নবম ওয়েজ বোর্ডের গেজেট প্রকাশে বাধা নেই: আপিল বিভাগ
২০আগস্ট,মঙ্গলবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সংবাদপত্র ও বার্তা সংস্থার কর্মীদের নতুন বেতন কাঠামো নির্ধারণে গঠিত নবম ওয়েজ বোর্ডের সুপারিশ বাস্তবায়নে চূড়ান্ত গেজেট প্রকাশের বিষয়ে হাইকোর্টের দেয়া আদেশ স্থগিত করেছেন আপিল বিভাগ। মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন-এর নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বিভাগের বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে এই বিষয়ে গতকাল সোমবার শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। শুনানিতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। সংবাদপত্র মালিকদের সংগঠন নোয়াবের পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এ এফ হাসান আরিফ ও মো. ইউসুফ আলী। শুনানিতে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেন,সাংবাদিক ছাড়া মালিক পক্ষের অস্তিত্ব নেই।অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন,সরকার হলো এক্ষেত্রে আম্পায়ারের মতো। সাংবাদিক ও মালিক উভয়পক্ষের স্বার্থই সরকার দেখবে।এসময় নোয়াবের আইনজীবী বলেন, সাংবাদিক ছাড়া সংবাদপত্র সাদা কাগজ। পরে সংবাদপত্র ও বার্তা সংস্থার কর্মীদের জন্য নতুন বেতন কাঠামোর গেজেট প্রকাশে হাইকোর্টের দেওয়া স্থিতাবস্থার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের করা আবেদনের শুনানি শেষ করা হয়। এরপর আপিল বেঞ্চ এ বিষয়ে আজ মঙ্গলবার আদেশের দিন ধার্য করেন। গত ৬ আগস্ট সাংবাদিক ও সংবাদপত্রের সঙ্গে জড়িত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা নির্ধারণে গঠিত নবম ওয়েজবোর্ডের চূড়ান্ত গেজেট প্রকাশের ওপর দুই মাসের স্থিতাবস্থা জারি করেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে রুল জারি করেন আদালত। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রিপরিষদ কমিটির আহ্বায়ক, তথ্য সচিব, শ্রম সচিব, নবম ওয়েজ বোর্ডের চেয়ারম্যানকে চার সপ্তাহের মধ্যে এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়। বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি মোহাম্মদ আলীর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। পরে এই আদেশ স্থগিত চেয়ে আপিল বিভাগে আবেদন করেন রাষ্ট্রপক্ষ। গত ৭ আগস্ট সংবাদপত্র মালিকদের সংগঠন নিউজপেপারস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের (নোয়াব) পক্ষে সংগঠনটির প্রেসিডেন্ট ও প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান এ বিষয়ে রিট দায়ের করেন।
বাংলাদেশ-ভারত পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের দ্বিপাক্ষিক বৈঠক শুরু
২০আগস্ট,মঙ্গলবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের দ্বিপাক্ষিক বৈঠক শুরু হয়েছে। আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন যমুনায় এ বৈঠক শুরু হয়। এর আগে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ধানমন্ডি-৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এর পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাদুঘর পরিদর্শন করেন তিনি। বেলা ১১টায় রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন যমুনায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে যোগ দেন জয়শঙ্কর। বৈঠকে তিস্তা চুক্তিসহ অমীমাংসিত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে। দুপুরে বাংলাদেশ-ভারত যৌথ বিবৃতিতে আলোচনার অগ্রগতি সম্পর্কে জানানো হবে। ভারতের বিজেপি সরকার দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আসার পর দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এটাই প্রথম ঢাকা সফর। তিনদিনের সফর শেষে আগামী বুধবার ঢাকা ত্যাগ করবেন জয়শঙ্কর।
কমলাপুরে ট্রেনের বগি থেকে তরুণীর লাশ উদ্ধার
১৯আগস্ট,সোমবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম:রাজধানীর কমলাপুর স্টেশনে ট্রেনের পরিত্যক্ত বগিতে এক তরুণীর লাশ পাওয়া গেছে। তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়ে থাকতে পারে বলে রেল পুলিশ জানায়। তার বাড়ি পঞ্চগড়। পুলিশ জানায়, নিহতের নাম আসমা বেগম (১৮)। তিনি পঞ্চগড় জেলার সিনপাড়ায় কৃষিজীবী আব্দুর রাজ্জাকের মেয়ে। তিনি বাড়ির কাউকে না বলে ঢাকায় চলে এসেছিলেন বলে তার বাবা জানিয়েছেন। সোমবার সকালে ঢাকা-ময়মনসিংহ রুটের বলাকা ট্রেনের একটি বগিতে আসমার লাশ পাওয়া যায় বলে জানিয়েছেন রেলওয়ে পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার মো. ওমর ফারুক। তিনি বলেন, রোববার রাত ৮টায় এই ট্রেনটি কমলাপুরে আসে। পরে এই ট্রেনের একটি বগি পরিত্যক্ত ঘোষণা করে সকাল বেলা এই ট্রেন বগিটি রেখে চলে যায়। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে রেলওয়ের সংশ্লিষ্ট বিভাগ বগিটি বুঝে নেয়ার সময় বাথরুমে আসমার লাশ পায়। ওই তরুণীর সঙ্গে থাকা একটি ব্যাগের মধ্যে জন্ম সনদ দেখে তার বাবার সঙ্গে যোগাযোগ করে পরিচয় নিশ্চিত হয় পুলিশ। আসমার বাবা রাজ্জাক জানান, আসমা রোববার সকাল ১০টার দিকে বাড়িতে ছোট বোনের সঙ্গে খেলা করার ফাঁকে কাউকে কিছু না বলে বেরিয়ে যান। আসমাকে এলাকায় খোঁজাখুজি করেও পায়নি তার পরিবার। সোমবার দুপুরে ঢাকা থেকে ফোনে মেয়ের মৃত্যুর খবর পান রাজ্জাক। তিনি বলেন, পাশের গ্রামের বাদল নামে একটি ছেলের সঙ্গে তার মেয়ের সম্পর্ক ছিল। রোববার আসমা বাসা থেকে বের হওয়ার পর বাদলের সঙ্গে যোগাযোগ করি। কিন্তু সে কোথায় আছে, কিছুই ঠিকমতো বলছিল না। পরে সে তার মোবাইল বন্ধ করে দেয়। রাজ্জাকের অভিযোগ, বাদলই তার মেয়েকে কৌশলে বাড়ি থেকে বের করে হত্যার ঘটনা ঘটিয়েছে। আসমা এবার পঞ্চগড় খান বাহাদুর মাদ্রাসা থেকে দাখিল পরীক্ষা দিয়ে জিপিএ-৪ পেয়েছে।
টেলিভিশনে বিদেশি সিরিয়াল ও সিনেমা প্রদর্শনে বিধিনিষেধ
১৯আগস্ট,সোমবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাংলাদেশের টেলিভিশনে বিদেশি চ্যানেলের অনুষ্ঠান, ডাবিংকৃত সিরিয়াল ও সেন্সরবিহীন চলচ্চিত্র অনুমতি ছাড়া প্রদর্শনে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে তথ্য মন্ত্রণালয়। বুধবার (১৪ আগস্ট) তথ্য মন্ত্রণালয়ের উপসচিব (টিভি-২ শাখা) রুজিনা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক সরকারি তথ্যবিবরণীতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়, ক্যাবল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক পরিচালনা আইনের ১৯(১৪) ধারা অনুযায়ী বাংলাদেশের দর্শকদের উদ্দেশে বিদেশি চ্যানেলের কোনো অনুষ্ঠান, বিদেশি সিরিয়াল, ডাবিংকৃত বিদেশি সিরিয়াল ইত্যাদি সম্প্রচার বা প্রদর্শনের ক্ষেত্রে সরকারের অনুমতি গ্রহণের আবশ্যকতা রয়েছে। তথ্য মন্ত্রণালয়ের বিনা অনুমতিতে এরূপ প্রদর্শন ও সম্প্রচার আইন বহির্ভূত। এছাড়া বেসরকারি টিভি চ্যানেলে সিনেমা সম্প্রচারের জন্য রপ্তানি নীতি ২০১৮-২০২১ অনুযায়ী তথ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমতি গ্রহণ এবং সেন্সর সনদ নেয়া প্রয়োজন। আরও বলা হয়, যথাযথ অনুমতি না নিয়ে কোনো কোনো টিভি চ্যানেল বিদেশি চ্যানেলের অনুষ্ঠান, বিদেশি সিরিয়াল, ডাবিংকৃত বিদেশি সিরিয়াল বা সেন্সরবিহীন সিনেমা সম্প্রচার বা প্রদর্শন করছে বলে তথ্য মন্ত্রণালয়ের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। এ ধরনের সম্প্রচার বা প্রদর্শনের ক্ষেত্রে আইন ও বিধি যথাযথ অনুসরণের জন্য তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে এক পত্রের মাধ্যমে সকল টেলিভিশন চ্যানেলকে অনুরোধ করা হয়েছে।
বনানীর এফ আর টাওয়ারের অন্যতম মালিক তাসভীর গ্রেফতার
১৮আগস্ট,রবিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: রাজধানীর বনানীর এফ আর টাওয়ারের অন্যতম মালিক তাসভীর উল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রোববার (১৮ আগষ্ট) বিকেল পৌনে ৪টার দিকে সেগুনবাগিচা এলাকা থেকে দুদকের উপ-পরিচালক আবুবকর সিদ্দিকের নেতৃত্বে একটি টিম তাকে গ্রেপ্তার করে। দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য এতথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, এফ আর টাওয়ারের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার মামলার এজাহারভুক্ত আসামি তাসভীরকে বিকেলে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আর্থিক প্রতিষ্ঠান জিএসপি ফাইনান্স থেকে ৫ কোটি ৬৫ লাখ টাকা ঋণ নিয়ে আত্মসাতেরও অভিযোগ রয়েছে। একই মামলায় ৩০ জুলাই রাজউকের সহকারী পরিচালক শাহ মো. সদরুল আলমকে গ্রেপ্তার করেছিল দুদক। নকশা জালিয়াতির মাধ্যমে অবৈধভাবে ১৬ থেকে ২৩ তলা ভবন নিমার্ণের অভিযোগে এফ আর টাওয়ারের মালিক, রাজউকের প্রাক্তন দুই চেয়ারম্যান এবং রূপায়ন গ্রুপের চেয়ারম্যানসহ ২৫ জনের বিরুদ্ধে গত ২৫ জুন পৃথক দুই মামলা দায়ের করে দুদক। গত ২৮ মার্চ এফ আর টাওয়ারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ২৭ জনের মৃত্যু হয়।
মিন্নির জামিন শুনানি সোমবার
১৮আগস্ট,রবিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বরগুনার বহুল আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় প্রধান সাক্ষী থেকে আসামি হয়ে গ্রেফতার হওয়া এবং নিহতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির করা জামিন আবেদনের শুনানি সোমবার (১৯ আগস্ট) অনুষ্ঠিত হবে। বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত নতুন বেঞ্চে এ শুনানি অনুষ্ঠিত হবে। গত ৮ আগস্ট বিচারপতি শেখ মো. জাকির হোসেন ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চে মিন্নির পক্ষে করা জামিন আবেদনের ওপর শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। ওই সময় মিন্নির জামিনের আবেদনের শুনানি নিয়ে জামিন না দিয়ে জামিন প্রশ্নে রুল জারি করতে চান আদালত। আদালত বলেন,জামিন দিতে হলে আগে এ মামলার ১৬৪ ধারায় দেয়া জবানবন্দিগুলো দেখতে হবে। তাই আমরা আজ শুধু রুল জারি করতে পারি। আপনারা ১৬৪ ধারার জবানবন্দি নিয়ে আসুন। মিন্নির আইনজীবী জেড আই খান পান্না এ সময় আবার মিন্নির জন্য জামিন প্রার্থনা করলে আদালত তাকে বলেন,আমরা এখন রুল দিতে পারি, অন্যথায় আপনারা আবেদনটি টেক ব্যাক করতে পারেন। তখন মিন্নির আইনজীবী জেড আই খান পান্না বলেন,ওকে, আমরা জামিন আবেদনটি টেক ব্যাক (ফেরত নিচ্ছি) করছি। জামিন আবেদন হাইকোর্ট থেকে ফেরত নেয়ার ১০ দিন পর রোববার (১৮ আগস্ট) মিন্নির আইনজীবীরা নতুন বেঞ্চে যান। বিচারপতি এম.ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চে জামিন আবেদনটি উপস্থাপন করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী জেড আই খান পান্না। তাকে সহযোগিতা করেন আইনজীবী মাক্কিয়া ফাতেমা ইসলাম। এর প্রেক্ষিতে আগামীকাল জামিন শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে। এ বিষয়ে মিন্নির আইনজীবী জেড আই খান পান্না বলেন, আমরা জামিন শুনানির আবেদন উপস্থাপন করেছি। সম্ভবত আগামীকাল সোমবার শুনানি অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে গত ৮ আগস্ট আদালতে মিন্নির জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী জেড আই খান পান্না, ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন। তাদের সঙ্গে ছিলেন অ্যাডভোকেট জেসমিন সুলতানা, আইনুন নাহার সিদ্দিকা, মাক্কিয়া ফাতেমা ইসলাম ও জামিউল হক ফয়সাল। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মো. মোমতাজ উদ্দিন ফকির ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল রেজাউল করিম।
চামড়ার অস্বাভাবিক দরপতনের তদন্তের নির্দেশনা চেয়ে রিট
১৮আগস্ট,রবিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: কোরবানির পশুর চামড়ার মূল্যের অস্বাভাবিক দরপতনের তদন্ত করার নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করা হয়েছে। রোববার (১৮ আগস্ট) হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এই রিট করা হয়। বিষয়টি নিয়ে বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের হাইকোর্ট বেঞ্চে চলতি সপ্তাহে রিট আবেদনের ওপর শুনানি হতে পারে। আইনজীবী মহিউদ্দিন হানিফ এই রিট দায়ের করেন। রিটে কোরবানির পশুর চামড়ার মূল্যের অস্বাভাবিক দরপতন কেন অবৈধ হবে না এ মর্মে রুল জারিরও আর্জি জানানো হয়েছে। এ ছাড়া আবেদনে চামড়ার দরপতনের ঘটনার সঙ্গে কারা জড়িত তা খুঁজে বের করার নির্দেশনাও চাওয়া হয়েছে।
মানুষ অন্ধ হয়ে যায় অর্থের জন্য,কিন্তু মরে গেলে কিছুই তো সাথে নেওয়া যাবে না: প্রধানমন্ত্রী
১৮আগস্ট,রবিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: অন্ধের মতো ঘুষের টাকার ছুটে বেড়িয়ে নিজের সবকিছু নষ্ট করার কী অর্থ থাকে? কার কত আয়, সেটা বুঝে ব্যয় করা উচিত। জীবনটা সবার ভালোভাবে চলুক সেটা আমরা চাই।ঘুষ লেনদেনকারীদের নিয়ন্ত্রণ করতে পারলে কাজের গতি চলে আসবে। এমন মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার (১৮ আগস্ট) সকালে প্রধানমন্ত্রী তার কার্যালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে ঈদুল আজহা পরবর্তী শুভেচ্ছা বিনিময়ে এসব কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, যে ঘুষ দেবে সে যেমন দোষী, যে নেবে সেও দোষী। এখানে যদি ব্যবস্থা নিতে পারি এবং নিয়ন্ত্রণ করা যায়, তাহলে অনেক কাজ দ্রুত করতে পারব। তিনি বলেন, সম্পদের তো সীমা আছে। মানুষ আসলে অন্ধ হয়ে যায় অর্থের জন্য। কিন্তু এটা ভুলে যায় যে মরে গেলে কিছু সাথে নেওয়া যাবে না, কবরে একাই যেতে হবে। তিনি আরও বলেন, যা রেখে যাবে সেটা আর কোনোদিন কাজে লাগবে না। আর যদি বেশি রেখে যায় তবে ছেলে-মেয়ের সম্পর্ক নষ্ট হয়ে যায়। ওই নিয়ে মারামারি কাটাকাটি শুরু হয়ে যাবে। এখন যেটা যথেষ্ট দেখা যায়। দুর্নীতির বিষয়ে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) যথেষ্ট সক্রিয় আছে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।
শিগগিরই এডিস ধ্বংসে বাড়ি বাড়ি বিশেষ চিরুনি অভিযান
১৮আগস্ট,রবিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: শুক্রবার দুপুর থেকে গতকাল দুপুর পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে ১৪'শ ৬০ জন ডেঙ্গু রোগী। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে গত তিন দিন ধরেই কমছে রোগী ভর্তি। তবে আগামী সাতদিনের আগে পরিস্থিতি নিয়ে নির্দিষ্ট করে কিছু বলা যাবে না। এদিকে, এডিস ধ্বংসে শিগগিরই বাড়ি বাড়ি অভিযান চালানোর কথা জানিয়েছেন ঢাকা উত্তরের মেয়র আতিকুল ইসলাম। ঈদের ছুটিতে ঢাকা ও ঢাকার বাইরে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বাড়ার আশঙ্কা থাকলেও পরিসংখ্যান বলেছ ভিন্ন কথা। স্বাস্থ্য অধিদফতর বলছে, আগস্টের প্রথম সপ্তাহের তুলনায় সারাদেশে ডেঙ্গু পরিস্থিতি কিছুটা উন্নতির দিকে। তথ্য বলছে গত তিন দিন ধরেই ক্রমেই হ্রাস পাচ্ছে ভর্তি রোগীর সংখ্যা। শুক্রবারের থেকে রোগী ভর্তি কমেছে ১৫ শতাংশ। আর গত সাত দিনে ছাড়পত্র পাওয়া রোগীর সংখ্যা বেড়েছে ৮৫%। যদিও এখনই স্বস্তি দেখছে না অধিদপ্তর। এদিকে ডেঙ্গু মোকাবিলায় এক হয়ে কাজ করতে স্থানীয় সরকার, স্বাস্থ্য, দুর্যোগ এই তিন মন্ত্রণালয়, দুই সিটি করপোরেশন, এটুআইসহ আরো দুটি সংস্থা নিয়ে এমওইউ স্বাক্ষরের মাধ্যমে যাত্রা শুরু করলো নতুন প্লাটফর্ম। চালু করা হলো স্টপ ডেঙ্গু অ্যাপ। অনুষ্ঠানে ঢাকা উত্তরের মেয়র জানান, শিগগিরই প্রতিটি ওয়ার্ডে বাড়ি বাড়ি গিয়ে চালানো হবে বিশেষ চিরুনি অভিযান। মেয়র বলেন, প্রত্যেকটি বাড়িতে গিয়ে গিয়ে আমরা দেখবো যে এখানে লার্ভা পাওয়া যায় কিনা। তারপরেও যদি লার্ভা পাওয়া যায় তাহলে আমাদের জরিমানা করা ছাড়া অন্য কোন গতি থাকবে না।

জাতীয় পাতার আরো খবর