টা পর্যন্ত দোকানপাট ও শপিংমল খোলা রাখার অনুমতি দেয়া হয়েছে।
বিশ্ব মা দিবস আজ
১০মে,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বিশ্ব মা দিবস আজ। জন্মদাত্রী মা, যার কল্যাণে পৃথিবীতে আলোর মুখ দেখা হয় সন্তানের। সেই মায়ের স্মরণে প্রতি বছর মে মাসের দ্বিতীয় রোববার বিশ্ব মা দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে। যদিও মাকে ভালোবাসা-শ্রদ্ধা জানানোর কোন দিনক্ষণ ঠিক করে হয় না- তবুও মাকে গভীর মমতায় স্মরণ করার দিন আজ। প্রাচীন গ্রিসে বিশ্ব মা দিবসের পালন করা হলেও আধুনিককালে এর প্রবর্তন করেন এক মার্কিন নারী। ১৯০৫ সালে যুক্তরাষ্ট্রের আনা জারভিস নামের নারী মারা গেলে তার মেয়ে আনা মারিয়া রিভস জারভিস মায়ের কাজকে স্মরণীয় করে রাখার জন্য সচেষ্ট হন। ওই বছর তিনি তার সান ডে স্কুলে প্রথম এ দিনটি মাতৃদিবস হিসেবে পালন করেন। ১৯০৭ সালের এক রোববার আনা মারিয়া স্কুলের বক্তব্যে মায়ের জন্য একটি দিবসের গুরুত্ব ব্যাখ্যা করেন। ১৯১৪ সালের ৮ মে মার্কিন কংগ্রেস মে মাসের দ্বিতীয় রোববারকে ‘মা’ দিবস হিসেবে ঘোষণা করে। এভাবেই শুরু হয় মা দিবসের যাত্রা। এরই ধারাবাহিকতায় আমেরিকার পাশাপাশি মা দিবস এখন বাংলাদেশসহ অস্ট্রেলিয়া, ব্রাজিল, কানাডা, চীন, রাশিয়া ও জার্মানসহ শতাধিক দেশে মর্যাদার সঙ্গে দিবসটি পালিত হচ্ছে। যদিও করোনার কারণে এবার দিবসটিতে কোন আনুষ্ঠানিকতা দেখা যাবেনা। তাই বলে ঘরে ঘরে মায়ের ভালবাসা কুড়াতে কার্পণ্য করবে না, কোন সুসন্তান।
করোনাভাইরাস মোকাবেলায় ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিলে অনুদান গ্রহণ করলেন প্রধানমন্ত্রী
১০মে,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোভিড-১৯ মহামারী মোকাবেলায় তাঁর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিলে দেশের ৫৭টি প্রতিষ্ঠান, সংস্থা এবং ব্যক্তির কাছ থেকে অনুদানের চেক গ্রহণ করেছেন। শেখ হাসিনা আজ সকালে তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের (পিএমও) সাথে যুক্ত হন। পিএমওতে মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে অনুদানের চেক গ্রহণ করেন। প্রধানমন্ত্রী এ সময় সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে কোভিড-১৯ মোকাবেলায় সহযোগিতার মানসিকতা নিয়ে এগিয়ে আসা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, সংস্থা এবং ব্যক্তিবর্গকে তাদের অনুদানের জন্য ধন্যবাদ জানান। অনুদান প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান, সংস্থা এবং ব্যক্তিরা হচ্ছে- প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল ও কলেজ, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ, খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (কেএইউ), কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়, নেত্রকোনা, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা ইউনিভার্সিটি অব ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজি (ডুয়েট), গাজীপুর, নর্থ সাউথ ইউনিভার্র্সিটি, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম ভেটেরনারি এন্ড এনিমেল সায়েন্স ইউনিভার্সিটি, ডাক ও টেলিযোগাযোগাগ বিভাগ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ (নগদ), বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, কৃষি মন্ত্রণালয়, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়, সুরক্ষা সেবা বিভাগ, শিল্প মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন সচিবালয়, পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ), ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কেম্পানী লিমিটেড (ডিএমটিসিএল), মিনিস্ট্র অব ডিফেন্স কনস্টাবুলারি (এমওডিসি), দ্যা কমিউনিষ্ট পার্টি অব চায়না, বাংলাদেশে সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই), চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই), জীবন বীমা কপোরেশন, সাধারণ বীমা কর্পোরেশন, ইনভেষ্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (আইসিবি), বাংলাদেশ ইন্সুরেন্স এসোসিয়েশন, বাংলাদেশ বার কাউন্সিল, বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস এসোসিয়েশন, বিসিএস কাষ্টমস এসোসিয়েশন, বাংলাদেশ ব্যুরো অব স্ট্যাটিসটিক্স, বিসিএস কৃষি এসোসিয়েশন, বাংলাদেশ ইলেকশন কমিশন অফিসার্স এসোসিয়েশন, পোলট্রি এসোসিয়েশন, বঙ্গবন্ধু ডিপ্লোমা প্রকৌশলী পরিষদ, সড়ক ও জনপথ ডিপ্লোমা প্রকৌশলী সমিতি, বঙ্গবন্ধু পিডব্লিউডি ডিপ্লোমা প্রকৌশলী সমিতি, বাংলাদেশ টি এসোসিয়েশন, বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ার্স ক্লাব লিমিটেড, বুয়েট টিচার্স এসোসিয়েশন, বাংলাদেশ রেজিষ্ট্রেশন সার্ভিস এসোসিয়েশন, থার্মাক্স গ্রুপ, ম্যাক্স গ্রুপ, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক, পূর্বাচল ক্লাব লিমিটেড, জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয় এবং জনাব মোস্তাসিম বিল্লাহ সিয়াম।
একদিনে দেশে আক্রান্ত-মৃত্যুর রেকর্ড
১০মে,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বিশ্বব্যাপী মহামারি রূপ নেয়া করোনাভাইরাসে প্রতিদিনই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। বাংলাদেশেও আক্রান্তের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে রেকর্ড সংখ্যক ৮৮৭ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১৪ হাজার ৬৫৭ জন। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক ১৪ জনের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২২৮ জনে। রোববার (১০ মে) দুপুরে করোনা ভাইরাস নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত অনলাইন বুলেটিনে এ তথ্য জানান সংস্থাটির অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা। তিনি জানান, করোনাভাইরাস শনাক্তে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৫ হাজার ৬৪২টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। আগের কিছু মিলিয়ে মোট পরীক্ষা করা হয় ৫ হাজার ৭৩৮টি নমুনা। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো ১ লাখ ২২ হাজার ৬৫৭ টি। নতুন নমুনা পরীক্ষায় আরও ৮৮৭ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১৪ হাজার ৬৫৭ জন। এ ছাড়া আরও ১৪ জনের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ২২৮ জনে। নাসিমা সুলতানা আরও জানান, আক্রান্তদের মধ্যে আরও ২৩৬ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হয়েছেন ২৬৫০ জন করোনা রোগী। ডিসেম্বরে প্রাদুর্ভাব শুরুর পর থেকে বেশিরভাগ দেশই ভাইরাসটিতে তেমন পাত্তা দেয়নি। অনেক দেশই ধারণা করেছিল, এটি চীনা ভাইরাস এবং এর সংক্রমণ হয়তো ইউরোপ-আমেরিকায় ছড়িয়ে পড়বে না। এজন্য সেখানকার দেশগুলো তেমন কোনো পদক্ষেপও নেয়নি। ফলও দিতে হচ্ছে তাদের। কারণ সংক্রমণ সংখ্যার দিক থেকে প্রথম দেশগুলোর তালিকার মাঝেই নেই চীন। বাংলাদেশে গত ৮ মার্চ প্রথম করোনা ভাইরাসের রোগী শনাক্ত হলেও প্রথম মৃত্যুর খবর আসে ১৮ মার্চ। দিন দিন করোনা রোগী শনাক্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ায় নড়েচড়ে বসে সরকার। ভাইরাসটি যেন ছড়িয়ে পড়তে না পারে সেজন্য ২৬ মার্চ থেকে বন্ধ ঘোষণা করা হয় সব সরকারি-বেসরকারি অফিস। কয়েক দফা বাড়ানো হয় সেই ছুটি, যা এখনও অব্যাহত আছে। পঞ্চম দফায় সেই ছুটি বাড়ানো হয় ৫ মে পর্যন্ত। তার আগেই আরেক দফা ছুটি বাড়িয়ে ১৬ মে পর্যন্ত করা হয়। করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের সংখ্যা ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার তথ্যানুযায়ী রোববার (১০ মে) এখন পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২ লাখ ৮০ হাজার ৪৩২ জন। এছাড়া এ ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে ৪১ লাখ ৭৯৬ জনের শরীরে। আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৪ লাখ ৪১ হাজার ৪৮৪ জন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন ২৩ লাখ ৭৮ হাজার ৮৮০ জন। এদের মধ্যে ২৩ লাখ ৩১ হাজার ১৯৯ জনের শরীরে মৃদু সংক্রমণ থাকলেও ৪৭ হাজার ৬৮১ জনের অবস্থা গুরুতর।
দুই হাজার চিকিৎসককে যোগদান ১২ মে
১০মে,রবিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম:করোনাকালে দেশে চিকিৎসা সেবায় রাষ্ট্রীয় জরুরি প্রয়োজনে নিয়োগ দেয়া দুই হাজার চিকিৎসককে পদায়ন করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার। রোববার (১০ মে) তাদের পদায়ন করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। এর আগে গত ৪ মে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে তাদের নিয়োগ দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। অধিদপ্তরের আদেশে বলা হয়, ৩৯তম (বিশেষ) বিসিএস পরীক্ষা, ২০১৮ এর ফলাফলের ভিত্তিতে সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) সুপারিশের আলোকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপনের আলোকে বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস (স্বাস্থ্য) ক্যাডারের সহকারী সার্জন পদে জাতীয় বেতন স্কেল, ২০১৫ অনুসারে ২২০০০-৫৩০৬০ টাকা বেতনক্রমে পদায়ণ করা হলো। আদেশে বলা হয়, নবনিয়োগপ্রাপ্ত এবং পদায়নকৃত কর্মকর্তাদের আগামী ১২ মে আবশ্যিকভাবে পদায়ন/সংযুক্তকৃত কার্যালয়ে যোগদানপত্র দাখিল করতে হবে। এক্ষেত্রে ইতোপূর্বে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত যোগদান পত্রের নির্ধারিত নমুনা অনুসরণ করতে হবে। বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে সংযুক্ত কর্মকর্তাগণ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নতুন ভবনে যোগদান করবেন। অন্যান্য শর্তের মধ্যে বলা হয়েছে, পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত কর্মকর্তারা শুধু কোভিড-১৯ ডেডিকেটেড হাসপাতাল/প্রতিষ্ঠানসমূহে দায়িত্ব পালন করবেন। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নবনিয়োগ অধিশাখার ৪ মে প্রজ্ঞাপনে বর্ণিত শর্তাবলী প্রযোজ্য হবে। চাকরিতে যোগদান করা কর্মকর্তাদের ৩০০ টাকা মূল্যের নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে নিজে বা পরিবারের অন্য সদস্যদের জন্য কোনো যৌতুক নেবেন না এবং কোনো যৌতুক দেবেন না মর্মে অঙ্গীকারনামা সম্পাদন করতে হবে, যা দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে যোগদানের সময়ে জমা প্রদান না করে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে অবশ্যই যথাযথ কর্তৃপক্ষ বরাবর দাখিল করবেন।দ্য গর্ভনমেন্ট সার্ভেন্টস (কনডাক্ট) রুলস, ১৯৭৯ এর ১৩(১) উপবিধি অনুযায়ী সকল স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তির বিবরণ সম্বলিত একটি ঘোষণাপত্র যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে করোনা পরবর্তী সময়ে অবশ্যই অধিদপ্তরে পাঠাতে হবে। করোনা পরিস্থিতে চিকিৎসকের জরুরি সংকট মোকাবিলায় গত ৩০ এপ্রিল ২০০০ চিকিৎসককে সাময়িকভাবে নিয়োগের সুপারিশ করেছিল পিএসসি। ওই দিন সিনিয়র স্টাফ নার্স পদে পাঁচ হাজার ৫৪ জনও নিয়োগের সুপারিশ করে কমিশন। নার্সদের ৭ মে পদায়ণ করে ১৩ মে’র মধ্যে যোগদানের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

জাতীয় পাতার আরো খবর