রবিবার, আগস্ট ১৮, ২০১৯
যৌক্তিক কিছু কারণে গ্যাসের দাম বৃদ্ধি করা হয়েছে
২জুলাই২০১৯,মঙ্গলবার,নিউজ একাত্তর ডট কম:গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির পিছনে যৌক্তিক কারণ আছে বলে জানালেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) অভিনেতাএটি এম শামসুজ্জানকে দেখতে এসে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। কাদের বলেন, গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির পেছনে বেশ কিছু যৌক্তিক কারণ রয়েছে। এ নিয়ে যদি বিরোধী দল হরতাল বিক্ষোভের ডাক দেন তাহলে আমার ধারণা তাতে জনগণের সাড়া তারা পাবেন না। কারণ দেশের মানুষ বাস্তবতা বুঝেন। যৌক্তিক কিছু কারণে গ্যাসের দাম বৃদ্ধি করা হয়েছে। বিষয়টি দেশের মানুষ সহজ ভাবে নিবেন। হরতালে জনগণের ভোগান্তি যাতে না হয় সে বিষয়ে আমরা সতর্ক থাকবো। যুদ্ধাপরাধী পরিবারের সদস্য বা জামায়াত- শিবিরের লোকজন আওয়ামী লীগের সদস্য হতে পারবে কিনা জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, এ বিষয়ে নতুন কোনো সিদ্ধান্ত আমাদের নাই। আমাদের অবস্থান পরিষ্কার, আমরা কোন সময় তাদের সাথে আপোষ করে নিয়ে আমাদের পূর্বের সিদ্ধান্ত বহাল থাকবে।
যোগ্যতার ভিত্তিতেই পুলিশে চাকরি হবে:ডিআইজি হাবিবুর রহমান
২জুলাই২০১৯,মঙ্গলবার,নিউজ একাত্তর ডট কম:ঢাকা রেঞ্জ ডিআইজি হাবিবুর রহমান কনস্টেবল নিয়োগে নিজের বিভাগে জিরো টলারেন্স দাবি করে বলেছেন, চাকরি হবে মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতে। গতকাল নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি একথা বলেন। ঢাকা রেঞ্জের পুলিশ সুপারদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনারা সততা নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করুন। কারো কোনো অন্যায় আবদার রাখার দরকার নেই। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী জঙ্গি, মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করে সফল হয়েছেন। তার আন্তরিক সদিচ্ছার কারণে দেশের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভাল আছে। প্রধানমন্ত্রী ইতিমধ্যে বিশ্বমানচিত্রে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি একধাপ তুলে দিয়েছেন। তিনি দেশের ভেতরেও অন্যায়, অনিয়ম, দূর্নীতিরোধে বদ্ধ পরিকর। ফলে গত কয়েক বছর ধরেই পুলিশের নিয়োগ প্রক্রিয়ার মধ্যে স্বচ্ছতা আনা হয়েছে। এবার আমরা পুলিশের নিয়োগে শতভাগ স্বচ্ছতার সঙ্গে করছি। এরই ধারাবাহিতকতায় আইজিপি ইতিমধ্যে পুলিশ সুপার, ও তদুর্দ্ধ কর্মকর্তাদের নিয়ে পুলিশ সদর দফতরে একাধিক বৈঠক করেছেন। বৈঠকে তিনি প্রধানমন্ত্রীর উদ্ধৃতি দিয়েছেন, যে এবার পুলিশ নিয়োগে কোনো অনিয়ম বরদাশত করা হবে না। দেশের সব জেলাতেই এই নিয়ম মেনে পরীক্ষা নেয়া হচ্ছে। ১০৩ টাকার ফর্ম কিনে যে কেউ পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেন। শারীরিক যোগ্যতা, লিখিত পরীক্ষা ও মৌখিক পরীক্ষায় যারা উন্নীত হবে তারাই পুলিশের চাকরী পাবে। সুতরাং এখন থেকে কোনো অনিয়ম দুর্নীতির মাধ্যমে নয়- যোগ্যতার ভিত্তিতেই পুলিশে চাকরি হবে।তিনি বলেন, ঢাকা রেঞ্জের সব জেলা পুলিশ সুপাররা এ নিয়ম শতভাগ ফলো করছেন। আমি নিয়মিত তদারকি করছি।
পুলিশ নিজের জীবন রক্ষার্থেই গুলিবিনিময় করেছে
২জুলাই২০১৯,মঙ্গলবার,নিউজ একাত্তর ডট কম:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল কামাল বলেছেন, বরগুনার রিফাত হত্যার প্রধান আসামি নয়নের সঙ্গে আত্মরক্ষার্থেই পুলিশ গুলি বিনিময় করেছে। মঙ্গলবার দুপুরে সিরডাপ মিলনায়তন থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের তিনি একথা বলেন।স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যার প্রধান আসামি সাব্বির আহম্মেদ ওরফে নয়ন বন্ডকে (২৫) নিরাপত্তা বাহিনী বেশ কিছু দিন ধরে খুঁজছিল। নয়ন ছিল পলাতক। পুলিশ যখন তাকে ধরার চেষ্টা করছিল তখন নয়ন অস্ত্র প্রদর্শন করেছিল। এই জন্য পুলিশ নিজের জীবন রক্ষার্থেই গুলিবিনিময় করেছে। আর তাতে নয়ন বন্ড নিহত হয়। তিনি বলেন, এই ঘটনায় আরও যারা জড়িত তাদের জীবিত গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকেও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছিল। কিন্তু সম্ভব হয়নি। যত প্রভাবশালী লোকই এই ঘটনায় জড়িত থাকুক না কেন, তাদেরকেও আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। আমরা কেউ চাই না, বরগুনার রিফাত হত্যার মতো কোনো ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটুক।
বালিশকাণ্ডে হাইকোর্টের রুল
২জুলাই২০১৯,মঙ্গলবার,নিউজ একাত্তর ডট কম:রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় নির্মাণাধীন ভবনে আসবাবপত্র বিশ্বস্ততার সঙ্গে (গুড ফেইথ) কেনা ও উত্তোলনের ব্যর্থতা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে ওই ঘটনায় করা দুটি তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন দাখিল ও প্রতিবেদন অনুসারে কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে তা জানাতে রাষ্ট্রপক্ষকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। জনস্বার্থে করা রিটের শুনানিতে আজ মঙ্গলবার বিচারপতি তারিক উল হাকিম ও বিচারপতি মো. সোহরাওয়ার্দীর হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন রিটকারী আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমাতুল করিম। পরে ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সাংবাদিকদের জানান, পাবনার রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বালিশকাণ্ডে ওই বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্প এলাকায় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের থাকার জন্য গ্রিনসিটি আবাসন পল্লীর বিছানা, বালিশ, আসবাবপত্র অস্বাভাবিক মূল্যে কেনার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। রুলে এগুলো কেনা ও উত্তোলনে সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্মকর্তাদের সততা ও স্বচ্ছতা বজায় না রাখা কেন বেআইনি ও অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে এ ঘটনায় গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের তদন্ত প্রতিবেদন আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে দাখিল করতে বলা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট কোর্টের ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ প্রতিবেদন দাখিল করবেন। ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন বলেন, সম্প্রতি রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্পের গ্রিনসিটি আবাসন পল্লীর ভবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস কেনা ও তা ভবনে তোলায় অনিয়ম ও আর্থিক দুর্নীতি নিয়ে গত ১৬ মে বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকায় প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। রিটকারী আইনজীবী জানান, ওই সব প্রতিবেদন সংযুক্ত করে এ ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়ে এ আবেদনটি করা হয়েছে। সুমন আরো বলেন, ওই প্রকল্পের জন্য গ্রিনসিটি আবাসন পল্লীর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের থাকার জন্য যে ভবন, সেখানকার ফার্নিচার থেকে শুরু করে অন্যান্য জিনিস অস্বাভাবিক দামে কেনা হয়েছে। শুধু তাই নয়, তা ভবনে তোলার জন্যও অস্বাভাবিক খরচ দেখানো হয়েছে। এটি তদন্ত করার জন্য একটি বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠনের নির্দেশনা চেয়েছি। এর আগে গত ১৯ মে এ ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়। সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন জনস্বার্থে এই রিট আবেদন করেন। রিটে গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক মন্ত্রণালয় সচিব, পাবনার গণপূর্ত কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্টদের বিবাদী করা হয়েছে।
ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের বার্ষিক সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী
২জুলাই২০১৯,মঙ্গলবার,নিউজ একাত্তর ডট কম:আজ সকালে এখানে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের (ডব্লিওইএফ) বার্ষিক সম্মেলন আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়েছে।চীনের দালিয়ানে ৩ দিনব্যাপী ওয়ার্ল্ড ইকোনোমিক ফোরামস অ্যানুয়াল মিটিং অব দ্য নিউ চ্যাম্পিয়নস ২০১৯ শীর্ষক এই সম্মেলনে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধান এবং সরকার প্রধান, ব্যবসায়ী, সুধী সমাজের প্রতিনিধি, শিক্ষাবিদ এবং শিল্পীসহ প্রায় ১ হাজার ৮শরও বেশি প্রতিনিধি যোগদান করেছেন। এটি ডব্লিউইএফ সামার দাভোস নামেও পরিচিত। সম্মেলনের এবারের প্রতিপাদ্য হচ্ছে লিডারশীপ ৪.০- সাকসিডিং ইন এ নিউ এরা অব গোবালাইজেশন। লিয়াওডং রাজ্যের দালিয়ান উত্তর পূর্ব এশিয়ার ব্যবসা এবং অর্থনৈতিক কেন্দ্র এবং উত্তর চীনের হংকং হিসেবেও সুপরিচিত। চীনের প্রধানমন্ত্রী লী কেকিয়াং দালিয়ান আন্তর্জাতিক কনফারেন্স সেন্টারে সকালে এই অ্যানুয়াল মিটিং উদ্বোধন করেন। ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের নির্বাহী চেয়ারম্যান এবং প্রতিষ্ঠাতা ক্লাউস সোয়াব এবং লিআনিং প্রদেশের গভর্নর ত্যাং ইউজুন অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন। এদিকে, গতরাতে দ্বিপাক্ষিক সরকারি সফরে চীনে আগত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকালে ডব্লিওইএফর বার্ষিক সম্মেলনের উদ্বোধনী পর্বে যোগ দিয়েছেন। এই সম্মেলন থেকে বিশ্ব পরিবেশগত চ্যালেঞ্জ, আঞ্চলিক প্রতিযোগিতা, অর্থনৈতিক অসমতা এবং প্রযুক্তিগত সংকটের বিষয়ে নতুন পরিকল্পনা প্রণয়নের আহবান জানানো হবে। ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম (ডব্লিউইএফ) একটি সুইজারল্যান্ডের জেনেভা ভিত্তিক সংগঠন এবং ১৯৭১ সালে একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠান হিসেবে এর জন্ম। এটি ২০১৫ সালের জানুয়ারি মাসে সুইস ফেডারেল সরকারের আইনে অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থার স্বীকৃতি পায়। ডব্লিউইএফর লক্ষ্যে বলা হয়েছে এটি বিশ্বের রাষ্ট্রসমূহকে ব্যবসায়িক, রাজনৈতিক, প্রাতিষ্ঠানিক এবং সমাজের অন্যান্য নেতৃবৃন্দকে বৈশ্বিক, আঞ্চলিক এবং শিল্প খাতকে এগিয়ে নেওয়ার অঙ্গীকার নিয়ে গঠিত হয়েছে।বাসস
কারাগারে ডিআইজি মিজান
২জুলাই২০১৯,মঙ্গলবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম:দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা মামলায় সাময়িক বরখাস্ত পুলিশের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মিজানুর রহমানের জামিন আবেদন নামঞ্জুর কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।আজ মঙ্গলবার (২ জুলাই) ঢাকা মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ কে এম ইমরুল কায়েশ শুনানি শেষে এ আদেশ দেন। এর আগে সকাল সাড়ে ১০টায় ডিআইজি মিজানুর রহমানকে ব্যাপক পুলিশ প্রহরায় ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে হাজির করা হয়। আসামিপক্ষে আইনজীবী এহসানুল হকসহ আরও অনেকে জামিনের শুনানি করেন। রাষ্ট্রপক্ষে দুদকের আইনজীবী মোশারফ হোসেন কাজল ও জাহাঙ্গীর আলম জামিনের বিরোধিতা করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। এর আগে সোমবার হাইকোর্টে আগাম জামিনের জন্য গেলে ডিআইজি মিজানকে গ্রেফতারের নির্দেশ দেন হাইকোর্টের বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এসএম কুদ্দুস জামানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ। এ সময় মিজানকে তাৎক্ষণিক হাইকোর্ট পুলিশের হাতে তুলে দেন আদালত। গ্রেফতারের পর তাকে শাহবাগ থানায় নেয়া হয়। এ সময় আদালত বলেন, মিজানুর রহমান প্রকাশ্যে ঘুষ লেনদেনের বিষয়ে টেলিভিশনে সাক্ষাৎকার দিয়ে পুলিশ বিভাগের ইমেজ ধ্বংস করেছেন। যেটা পুলিশ বিভাগের পক্ষ থেকে কাম্য নয়। এর পর আদালত তাকে গ্রেফতার ও মামলার অপর আসামি ডিআইজি মিজানের ভাগ্নে পুলিশের এসআই মাহমুদুল হাসানকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন। উল্লেখ্য, মিজানুর রহমান ঢাকা মহানগর পুলিশে (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। বিয়ে গোপন করতে নিজের ক্ষমতার অপব্যবহার করে স্ত্রীকে গ্রেফতার করানোর অভিযোগ উঠেছিল তার বিরুদ্ধে। এ ছাড়া এক সংবাদ পাঠিকাকে প্রাণনাশের হুমকি ও উত্ত্যক্ত করার অভিযোগে মিজানুরের বিরুদ্ধে বিমানবন্দর থানায় সাধারণ ডায়েরিও (জিডি) হয়। নারী নির্যাতনের অভিযোগে গত বছরের জানুয়ারির শুরুর দিকে তাকে প্রত্যাহার করে পুলিশ সদর দফতরে সংযুক্ত করা হয়। দুদক কর্মকর্তার সঙ্গে ঘুষ লেনদেনের বিষয়টি সামনে আসার পর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মিজানকে সাময়িক বরখাস্তের একটি প্রস্তাব রাষ্ট্রপতির অনুমোদনের জন্য পাঠানো হয়। পরে ২৫ জুন মিজানুর রহমানকে সাময়িক বরখাস্ত করার প্রস্তাবে অনুমোদন দেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। অন্যদিকে মিজানের ঘুষ লেনদেনের বিষয়টি খতিয়ে দেখতে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছে পুলিশ প্রশাসন। কমিটির প্রতিবেদন পাওয়ার পর তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে প্রশাসন। যদিও নারী নির্যাতন, ঘুষ প্রদান, অবৈধ সম্পদ অর্জনসহ নানা অপকর্মের অভিযোগে দুই বছর ধরে মিজানুরের নাম আলোচনায় এলেও তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। ২৪ জুন ৩ কোটি ৭ লাখ টাকার সম্পদের তথ্য গোপন ও ৩ কোটি ২৮ লাখ টাকা অবৈধভাবে অর্জনের অভিযোগে মিজানুরের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক।
পাঁচ দিনের সরকারি সফরে চীনে প্রধানমন্ত্রী
২জুলাই২০১৯,মঙ্গলবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: পাঁচ দিনের সরকারি সফরে চীন পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার বিকেলে চীনের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেন তিনি। এ সফর দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্ককে জোরদার করবে বলে আশা করা হচ্ছে। এই সফরে শেখ হাসিনা ২ জুলাই দালিয়ানে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের (ডব্লিউইএফ) বার্ষিক সম্মেলনে যোগ দেওয়ার পাশাপাশি বেইজিংয়ে ৪ ও ৫ জুলাই যথাক্রমে চীনের প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়াংয়ের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক ও প্রেসিডেন্ট সি চিনপিংয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তাঁর সফরসঙ্গীদের বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের একটি বিশেষ ফ্লাইট সোমবার বিকেল ৫টা ২০ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করে। ফ্লাইটটির স্থানীয় সময় রাত সোয়া ১২টায় চীনের লিয়াওনিং প্রদেশের দালিয়ান ঝৌশুজি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। দালিয়ান বিমানবন্দরে অভ্যর্থনা জানানো শেষে প্রধানমন্ত্রীকে মোটর শোভাযাত্রা সহকারে শাংগ্রি-লা হোটেলে নেওয়া হয়। লিয়াওনিং প্রদেশের বন্দরনগরী দালিয়ান সফরকালে তিনি সেখানেই অবস্থান করবেন। ১ থেকে ৩ জুলাই দালিয়ানে অ্যানুয়াল মিটিং অব দ্য নিউ চ্যাম্পিয়ন্স ২০১৯ শীর্ষক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এ সম্মেলন ডব্লিউইএফ সামার দাভোস হিসেবেও পরিচিত। প্রধানমন্ত্রী মঙ্গলবার সকালে দালিয়ান আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ডব্লিউইএফ সামার দাভোসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। শেখ হাসিনা বিকেলে ডব্লিউইএফের প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী প্রধান ক্লাউস শোয়াবের সঙ্গে তাঁর কার্যালয়ে সাক্ষাৎ এবং দালিয়ান আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে কো-অপারেশন ইন দ্য প্যাসিফিক রিম শীর্ষক অধিবেশনে প্যানেল সদস্য হিসেবে থাকবেন। ৩ জুন বুধবার স্থানীয় সময় বেলা ১১টায় চীন সরকারের সরবরাহ করা বিশেষ চার্টার্ড ফ্লাইটে করে বেইজিংয়ের উদ্দেশে দালিয়ান ত্যাগ করবেন প্রধানমন্ত্রী। ফ্লাইটটির স্থানীয় সময় দুপুর সোয়া ১২টায় বেইজিং ক্যাপিটাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করার কথা রয়েছে। বিমানবন্দরের আনুষ্ঠানিকতা শেষে প্রধানমন্ত্রীকে মোটর শোভাযাত্রা দিয়ে দিয়াওয়ুতাই রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবনে নিয়ে যাওয়া হবে। চীনের রাজধানী বেইজিং সফরকালে তিনি এখানে অবস্থান করবেন। বিকেলে তিনি বেইজিংয়ের লিজেনদালি হোটেলে প্রবাসী বাংলাদেশিদের দেওয়া সংবর্ধনা ও ভোজে অংশ নেবেন। শেখ হাসিনা ৪ জুলাই বৃহস্পতিবার সকালে গ্রেট হল অব দ্য পিপলে তাঁকে স্বাগত জানানোর অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন এবং হিরোস মেমোরিয়ালে পুষ্পস্তবক অর্পণ করবেন। পরে তিনি গ্রেট হল অব দ্য পিপলে চীনের প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়াংয়ের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক এবং চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন। সেই সঙ্গে তিনি একই জায়গায় চীনের প্রধানমন্ত্রী আয়োজিত ভোজসভায় যোগ দেবেন। একই দিন বিকেলে তিনি চীনা ব্যবসায়ী নেতাদের সঙ্গে এক গোলটেবিল বৈঠকে অংশ নেবেন। ৫ জুলাই শুক্রবার সকালে চীনা গবেষণা প্রতিষ্ঠান পেনগোল ইনস্টিটিউট আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেবেন প্রধানমন্ত্রী। পরে বিভিন্ন চীনা কোম্পানির প্রধান নির্বাহী শেখ হাসিনার সঙ্গে তাঁর আবাসস্থলে সাক্ষাৎ করতে যাবেন। সেই সঙ্গে এনপিসি চেয়ারম্যান লি ঝাংশুর সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বিকেলে প্রধানমন্ত্রী দিয়াওয়ুতাই রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবনে চীনা প্রেসিডেন্ট সি চিনপিংয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। পাশাপাশি সন্ধ্যায় তিনি একই জায়গায় চীনা প্রেসিডেন্ট আয়োজিত ভোজসভায় যোগ দেবেন। প্রধানমন্ত্রী তাঁর চীন সফর শেষ করে ৬ জুলাই স্থানীয় সময় বেলা ১১টায় ঢাকার উদ্দেশে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের একটি বিশেষ ফ্লাইটে করে বেইজিং ক্যাপিটাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ত্যাগ করবেন। ফ্লাইটটি একই দিনে দুপুর ১টা ৩৫ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছাবে।
রিফাত হত্যাকাণ্ডে প্রধান অভিযুক্ত নয়ন বন্ড বন্দুকযুদ্ধে নিহত
২জুলাই২০১৯,মঙ্গলবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: দেশব্যাপী আলোচিত বরগুনার রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ডে দায়ের করা মামলার প্রধান অভিযুক্ত নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (২ জুলাই) ভোররাতে বরগুনার পুরাকাটা এলাকায় বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। নয়ন বন্ডের নিহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বরগুনার পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন। নিহত নয়ন বন্ড বরগুনা পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের পশ্চিম কলেজ রোড এলাকার মৃত মো. আবুবক্কর সিদ্দিকের ছেলে এবং রিফাত শরীফ হত্যা মামলার এক নম্বর আসামি। পুলিশ জানিয়েছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান আসামি সাব্বির হোসেন নয়ন ওরফে নয়ন বন্ডকে গ্রেফতার করতে বরগুনা সদর উপজেলার বুড়ির চর ইউনিয়নের পুরাকাটা নামক এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশের ওপর গুলি চালায় নয়ন বন্ড ও তার সহযোগীরা। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। গোলাগুলির এক পর্যায়ে নয়ন বন্ড বাহিনী পিছু হাঁটলে ঘটনাস্থলে তল্লাশি করে নয়ন বন্ডের গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, এক রাউন্ড গুলি, দুটি শর্টগানের গুলির খোসা এবং তিনটি দেশীয় ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। নয়ন বন্ডের বিরুদ্ধে আটটি মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এসব মামলায় নয়ন বন্ডকে অভিযুক্ত করে বিভিন্ন সময় আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেছে পুলিশ। এসব মামলার মধ্যে দুইটি মাদক মামলা, একটি অস্ত্র মামলা এবং হত্যাচেষ্টাসহ পাঁচটি মারামারির মামলা রয়েছে।
মোটরসাইকেল কিনতে লাগবে ড্রাইভিং লাইসেন্স
১জুলাই ২০১৯,সোমবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়া কেনা যাবে না মোটরসাইকেল। দেশে মোটরসাইকেল কেনা-বেচার ক্ষেত্রে নতুন এই নিয়ম চালু করেছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তপক্ষ (বিআরটিএ)। এ সংক্রান্ত গণ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে প্রতিষ্ঠানটি। গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ থেকে মোটরসাইকেল কিনতে হলে ক্রেতার ন্যূনতম শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকতে হবে। অন্যথায় তিনি মোটরসাইকেল কিনতে পারবেন না। বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়েছে, সড়ক নিরাপত্তা নিশ্চিতকল্পে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এতে উল্লেখ করা হয়েছে, ব্যক্তির পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানভাবে মোটরসাইকেল কেনার ক্ষেত্রেও যার জন্য কেনা হচ্ছে তার ড্রাইভিং লাইসেন্স কিংবা শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকত হবে। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে মোটরসাইকেল কিনতে হলে ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকা বাধ্যতামূলক। প্রতিবেশি দেশ ভারতেও এই নিয়ম চালু রয়েছে।

জাতীয় পাতার আরো খবর