সোমবার, মার্চ ৩০, ২০২০
বিদেশি সিনেমা আমদানি ও প্রদর্শন করা যাবে না
ঈদুল ফিতর, ঈদুল আযহা, পূজা ও পয়লা বৈশাখের সময় যৌথ প্রযোজনার সিনেমা ছাড়া ভারতীয় বাংলা, হিন্দি, পাকিস্তানীসহ বাইরের কোনো সিনেমা দেশে আমদানি, প্রদর্শন ও বিতরণ করা যাবে না বলে রায় দিয়েছেন আপিল বিভাগ। আজ বুধবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে গঠিত তিন সদস্যের আপিল বেঞ্চ এ সংক্রান্ত হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত চাওয়া আবেদনটির নিষ্পত্তি করে রায় দেন। আপিল বেঞ্চের অপর দুই সদস্য হলেন, বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী ও বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার। আদালতে নীপা এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী সেলিনা বেগমের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী আজমালুল হোসেন কিউসি। সঙ্গে ছিলেন ব্যারিস্টার এম মনিরুজ্জামান আসাদ। অন্যদিকে হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত চাওয়া আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী এএম আমিন উদ্দিন। এ বিষয়ে এম মনিরুজ্জামান আসাদ বলেন, বিদেশি সিনেমা আমদানি ও প্রদর্শনের ফলে দেশি সিনেমায় দর্শক পাওয়া যাচ্ছে না। তাই নীপা এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী সেলিনা বেগম সংক্ষুব্ধ হয়ে একটি রিট দায়ের করেন। হাইকোর্ট ওই রিটের পরিপ্রেক্ষিতে যৌথ প্রযোজনাসহ সব আমদানি সিনেমার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেন। তিনি আরো বলেন, এরপর সে আদেশ স্থগিত চেয়ে আপিলে আবেদন জানায় চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির সভাপতি মো: ইকতেদার উদ্দিন নওশাদ। আদালত সে আবেদনের শুনানি নিয়ে হাইকোর্টের আদেশ কিছুটা মোডিফাই করেছেন। এর ফলে দেশে যৌথ প্রযোজনার ছবি চলতে বাধা নেই। তবে আমদানি করা সিনেমা প্রদর্শনে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা বহালই থাকছে। উল্লেখ্য, নীপা এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী সেলিনা বেগমের এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে গত ১০ মে হাইকোর্ট দেশে যৌথ প্রযোজনাসহ সকল প্রকার বিদেশি সিনেমা আমদানি ও প্রদর্শনের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেন। বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী এবং বিচারপতি একেএম জহিরুল হক রুলসহ এ আদেশ দেন। এরপর হাইকোর্টেন আদেশ স্থগিত চেয়ে আপিল বিভাগের চেম্বার আদালতে আবেদন করা হয়। পরে সে আবেদন শুনানির জন্য আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে পাঠানো হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে আজ আবেদনটির শুনানি শেষ আপিল বিভাগ আদেশ দেন।
বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট গভীর নিম্নচাপটি দুর্বল হতে শুরু করেছে
পূর্ব মধ্য বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট গভীর নিম্নচাপটি দুর্বল হতে শুরু করেছে। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সুস্পষ্ট লঘুচাপ থেকে এটা নিম্নচাপে পরিণত হয়। এ কারণে বাংলাদেশের সমুদ্র বন্দরগুলোতে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত জারি করা হয়। বুধবার সকাল পর্যন্ত এটি নিম্নচাপ হিসেবেই বঙ্গোপসাগরে ঘুরছিল। কিন্তু দুপুরের আগেই এটা আরো শক্তিশালী হয়ে গভীর নিম্নচাপে রূপ নেয়। এটা অগ্রসর হচ্ছিল মিয়ানমারের রাখাইন উপকূলের দিকে খুব দ্রুত গতিতে। কিন্তু সাগর থেকে এটা উপকূলে উঠার পরই গভীর নিম্নচাপটি দুর্বল হয়ে সাধারণ নিম্নচাপে পরিণত হয়ে গেছে। আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, বর্তমানে এটি মধ্য মিয়ানমারের নিয়াউংগোতে অবস্থান করছে। নিম্নচাপটি আরো উত্তর-পূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে ক্রমান্বয়ে দুর্বল হয়ে পড়বে। আবহাওয়া অফিস বাংলাদেশের সকল সমুদ্র বন্দরের জন্য জারি করা সতর্ক সংকেত নামিয়ে ফেলতে অনুরোধ করেছে। তবে উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।
মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় পটুয়াখালীর পাঁচজনের রায় যেকোনো দিন
মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় পটুয়াখালীর ইসহাক সিকদারসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে যেকোনো দিন রায় ঘোষণা করবেন ট্রাইব্যুনাল। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে বুধবার আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বাধীন তিন বিচারপতির বেঞ্চ মামলাটি রায় ঘোষণার জন্য অক্ষোমাণ রাখেন। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন প্রসিকিউটর জেয়াদ আল মালুম ও রেজিয়া সুলতানা চমন। আসামিদের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী আ. সাত্তার পালোয়ান। গত বছরের ৮ মার্চ পটুয়াখালীর ইসহাক সিকদারসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন ট্রাইব্যুনাল। অন্য চারজন হলেন- আব্দুল গণি হাওলাদার, আব্দুল আওয়াল ওরফে মৌলবী আওয়াল, আব্দুস সাত্তার প্যাদা ও সুলাইমান মৃধা। ২০১৬ সালের ১৩ অক্টোবর এই পাঁচজনের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দাখিল করে প্রসিকিউশন। ২০১৫ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর ট্রাইব্যুনাল এই পাঁচজনের বিরুদ্দে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। এরপর পাঁচজনকেই গ্রেপ্তার করা হয়। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সত্যরঞ্জন রায় বলেন, তাদের সকলের বয়স ষাটোর্ধ। তাদের বিরুদ্ধে একাত্তরে সংঘটিত হত্যা, গণহত্যা, ধর্ষণ, অগ্নিসংযোগসহ ছয় ধরনের মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ রয়েছে। আসামিদের বিরুদ্ধে একাত্তরে হত্যা ও ১৭ জনকে ধর্ষণের অভিযোগ রয়েছে। এর মধ্যে এখনো আটজন বীরাঙ্গনা জীবিত আছেন।
আজ প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন
ভারত সফর নিয়ে আজ বুধবার গণভবনে বিকেল ৪টায় সংবাদ সম্মেলন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইং সূত্রে জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ২৫ মে দুই দিনের সফরে ভারত যান। সফরের প্রথম দিন বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশ ভবনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এদিন নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বৈঠকও করেন। পরের দিন পশ্চিমবঙ্গের ত্রিশালে কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষ সমাবর্তনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সম্মান সূচক ডক্টর অব লিটারেচার (ডি লিট) ডিগ্রি দেওয়া হয়। ওইদিন সন্ধ্যায় কলকাতায় তাজ বেঙ্গল হোটেলে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠক করেন শেখ হাসিনা। সফর শেষে ২৬ মে রাতে ঢাকায় ফেরেন প্রধানমন্ত্রী।
ফের দুদকে বেসিকের বাচ্চু
কয়েক দফায় গরহাজিরের পর অবশেষে বুধবারও (৩০ মে) সকাল ১০টার দিকে দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) হাজির হলেন বেসিক ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল হাই বাচ্চু। অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এটা তার ৬ষ্ঠ দফায় হাজিরা। দুদক জানায়, বেসিক ব্যাংকের সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দুদকের পক্ষ থেকে ৬১টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এসব মামলায় আবদুল হাই বাচ্চুকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করা হচ্ছে। তবে কোনো মামলায় তাকে আসামি করা হয়নি। এর আগে ২০১৭ সালের ৪ ও ৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ সালের ৮ জানুয়ারি, ৮ মার্চ, ৪ এপ্রিল, ও ৭ মে আব্দুল হাই বাচ্চুকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হয়। দফায় দফায় আব্দুল হাই বাচ্চুকে কী কী জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে এবং তিনি কী বলেছেন এ বিষয়ে জানতে চাইলে তদন্ত সংশ্লিষ্ট একজন দুদক কর্মকর্তা জানান, বেসিক ব্যাংক থেকে জালিয়াতির মাধ্যমে যে ঋণগুলো দেওয়া হয়েছে সেসব ঋণ বাচ্চুসহ বোর্ড সদস্যরা অনুমোদন দিয়েছেন। অনুমোদনের অথরিটি হিসেবে কিসের ভিত্তিতে তারা সেগুলো দিয়েছেন এবং কোন বিবেচনায় তারা এসব অনুমোদন দিয়েছেন তা জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তাছাড়া, বেসিক ব্যাংক থেকে ঋণের নামে যে টাকাগুলো নেওয়া হয়েছে, সেসব টাকা লোন অ্যাকাউন্ট থেকে আবার বিভিন্ন অ্যাকাউন্টে ট্রান্সফার করা হয়েছে। পরে সেখান থেকে উঠিয়ে নেওয়া হয়েছে। সেই টাকা কোথায় কোথায় গেছে, কোন অ্যাকাউন্টে গেছে এসব বিষয়ে তাকে বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে দুদক জানায়।
তথ্যপ্রযুক্তি ছাড়া নারীর উন্নয়ন সম্ভব নয়
মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি বলেছেন, তথ্যপ্রযুক্তির এ যুগে প্রযুক্তিগত জ্ঞান ছাড়া উন্নয়ন সম্ভব নয়। এই ক্ষেত্রে নারীকে পিছিয়ে থাকলে চলবে না। দেশের অর্ধেক জনগোষ্ঠি নারীকে তথ্য প্রযুক্তিতে অনগ্রসর রেখে বাংলাদেশে উন্নত রাষ্ট্র হতে পারবে না এবং নারীর সামগ্রীক ক্ষমতায়ন ও সম্ভব নয়। মঙ্গলবার (২৯ মে) সকালে রাজধানীর বেইলি রোডে জাতীয় মহিলা সংস্থার সম্মেলন কক্ষে মহিলা সংস্থা কর্তৃক বাস্তবায়িত তথ্য আপাঃ প্রকল্পের আয়োজনে ‘গ্রামীণ মহিলাদের ক্ষমতায়নে তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি: প্রেক্ষাপট ও বাস্তবায়ন’ শীর্ষক সেমিনারে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন। তিনি বলেন তৃর্ণমূল নারীদের মাঝে তথ্য সেবা পৌঁছে দিতে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় ৫৪৪ কোটি টাকার প্রকল্প গ্রহন করেছে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের এক কোটি গ্রামীণ মহিলাদের তথ্য প্রযুক্তি সম্পর্কে সচেতন করা হবে এবং তাদের দৈনন্দিন নানা সমস্যার সমাধানে সাহায্য করা হবে। জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান মমতাজ বেগম এডভোকেটের সভাপতিত্বে এই কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাছিমা বেগম এনডিসি, ঢাকা বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার কে এম আলী আজম, জাতীয় মহিলা সংস্থার নির্বাহী পরিচালক বেগম জাহানারা পারভীন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন তথ্য আপা প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মীনা পারভীন। সেমিনারে নাছিমা বেগম এনডিসি বলেন, জনগনের দোরগোড়ায় তথ্য সেবা পৌঁছে দিতে প্রজাতন্ত্রের সকল কর্মকর্তাদের কাজ করতে হবে। আর এই কাজ সফল ভাবে করতে পারলে বাংলাদেশ উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হবে। কে এম আলী আজম বলেন, তথ্য প্রযুক্তিতে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে গেছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন আর স্বপ্ন নয় এটা বাস্তব।
হাইকোর্টের দেয়া ছয় মাসের জামিন স্থগিত খালেদা জিয়ার
কুমিল্লায় হত্যা ও নাশকতার দুই মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেয়া ছয় মাসের জামিন স্থগিত করেছেন আপিল বিভাগের চেম্বারজজ আদালত। একই সঙ্গে, জামিন স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষের করা আপিল আবেদনের শুনানির জন্য আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে পাঠিয়েছেন। মঙ্গলবার আপিল বিভাগের বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর চেম্বারজজ আদালত এই আদেশ দেন। আদালতে আজ রাষ্ট্রপক্ষে আপিলের আবেদন শুনানিতে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। তার সঙ্গে ছিলেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মো. মমতাজ উদ্দিন ফকির, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ, ড. মো. বশির উল্লাহ, এ কে এম দাউদুর রহমান মিনা, সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল কাজী মো. মাহমুদুল করিম রতন ও মো. শফিকুজ্জামান রানা। অন্যদিকে, খালেদা জিয়ার পক্ষে ছিলেন খন্দকার মাহবুব হোসেন, এ জে মোহাম্মদ আলী, জয়নুল আবেদীন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, মাহবুবু উদ্দিন খোকন, বদরোদ্দোজা বাদল, কায়সার কামাল, আমিনুল হক, মীর মো. নাসির, সানাউল্লাহ মিয়া, কামরুল ইসলাম সজল, এহসানুর রহমান ও ফাইয়াজ জিবরান প্রমুখ। ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ড. মো. বশির উল্লাহ বলেন, সোমবার হাইকোর্ট খালেদা জিয়ার ৬ মাসের জামিন মঞ্জুর করে আদেশ দেয়ার পর তা স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষ আবেদন করেছিলাম। সেই আবেদন শুনানির জন্য আজ মঙ্গলবার দিন ধার্য ছিল। নির্ধারিত দিনে শুনানির পর আদালত জামিন স্থগিত করে নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির জন্য আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে পাঠিয়েছেনে। এর আগে সোমবার সকালে বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি জে বি এম হাসানের হাইকোর্ট বেঞ্চ কুমিল্লার দুই মামলায় জামিন মঞ্জুর করে আদেশ দেন। তবে, নড়াইলের মানহানির মামলায় আবেদন উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দেন। রোববার কুমিল্লায় নাশকতার দুই মামলা ও নড়াইলের মানহানির মামলার ওপর শুনানি শেষ হয়। হাইকোর্টে আদেশের পর কুমিল্লার মামলার বিষয়ে খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, একটিতে ছয় মাসের জামিন দিয়ে রুল দিয়েছেন, অন্যটিতে ছয় মাসের জামিন দিয়েছেন। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির অভিযোগের মামলায় সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীকে গত ৮ ফেব্রুয়ারি পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন বিচারিক আদালত। সেই থেকে তিনি কারাবন্দি রয়েছেন পুরান ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে। ওই মামলায় আপিলের পর খালেদা জিয়াকে চার মাসের জামিন দেন হাইকোর্ট। যেটি গত ১৭ মে বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ। কিন্তু তার আইনজীবীরা বলছেন, খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অন্তত আরও ছয়টি মামলা রয়েছে; যেগুলোতে জামিন পেলেই কেবল তিনি মুক্তি পেতে পারেন। এর মধ্যে কুমিল্লায় তিনটি ও নড়াইলে একটি, বাকিগুলো ঢাকার।
৯ হাজার কোটি টাকার ১৩ প্রকল্প অনুমোদন একনেকে
জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠকে মোট ৯ হাজার কোটি টাকার ১৩টি উন্নয়ন প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর শেরে বাংলানগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে ভারতের ত্রিপুরার সূর্যমণিঘর থেকে বাংলাদেশের কুমিল্লার উত্তরে বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য ৫০০ মেগাওয়াট ব্যাক টু ব্যাক স্টেশন নির্মাণ প্রকল্প এবং রাজশাহী, রংপুর, খুলনা, চট্টগ্রাম ও সিলেট জেলার সমস্ত মহাসড়কের যথাযথ মানোন্নয়ন ও প্রশস্তকরণে ৩ হাজার ৩৬৮ কোটি টাকার প্রকল্পসহ আরও কয়েকটি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে। সভাশেষে এই বিষয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিং করেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। অন্যান্য প্রকল্পের মধ্যে রয়েছে উন্নত প্রযুক্তিনির্ভর পাট ও পাটবীজ উৎপাদন ও সম্প্রসারণ প্রকল্প, নির্বাচন কমিশনের আইডিইএ প্রকল্প এবং সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের দক্ষ চালক তৈরির লক্ষে প্রশিক্ষণের জন্য বিআরটিসির ৩টি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট ও ১৭টি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র আধুনিকায়ন ও শক্তিশালীকরণ প্রকল্প। মুস্তফা কামাল বলেন, ৫ জোনে সড়কগুলো খুবই ক্ষতিগ্রস্ত ও বৃষ্টি নষ্ট হয়ে গেছে। এ সড়কগুলো যাতায়াতের উপযোগী করার এ অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এজন্যে রাজশাহী জোনে ৭৬৭, রংপুরে ৬৫৪, খুলনায় ৭৫৬, চট্টগ্রামে ৬৫২ এবং সিলেট জোনে ৫৩৮ কোটি টাকা ব্যয় করা হবে। এসব জেলার আওতাধীন সব সড়ক বিভাগের ক্ষতিগ্রস্ত জেলা মহাসড়ক মেরামত ও পুনর্বাসন করা হবে। যাতে করে বেহাল সড়কের দুর্ভোগ থেকে ৫ জেলার মানুষ রক্ষা পান।

জাতীয় পাতার আরো খবর